Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 40টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




যীশুর অশ্রুধারা

THE TEARS OF JESUS

ডঃ আর এল হাইমার্স,(জুনি)
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১২ সালের ১১-ই মার্চের "প্রভুর দিনের সন্ধ্যাকালে" লস এঞ্জেলসের ব্যাপ্টিস্ট
ট্যাবারন্যাকালে এই সংবাদটি প্রচারিত হইয়াছিলো।
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, March 11, 2012

“ইনি মাংসে প্রবাস কালে 'প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে' তাহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন, যিনি মৃত্যু হইতে তাহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন" (হিব্রুস ৫:৭)


আজকের সন্ধ্যার সময়ে আমার যে প্রসঙ্গ তা হল "যীশুর অশ্রুপাত"। আমাদের প্রসঙ্গ বলে যে তিনি যখন এই জগতে ছিলেন তখন যীশু 'মাংসে প্রবাস কালে প্রবল আর্ত্তনাদে ও অশ্রুপাত সহকারে' প্রার্থনা করেছিলেন। সাধক ঈশা ভাববাদী বলেছিলেন যে তিনি হলেন অবজ্ঞাত ও মুমূর্ষদের ত্যাজ্য, ব্যাথার পাত্র ও যাতনা পরিচিত হইলেন'। (ঈশা ৫৩:৩)। এই বর্ণনা এটাই দেখায় যে তাঁর এই জগতে তাঁর সেবাকাজের সময়ে যীশু বহুবার অশ্রুপাত করেছিলেন।

“ব্যথার পাত্র" কি এক নাম
   যিনি এসেছিলেন, সেই ঈশ্বরপুত্র
পতিত পাপীদের পুণরদ্ধার করতে
   হাল্লেলুইয়া! কী এক পরিত্রাতা
হাল্লেলুইয়া! কী এক পরিত্রাতা
   (“হাল্লেলুইয়া! কী এক পরিত্রাতা !” ফিলিপ ব্লিস ১৮৩৮-১৮৭৬০)

সেই যীশু,যিনি হলেন ব্যাথার পাত্র, নিশ্চিতভাবেই বহুবার অশ্রুপাত করেছিলেন। বাইবেল সেইপ্রকার তিনিটি মুহুর্তের কথা নথিভুক্ত করে; যা আমাদের কাছে তাহার প্রেমিক হৃদয়ের অনুকম্পাকে প্রদর্শন করে।

১. প্রথমতঃ যীশু ল্যাজারাসের কবরের কাছে কাঁদলেন।

যীশু যখন বেথানীতে আসেন তখন তাঁর বন্ধু ল্যাজারাস ইতিমধ্যেই মৃত। তাঁরা তাকে চারদিন আগেই কবর দিয়েছেন। সেই মৃত ভাইয়ের বোন যীশুর কাছে সাক্ষাৎ করতে গেলেন, 'যীশু যখন দেখলেন সেই মেয়েটি কাঁদছে, তার সাথে সাথে যে সব ইহুদীরা এসেছেন তারাও কাঁদছিলেন, তখন তিনিও আত্মাতে উত্তেজিত হয়ে উঠলেন ও উদ্বিগ্ন হলেন আর বকলেন তাঁকে কোথায় রাখা হয়েছে ? তারা তাঁকে বললেন, প্রভু, এসে দেখুন! "যীশু কাঁদলেন"। এরপরে ইহুদীরা বললেন, 'দেখ, ইনি তাকে কেমন ভাবে ভালো বাসতেন'। (যোহান ১১ঃ ৩৩-৩৬)।

ল্যাজারাসকে যে তিনি মৃত্যু থেকে জীবিত করবেন তা যীশু জানতেন, তথাপি তিনি মরিয়ম ও অন্যদের সঙ্গে কাঁদলেন। ডঃ জন আর রাইস বলেছেন,

