Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




‘‘আর যদি নাও হয়’’ - ব্যাবিলনে ঈশ্বরের লোক

“BUT IF NOT” – GOD’S MEN IN BABYLON
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2017 সালের, 3রা ডিসেম্বর, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে প্রচারিত একটি ধর্ম্মোপদেশ
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, December 3, 2017

‘‘শদ্রক, মৈশক, ও অবেদ্নগো রাজাকে উত্তর করিলেন, হে নবূখদ্-নিৎসর, আপনাকে এই কথার উত্তর দেওয়া আমাদের পক্ষে নিষ্প্রয়োজন| যদি হয়, আমরা যাঁহার সেবা করি, আমাদের সেই ঈশ্বর আমাদিগকে প্রজ্জ্বলিত অগ্নিকুন্ড হইতে উদ্ধার করিতে সমর্থ আছেন, আর, হে রাজন্, তিনি আপনার হস্ত হইতে আমাদিগকে উদ্ধার করিবেন; আর যদি নাও হয়, তবু হে রাজন্, আপনি জানিবেন, আমরা আপনার দেবগণের সেবা করিব না, এবং আপনার স্থাপিত স্বর্ণ-প্রতিমাকে প্রণাম করিব না’’ (দানিয়েল 3:16-18)|


তারা নিজেদের বাড়ি থেকে 1,500 মাইল দূরে অবস্থান করছিলেন| এবং তারা বয়সে শুধুমাত্র কিশোর ছিলেন| সেই নগরটি ভ্রান্ত ধর্ম, মদ এবং পাপে পূর্ণ ছিল| এমনকি তাদের পিতামাতাকে না জানিয়েও তারা প্রায় সবকিছু করতে পারতেন! কিন্তু তারা জানতেন যে ঈশ্বর তাদের নিরীক্ষণ করছেন|
যখন নবূখদ্নিৎসর যিরূশালেম আক্রমণ করেন সেইসময়ে সেই কিশোরদের তাদের বাড়ি থেকে ধরে আনা হয়েছিল| তারা চারজন ছিলেন| তারা অন্যান্য বালকদের মতন ছিলেন না| তারা অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী এবং অপেক্ষাকৃত দক্ষ ছিলেন| তারা বাহিনীর সর্বশ্রেষ্ঠ ছিলেন - শ্রেষ্ঠের তুলনায় শ্রেষ্ঠ| তারা খেলোয়াড় ছিলেন| কিন্তু তারা সরাসরি ‘‘A’’ মার্কা ছাত্রও ছিলেন| জ্ঞানী ব্যক্তি হিসাবে প্রশিক্ষণের জন্যে রাজা তাদের মনোনীত করেছিলেন| স্নাতক হওয়ার পরে তারা রাজার বিশেষ মন্ত্রণাদাতা হতেন|

বয়সে তারা খুবই নবীন ছিলেন| পন্ডিতেরা অনুমান করেছিলেন যে তাদের চারজনেই বয়সে কিশোর - প্রত্যেকেই প্রায় 17 বা 18 বছর বয়সী| নিজেদের বাড়ি থেকে 1,500 মাইল দূরে, এক পরজাতির দেশে, অবস্থিত রাজার বিশ্ববিদ্যালয়ে তারা থাকতেন|
আজকের দিনের যুবকেরা সেই অবস্থাতে থাকলে তারা হয়তো এইভাবে জীবনযাপন করতেন! তারা মদ্যপানে আসক্ত হয়ে পড়তেন| তারা উদ্দাম পার্টিতে যোগদান করতেন| ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ে তারা শিক্ষা নিতেন এবং ঈশ্বরের অস্তিত্ব অস্বীকার করতে সেইসব শিক্ষার দোহাই দিতেন| লোটের সময়কার লোকদের মতন, তারা দলীয়-পশুতে পরিণত হতে পারতেন| তারা নিজেদের জীবন থেকে ঈশ্বরকে ঝেড়ে ফেলে দিতে পারতেন, যেমন লোট নিজে করেছিলেন যখন তিনি সদোমের দৃশ্যমঞ্চ থেকে বেরিয়ে যাচ্ছিলেন| ‘‘দাঙ্গা হাঙ্গামা নিয়ে থেকে’’ তারা নিজেদের জীবন নষ্ট করে দিতে পারতেন - সেই অপব্যয়ী পুত্র যেমন করেছিলেন| তারা দিশাহারা সব বন্ধুদের জোগাড় করতে পারতেন এবং একটা পার্থিব জীবনযাত্রায় ধরা দিতে পারতেন এবং নিজেদের পথ হারাতে পারতেন, যেমন অব্রাহাম কলসীয় উরে করেছিলেন| তারা ফিরে আসতে এবং তাদের আত্মাকে হারাতেন পারতেন, যেমন পৌলের বন্ধু দীমা করেছিলেন, ‘‘দীমা এই বর্তমান যুগ ভালবাসাতে আমাকে ত্যাগ করিয়াছে’’ (II তীমথিয় 4:10)|

