Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 40টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




একজন সুসমাচার প্রচারকের কাজ

THE WORK OF AN EVANGELIST
(Bengali)

লেখকঃ ডাঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনি.
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১২ সালে ২৫শে নভেম্বরের সদা প্রভুর দিনে এক সন্ধ্যাকালে, লস এঞ্জেলেসের ব্যাপটিস্ট
ট্যাবারনাকেলে একটি সংবাদ প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, November 25, 2012

“এক সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য কর” (২-য় টিমোথি ৪ঃ৫)


“সুসমাচার প্রচারকের” অনুবাদিত শব্দকে নতুন নিয়মে তিনবার দেখতে পাওয়া যায়। ইহা আমাদের পাঠ্যাংশেও উল্লেখ করা হয়েছে এবং তা প্রেরিত ২১ঃ৮ এবং এফেসিয়ানস ৪ঃ১১ অনুচ্ছেদে পাওয়া যায়। গ্রীক শব্দে একজন প্রচারককে নির্দিষ্ট করা হয় সুসমাচার প্রচারক হিসেবে। (দ্রাক্ষালতা)। এফেসিয়ানস ৪ঃ১১ “সুসমাচার প্রচারকে” তালিকা বদ্ধ করা হয়েছে অনন্তযুক্ত ব্যাক্তি হিসাবে যা এইভাবে অনুসরণ করে ‘প্রেরিত বর্গ’ এবং ‘ভাববাদী’। “সুসমাচার প্রচারকেরা” এমন ব্যাক্তি ছিলেন যাদের ঈশ্বরের দ্বারা মন্ডলীতে প্রদান করা হয়েছে যেন তারা অপরিত্রাণ প্রাপ্ত ব্যাক্তিদের কাছে খ্রীষ্টের মধ্যে পরিত্রাণের সুসমাচার প্রচারবার্তা প্রচার করে। টিমোথী ছিলেন একজন পালক যাকে প্রেরিত পল বলেছিলেন, “সুসমাচার প্রচারকের কাজ করার জন্য”। ইহার অর্থ হল একজন পালক এই কাজকে করবেন অপরিত্রাণ প্রাপ্ত ব্যাক্তিদের কাছে সুসমাচার প্রচার করার মধ্য দিয়ে যারা মন্ডলীতে যোগদান করে এবং সেই সঙ্গে সেই সমসত অপরিত্রাণ প্রাপ্ত লোকেদের কাছেও যারা এই জগত থেকে মন্ডলীতে যোগদান করার জন্য আসে। প্রেরিতেরা টিমোথীকে যা বলেছিলেন তা সমস্ত প্রচারকের কাছেই প্রযোজ্য তা হল “সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য কর”। ডাঃ জন গিল (১৬৯৭-১৭৭১) বলেছেন, “সেই প্রকার কার্য্য করার প্রতি রকজন ব্যাক্তি কেবলমাত্র নৈতিকতার ভাষণগুলি দেবেন তাই নয়, কিন্তু তাকে প্রচার করতে হবে শান্তি, ক্ষমা, ধার্মিকতা, জীবন এবং পরিত্রাণ কেবলমাত্র যীশু খ্রীষ্টের দ্বারা এবং সেই সঙ্গে ঈশ্বরের বিনামূল্যের অনুগ্রহের দ্বারা তা করতে হবে” (John Gill, D.D., An Exposition of the New Testament, The Baptist Standard Bearer, 1989 reprint, volume III, p. 340; note on II Timothy 4:5).

এখন এটাকে অত্যন্ত সাধারণ কালই মনে হচ্ছে। পালকদের বলা হয়েছে কেবলমাত্র খ্রীষ্টের মধ্য দিয়ে জে পরিত্রাণ লাভ করা যায় সেতাই যেন প্রচার করেন। আর কয়েক শতাব্দী ধরে প্রচারকেরা সেটাই করে আসছেন। হ্যাঁ, এই শেষ সময়ে, আজকে এতদূর পর্যন্ত অনেক প্রচারক সমস্ত কিছুতে সংমিশ্রিত হয়ে পড়েছেন। সলোমন যেমন ভাবে বলেছেন, “ ঈশ্বর মানুষকে সরল করিয়া নির্মাণ করিয়াছিলেন, কিন্তু তাহারা অনেক কল্পনার অণ্বেষণ করিয়া লইয়াছে”। (উপদেশক ৭ঃ২৯)।

সুসমাচার প্রচারমূলক সংবাদ প্রচার করার পরিবর্তে, অনেক পালক রয়েছেন যারা “ব্যাখামূলক” সংবাদ প্রচার করছেন, যার শেষে রয়েছে ‘মন্তব্য জুড়ে দেওয়ার মতো’ এক আমন্ত্রণ। তাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছে যারা জানেন না যে সুসমাচার প্রচারমূলক সংবাদ কিভাবে প্রস্তুত করতে হয়। আর তাদের ‘ব্যাখামূলক’ সমাপ্তির শেষে যে আমন্ত্রণ তারা রাখেন যেখানে তা প্রায় শুভ সংবাদের কোন উল্লেখই সেখানে থাকে না – যেখানে তারা খ্রীষ্টের মৃত্যুও পুণরত্থানের কথার উল্লেখই করেন না ! আমার কাছে এটা দুঃখজনক বিষয়। প্রেরিতেরা যা করার জন্য আমাদের বলেছেন ঠিক সেই অতি সাধারণ ভাষায় আমাদের সেটা করাই প্রয়োজন, তা হল “একজন সুসমাচার প্রচারকের কার্‍্য্য কর"।