কেন তবে যীশু কাঁদলেন? আহা, তিনি তো জানতেন যে কিছু মুহুর্ত সময়ের মধ্যেই তিনি ল্যাজারাসকে কবর থেকে ডেকে তুলবেন কিন্তু তিনি মরিয়মের, মার্থার ও অন্যান্যদের কান্নার সময়ে নিজেও কাঁদলেন। এই জগতে যত উগ্রচিত্ত লোক রয়েছেন তাদের জন্য তিনি কাঁদেন। যত মায়েরা তাদের মৃত শিশুদের জন্য কাঁদেন, তাদের সঙ্গে তিনিও কাঁদেন, প্রতিটি স্বামী যারা তাদের স্ত্রী'র শববাক্সের সামনে দাঁড়িয়ে কাঁদেন, তাঁদের সঙ্গে তিনিও কাঁদেন। তিনি সেই সমস্ত পিতা ও মাতাদের জন্য কাঁদেন যারা রাতের পর রাত তাদের হারিয়ে যাওয়া বালক বা ছটফটে বালিকার প্রতি কাঁদেন... কিন্তু সেই কান্না আমার ও আপনার জন্যও এবং সেই সঙ্গে এই জগতের সেই সমস্ত ব্যাক্তিদের জন্য যারা যাতনা ও সমস্যার মধ্যে রয়েছেন, আমাদের সমস্যার সাথে সাথে তিনিও উদ্বিগ্ন... তিনি প্রতিটি যাতনার মধ্যে প্রবেশ করেন। (জন আর রাইস, ডি.ডি., The Son of God, Sword of the Lord, ১৯৭৬, পাতা ২৩৩)।

বাইবেল আমাদের বলে, 'যারা আনন্দ করে তাদের সঙ্গে আনন্দ করার জন্য ও যারা কাঁদে তাদের সাথে কাঁদতে' (রোমানস ১২ঃ১৫)। ডাঃ রাইস বলেছেন, 'আমরা এমন ভাবে চিন্তা করতে পারিনা যে আমাদের যা করার জন্য আজ্ঞা করা হয়েছে, তার থেকে কম যীশু করেন। কত আশ্চর্য্য মূলক সত্য এটা, কেননা যীশু আমাদের সমস্ত প্রকার যাতনাতে ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদেন... পাপীদের প্রতি নিশ্চিত ভাবেই বহুবার তিনি কেঁদেছেন কেন না পুঁথি বহুসময় উল্লেখ করেছে যে যীশু "অনুকম্পার সঙ্গে মর্মস্পর্শী হয়ে ছিলেন"। তাই আমরা খুব ভালো ভাবেই অনুমান করতে পারি তাঁর নিজের চোখের অশ্রু তাঁর হৃদয়ের অনুকম্পা ও ব্যাথাকে উপস্থাপিত করেছিল"।(রাইস,ইবিড)।

আমার বয়স যখন পনেরো বৎসর ছিল তখন আমার প্রিয় ঠাকুরমা মারা যায়। আমি তাকে কত ভালোই না বাসতাম। তিনি মারা যাওয়ার পরে তার রান্না ঘরে আমি গিয়েছিলাম আর তার যে দ্রাক্ষা লতাটা ছিল সেটা আমি নিই। সেই দ্রাক্ষা লতাটি আজ ৫৬ বৎসর আমি নিজের কাছে রেখেছি। আমি যখনি অন্যত্র যাই,সেটাকে সবসময়ই আমি নিজের সঙ্গে নিয়ে যাই। সেটি এখন আমার বাড়িতে পড়ার ডেস্কের ওপর রয়েছে। এই সংবাদ যখন লিখছি, এখনও আমি এই মুহুর্তে সেটির দিকে তাকিয়ে রয়েছি।আমি "ঠাকুরমাকে" প্রতিজ্ঞা করেছিলাম যে ইহাকে সব সময়ে আমি নিজের কাছে রাখবো, তা যতদিন আমি বেঁচে থাকি, যা আমাকে তার সম্বন্ধে স্মরণ করিয়ে দেবে। তাইতো আমি তাকে এতটা ভালোবাসি!

আমি তার কবরের সামনে দাঁড়িয়ে কাঁদতে থাকলাম।আমি এই কান্নাকে চেপে ধরে রাখতে পারলাম না।আমি একটি পর্বতের উপরে ছুটে যেতাম। আমি সেই কবর স্থানের মধ্যে দিয়ে ছুটতে থাকতাম। মাটিতে মুখ রেখে আমি আর্ত্মস্মর করতাম ও ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদতাম। আর ঈশ্বর আমার প্রতি প্রসন্ন হলেন, ঠিক মরু প্রান্তরে যেভাবে তিনি জেকবের প্রতি হয়েছিলেন, ও তার সঙ্গে আমি এইভাবে বলতাম। “অবশ্যই সদাপ্রভু এই স্থানে আছেন আর আমি তাহা জ্ঞাত ছিলাম না”।(আদি পুস্তক ২৮ ঃ১৬)।

