Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 40টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




খ্রীষ্টের গৌরবের উৎস

(ঈশা ৫৩ অধ্যায়ের ১৮ নং উপদেশ)
THE SOURCE OF CHRIST’S GLORY
(SERMON NUMBER 14 ON ISAIAH 53)
(Bengali)

ডাঃ আর.এল.হাইমার্স, জুনি.
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৩ সালে এপ্রিল মাসের ২১ তারিখে, লস এঞ্জেলেসের ব্যাপটিস্ট ট্যাবারনেকেলে সদাপ্রভুর
দিনে, সুপ্রভাতে প্রচারিত এক নৈতিক বক্তৃতা
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Morning, April 21, 2013

“এই জন্য আমি মহান দিগের মধ্যে তাঁহাকে অংশ দিব, তিনি পরাক্রমীদের সহিত লুট বিভাগ করিবেন; কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রান ঢালিয়া দিলেন: তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন;আর তিনিই অনেকের পাপভার তুলিয়া লিয়াছেন, এবং অধর্মীদের জন্য অনুরোধ করিতেছেন” (ঈশা ৫৩:১২)


জন ট্র্যাপ ছিলেন এক শুদ্ধাচারী প্রচারক যিনি সপ্তদশ শতাব্দীতে (১৬০১-১৬৬৯) সময়ে বসবাস করেছিলেন। তার বিষয়ে বলা হয়েছে যে তিনি ছিলেন “সব থেকে পরিশ্রমী এবং এক চমৎকার প্রচারক। (তার) খ্যাতি তা বাইবেলের উপরে যে ব্যাখ্যা তার উপরেই আধারিত, যা শুদ্ধাচারী বাইবেল অধ্যয়নের এক উত্তম (ব্যাখ্যা আমাদের কাছে) প্রকাশ করে, ইহার চারিত্রিক বৈশিষ্ট মনোরম রসবোধ কাহিনী ও গভীর পাণ্ডিত্যের দ্বারা চিহ্নিত” (Elgin S. Moyer, Ph.D., Who Was Who in Church History, Keats Publishing, 1974, p. 410). ট্র্যাপের যে ব্যাখ্যা মূলক বই তা অত্যন্ত ভাবেই স্পারজিউনের দ্বারা উপযুক্ত বলে প্রতিপন্ন। ঈশা তিপ্পান্ন অধ্যায়কে সম্পর্কযুক্ত করে, জন ট্র্যাপ বলেন,

এখানে প্রতিটি শব্দের একটা গুরুত্বপূর্ণ ভাবনা রয়েছে, আর ইহা অত্যন্তভাবেই নিশ্চিত যে প্রেরিতরা এবং সুসমাচার প্রচারকারীরা, আমাদের পরিত্রাণের রহস্য বর্ণনা করার মধ্য দিয়ে, ঈশার এই সমগ্র অধ্যায়টির মধ্যে এক সামগ্রিক সম্মান প্রদান করেছে..... আর এখানে ইহা অত্যন্ত ভাবেই প্রয়োজন যে সেই ভাববাদী, যখন এই সমস্ত বিষয় গুলো লেখেন, তখন এক অত্যন্ত মহান আত্মার দ্বারা আবিষ্ট ছিলেন, কারণ এখানে তিনি পরিষ্কার ভাবেই দেখাতে চাইছেন যে প্রভু যীশুখ্রীষ্ট তাঁর সেই দুপ্রকার ভাব, যথা নম্রতা এবং উন্নতকরণের অবস্থা থেকে পুরাতন নিয়মের অনান্য (লেখকেরা) নতুন (নিয়মের) থেকে জ্যোতি ধার করেন, এই অধ্যায়টি বেশ কিছু জায়গাতে নতুনের প্রতি বেশ কিছু আলোক ধার করে (John Trapp, A Commentary on the Old and New Testaments, Transki Publications, 1997, volume III, page 410).