আমরা যেন কোন মতেই এই মত ধারণ না করি যে খ্রীষ্ট তাদের পাপের জন্য মৃত্যু বরণ করেছেন এই বিষয়টা লোকেরা জানে। আমরা যেন কোন মতেই এই মতো ধারণা না করি যে তাদের ধার্মিক গণিত করার জন্য তিনি মৃত্যু থেকে জীবিত হয়ে উঠেছেন, এই বিষয়টা তারা জানে। আমার মনে আছে যখন আমি একজন বয়স্কা চাইনিজ মহিলার সঙ্গে কথা বলছিলাম যিনি বহু বৎসর যাবৎ মন্ডলীতে যোগদান করছিলেন যেখানে তাকে বাইবেলের জটিল ‘ব্যাখ্যা’ প্রদান করা হচ্ছিল। কিন্তু আমি যখন তাকে জিজ্ঞাসা করলাম জে কিভাবে একজন ব্যক্তি উদ্ধার বা পরিত্রাণ লাভ করতে পারে, তখন তিনি রোমান ক্যাথলিকদের মতো হারিয়ে যাওয়া ছাড়া আর অন্য কোন বোধ শক্তিই এই বিষয়ে ছিল না। আমরা যেন কোন সময়ে এই মত পোষণ না করি যে আমাদের শ্রোতাদের সকলেই উদ্ধার লাভ করেছে আর তা এমন কি যে তারা সুসমাচারের ভিত্তিমূলক বিষয়গুলো অবগত আছে!

নুতন নিয়মে একমাত্র ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট ভাবে “সুসমাচার প্রচারক” বলে আহবান লাভ করে। যাকে বলা হয় ‘সুসমাচার প্রচারক ফিলিপ’(প্রেরিত ২১ঃ৮)। সেই অনুচ্ছেদের এক জায়গায় যার বিষয়ে আমার এই ভাষণের আগেই ডাঃ চেন সেই বিষয়ে পড়েছেন, যেখানে আমরা এক সুসমাচার প্রচারকের সভার বিষয়ে পড়ি যা সুসমাচার প্রচারক ফিলিপের দ্বারা পরিচালনা করা হয়েছিল। সেই অনুচ্ছেদের মধ্যে সুসমাচার প্রচারমূলক সভার বহু কাহিনীর উল্লেখ রয়েছে। নির্দিষ্টভাবে সুসমাচার প্রচার মূলক বিষয়ের বৈশিষ্টে যাওয়ার থেকে আমি সেই প্রসঙ্গে বেশ কিছু সাধারণ কাহিনী নির্দেশ করবো যা সেই সুসমাচার প্রচারমূলক সেবায় ঈশ্বর আশীর্ব্বাদ করেছিলেন।

১. প্রথম, ফিলিপ যখন প্রচার করেন তখন ভীষণ উত্তেজক ছিল।

এই সংবাদের আগে ডাঃ চেন জে বিষয়টি পড়েছেন সেই অনুচ্ছেদটি আমি পুণরায় পড়বো।

“আর ফিলিপ সামারিয়ার নগরে গিয়া লোকেদের কাছে খ্রীষ্টকে প্রচার করতে লাগিলেন। আর লোক সমূহ ফিলিপের কথা শুনিয়া ও তাঁহার কৃত অলৌকিক কার্য্য সকল দেখিয়া এক চিত্তে তাহার কথার অবধান করিল। কারণ অশুচি আত্মা বিশিষ্ট অনেক লোক হইতে সেই সকল আত্মা উচ্চৈঃস্বরে চে৬চাইয়া বাহির হইয়া আসিল এবং অঙ্কে পক্ষাঘাতী ও খঞ্জ সুস্থ হইল; তাহাতে ওই নগরে বড়ই আনন্দ হইল” (প্রেরিত ৮ঃ৫-৮)

আমার মনে হয় কেবল মাত্র অনুচ্ছেদটি পড়ার মধ্য দিয়েই আপনি একটা উত্তেজনা অনুভব করতে পারছেন। এটা ছিল একটা সুসমাচার প্রচারমূলক সভা যা উদ্দীপনাতে রুপান্তরিত হয়ে উঠলো। এই ভাবে আমি তা বহুবার ঘটতে দেখেছি। এর থেকে তৃপ্তি দায়ক আর কিছুই হতে পারেনা আর এর থেকে পরিচয় পাওয়ার ভালো শব্দ হল সেই প্রকার সভার মধ্যে ছিল এক প্রকার উত্তেজনা। সেই প্রকার একটা সভাতে যেন কেউই তাদের ঘড়ির দিকে তাকাচ্ছে না যে ক’টা বাজলো। এই প্রকার একটা সভাতে আমি হাজির ছিলাম বেশ কিছু বৎসর আগে যেটা অবস্থান করছিল সাউদার্ন স্টেটের ভিত্তিমূলক ব্যাপটিস্ট মন্ডলীতে। সেই সভা চলেছিল মধ্য রাত্রি পর্যন্ত। ইহা সমাপ্ত হওয়ার সময় ছিল সন্ধ্যা ৭-৩০ মিনিটে কিন্তু ইহা যেন এগিয়েই চলেছিল। কি হতে পারে কল্পনা করুন। সেখানে কোন ব্যাক্তিই সেই সভার স্থান ছেড়ে চলে যান নি। একজনও নয়! সেখানে মায়েদের সঙ্গে ছোট শিশুরা ছিল কিন্তু তারা সকলেই যেন সমস্ত কিছু ভুলে গিয়েছিলেন! কেবলমাত্র সুসমাচারমূলক এক সাধারণ সংবাদ শুনে প্রত্যেকেই যেন প্রভু যীশু খ্রীষ্টের উপরে নিশ্চল হয়ে পড়েছিলেন। সেই দিনের সন্ধ্যাকালীন সভাতে অনুভব করা হয় পঁচাত্তর জন লোক কনভার্ট হয়েছিলেন। লোকেরা তো সেখানে কাঁদছিলেন। তারা চিৎকার করছিলেন। লোকেরা গান করছিলেন। ইহা ছিল অত্যন্ত উত্তেজনাময়। আমার জীবনে সব থেকে পরিতৃপ্তিদায়ক সভা যেখানে আমি যোগদান করেছিলাম।