হে যুবক ব্যাক্তি, যীশু ল্যাজারাসের কবরের কাছে কেঁদেছিলেন।আজকে রাত্রে তিনি আপনার জন্যও কাঁদছেন। আপনার ভয় ও যাতনা যীশু জানেন। আমি আপনার কাছে সনির্বন্ধ বিনতি করছি-আপনার কাছে আমি ভিক্ষা চাইছি- তাঁর কাছে আসুন যিনি আপনাকে অনন্তকালীন প্রেমে –প্রেম করেছেন!

তিনি এতটাই ভালোবাসেন-তিনি এতটা উত্তমভাবে ভালোবাসেন
   জিহবা যা বলতে পারে না তার থেকেও তিনি আপনাকে ভালোবাসেন;
তিনি এতটাই ভালো বাসেন- তিনি এতটা উত্তম ভাবে ভালোবাসেন,
   নরক থেকে আপনার আত্মাকে উদ্ধারের জন্য তিনি মৃত্যু বরণ করেছেন।
(তিনি এখনও আপনাকে ভালোবাসেন” ডাঃ জন আর রাইস, ১৮৯৫-১৯৮০)।

“যীশু কাঁদিলেন” (যোহান ১১ঃ৩৫)।

ডাঃ হেনরী এম. মরিস বলেছেন,

যীশু যে কোন সময়ে হেসেছিলেন, সেই বিষয়ে বাইবেলে তেমন কিছু একটা উল্লেখ নাই, কিন্তু তাঁকে প্রায় সময়ে ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদতে লক্ষ্য করা গিয়েছে। এই জেনে তিনি মরিয়ম ও মার্থার সমবেদনার ভাগী হয়েছিলেন; কেননা তিনি নিজেও ল্যাজারাসকে ভালো বাসতেন, কিন্তু তিনি আবার আত্মাতে আর্তনাদও করেছিলেন ও উদ্বিগ্ন হয়ে উঠছিলেন। (যোহান ১১ঃ৩৩)। পাপ ও মৃত্যুর প্রবল অস্তিত্বের সাথে মৃত্যু রাজত্ব করছিল।(হেনরি এম. মরিস, Ph.D., The Defender’s Study Bible, World Publishers, ১৯৯৫ প্রকাশন, পৃষ্ঠা ১১৫৪; যোহান ১১ঃ৩৫ দ্রষ্টব্য)।

তিনি এতটাই ভালো বাসেন, তিনি এতটা উত্তম ভাবে ভালোবাসেন,
   জিহবা যা বলতে পারে না, তার থেকেও তিনি আপনাকে ভালোবাসেন;
তিনি এতটাই ভালো বাসেন, তিনি এত উত্তম ভাবে ভালো বাসেন,
   নরক থেকে আপনার আত্মাকে উদ্ধারের জন্য তিনি নিজে মৃত্যু বরণ করেছেন।

২. দ্বিতীয়তঃ যীশু জেরুজালেম নগরের প্রতি রোদন করিলেন।

ডাঃ জে.ভারনন ম্যাকগী বলেন, 'তিনি জেরুজালেম নগরের প্রতি রোদন করেন'। সেই সময়ে যেহেতু তিনি জেরুজালেমের প্রতি রোদন করেছিলেন,তাই আমি নিশ্চিত তিনি সেই সমস্ত নগরীর প্রতিও রোদন করেছিলেন যার মধ্যে আমি ও আপনি বসবাস করছি'। (ডাঃ জে.ভারনন ম্যাকগী Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson Publishers, ১৯৮৩,ভ্যলুম-পাঁচ,পৃষ্ঠা ৫৪০ দ্রষ্টব্য হিব্রুস ৫ঃ৭)।