প্রকৃত পক্ষে, সকালের সময়ে আমাদের পাঠ্যাংশ “জ্যোতির গুরুত্ব” আরোপ করে এবং নতুন নিয়মে আমরা যা পড়ি সেই বিষয়ে আমাদের মধ্যে এক গভীর বোধগম্যশীলতা প্রদান করে। ঈশা ৫৩-কে নূতন নিয়ম ব্যাখ্যা করার পরিবর্তে, ইহা অন্য উপায়ে আমাদের কাছে উপস্থিত হচ্ছে। ঈশা ৫৩ সাহায্য করছে নুতন নিয়মকে ব্যাখ্যা করার জন্য! যা অত্যন্ত ভাবেই অস্বাভাবিক।

ডাঃ জ্যাক ওয়ারেন,আমাদের পাঠ্যাংশের বিষয়ে বলেছেন, “[ঈশা ৫৩ অধ্যায়ের] শেষ এই যে পদটি এক চিত্তাকর্ষক নোটের মধ্য দিয়ে অধ্যায়টিকে সমাপ্ত করেঃ ইহা সম্মানিত করে পরিত্রাতাকে যেখানে তিনি তাঁর প্রাণকে ঢেলে দিচ্ছেন ও অধর্মীদের সঙ্গে গণিত হচ্ছেন” (Jack Warren, D.D., Redemption in Isaiah 53, Baptist Evangel Publications, 2004, p. 31).

“এই জন্য আমি মহান দিগের মধ্যে তাঁহাকে অংশ দিব, তিনি পরাক্রমীদের সহিত লুট বিভাগ করিবেন; কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রান ঢালিয়া দিলেনঃ তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন; আর তিনিই অনেকের পাপভার তুলিয়া লিয়াছেন, এবং অধর্মীদের জন্য অনুরোধ করিতেছেন” (ঈশা ৫৩:১২)

আজকের সকালে, এই মুহুর্তে, খ্রীষ্ট তাঁর পিতার পুরষ্কারে আনন্দ উপভোগ করছেন যা তাঁর প্রতি নিশ্চিত করা হয়েছে- “সুতরাং আমি তাঁকে মহানতার সঙ্গে একটি অংশ ভাগ করে দেব।” স্বর্গে কেউই খ্রীষ্টকে অবমাননা ও প্রত্যাখান করে না! স্বর্গের সমস্ত বাহিনী তাঁর আরাধনা ও তাঁর কাছে প্রানপাত করে। তিনি ও তাঁর সিংহাসনের সম্মুখে সমস্ত প্রতাপ প্রদর্শিত হয়েছে, পিতার দক্ষিণ হস্তে। এই সম্মান ও প্রতাপ লাভ করার যোগ্য হওয়ার প্রতি খ্রীষ্ট কি করেছেন? আর কেনই বা তাঁকে এই শিরোনামে ভূষিত করা হয়েছে “মহানদের সংগে অংশ এবং পরাক্রমীদের সংগে লুট বিভাগ করার প্রতি?” এর উত্তর হল যে তিনি চারটি বিষয় করেছেন।

১. প্রথম, তিনি মৃত্যুর জন্য নিজের প্রান ঢেলে দিলেন।

“কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রাণ ঢালিয়া দিলেন....” (ঈশা ৫৩:১২)

খ্রীষ্ট ইচ্ছাকৃত ভাবেই এই কাজটা করলেন। তিনি চিন্তা করে যত্নশীলতার সংগেই ইহা করলেন, হঠাৎ ভাবে মানসিক আবেগপ্রবণতার মধ্য দিয়ে তিনি তা করেন নি। একটু একটু করে, ইচ্ছাকৃত ভাবেই তিনি নিজের প্রাণকে ঢেলে দিলেন, ততক্ষণ পর্যন্ত যতক্ষণ পর্যন্ত না সমস্তটা শুদ্ধ নিংড়ে নিলেন, আর চিৎকার করে বললেন,

“সমাপ্ত হইলঃ পরে তিনি মস্তক নত করিয়া, আত্মা সমর্পণ করিলেন” (যোহান ১৯:৩০)