কিন্তু আমি বহু সুসমাচার প্রচারমূলক সভাতে এর থেকে কম মাত্রার উত্তেজনা উপলব্ধি করেছি। ইহার মধ্যে সঙ্গীত ছিল যেন এক বিশেষ শক্তিশালী। সেই প্রচার যেন মনকে মুগ্ধ করে তুলেছিল আর প্রার্থনা প্রত্যেকের মনকে আকর্ষণ করেছিল। একজন অনুভব করতে পারতেন জে এই প্রকার একটা সভাতে ঈশ্বর যেন জীবন পরিবর্তন করার জন্য কিছু করতে চলেছেন! আর এইভাবেই, সামারিয়াতে তা হয়েছিল—আর এই ভাবেই উত্তম সুসমাচার প্রচারের মাধ্যম হওয়া প্রয়োজন!

২. দ্বিতীয়, ফিলিপ খ্রীষ্টকে প্রচার করেন।

“আর ফিলিপ সামারিয়ার নগরে গিয়া লোকেদের কাছে খ্রীষ্টকে প্রচার করিতে লাগিলেন” (প্রেরিত ৮ঃ৫)

সমগ্র প্রেরিত বইয়েতে সেই একই পন্থায় তারা ‘একজন সুসমাচার প্রচারকের কাজকে’ এইভাবে করেছিলেন। তারা খ্রীষ্টকে প্রচার করছিলেন। তারা খ্রীষ্টকে প্রচার করেন। তারা খ্রীষ্টকে প্রচার করেন। সামারিয়াতে ইহা এই পন্থাতেই হয়েছিল। সুসমাচার প্রচারক ফিলিপ, ‘তাদের কাছে খ্রীষ্টকে প্রচার করেন’। আর এই একই ভাবে পীটার প্রচার করছিলেন সেই পরাজিত কর্ণেলিয়াসদের বাড়িতে, তার পরিজনদের কাছে, যেখানে তিনি বলেন,

“আর [আমরা] মৃতদের মধ্য হইতে তাঁর পুণরত্থান হইলে পর তাঁহার সহিত ভোজন পান করিয়াছি, আর তিনি আদেশ করিলেন, যেন আমরা লোকেদের কাছে প্রচার করি ও সাক্ষ্য দিই জে তাঁহাকেই ঈশ্বর জীবিত ও মৃতদিগের বিচার কর্তা নিযুক্ত করিয়াছেন। তাঁহার পক্ষে ভাববাদীরা এই সাক্ষ্য দেন, জে কেহ তাঁহাতে বিশ্বাস করে সে তাঁহার নামের গুণে পাপ মোচন প্রাপ্ত হয়” (প্রেরিত ১০ঃ৪১-৪৩)

পীটার তাদের কাছে খ্রীষ্টকে প্রচার করিলেন। আর সেটাও আবার যে ভাবে হয়েছিল সাইপ্রাস ও সাইরিনের খ্রীষ্টিয়ানরা আন্তীইয়োকে এলেন ও ‘গ্রীকদের কাছে কথা বললেন; প্রভু যীশুর বিষয়ে সুসমাচার প্রচার করলেন। আর প্রভুর হাত তাদের সহবর্তী ছিল এবং বহু সংখ্যক লোক বিশ্বাস করিল এবং প্রভুর প্রতি ফিরিল’।(প্রেরিত ১১ঃ২০-২১)। আর সমগ্র প্রেরিত বই-এর মধ্যে সেটাই ছিল একটা মাধ্যম। খ্রীষ্টকে প্রচার করা হয়েছিল। খ্রীষ্ট প্রচারিত হইয়াছিলেন। পলও এইভাবে সুসমাচার মূলক সংবাদকে বহন করে নিয়ে যান যার বিষয়ে বলা হয় জে করিন্থিয়ান্সরা তাহাতে বিস্মিত হয়ে ওঠেন;

“কেননা আমি মনে মনে স্থির করিয়াছিলাম, তোমাদের মধ্যে আর কিছুই জানিব না, কেবল যীশু খ্রীষ্টকে এবং তাঁহাকে ক্রুশে হত বলিয়াই জানিব।” (১-ম করিন্থিয়ান্স ২ঃ২)