“পরে যখন তিনি কাছে এলেন, তখন নগরটিকে দেখে তার জন্য রোদন করলেন, বলিলেন, তুমি যদি আজকের দিনে, যা কিছু শাস্তিজনক তা বুঝতে পারতে!কিন্তু এখন সেই সমস্ত কিছু তোমার চক্ষু থেকে লুক্কায়িত রইলো। কারণ তোমার এমন সময় আসিবে, যে সময় তোমার শত্রুরা তোমার চারপাশে সুড়ঙ্গ বানাবে, তোমাকে বেষ্টন করবে, তোমাকে সব দিক দিয়ে সব রোধ করবে এবং তোমাকে ও তোমার মধ্যবর্তী তোমার সন্তানদের ধুলিসাৎ করবে। তোমার মধ্যে পাথরের উপরে আর একটি পাথর থাকতে দেবে না। কেননা, তোমার তত্ত্বাবধানের সময় তুমি বোঝ নি।(লিউক ১৯ঃ ৪১-৪৪)

৭০-খৃষ্টাব্দে ভয়ংকর যে ধ্বংস জেরুজালেমের প্রতি যে পতিত হবে সেই বিষয়ে তিনি যখন চিন্তা করছিলেন,তখন তিনি রোদন করছিলেন।যখন রোমীয় সেনাধক্ষ্য তিটাস জেরুজালেমকে মর্য্যাদাহীন করে দিয়ে বিনা করুণায় ইহার অধিবাসীদের ব্যাপক ভাবে হত্যা করেছিলেন! তখন যীশু রোদন করছিলেন কেন না তিনি জানতেন যে ঈশ্বরের এই অতি সুন্দর মন্দিরটি জেরুজালেম থেকে সম্পূর্ণ ভাবে ধ্বংস হয়ে যাবে। মন্দিরের পাশে কেবলমাত্র সেই পাঁচিলটি ছাড়া কোন কিছুই আর থাকবে না। আমি সেই দেওয়ালের পাশে দাঁড়িয়ে ইহাকে স্পর্শ করছিলাম। জেরুজালেমের সেই দেওয়ালের কাছে দাঁড়িয়ে ইহুদীরা যে ভাবে বিলাপ করে ঠিক সেই ভাবে যীশু যেমন ভাবে রোদন করেছিলেন আমিও তাই করি। ঈশ্বরের সেই লোক বৃন্দ, ইহুদীরা শতাব্দীকাল যাবৎ যেভাবে ভীষণ যন্ত্রণা ও অত্যাচারের মধ্য দিয়ে গিয়েছে সেই বিষয়ে আমি যখন চিন্তা করছিলাম তখন আমি রোদন করছিলাম।

হায়, আজ রাত্রি কালেও এই জগতের নগরী গুলোর জন্যে যীশু রোদন করছেন; যেখানে থিকথিকে জনসংখ্যার মধ্যে লক্ষ লক্ষ মানুষের অপরিত্রাণ প্রাপ্ত আত্মারা রয়েছে। কি ভাবেই না তিনি ওয়াশিংটন এবং লন্ডন, কোলকাতা ও বেজিং, গ্লাসগো ও সিডনী, মেক্সিকো নগরী এবং সায়গন, ভিয়েতনাম ও রেঙ্গুন, জাকার্তা এবং মস্কোর প্রতি রোদন করেছেন সেই সঙ্গেই ছোট বড় যত নগরী ও শহর রয়েছে তাদের প্রতিও তিনি ক্রন্দন করেছেন। তাই যেটা ঈশ্বরের হৃদয়কে মুচড়ে দেয়, সেইভাবে আমাদের হৃদয়ও যেন ভগ্নচূর্ণ হয় সেই সমস্ত বিষয়ের জন্যে।

অন্য কোন কিছু যেটা পারে না, যীশুর চোখের জল আমাদের অনুপ্রাণিত করে যেন সমস্ত জাতির নিকটে এই সুসমাচারকে প্রচার করি। তাঁর চোখের জল আমাদের উদ্বেলিত করে তোলে।আমাদের ওয়েব সাইটে ভাষার পর ভাষাকে সংযুক্ত করে তুলতে- যেন যতটা সম্ভব অনেকের কাছে সুসমাচার নিয়ে পৌঁছানো যায়। আমাদের সংস্কৃতিকে তাদের ওপরে চাপিয়ে দাওয়ার জন্য আমরা আসি নি "উপনিবেশ" তৈরী করতে। না! আমরা এসেছি ভগ্নচূর্ণমনা খৃষ্টের অন্বেষী হিসেবে যেন তাদের সঙ্গে তার ভালোবাসাকে আলোচনা করতে পারি, তাঁর প্রেম যা আমাদের পাপ থেকে মৃত্যু ও নরক থেকে উদ্ধার প্রদান করেছে। যারা আমাদের এই সংবাদ ও উপদেশ শোনেন তাদের সকলকেই আমরা বলি, বা ইহা যারা পড়েন তাদের বলি।