মনে রাখবেন স্বেচ্ছাকৃত ভাবেই খ্রীষ্ট এই কাজকে করলেন। তিনি বললেন,

“কেননা আমি আপন প্রাণ সমর্পণ করি...। কেহ আমা হইতে তাহা হরন করে না, বরং আমি আপনা হইতেই তা সমর্পণ করি” (যোহান ১০:১৭)

এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমাদের অবশ্যই বুঝে ওঠা প্রয়োজন যে যীশু দুর্ঘটনা প্রযুক্ত মৃত্যু বরণ করেন নি। তিনি স্বেচ্ছায় এই মৃত্যুবরণ করার জন্য এগিয়ে গিয়েছিলেন; আমাদের পাপের মূল্য মিটিয়ে দেওয়ার জন্য তিনি স্বেচ্ছায় তাঁর জীবনকে উৎসর্গ করেছিলেন। “তিনি মৃত্যুর জন্য নিজের প্রাণকে ঢেলে দিলেন” ক্রুশের উপরে, এটা করার জন্যই যে তিনি তা করলেন তাই নয়, কিন্তু আপনার জন্য, এবং আমার জন্য তিনি ইহা করলেন-- যারা তাঁর উপরে নির্ভর করে পরিত্রাণ লাভ করবেন তাদের সকলের জন্য তিনি ইহা করলেন।

তাই, তাঁর উপরে নির্ভর করুন, আর নিজেকে ধরে রাখবেন না। আপনার প্রাণকে ঢেলে দিন, সম্পূর্ণ ভাবে তাঁতে নির্ভর করুন, তা এমনকি তিনি যেমন ভাবে মৃত্যুর মধ্য দিয়ে নিজের প্রাণকে ঢেলে দিলেন তেমনি ভাবে আপনার প্রাণকে তাঁতে ঢেলে দিন। এগিয়ে আসুন, আর খ্রীষ্টের মধ্যে বিশ্রাম নিন, আর তা হলেই আপনি দেখতে সক্ষম হইয়ে উঠবেন যে কেন তিনি সম্মান ও মুকুটের দ্বারা সম্ভাষিত হয়েছেন। তাঁর মধ্যে সম্মানীয় এক অবস্থায় রয়েছে কেননা,

“কেননা খ্রীষ্টও একবার পাপ সমূহের জন্য দূঃখভোগ করিয়াছিলেন, সেই ধার্মিক ব্যাক্তি অধার্মিকদের নিমিত্ত,যেন আমাদিগকে ঈশ্বরের নিকটে লইয়া যান” (১ম-পিটার ৩:১৮)

ক্রুশের উপরে তাঁর মৃত্যু, যা তাঁর কাছে অত্যন্ত লজ্জাজনক থাকলেও, এখন তার জন্যই তিনি সেই প্রকার এক সম্মান ও প্রতাপবিশিষ্ট হয়েছেন, “মহানদের সঙ্গে একটি অংশ,” আর “পরাক্রমীদের সঙ্গে লুট বিভাগ” করে দিয়েছেন। আর, সেই জন্যই ঈশ্বর তাঁকে “পৃথিবীর প্রাপ্ত সকল [তাঁর] অধিকারে আনিয়াছেন” (গীত সংহিতা ২:৮)। তাই, ঈশ্বর বলেন, “মন্দ আত্মাকে বিনাশ, তছরুপ ও বিজয়ের অধিকার আমি তাঁকে দিব....। আর তার এই অখ্যাতি জনক (লজ্জাজনক) মৃত্যুতে এটাই হবে তার পুরষ্কার।” (ট্র্যাপ, ইবিড)।

“আর আধিপত্য ও কর্ত্তৃত্ত্ব সকল দূর করিয়া দিয়া, ক্রুশেই সেই সকলের উপরে, বিজয় যাত্রা করিয়া তাহাদিগকে স্পষ্টরুপে দেখাইয়া দিলেন” (কলোসিয়ানস ২:১৫)