তাদের সুসমাচার প্রচার এতটাই খ্রীষ্ট কেন্দ্রিক যার ফলে সম্রাট নীরো এই ভাবে উক্তি করে বলেছেন, ‘এই খ্রীষ্টিয়ানেরা এক মৃত ইহুদীর উপাসনা করে’। এই ভাবে তিনি এক দিক দিয়ে অর্দ্ধ সত্য কথা বলেছিলেন, হ্যাঁ, খ্রীষ্ট মৃত্যুবরণ করেছিলেন, কিন্তু তখন পীটার সাহসের সঙ্গে সেই ক্রোধী সানহ্যাড্রিন সভাতে বলেছিলেন,

“আর তাঁহাকেই, ঈশ্বর অধিপতি ও ত্রানকর্তা করিয়া আপন দক্ষিণ হস্ত দ্বারা উন্নত করিয়াছেন যেন ইজ্রায়েলকে মন পরিবর্তন ও শাপ মোচন দান করেন। এই সকল বিষয়ে আমার সঙ্গী এবং যে আত্মা ঈশ্বর আপন আজ্ঞাবহ দিগকে দিয়াছেন, সেই পবিত্র আত্মাও সাক্ষী”। (প্রেরিত ৫ঃ৩১-৩২)

সেটাই হল সুসমাচার প্রচার। সেটাই হল প্রকৃত সুসমাচার। সেটাকেই বলা হয় সুসমাচারের কার্য্য করা। এইভাবে কি ঈশ্বর আমেরিকার প্রতিটি প্রচারক এবং সারা বিশ্বের প্রচারকেরা সেই দিনের মতো আজকেও খ্রীষ্টকে প্রচার করবেন! আপনার গানের পাতায় ৬-নম্বর গানটি গান!

উপরের না দেখা বিষয়ের কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি
যীশু এবং তাঁর প্রেম, যীশু ও তাঁর প্রতাপ
কেননা আমি জানি যে ইহা সত্য কাহিনী, তাই সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি; অন্য
কোন কিছু করতে না পারলেও ইহা আমার আকাঙ্খাকে তৃপ্ত করে।
এই কাহিনী হবে গৌরবের শিরোনাম তাই সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি;
যীশু এবং তাঁর প্রেমের সেই পুরাতন কাহিনী, বলতে চাই সেই পুরাতনে।

ইহা মনে হয় অত্যন্ত অদ্ভুত, সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি
আমাদের সমস্ত স্বর্ণময় স্বপ্নের থেকে আমাদের সমস্ত স্বর্ণময় কল্পনায়,
ইহা আমার জন্য যতকিছু করেছে সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি;
আর কেবলমাত্র সেই কারণেই আমি তোমাকে ইহা বলি
এই কাহিনী হবে গৌরবের শিরোনাম তাই সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি;
যীশু এবং তাঁর প্রেমের সেই পুরাতন কাহিনী, বলতে চাই সেই পুরাতনে।

কাহিনীর মধুরতার পুণরক্তি করে সেই কাহিনী আমি বলতে ভালোবাসি,
প্রতিটি মুহুর্তে ইহা বললে মনে হয় আরো অতি সুন্দর
যারা কখনো শোনেনি সেই কাহিনী আমি বলতে ভালোবাসি
তা হল ঈশ্বরের নিজের পবিত্র বাক্যের পরিত্রাণের সংবাদ
এই কাহিনী হবে গৌরবের শিরোনাম তাই সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি;
যীশু এবং তাঁর প্রেমের সেই পুরাতন কাহিনী, বলতে চাই সেই পুরাতনে।

যারা ইহার উত্তমতা জানে তাদের সেই কাহিনী আমি বলতে ভালোবাসি
ঠিক অন্যের মতোই ইহা শোনার প্রতি ক্ষুধার্ত এবং পিপাসিত মনে হয় যারা
আর যখন গৌরবের দৃশ্যপটে আমি গাইবো, গাইবো নতুন গান
কাহিনী হবে পুরাতন,পুরাতন কাহিনী,সেই পুরাতন কাহিনী যার অপেক্ষায়,দীর্ঘ প্রতিক্ষায়
এই কাহিনী হবে গৌরবের শিরোনাম তাই সেই কাহিনী বলতে আমি ভালোবাসি;
যীশু এবং তাঁর প্রেমের সেই পুরাতন কাহিনী, বলতে চাই সেই পুরাতনে।
   (“I Love to Tell the Story” by A. Catherine Hankey, 1834-1911).