তিনি এতটাই ভালোবাসেন-তিনি এতটা উত্তমভাবে ভালোবাসেন
   জিহবা যা বলতে পারে না তার থেকেও তিনি আপনাকে ভালোবাসেন;
তিনি এতটাই ভালো বাসেন- তিনি এতটা উত্তম ভাবে ভালোবাসেন,
   নরক থেকে আপনার আত্মাকে উদ্ধারের জন্য তিনি মৃত্যু বরণ করেছেন।

আর যীশুর অশ্রুপাতই আমাদের উদ্বেলিত করে তোলে যেন লস এ্যাঞ্জেলেসেও সুসমাচার প্রচার করি! কেন না তিনি আমাদের বলেছেন,

“বাহির হইয়া রাজপথে রাজপথে যাত্রা কর, এবং আসিবার জন্য
লোকেদের পীড়াপীড়ি কর; যেন আমার গৃহ পরিপূর্ণ হয়" (লিউক ১৪ঃ২৩)

৩. তৃতীয়ত গ্যেথসেমানি বাগানে যীশু অশ্রুপাত করেন

তাঁর অশ্রুপাতের সেটাই হল তৃতীয় নজীর। ওঃ সেই বাগানের অন্ধকারে কি ভাবে তিনি অশ্রুপাত করেছিলেন! আমাদের পাঠ্যাংশ সেই যীশুর বিষয়েই বলে,

"ইনি মাংসে প্রবাস কালে 'প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে' তাহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন, যিনি মৃত্যু হইতে তাহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন" (হিব্রুস ৫:৭)

গ্যেথসেমানি বাগানে যে দিনে তিনি ক্রুশারোপিত হবেন সেই রাত্রির আগের দিন যীশু একাকী প্রার্থনা করেন। সেই গ্যেথসিমানির অন্ধকারে পরিত্রাতা তাঁর নিজের আত্মাকে প্রার্থনার মধ্য দিয়া ঈশ্বরের প্রতি সম্পূর্ণ ভাবে মেলে ধরেন। তিনি তাঁর কাছে প্রার্থনা করেন 'এক গভীর অশ্রুপাতের সঙ্গে যা তাঁকে মৃত্যু থেকে রক্ষা করতে সক্ষম আর আপন ভক্তি প্রযুক্ততার উত্তর পেলেন'।(হিব্রুস ৫:৭) তিনি কিসের আশঙ্কা করেছিলেন ? আমি বিশ্বাস করি যীশু আশঙ্কা করেছিলেন যেন ক্রুশে আমাদের পাপের জন্য প্রায়শ্চিত্ত স্বরুপ বলিদান হওয়ার আগেই তিনি সেই বাগানে মৃত্যু বরণ করেন।ডাঃ জন রাইস বলেছেন,' যেন যীশু প্রার্থনা করেছিলেন যেন সেই রাত্রে তাঁর কাছ থেকে মৃত্যুর পেয়ালা দূর হয়ে যায় যাতে পরের দিনে ক্রুশে মৃত্যু বরণ করার জন্য তিনি জীবিত থাকেন'।(রাইস, ইবিড, পৃষ্ঠা ৪৪১)। এক খ্যাতনামা ধর্মতত্ত্ববিদ ডাঃ জন অলিভার বুশওয়েল এই একই বিষয় বলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে 'সেই বাগানে যেন প্রার্থনা করেছিলেন যেন মৃত্যু থেকে সেই সময় তিনি নিস্তার লাভ করেন যাতে তাঁর যে উদ্দেশ্য সেই বিষয়টি তিনি কৃতকর্মের সাথে ক্রুশের ওপরে সম্পন্ন করতে পারেন। এই যে অনুবাদ তা হিব্রুস ৫ঃ৭ পদের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে পারে আর আমার কাছে ইহা মনে হয় যে তা কেবল মাত্র অনুবাদ যা সেই বিষয়টিকেই সামঞ্জস্য করে তোলে'। (যে অলিভার বুশওয়েল Ph.D., A Systematic Theology of the Christian Religion, Zondervan Publishing House, ১৯৭১, পর্ব-৩, পৃষ্ঠা ৬২)।