আসুন ইহাকে গাই ! “মৃত্যুর সেই শক্তি।”

মৃত্যুর পরাক্রম তাদের সব থেকে খারাপটাই করেছে,
কিন্তু খ্রীষ্ট তাদের অগণিতদের বিচ্ছুরিত করেছেন;
তাই আসুন পবিত্র আনন্দের উচ্ছাসে চিৎকার করি। হাল্লেলুইয়া!
হাল্লেলুইয়া! হাল্লেলুইয়া! হাল্লেলুইয়া!
(“The Strife is O’er” translated by Frances Pott, 1832-1909).

তাঁকে সম্মান ও প্রতাপ প্রদান করা হয়েছে কেননা পাপিদের উদ্ধার করার জন্য তিনি তাঁর প্রাণকে ঢেলে দিলেন! আসুন, তাঁতে বিশ্বাস করি! আসুন, তাঁকে সম্পূর্ণরুপে নির্ভর করি! আসুন, এখনই তাঁতে নির্ভর করুন!

২. দ্বিতীয়, তিনি অধর্মীদের সঙ্গে গণিত হলেন।

“এই জন্য আমি মহান দিগের মধ্যে তাঁহাকে অংশ দিব, তিনি পরাক্রমীদের সহিত লুট বিভাগ করিবেন; কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রান ঢালিয়া দিলেনঃ তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন....” (ঈশা ৫৩:১২)

পাপীদের মধ্যেই খ্রীষ্ট নিজের আসন নিলেন। এই জগতে তাঁর সেই পরিচর্যা কাজের সময়ে, তিনি পাপী লোকেদের সঙ্গেই সংযুক্ত থাকতেন। আর সেটাই ছিল ফরীশীদের কাছে সব থেকে বড় একটা অভিযোগ। তাই, উপহাসের সংগে তারা তাঁকে বলতেন,

“করগ্রাহী ও পাপিদের বন্ধু” (লিউক ৭:৩৪)

আর, ক্রুশের উপরে তাঁর মৃত্যুতে, তাঁকে দুই দস্যুর মাঝখানে ক্রুশারোপিত করা হয়।

“তিনি অধর্মীদের সঙ্গে গণিত হইলেন” (ঈশা ৫৩:১২)

আর,সেই জন্যেই তাঁকে তাদের সংগে “গণনা” (বলবান) করা হয়। “এটা এমন নয় যে তিনি নিজে অধর্মী, কিন্তু তাঁকে যখন চোর ও দস্যুদের সংগে ক্রুশারোপিত করা হয় তখন তাঁর প্রতি সেই ভাবেই আচরণ করা হয়” (Jamieson, Fausset and Brown, volume 2, p. 733). মার্ক লিখিত সুসমাচার বলে,

“আর তাহারা তাঁহার সহিত দুইজন দস্যুকে ক্রুশে দিল; একজনকে তাঁহার দক্ষিণে, একজনকে তাঁহার বামে। আর এই ভাবে শাস্ত্রের ভবিষ্যবাণী পুরণ হইল, যা বলে, আর তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন” (মার্ক ১৫:২৭-২৮)

ডাঃ ইয়াং বলেছেন, “এরা নিছকই পাপী ছিল না কিন্তু বাস্তবে আপরাধী” (Edward J. Young, Ph.D., The Book of Isaiah, 1972, volume 3, p. 359). তারা ছিল “অধর্মী।” এর জন্য গ্রীকের যে শব্দ তা হল ‘এনমস,’ যার অর্থ হল এক ব্যাক্তি যে বেপরোয়াভাবে নিয়মকে অবজ্ঞা করে(Vine)। আর, সেই ভাবেই খ্রীষ্টকে সব থেকে জঘন্যতমদের সংগে গণিত হতে হয়! এ্যানা ওয়াটার ম্যানের চমৎকার গানটি এই ভাবে বলে,

আমার মতো নরাধমকে যখন তিনি উদ্ধার করলেন তখন, তিনি আপনাদের মধ্যে
জঘন্যকে রক্ষা করলেন। আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত
জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে; আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে।
(“Yes, I Know!” by Anna W. Waterman, 1920).