তাঁর ক্রুশারোপণের আগের রাত্রিতে যীশু তাঁর শিষ্যদের গেৎসেমানির বাগানের অন্ধকারে নিয়ে গিয়েছিলেন। যীশু যখন প্রার্থনা করছিলেন তখন শিষ্যরা ঘুমিয়ে পড়েছিল। সেই বাগানেই জগতের পাপের ভার তাঁর সম্মুখে রাখা হয়েছিল। আমাদের পাপের যে ভার তাঁকে চূর্ণ ও বিধ্বস্ত করে তুললো আর তাঁর “ঘাম যেন ঠিক রক্তের ফোঁটার ন্যায় মাটিতে পড়তে শুরু করলো” (লিউক ২২ঃ৪৪)। তিনি যখন প্রার্থনা করছিলেন, তখন মহা যাজকের কাছ থেকে এক সৈন্যদল এসে তাঁকে গ্রেফতার করে। তার তাঁকে মহা যাজকের কাছে নিয়ে যান। তারা তাঁকে প্রহার করে ও গালে চড় মারে। (লিউক ২২ঃ৬৪)। তারা তাঁর দাড়ি ধরে টানতে থাকে ও তাঁরমুখে থুতু দেয় (ইশা ৫০ঃ৬)। এরপরে তারা তাঁকে রোমান রাজ্যপাল (গভর্নর) পনটিয়াস পিলেটের কাছে নিয়ে যায়। আর যতক্ষণ পর্যন্ত না তার শরীরের রক্ত পা দিয়ে ঝরে পড়ে ততক্ষণ তাকে চাবুক মারার জন্য পিলেট নির্দেশ প্রদান করে। এরপরে তারা একটি কাঁটার মুকুট তৈরী করে সেটাকে প্রচন্ড জোরে তাঁর মাথায় বসিয়ে দেয়। তাঁর মাথা থেকে রক্ত তখন চোখের উপর দিয়ে ঝরে পড়তে থাকে। এই সমস্তের পরে, তারা তাঁর কাঁধে একটি ক্রুশ চাপিয়ে টানতে টানতে দূরে ক্রুশারোপণের জায়গাতে তাঁকে নিয়ে যান। সেখানে ক্রুশের উপরে তারা তাঁর হাত ও পায়ে পেরেক বিদ্ধ করে। ক্রুশটিকে তারা খাড়া করে দাঁড় করিয়ে দেয়। যখন তিনি সেখানে ঝুলছিলেন তখন লোকেরা তাঁর প্রতি বিদ্রুপ করে মন্দ কথা বলতে থাকে। তিনি তখন প্রার্থন আকরেন, ‘পিতা, তুমি এদের ক্ষমা কোরো; কারণ এরা কি করছে তা তারা জানে না’ (লিউক ২৩ঃ৩৪)। পরিশেষে তিনি উচ্চৈস্বরে চিৎকার করে বলেন, ‘হে পিতা, তোমার হাতে, আমার আত্মাকে আমি সমর্পণ করছি’। (লিউক ২৩ঃ৪৬)। তিনি বললেন, ‘ইহা সমাপ্ত হই;এর পরে তিনি মাথা নত করলেন এবং আত্মাকে সমর্পণ করলেন’ (যোহান ১৯ঃ৩০)।

শিষ্যরা তাঁর শরীরকে ক্রুশ থেকে নামিয়ে আনলেন এবং একটি নুতন কবরের মধ্যে তাঁকে রাখলেন। সেই কবরটিকে তারা সুরক্ষিত করে দিয়ে কবর চুরি করা দস্যুদের হাত থেকে কবরটিকে রক্ষা করার জন্য রোমীয় প্রহরী নিযুক্ত করে রাখলেন।

রবিবারের সকালের অতি প্রত্যুষে মেরী ম্যাগডালেন ও অন্য মরিয়ম সেই কবরের কাছে আসেন এবং স্বর্গদূতকে কবরের পাথরের ঢাকনার উপরে বসে থাকতে দেখেন, যা সেই কবরের মুখ থেকে গড়িয়ে পড়ে গেছিল। স্বর্গ দূত বলেন, ‘তুমি ভয় করবে না; কেননা আমি জানি যে তুমি যীশুর অণ্বেষণ করছো, যাকে ক্রুশারোপিত করা হয়েছিল। তিনি তো এখানে নেই; ‘কেননা তিনি যে ভাবে বলেছিলেন সেই ভাবেই তিনি জীবিত হয়েছেন’।(ম্যাথুজ ২৮ঃ৫-৬)। সেই রাত্রিতে পুণরত্থিত খ্রীষ্ট তাঁর শিষ্যদের কাছে প্রকাশিত হোন। তাদের সঙ্গে তিনি ভোজন করেন, আর পরবর্তী চল্লিশ দিন তারা তাঁকে বহুবার দর্শন করেন। তারা তাঁকে স্পর্শ করেও দেখেন,

তিনি কোন আত্মা ছিলেন না কিন্তু তার মধ্যে ‘শরির ও অস্থি’ ছিল। পুণরত্থিত শরীর (লিউক ২৪ঃ৩৯)। সেই চল্লিশ দিন সময়কালে বহু কিছু তিনি তাদের শিক্ষা দিয়েছিলেন। পরিশেষে তাদের তিনি বলেন,

“তখন যীশু নিকটে আসিয়া তাঁহাদের সহিত কথা কহিলেন, বলিলেন স্বর্গে ও পৃথিবীতে সমস্ত কর্ত্তৃত্ব আমাকে দত্ত হইয়াছে। অতএব তোমরা গিয়া সমুদয় জাতিকে শিষ্য কর; পিতার ও পুত্রের পবিত্র আত্মার নামে তাহাদিগকে ব্যাপ্টাইজ কর; আমি তোমাদিগকে যাহা যাহা আজ্ঞা করিয়াছি, সে সমস্ত পালন করিতে তাহাদিগকে শিক্ষা দেও। আর দেখ, আমিই যুগান্ত পর্যন্ত প্রতিদিন তোমাদের সঙ্গে সঙ্গে আছি”। (ম্যাথুজ ২৮ঃ১৮-২০)

“পরে এইরুপ হইল, তিনি আশীর্বাদ করিতে করিতে তাঁহাদের হইতে পৃথক হইলেন এবং স্বর্গে নীত হইতে লাগিলেন”। (লিউক ২৪ঃ৫১)

সেই গল্পটা আপনাদের বলার জন্য ইহা হল আমার নির্দিষ্ট কাজ! সেটাই হল সুসমাচার! সেতাই হল আমার একান্ত কাজ। সেটা হল প্রতিটি প্রচারকের নির্দিষ্ট কাজ! ‘একজন সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য করুন’। হ্যাঁ, সেখানে আরো কিছু রয়েছে!