ডাঃ বুশওয়েল এবং ডাঃ রাইস ডাঃ ম্যাগকীর সাথে সহমত পোষণ করেন ও বলেন,' প্রিয় বন্ধুরা, ঈশ্বর যীশুকে "শুনেছিলেন", তাই তিনি গ্যাথসেমানির বাগানে মৃত্যু বরণ করেন নি'।(ইবিড)।

"ইনি মাংসে প্রবাস কালে 'প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে' তাহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন, যিনি মৃত্যু হইতে তাহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন" (হিব্রুস ৫:৭)

গ্যাথসেমানির বাগানে যীশুর ওপরে জগতের পাপের ভারকে স্থাপন করা হয়েছিল।

“পরে তিনি তাহাদের হইতে কমবেশি এক ঢেলা পথ অন্তরে প্রবিষ্ট হইলেন এবং জানু পাতিয়া প্রার্থনা করিতে লাগিলেন, বলিলেন, পিতঃ যদি তোমার অভিমত হয় আমা হইতে এই পান পাত্র দূর কর; তথাপি আমার ইচ্ছা নহে, তোমারই ইচ্ছা সিদ্ধ হউক। তখন স্বর্গ হইতে এক দূত দেখা দিয়া তাহাকে সবল করিলেন। পরে তিনি মর্মভেদী দুঃখে মগ্ন হইয়া আরও একাগ্র ভাবে প্রার্থনা করিতে লাগিলেন; আর তাহার স্বেদবিন্দু সকল রক্তের ঘনীভুত বড় বড় ফোঁটা হইয়া ভূমিতে পড়িতে লাগিল"।(লিউক ২২ঃ৪১-৪৪)

ঈশ্বরের দ্বারা আমাদের পাপ ভার যখন টাঁর ওপরে স্থাপন করা হয়, যীশু মর্মভেদী দুঃখের মধ্যে ছিলেন। আর সেই মর্মভেদী দুঃখের সময়ে তিনি প্রার্থনা করেছিলেন একাগ্র চিত্তে আর যখন তাঁর শরীরের স্বেদবিন্দু রক্তের ফোঁটার ন্যায় মাটিতে পড়েছিল (লিউক ২২ঃ২৪)। ডাঃ ম্যাকগী বলেছেন ' তিনি যখন ক্রুশের নিকটবর্তী হচ্ছিলেন তখন আমাদের প্রভু প্রায় মৃত্যুর সম্মুখীন হচ্ছিলেন আর মৃত্যু থেকে মুক্তিলাভের জন্যে তিনি প্রার্থনা করছিলেন যাতে তিনি ক্রুশের সম্মুখবর্তী হতে পারেন'।আর আমাদের সেই ভাবে বলা হয়েছে 'আপন ভক্তিপ্রযুক্ত উত্তর তিনি পাইলেন'।(ইবিড)। 'গভীর আর্ত্তনাদ ও অশ্রুজল' গ্যাৎসেমানির সেই অন্ধকারে ঈশ্বর, যীশুর প্রার্থনা শুনলেন।তাঁকে শক্তিদান করার জন্য একজন স্বুগদূতকে ঈশ্বর পাঠালেন যাতে ক্রশে গিয়ে আমাদের পাপের যে পরিণাম তা তিনি চুকিয়ে দিতে পারেন।যোসেফ হার্ট তার একটি গীতে বাগানের মধ্যে যিশুর প্রার্থনাকে এই ভাবে বলেছেন,

ঈশ্বরের পুত্রের দুঃখ ভোগকে দেখ,
   আকুল, আর্ত্তনাদময়, ঘর্মাক্ত রক্তস্রোত
ঐশ্বরিক(অনুগ্রহের)সীমাহীন গভীরতা!
   যীশু,তোমার সে কি প্রেম!
(“Thine Unknown Sufferings” যোসেফ হার্ট, ১৭১২-১৭৬৮)।