লিউক লিখিত সুসমাচার আমাদের বলে যে দুজন দস্যুর মধ্যে একজন যীশুকে বিশ্বাস করেছিল এবং পরিত্রাণ লাভ করেছিল (লিউক ২৩:৩৯-৪৩)। ডাঃ জন আর. রাইস বলেছেন,“এক দস্যু পরিত্রাণ লাভ করলেও সেই নীতি ভ্রষ্টকারী পাপী জীবনের আশা ছাড়তে না’ও পারতো......” (John R. Rice., D.D., The King of the Jews, Sword of the Lord, 1980 reprint, p. 475). ডাঃ ম্যাকগী বলেছেন,

[এই দুই দস্যুর] মধ্যে পার্থক্য কি ছিল? কিছুই পার্থক্য ছিল না- এরা উভয়েই দস্যু ছিল। এখানে কেবলমাত্র যে পার্থক্য তা ছিল, একজন দস্যু যীশুতে বিশ্বাস করেছিল আর অপর ব্যাক্তি বিশ্বাস করে নি (J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson, 1983, volume IV, p. 354).

“তিনি অধর্মীদের সঙ্গে গণিত হলেন।” এটা দেখায় যে যীশু স্বেচ্ছায় নিজেকে সেই জায়গাতে স্থাপন করলেন, তা এমন কি জঘন্যতম পাপীদের মধ্যে। পাপীরা উদ্ধার লাভ করতে পারে কেননা তিনি তাদের সংগে গণিত হলেন। কিন্তু পরিত্রাণ লাভ করার জন্য আপনাকে অতি অবশ্যই তাঁতে নির্ভর করার প্রয়োজন।

খ্রীষ্ট এখন সম্মানিত হলেন কেননা তিনি নিজের অবস্থান থেকে স্বেচ্ছায় অবনত হয়ে পাপীদের জায়গাতে দাঁড়ালেন, আর তাদের পাপ সকল নিজের উপরে নিলেন, তারা যাতে পরিত্রাণ লাভ করতে পারে সেই কাজকে সম্ভবপর করে তুললেন। আর, সেই জন্যই তিনি সম্মানিত হলেন কেননা তিনি “অধর্মীদের সংগে গণিত হয়েছিলেন।” “হাঁ, আমি জানি!” কোরাস বা ধুয়া গাই!

আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে;
আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে।
(“Yes, I Know!” by Anna W. Waterman, 1920).

৩. তৃতীয়, তিনি অনেকের পাপের ভার বহন করলেন।

আসুন উঠে দাঁড়িয়ে পাঠ্যাংশটিকে উচ্চৈস্বরের গান করি, যার শব্দ শেষ হচ্ছে “অনেকের পাপভার।”

“এইজন্য আমি মহানদিগের মধ্যে তাঁহার অংশ দিব, তিনি পরাক্রমীদের সহিত লুট বিভাগ করিবেন; কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রাণ ঢালিয়া দিলেনঃ তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন; আর তিনিই অনেকের পাপভার তুলিয়া লিয়াছেন এবং অধর্মীদের জন্য অনুরোধ করিতেছেন....” (ঈশা ৫৩:১২)

আপনারা বসতে পারেন।

“তিনি অনেকের পাপভার বহন করলেন,” প্রেরিত পীটার ইহাকে যেমনভাবে উল্লেখ করেন,

“তিনি আমাদের পাপভার তুলিয়া লইইয়া আপনি নিজ দেহ কাষ্ঠের উপরে বহন করিলেন” (১ম-পীটার ২:২৪)