কিন্তু বাড়ি থেকে বহু দূরে, ব্যবিলনীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা, এই যিহূদী কিশোরেরা, কখনও হোঁচট খাননি বা অকৃতকার্য্য হননি! তারা মোশীর ব্যবস্থার অধীনে ছিলেন, কাজেই তারা কাসীস বিধি ধরে রেখেছিলেন| তারা তাদেরকে রাজার দ্রাক্ষারস বা রাজার খাদ্য দ্বারা কলুষিত করেননি| তাদের নিজেদের বাড়িতে শেখা ধর্মীয় শিক্ষা এবং ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বস্ত হয়েই থেকেছিলেন| তারা ছিলেন, চীনদেশ থেকে আগত সদ্য আশ্রয়চ্যুত শিশু, এফওবি দের মতন যাদেরকে তাদের পিতামাতা তাদের চীনদেশের বাড়ি থেকে অনেক দূরে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন| ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে তাদের কয়েকজন মন্ডলীতে এসেছেন এবং উদ্ধার লাভ করেছেন| তাহলে আপনি ব্যাবিলনে বন্দী এই যিহূদী কিশোরদের মতন হবেন|
দানিয়েল এই সব কিশোরদের নেতা ছিলেন| তিনি সম্ভবত অন্য তিনজনের তুলনায় অপেক্ষাকৃত কমবয়সী ছিলেন| কিন্তু তিনি একজন স্বভাবগত নেতা ছিলেন| তিনি অন্য তিনজনকে পরিচালনা করতেন| তার নেতৃত্বদানের ক্ষমতা জন কেগানের মতনই ছিল| সেই কারণে আমি অনুভব করেছি যে জন কেগান একজন পালক হতে পারেন| যেসব লোকদের বয়স জন কেগানের চেয়ে বেশী তারাও তাকে অনুসরণ করবেন কারণ তিনি হলেন একজন নেতা| দানিয়েল ছিলেন একজন প্রার্থনার মানুষ| একটা উদ্দেশ্য ও ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস নিয়ে দানিয়েল ছিলেন এক নবীন যুবক| দানিয়েল ছিলেন এক ভাববাদী| নবূখদ্নিৎসরের প্রতি তিনি প্রচার করতেন এবং রাজার সভায় যারা থাকতেন তাদের সকলের প্রতি সাক্ষ্য দিতেন| দানিয়েলের উপরে রাজার গভীর আস্থা ছিল| তিনি দানিয়েলকে এক বিখ্যাত মানুষ করে তুলেছিলেন যখন দানিয়েল প্রায় কুড়ি বছর বয়সী মাত্র ছিলেন| কিন্তু দানিয়েল তার বাকি তিনজন বন্ধুকে ভোলেননি| তাদের নাম ছিল শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো| দানিয়েল অনুরোধ করেছিলেন যে তার তিনজন ইব্রীয় বন্ধুদেরও যেন ব্যাবিলনের সরকারে উচ্চ পদে নিয়োগ করা হয়|