যিশু কেমন ভাবে আপনাকে ভালোবাসেন তা দেখুন! আপনার বেদনার প্রতি তাঁকে ক্রন্দনরত অবস্থায় দেখুন। নগরের মধ্যে যে পাপীরা রয়েছে তাদের প্রতি অশ্রুপাতের দৃশ্য আপনি দেখুন। গ্যেৎসেমানিতে 'চোখের জলে অশ্রুপাত' করার জন্য তাঁর প্রতি দৃষ্টিপাত করুন। ঈশ্বরের কাছে বিনতি করছেন যেন তাঁকে জীবিত রাখা হয় যাতে তিনি ক্রুশারোপিত হতে পারেন, ক্রুশের ওপরে পেরেক বিদ্ধ হতে পারেন, ঠিক পরের দিনেই আমাদের পাপের দন্ড চুকিয়ে দিতে পারেন! এই বিষয়টি কি আপনাকে নাড়িয়ে দেয় না! যীশুর অশ্রুপাত যদি আপনাকে নাড়িয়ে দিতে না পারে, তাহলে আর কি আপনাকে উদ্বেলিত করবে? আপনি কি পাপের দ্বারা এতটাই কঠিনিভুত যাতে আপনার প্রতি তাঁর প্রেমকে আপনি অনুভব করতে পারছেন না! প্রথম বার আমি যখন ডাঃ ওয়াটসের গান শুনি, তা আমি স্মরণ করতে পারি,' যখন আমি আশ্চর্য্য ক্রুশের সেবা করি, ইহা তখন আমাকে অনুপ্রাণিত করেছিল। আর এখনও ইহা আমকে উদ্বেলিত করে তোলে'।

যখন আমি আশ্চর্য্য ক্রুশের সেবা করি,
   যেখানে গৌরবের রাজকুমার মৃত্যুবরণ করেছেন,
আমার মূল্যবান লাভকে আমি ক্ষতি বলে গণণা করি,
   আর আমার গর্বের সমস্ত কিছুকে ঘৃণ্য বলে পরিমাপ করি।

দেখ তাঁর মাথা থেকে, হাত থেকে,পা থেকে,
   প্রেম ও যাতনা মিলিত প্রবাহ ধারা;
সেই প্রকার প্রেম ও যাতনা কি কখনো মিলিত হয়েছে?
   অথবা, একটি মুকুট অনেক কাঁটায় রচিত হয়েছে?

যেখানে জগতের সমস্ত কিছুই আমার প্রকৃতি,
   সেই প্রকার এক উপহার অত্যন্তই নগন্য;
প্রেম এতটাই বিস্ময়কর ও ঐশ্বরিক,
   যা দাবী করে আমার প্রান,জীবন,আমার সমস্ত কিছু।
(“When I Survey the Wondrous Cross” by
     ডাঃ আইজাক ওয়াটস, ১৬৭৪-১৭৪৮)

আজকের সন্ধ্যাবেলা আপনার সঙ্গে বিনতি করছি যীশুকে বিশ্বাস করুন, তাঁর কাছে আসুন!তাঁর কাছে পতিত হোন! আপনার সমস্ত অস্তিত্বে তাঁর ওপর নির্ভর করুন। ডাঃ ওয়াটসের সঙ্গে বলুন, 'প্রেম অত্যন্ত বিস্ময়কারী, অত্যন্ত ঐশ্বরিক যা আমার প্রাণ, আমার জীবন ও আমার সমস্ত কিছুকে দাবী করে'। ১৮-শ শতাব্দীতে বেঞ্জামিন বেডডোম ছিলেন অত্যন্ত ছোট ব্যাপ্টিস্ট প্রচারক। তিনি যদি 'খৃষ্ট কি পাপীদের ওপর ক্রন্দন করেছিলেন?' এই গানটা রচনা না করতেন, তবে তাকে আজকে আমরা জানতাম না।

খৃষ্ট কি পাপীদের ওপর ক্রন্দন করেছিলেন ,
   আর তাহলে আমাদের গাল কি শুকনো হতো?
তাই মনস্তাপের অনুশোচনার জল
   বন্যার মতো দু চক্ষু থেকে বেরিয়ে আসুক।

ঈশ্বরের সেই পুত্র অশ্রুরত
   স্বর্গদূতেরা আশ্চর্যের সাথে দেখে!
হে আমার প্রাণ তুমি বিস্ময়াপন্ন হও,
   তিনি তোমার জন্যে অশ্রুপাত করছেন।