এটা হল প্রতিকল্পনীয় পরিত্রাণ। খ্রীষ্ট আপনার পাপ ভার “তাঁর নিজের শরীরে” সেই ক্রুশের উপরে বহন করলেন। ইহাকে নিজের উপরে নেওয়ার দ্বারা এবং আপনার জায়গাতে মৃত্যুবরণ করে তিনি আপনার পাপের দণ্ড মিটিয়ে দিলেন। যীশুর প্রতিকল্পনীয় প্রায়শ্চিত্ত ব্যতিরেকে সেখানে আর কোন সুসমাচার নেই। পাপীদের জন্য তাঁর বিকল্পনীয় মৃত্যু হল সুসমাচারের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ও হৃদয়ঙ্গম বিষয়। তাই স্পারজিউন বলেছেন,

এখন, এই তিনটি বিষয়, যা মৃত্যুর জন্য নিজের প্রাণকে তিনি পেতে দিয়েছিলেন, এবং পাপীর দন্ড নিজের মধ্যে ধারণ করেছিলেন, যার জন্য তিনি অধর্মীদের মধ্যে গণিত হলেন আর পাপীদের ঠিক পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন; এবং পরবর্তী বিষয়টা হল, তিনি বাস্তবে তাদের পাপ ধারণ করলেন.... যা তাঁকে অপবিত্র করতে পারেনি কিন্তু এটা তাঁকে সাহায্য করলো সেই পাপকে দূর করার জন্য যা মানুষকে অপবিত্র করেছিল—আর এই তিনটি বিষয় হল যুক্তিযুক্ত আমাদের প্রভু যীশুর প্রতাপের জন্য। ঈশ্বর, এই তিনটি কারণের জন্য, এবং আরো একটা বিষয়, বলবানের সংগে দস্যুর ন্যায় তাঁকে পৃথক করে এবং মহানের সংগে অংশ ভাগ করে নিতে তাঁকে সাহায্য করে (C. H. Spurgeon, The Metropolitan Tabernacle Pulpit, Pilgrim Publications, 1975 reprint, volume XXXV, page 93).

“হ্যাঁ, আমি জানি!” ধুয়া গান করি!

আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে; আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে।

৪. চতুর্থ, তিনি অধর্মীদের জন্য মধ্যস্থতা করেছেন।

এই পাঠ্যাংশ সমাপ্ত হচ্ছে এই শব্দের সঙ্গে,

“এবং অধর্মীদের জন্য অনুরধ করিতেছেন” (ঈশা ৫৩:১২)

ক্রুশের উপরে, খ্রীষ্ট পাপীদের জন্য প্রার্থনা করেছেন, যেখানে তিনি অধর্মীদের জন্য অনুরোধ করছেন,” এই ভাবে চিৎকার করার দ্বারা,

“পিতঃ, ইহাদিগকে ক্ষমা কোরো; কেননা ইহারা কি করিতেছে তাহা জানে না” (লিউক ২৩:৩৪)

এই ভাবে তিনি যখন ক্রুশের উপরে ঝুলছিলেন পাপীদের জন্য এইভাবে তিনি প্রার্থনা করছিলেন।

তা, এমন কি স্বর্গেও, যীশু পাপীদের জন্য প্রার্থনা করছেন,

“কারণ তাদের (আমাদের) নিমিত্ত অনুরোধ করণার্থে তিনি শতত জীবিত আছেন” (হিব্রুজ ৭:২৫)

ক্রুশের উপরে তিনি যখন মৃত্যু বরণ করেন তখন তিনি পাপীদের নিমিত্ত মধ্যস্থতা করছিলেন। আজও তিনি যখন পিতা ঈশ্বরের দক্ষিণ পাশে বসে রয়েছেন তখনও ক্রমাগত ভাবে পাপীদের জন্য প্রার্থনা করছেন।

এখানে সেই চারটি বিষয় লক্ষ্য করুন যা যীশু করেছিলেন সেগুলোই হল যুক্তি যুক্ত বিষয় যার জন্য তিনি প্রতাপে উন্নত হয়েছেন, পিতার দক্ষিন হাতে উপবিষ্ট আছেন। খ্রীষ্টের বর্তমান গৌরবের জন্য চারটি যুক্তির সমস্ত কটাই পাপীদের উদ্ধার করার প্রতি তিনি যা করেছেন তা সম্পর্কযুক্ত!