৩. তৃতীয়, ফিলিপ তাদের মনোযোগের আকর্ষণ করেন।

“আর লোক সমূহ ফিলিপের কথা শুনিয়া ও তাঁহার কৃত চিহ্ন কার্য্য সকল দেখিয়া এক চিত্তে তাঁহার কথায় অবধান করিল” (প্রেরিত ৮ঃ৬)

ফিলিপ সেই সমস্ত ভিন্ন ধর্মাবলম্বী লোকেদের উপরে নিজের কর্ত্তৃত্ত্বের অনুশীলন করেন! কল্পনা শক্তির জে কোন দক্ষতার দ্বারা নিজের বিষয়ে দর্শনের এক ভেলকি দেখিয়ে ক্ষণিকের কোমল কথায় তাদের প্রতি ‘বাইবেলের ব্যাখ্যা’ আপনি দিতে পারেন না! আবোল তাবোল হাল্কা কথাবার্তায় রবিবার দিনে আমাদের বেশ কিছু মন্ডলীতে সামারিয়ার হিংস্র জনতার মাঝে অবজ্ঞাসূচক পরিতৃপ্তির দ্বারা হাবি জাবি গাল-গল্প ও তার অসাড়তা ত্রিশ মিনিটে অশ্রদ্ধা ও বিদ্রুপে পূর্ণ হয়ে উঠলো। কিন্তু ফিলিপ সেই মতো কিছু প্রচার করেন নি। লোকেরা ফিলিপের সংবাদে ‘মনোযোগ দিয়েছিল’ কেননা ‘তার প্রচার জ্ঞানের প্রচারক বাক্য যুক্ত ছিল না বরং আত্মার ও পরাক্রমের প্রদর্শন যুক্ত ছিল’। (১-ম করিন্থিয়ান্স ২ঃ৪)

সেই ভাবেই ফিলিপ প্রচার করেছিলেন। সেই ভাবেই পলও প্রচার করেছিলেন। আর সেই একই পন্থায় পীটারও পেন্টেকস্টে প্রচার করেছেন। পেন্টেকস্টে ঈশ্বরের বাক্য বলে পীটার ‘উচ্চস্বরে তাহাদের কাছে বক্তৃতা দিলেন’। (প্রেরিত ৩২ঃ১৪)। এই একই ভাবে হোয়াইট ফিল্ড প্রচার করেছিলেন। সেই ভাবেই ওয়েসলি প্রচার করেছিলেন। সেই একই ভাবে হাওয়েল হ্যারিস প্রচার করেছিলেন।সেই একই ভাবে দ্যানিয়েল রাউল্যান্ড ও খ্রীষ্টমাস ইভান্স ও রিচার্ড ব্যাক্সটার প্রচার করেছিলেন। হ্যাঁ, আজকে সেই একই মাধ্যমে আমাদেরও প্রচার করার প্রয়োজন রয়েছে। এই একই মাধ্যমে এখন আমাদের প্রচার করতে হবে-- ওবামার সময়ে – জগতের শেষ পর্যন্ত! ঈশ্বর আমাদের সাহায্য করুন। ‘একজন সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য করুন’।

৪. চতুর্থ, ফিলিপ তাদের আবেগকে উত্তেজিত করে তুলেছিলেন।

প্রকৃত যে সুসমাচার প্রচার তা সর্বদা সেটাই করে! ‘কারণ অশুচি আত্মাবিশিষ্ট অনেক লোক হইতে সেই সকল আত্মা উচ্চৈঃস্বরে চেঁচাইয়া বাহির হইয়া আসিল’।(প্রেরিত ৮ঃ৭)। প্রকৃত ভাবে সুসমাচার প্রচারে সেখানে সব সময়ই উত্তেজনাময় এক প্রতিক্রিয়া সব সময়েই পাওয়া যায় আর তখন প্রায় সময়ে মন্দ আত্মারাও প্রতিক্রিয়া জানাতে থাকে। লোকেদের আবেগকে উত্তেজিত না করে আপনি সাধারণ ভাবে সুসমাচার প্রচার করতে পারেন না। ইহা সেই ভাবে হতেই পারে না। ডাঃ লয়েড জেমস বলেছেন, ‘যেখানেই প্রচারের মধ্যে প্রচন্ড উত্তেজনা দেখা দিয়েছে সেখানে সব সময়েই অতীতের সব থেকে মহান প্রচার বলে তা বর্ণনা করা হয়েছে ? অতীতে প্রায় সময়ে যেভাবে হয়েছিল, সেই ভাবে আধুনিক সময়ের প্রচারকেরা সেই ভাবে আন্দোলিত হয়ে মহান প্রচারক হিসাবে এগিয়ে যেতে পারে না? আমি আবার বলছি জে ব্যাক্তি যিনি এই বিষয়ে কথা বলেন (যার মধ্যে কোন উত্তেজনা নেই) তার কোন অধিকার নেই প্রচার বেদীতে দাঁড়াবার; আর তাকে এইভাবে কোন একটিতেও প্রবেশ করার অনুমোদন দেওয়া হবে না’। (D. Martyn Lloyd-Jones, M.D., Preaching and Preachers, Zondervan Publishing House, 1971, pp. 90, 97).