তিনি অশ্রু ঝরিয়েছেন, যেন আমরাও অশ্রু ঝরাই;
   প্রতিটি পাপই দাবি করে এক অশ্রুপাতের;
কেবলমাত্র স্বর্গেই যেখানে কোন পাপ নেই
   আর কোন অশ্রুপাতও সেখানে নেই।
(“Did Christ O’er Sinners Weep?” বেঞ্জামিন বেডডোম, ১৭১৭-১৭৯৫)

আমি দুটি উদ্বীপনা, দুটি অস্বাভাবিক ঈশ্বরের আন্দোলন অবলোকন করেছি। এই উভয় সময়েই যিখন তারা পাপ সম্বন্ধে দৃঢ দন্ডাজ্ঞার সামনে এসেছে তখনই লোকেরা প্রস্ফুটিত হয়েছে। আজকে আমরা সেই বিষয়ে নজীর চিনের দিকে তাকালে দেখতে পাই। প্রকৃত উদ্দীপনাতে ইহা সবসময়ই প্রকৃত সত্য হয়ে দাঁড়ায়। তিনি অশ্রুপাত করেছেন যাতে আমরাও অশ্রুপাত করতে পারি, প্রতিটি পাপই অশ্রু দাবি করে। আহা, আজ রাত্রে আপনি কি পাপ সম্বন্ধে অপরাধ স্বীকার করেন! আপনি অশ্রুপাতকারী পরিত্রাতার কাছে আসুন, তিনি আপনাকে উদ্ধার করবেন! তিনি আপনার পাপ ক্ষমা করবেন ও অনন্ত জীবন দান করবেন!

গ্যেৎসেমানি বাগান থেকে তাঁকে যদি আপনি অশ্রুপাতের ও অক্তে রঞ্জিত অবস্থায় বের হয়ে আসতে দেখতেন তাহলে আপনি কি মনে করেন যে তাঁর ওপরে আপনি নির্ভর করতেন? আঃ, তাহলে এখন তাঁর ওপরে নির্ভর করুন। আজকের রাত্রে তিনি সেই একই যীশু, যিনি সেই সেখানেও ছিলেন। তিনি আপনাকে কেমন ভাবে ভালো বাসেন তা দেখুন। তিনি আপনার কাছে আসেন তাঁর নিজের হাতের ভালোবাসা নিয়ে। তাঁর উপরে বিশ্বাস করুন। তাঁর উপরে নির্ভর করুন। আর সেই মুহুর্তে আপনি পরিত্রাণ লাভ করবেন। তিনি আপনার পাপের ক্ষমাদান করবেন ও আপনাকে অনন্ত জীবন দান করবেন!

বক্তৃতার সমাপ্তি
ইন্টারনেটে www.realconversion.com. প্রতি সপ্তাহে আপনি ডাঃ হাইমারের বক্তৃতা
পড়িতে পারেন। ক্লিক করুন “বাংলায় বক্তৃতা”

You may email Dr. Hymers at rlhymersjr@sbcglobal.net, (Click Here) – or you may
write to him at P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015. Or phone him at (818)352-0452.

সংবাদের আগে শাস্ত্রের যে অংশ পড়া হয়েছে তা পাঠ করেছেন ডাঃ ক্রীঘটন এল.
চানঃ লিউক ২২ঃ৩৯-৪৫।
একক সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিথঃ
“তিনি এখনও আপনাকে প্রেম করেন" (by Dr. John R. Rice, ১৮৯৫-১৯৮০)


খসড়া চিত্র

যীশুর অশ্রুপাত

লেখক ডাঃ আর এল হাইমার্স, জুনি.

"ইনি মাংসে প্রবাস কালে 'প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে' তাহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন, যিনি মৃত্যু হইতে তাহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন" (হিব্রুস ৫:৭) (ইশাই ৫৩ঃ৩)

১.  প্রথমতঃ, যীশু ল্যাজারাসের কবরের কাছে কাঁদলেন
(যোহান১১ঃ৩৩-৩৬; রোমানস ১২ঃ১৫; জেনেসিস ২৮ঃ১৬)

২.  দ্বিতীয়তঃ, যীশু জেরুজালেম নগরীর প্রতি রোদন করেন
(লিউক ১৯ঃ৪১-৪৪;১৪ঃ২৩).

৩.  তৃতীয়তঃ, গ্যেৎসেমানি বাগানে যীশু অশ্রুপাত করেন
(হিব্রুজ ৫ঃ৭; লিউক ২২ঃ৪১-৪৪)