এই তিনজন নবীন যুবকরা সকলেই ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বস্থ থাকার পরীক্ষাতে কৃতকার্য্য হয়েছিলেন| আর এখন তাদের সেই বিশ্বস্থতার কারণে উচ্চ পদ দান করে তাদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে| যখন ঈশ্বর জানেন যে আপনি তাঁকে প্রথম স্থানে রেখেছেন, তখন ঈশ্বর আপনার করার জন্যে আরও গুরুত্বপূর্ণ কাজ দেন| তারা আমাদেরকে নোহ, জ্যাক ও এরনের কথা স্মরণ করিয়ে দেন| তারা এখনও বয়সে নবীন, কিন্তু তাদেরকে ডিকন হিসাবে অভিষিক্ত করা হয়েছে কারণ আমরা জানি যে ঈশ্বরের সমস্ত বিষয় তারা চালনা করতে পারেন| আর ঈশ্বর জানেন যে আরও কঠিনতর পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে গেলেও তিনি তাদের বিশ্বাস করতে পারেন|
রাজা নবূখদ্নিৎসর ক্রমবর্দ্ধমানভাবে শক্তিশালী ও অহংভাবপূর্ণ হয়ে পড়ছিলেন| আপন গর্বে গর্বিত হয়ে রাজা তার নিজের একটি বিশাল মূর্তি তৈরী করিয়েছিলেন| সেটা প্রায় নব্বই ফুট উঁচু ছিল, আর এটা সোনা বা সোনার পাত দিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছিল| নবূখদ্নিৎসর তার নিজের এই বিরাটাকার মূর্তিটি ‘‘দূরা সমস্থলীতে’’ (দানিয়েল 3:1) স্থাপন করেছিলেন| এবার দানিয়েল 3:4-6 পদগুলি শুনুন|

‘‘তখন ঘোষক উচ্চৈঃস্বরে কহিলেন, ‘হে লোকবৃন্দ, জাতিগণ ও নানা ভাষাবাদিগণ, তোমাদের প্রতি এই আজ্ঞা দত্ত হইতেছে; যে সময়ে তোমরা শৃঙ্গ, বংশী, বীণা, চতুস্তন্ত্রী, পরিবাদিনী ও মৃদঙ্গ প্রভৃতি সর্ব্বপ্রকার যন্ত্রের বাদ্য শুনিবে, তৎকালে রাজা নবূখদ্-নিৎসরের স্থাপিত স্বর্ণময় প্রতিমার সম্মুখে উপুড় হইয়া প্রণাম করিবে| যে কোন ব্যক্তি উপুড় হইয়া প্রণাম না করিবে, সে তদ্দন্ডেই প্রজ্বলিত অগ্নিকুন্ডে নিক্ষিপ্ত হইবে’’’ (দানিয়েল 3:4-6)|

এই অনুবাদের মূল ব্যাখ্যা হল যে ব্যাবিলীয় বন্দিত্বের সময়েও ঈশ্বর তাঁর ব্যবস্থাধীন ইস্রায়েলীয়দের সযত্নে রক্ষা করবেন| এটাই হচ্ছে ব্যাখ্যা এবং মূল প্রয়োগ| কিন্তু সেইসঙ্গে আরও একটা প্রয়োগ আছে| II তীমথিয় 3:16-17 পদগুলি আমাদের বলছে যে বর্তমানে সমস্ত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের জন্যে ‘‘প্রত্যেক শাস্ত্রলিপি ঈশ্বর-নিশ্বসিত এবং উপকারী|’’ দানিয়েলের এই অধ্যায়ে আমাদের বলছে যেমন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হলেন প্রয়োগের দ্বারা| সেই তিনজন নবীন ইব্রীয় লোকদের বলা হয়েছিল যে বাকি সমস্ত ব্যাবিলনের প্রত্যেকের সঙ্গে তাদেরকেও সেই স্বর্ণময় প্রতিমার আরাধনা করতে হবে| নতি স্বীকার করার জন্যে, জনতার সঙ্গে যাওয়ার জন্যে, ‘‘রাজা নবূখদ্নিৎসরের [দ্বারা] স্থাপিত স্বর্ণময় প্রতিমার সম্মুখে উপুড় হইয়া প্রণাম করিবে’’ (দানিয়েল 3:5) তার জন্যে তাদের চাপ দেওয়া হয়েছিল|
এখানে রাজা নবূখদ্নিৎসর হলেন শয়তানের একটি প্রতীক বা বর্ণনা| নূতন নিয়ম শয়তানকে ‘‘এই যুগের দেব’’ (II করিন্থীয় 4:4) বলে অভিহিত করে| শয়তান আমাদের নত হওয়ার এবং তার আরাধনা করার আহ্বান করে| কিন্তু খ্রীষ্ট আমাদেরকে পৃথক হওয়ার আহ্বান জানান| খ্রীষ্ট বলেছেন,