“এবং আকারে প্রকারে মনুষ্যবৎ, প্রত্যক্ষ হইয়া আপনাকে অবনত করিলেন; মৃত্যু পর্যন্ত, এমন কি ক্রুশীয় মৃত্যু পর্যন্ত আজ্ঞাবহ হইলেন। এই কারণে ঈশ্বর তাঁহাকে অতিশয় উচ্চ পদাভিষুক্ত করিলেন, এবং তাঁহাকে সেই নাম দান করিলেন যাহা সমুদয় নাম অপেক্ষা শ্রেষ্ঠঃ যেন যীশুর নামে স্বর্গ মর্ত্ত্য পাতাল নিবাসীদের সমুদয় জানু পতিত হয়.... এবং সমুদয় জিহবা স্বীকার করে যে যীশুখ্রীষ্টই প্রভু, এইরুপে পিতা ঈশ্বর যেন মহিমাণ্বিত হন” (ফিলিপিয়ানস ২:৮-১১)

সেই সংগে এটাও লক্ষ্য করবেন, যীশুর উদ্ধারকারী সমস্ত পরাক্রমের সংগে, যারা মনে করে তাদের উদ্ধারের প্রয়োজন নেই তিনি তাদেরি উদ্ধার করবেন না। স্পারজিউন যেভাবে ইহাকে উল্লেখ করেন,

যদি [আপনি] পাপ করেন নি তবে ইহা থেকে তিনি [আপনাকে] পরিষ্কার করবেন না। তিনি কি তা করতে পারেন? .... আপনি খুবই ভালো, সম্মানীয় লোক, যে নিজের জীবনে কোন ভুল বা অন্যায় করেন নি; তাহলে আপনার জন্য যীশুর কি দরকার? এটা ঠিক, আপনি নিজের পথে চলবেন আর নিজের প্রতি যত্ন নেবেন....হায়রে! এটা তো মুর্খামী....আপনি যদি নিজের মধ্যে নিজেকে দেখেন, তবে দেখবেন যে আপনার হৃদয় যেন ঠিক ময়লা কালো চিমনীর মতো যে তাকে কোন সময়েই পরিষ্কার করা হয় নি। [আপনার] হৃদয় যেন নোংরা কুয়োর মতো। ওহ, আপনি সেটা দেখুন, এবং আপনার ভ্রান্ত ধার্মিকতাকে পরিত্যাগ করুন! [কিন্তু] আপনি যদি তা না করেন, তবে আপনার জন্য যীশুর মধ্যে সেখানে কিছুই নেই। পাপীদের থেকে তিনি তাঁর প্রতাপকে লাভ করলেন, আপনার মতো মেষেদের থেকে আত্মশ্লাঘা করার জন্য নয়। কিন্তু, আপনি সেই দোষী ব্যাক্তি, যেন আপনি... আপনার দোষকে স্বীকার করেন, আর আনন্দ সহকারে সেই চারটি বিষয় স্মরণ করেন যা যীশু করেছেন, তিনি ইহা করেছেন পাপীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার সুত্রেই, আর তিনি পাপীদের সংগে সংযোগ রাখার জন্য এই অর্থে তিনি ইহা করেছেন যার জন্য এই দিনে তিনি গৌরব ও প্রতাপে এবং মহিমার সেই মুকুটের অধিকারী হয়েছেন। [সুতরাং] কায়মনোবাক্যে এই ভাবে আমি (আপনার কাছে আবেদন করছি) যেন ঈশ্বরের পুত্রে আপনি নির্ভর করেন, যিনি মাংসে মুর্তমান হলেন, রক্তাক্ত হয়ে দোষী মানবের জন্য মৃত্যুবরণ করলেন! আপনি যদি তাঁতে নির্ভর করেন, তবে তিনি আপনাকে প্রতারিত করবেন না, কিন্তু আপনি উদ্ধার লাভ করবেন, এবং সেই সঙ্গে একেবারেই চিরকালের জন্য পরিত্রাণ লাভ করবেন (Spurgeon, ibid., page 95).