বেশ কিছু সপ্তাহ আগে ডাঃ মারফি লুমের অবসর প্রাপ্তি ভোজে যোগদান করেছিলাম। সেখানের সেই চাইনিজ মন্ডলীতে অনেক লোক ছিলেন যাদের আমি জানতাম। ডাঃ লুমের নিজের ছেলে যখন কথা বললেন, তখন তিনি আমাকে উল্লেখ করে বললেন যে তিনি খ্রীষ্টের দ্বিতীয় আগমনের বিষয়ে আমার কাছ থেকে প্রচারের মধ্যে শুনেছিলেন আর ইহা তাকে ভীত করে তুলেছিল আর তিনি পরিত্রাণ লাভ করে ছিলেন। আরো একজন ব্যাক্তি যিনি আমার সঙ্গে সেই একই টেবিলে বসেছিলেন তিনি আমাকে বললেন নরকের বিষয়ে তিনি আমার প্রচার শুনেছেন, আর ইহা যেন আমার সঙ্গে তাকে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ করে তুলেছিল। কিন্তু তিনি বললেন, ‘হঠাৎ করে সমস্ত কিছু ভুলে গিয়ে আমি অনুভব করলাম যে আমার পরিত্রাণ লাভ করার প্রয়োজন রয়েছে’। আর তিনিও খ্রীষ্টে নির্ভর করেছিলেন। ইহাকে এই ভাবেই হওয়ার প্রয়োজন। ‘একজন সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য কর’।

সেটা করার জন্য সুসমাচার যে কি তার থেকেও বেশী কিছু বলার প্রয়োজন আপনার রয়েছে। আপনি যতক্ষণ পর্যন্ত না আবেগ পরায়ণ হয়ে উত্তেজিত হয়ে পড়েছেন ততক্ষণে আপনি সুসমাচারকে গম্ভীর ভাবে নিতে পারেন না – ভীত ও সন্ত্রস্ত করে তুলুন! আপনার হৃদয়কে অতি অবশ্যই আন্দোলিত করে তুলতে হবে, ‘কেননা মানুষ হৃদয়ের মধ্যেই বিশ্বাস করে’। (রোমানস ১০ঃ১০)

খ্রীষ্ট জগৎকে বিচার করার জন্য আসছেন সে বিষইয় আমি আপনাদের বলেছি। এই বিচার ইতিমধ্যেই স্থান নিচ্ছে। বৃহদায়তন প্রবল সাইক্লোন বা ঘূর্ণিঝড়কে দেখুন। বৃহদায়তন প্লাবনকে দেখুন, বৃহদায়তন বরফের ঝড়, মধ্য পশ্চিমের আকিস্মিক সম্ভাবনা, সেই সন্ত্রাসবাদকে যারা কেবল মাত্র এক নোংরা রোমের দ্বারা সমগ্র নগরীকে ধ্বংস করে দিতে পারে। আপনি কি ইহা দেখছেন না ? যখন ‘বৃহত্তর একটা’ লস এঞ্জেলেসে আঘাত হানবে তখন কি হবে—মাটি যখন দুভাগ হয়ে যায় আর আপনি যখন নরকে পতিত হন তখন কি হবে ? আপনার শারিরীক দেহ যখন মর্গের মধ্যে শীতল ও শক্ত হয়ে পড়ে তখন কি হবে ? আপনি যদি মন্ডলীতে কেবল এক খেলা করছেন তবে ঠিক আপনি যেমন রয়েছেন সেই ভাবে খেলে কি হবে! আপনার নিজের আত্মার সঙ্গে খেলা কর! ঈশ্বরের সঙ্গে খেলা – আর ঈশ্বর তখন আপনাকে শাস্তি না দিয়ে পারবেন না। কেননা ঈশ্বর হলেন সর্ব্বগ্রাসী অগ্নি!

এই সমস্ত কিছুই কি আপনার কাছে কেবল খেলা মাত্র ? আপনি কি পবিত্র আত্মাকে প্রত্যাখান করছেন না ? আপনি কি গুপ্ত কোন পাপ করছেন যার বিষয়ে আপনি হয়তো ভাবছেন জে আপনাকে তার পুণরুক্তি করতে হবে না ? আপনার হৃদয় কি মন্দ চিন্তা ও ঈশ্বর নিন্দায় পূর্ণ ? তাই আজকের রাত্রিতেই আমি আপনাকে বলছি, আপনাদের কারো কাছে যেন খুব দেরী হয়ে গিয়েছে ! আর আজকে কোন একজনের কাছে ইহাতে যেন অত্যন্ত দেরী হয়ে গিয়েছে বলে মনে হচ্ছে—আপনি যদি খ্রীষ্টের রক্তের কাছে ক্ষমা লাভ না করে আরো একটা দিন অতিক্রান্ত করেন তবে ভুল হবে। তাঁর কাছ থেকে নিজেকে লুকিয়ে রাখবেন না। পুণরায় ইহা আর করবেন না! আজকে আমি আপনাকে সতর্ক করছি তাঁর থেকে ফিরে থাকবেন না। বিচার নেমে আসার আগে এটাই হয়তো আপনার কাছে শেষ সুযোগ। আপনাকে সতর্ক করা হল আমার কাজ। সুসমাচারের কার্য্য করাটা হল আমার একটা কাজ। অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়িয়ে আপনার গানের পাতায় ৮-নম্বর গানটি গান।