আমেন! “হ্যাঁ, আমি জানি!” আর একবার গান!

আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে;
আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে।
(“Yes, I Know!” by Anna W. Waterman, 1920).

যীশুর দ্বারা আপনি যদি পাপ থেকে পবিত্র বা শুচি হওয়ার জন্য আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চান তবে এই মুহুর্তে অডিটরিয়ামের পিছনে এগিয়ে যান। ডাঃ কাগান আপনাদের একটি শান্ত, নীরব জায়গাতে নিয়ে যাবেন যেখানে আমরা কথা বলতে পারি। মিঃ গ্রীফিথ যখন ধুয়াটি আবার গান, তখন অতি সত্বর সেখানে চলে যান।

আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে;
আর আমি জানি, হ্যাঁ, আমি জানি, যীশুর রক্ত জঘন্যতম পাপীকেও পবিত্র করে।

মিঃ লী, অনুগ্রহ করে এখানে সে যারা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তাদের জন্য প্রার্থনা করুন।

সংবাদের পরিসমাপ্তি
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

অথবা আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net
অথবা আপনি তাকে পত্র লিখতে পারেনঃ পোস্ট বক্স ১৫৩০৮, লস এঞ্জেলেস, সিএ ৯০০০১৫,
এই ঠিকানায় অথবা আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (৮১৮)৩৫২-০৪৫২

সংবাদের আগে শাস্ত্রের যে অংশ পাঠ করা হয়েছে, তা করেছেন ডাঃ ক্রিগটন এল. চ্যান
ঈশা ৫৩:৬-১২
সংবাদের আগে একক সংগীত গেয়েছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিন গেইড গ্রীফিথঃ
“Yes, I Know!” (by Anna W. Waterman, 1920).


খসড়া চিত্র

খ্রীষ্টের গৌরবের উৎস

(ঈশা ৫৩ অধ্যায়ের ১৮ নং উপদেশ)
THE SOURCE OF CHRIST’S GLORY
(SERMON NUMBER 14 ON ISAIAH 53)
(Bengali)

ডাঃ আর.এল.হাইমার্স, জুনি.
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

“এই জন্য আমি মহান দিগের মধ্যে তাঁহাকে অংশ দিব, তিনি পরাক্রমীদের সহিত লুট বিভাগ করিবেন, কারণ তিনি মৃত্যুর জন্য আপন প্রান ঢালিয়া দিলেন, তিনি অধর্মীদের সহিত গণিত হইলেন; আর তিনিই অনেকের পাপভার তুলিয়া লিয়াছেন, এবং অধর্মীদের জন্য অনুরোধ করিতেছেন” (ঈশা ৫৩:১২)

১. প্রথম, তিনি মৃত্যুর জন্য নিজের প্রান ঢেলে দিলেন,
ঈশা ৫৩:১২ক; জন ১৯:৩০,১০:১৭; ১-ম পীটার ৩:১৮; গীতসংহিতা ২:৮;
কলোসিয়ানস ২:১৫।

২. দ্বিতীয়, তিনি অধর্মীদের সঙ্গে গণিত হলেন,
ঈশা ৫৩:১২খ; লিউক ৭:৩৪; মার্ক ১৫:২৭-২৮; লিউক ২৩:৩৯-৪৩

৩. তৃতীয়, তিনি অনেকের পাপের ভার বহন করলেন,
ঈশা ৫৩:১২গ; ১-ম পীটার ২:২৪

৪. চতুর্থ, তিনি অধর্মীদের জন্য মধ্যস্থতা করেছেন,
ঈশা ৫৩:১২ ডি; লিউক ২৩:২৪; হিব্রুজ ৭:২৫; ফিলিপিয়ানস ২:৮-১১