দীর্ঘকাল আমি পাপকে অবহেলা করেছি, দীর্ঘকাল আমি পাপের মধ্যে পড়ে রয়েছি
দীর্ঘকাল আমি প্রত্যাখানের অজুহাত দেখিয়েছি, আর এখন তাঁকে ছাড়া আমি পথ হারিয়েছি
ইহা যেন অত্যন্ত দেরী, আহা খুবই দেরী! তথাপি তিনি দরজায় করাঘাত করছেন
আর সেই যীশু, মিষ্ট ত্রাতা, তিনি পুণরায় ডাকিতেছেন।

আমার চেতনা যখন পুরো ছাই হবে তখন যেন বড্ড দেরী হবে
আমার হৃদয় যখন কঠিন পাথর হবে, তখন তা যেন বড্ড দেরী হবে
আত্মা যদি আমায় প্রত্যাখান করে, তবে তা বড্ড দেরী হবে
আমার জীবনের স্থান চলে গেলে পর ইহা তখন বড্ড দেরী হবে
ইহা যেন অত্যন্ত দেরী, আহা খুবই দেরী! তথাপি তিনি দরজায় করাঘাত করছেন
আর সেই যীশু, মিষ্ট ত্রাতা, তিনি পুণরায় ডাকিতেছেন।

একটি ঘন্টায় খ্রীষ্টের প্রত্যাখান যেন বড্ড বেশী সময়, দিনেও হয়তো ইহা বড্ড দেরী
আজই হল পরিত্রাণের দিন, হে যীশু আমা থেকে ফিরিও না
ইহা যেন অত্যন্ত দেরী, আহা খুবই দেরী! তথাপি তিনি দরজায় করাঘাত করছেন
আর সেই যীশু, মিষ্ট ত্রাতা, তিনি পুণরায় ডাকিতেছেন।
   (“Too Long I Neglected” by Dr. John R. Rice, 1895-1980).

পরিত্রাণ লাভ করার জন্য আমাদের সঙ্গে আপনি যদি কথা বলতে চান, তবে পিছনে যে কক্ষটি রয়েছে সেখানে অনুগ্রহ করে এগিয়ে আসুন। ডাঃ কাগান আপনাদের একটি নীরব জায়গাতে নিয়ে যাবেন, যেখানে আমরা আপনার সঙ্গে যীশুর ওপর নির্ভর করার বিষয়ে কথা বলতে পারি। মিঃ লী অনুগ্রহ করে আমাদের প্রার্থনায় এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

সংবাদের পরিসমাপ্তি
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

You may email Dr. Hymers at rlhymersjr@sbcglobal.net, (Click Here) – or you may
write to him at P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015. Or phone him at (818)352-0452.

সংবাদের আগে শাস্ত্রের যে অংশ পাঠ করা হয়েছে, তা করেছেন ডাঃ ক্রিগটন এল. চান
(প্রেরিত ৮ঃ ৫-৮)
সংবাদের আগে একক সংগীত গেয়েছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনগেইড গ্রীফিথ ঃ
“Too Long I Neglected” (by Dr. John R. Rice, 1895-1980).


খসড়া চিত্র

একজন সুসমাচার প্রচারকের কাজ

THE WORK OF AN EVANGELIST

লেখকঃ ডাঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনি
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

“ এক সুসমাচার প্রচারকের কার্য্য কর” (২-য় টিমোথি ৪ঃ৫)

(উপদেশক ৭ঃ২৯)

১. প্রথম, ফিলিপ যখন প্রচার করেন তখন ভীষণ উত্তেজক ছিল।
প্রেরিত ৮ঃ৫-৮

২. দ্বিতীয়, ফিলিপ খ্রীষ্টকে প্রচার করেন।
প্রেরিত ৮ঃ৫; ১০ঃ৪১-৪৩; ১১ঃ২০-২১;
১-ম করিনথিয়ান্স ২ঃ২; প্রেরিত৫ঃ৩১-৩২; লিউক ২২ঃ৪৪,৬৪;
ঈশা ৫০ঃ৬;লিউক ২৩ঃ২৪,৪৬; জন ১৯ঃ৩০; ম্যাথুজ ২৮ঃ৫,৬;
লিউক ২৪ঃ৩৯;ম্যাথুজ ২৮ঃ১৮-২০; লিউক ২৪ঃ৫১

৩. তৃতীয়, ফিলিপ তাদের মনোযোগের আকর্ষণ করেন।
প্রেরিত ৮ঃ৬; ১-ম করিনথিয়ান্স ২ঃ২; প্রেরিত ২ঃ১৪ .

৪. চতুর্থ, ফিলিপ তাদের আবেগকে উত্তেজিত করে তুলেছিলেন।
প্রেরিত ৮ঃ৭; রোমানস ১০ঃ১০