‘‘কেহই দুই কর্ত্তার দাসত্ব করিতে পারে না...তোমরা ঈশ্বর এবং ধন (জড়পদার্থ) উভয়ের দাসত্ব করিতে পার না’’ (মথি 6:24)|

আপনাকে বেছে নিতে হবে| শয়তান আপনাকে জড়পদার্থের প্রতি আনত হতে বলে| ঈশ্বর আপনাকে একমাত্র তাঁর সামনে আনত হওয়ার আহ্বান জানান| ঈশ্বর বলেন, ‘‘আমার সাক্ষাতে তোমার জন্য অন্য দেবতা না থাকুক’’ (যাত্রাপুস্তক 20:3)| এটা হচ্ছে সেই দশটি আজ্ঞার একটি|

এই তিনজন ইব্রীয়, শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো, এদেরকেও বেছে নিতে হয়েছিল| তারা কি স্বর্ণময় প্রতিমার সামনে উপুড় হবে? নাকি তারা সেই স্বর্ণময় প্রতিমার সামনে উপুড় হতে অস্বীকার করবে? এই যুবকদের সামনে বিভিন্ন বিকল্প ছিল| তারা বলতে পারতেন, ‘‘একজন নাগরিক হিসাবে রাজার সামনে নত হওয়া এবং তাহাকে মান্য করা আমাদের কর্তব্য|’’ অথবা তারা বলতে পারতেন, ‘‘ইহা কেবলমাত্র আকারের বিষয়| ঈশ্বর জানেন যে এমনকী যদিও আমরা প্রতিমার সম্মুখে উপুড় হইতেছি, তাহা সত্বেও আমাদের অন্তর হইতে আমরা তাঁহাকে ভালবাসি|’’ তারা উপুড় হতে পারতেন এবং কোন ঝামেলাতে তাদের পড়তে হত না| বাইবেল বলে, ‘‘অদ্য মনোনীত কর তোমরা কাহার সেবা করিবে’’ (যিহোশূয় 24:15)|
জগত যাকে ‘‘ছুটির দিন’’ বলে আমরা সেইদিকে যেহেতু এগিয়ে চলছি, সেহেতু আপনাদের প্রত্যেককে সেই মনোনয়ন করতে হবে| আপনি শয়তানের প্রতি আনত হবেন, বা আপনি ঈশ্বরের প্রতি সত্য থাকবেন? খ্রীষ্টমাসের সময়ে আপনি মন্ডলীতে থাকবেন, না কি আপনি লা ভেগাসের দিকে দৌড় লাগাবেন? নতুন বছরের প্রাক্কালে আপনি মন্ডলীতে থাকবেন, না কি আপনি একটা পার্টিতে যাবেন? আমেরিকান জড়বাদের স্বর্ণপ্রতিমার সামনে আনত হবেন, না কি আপনি মন্ডলীতে ঈশ্বরের লোকদের সঙ্গে থাকবেন? এই ধরনের বক্তব্য রাখার জন্যে আমি দুর্বল নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তদের দ্বারা তীব্রভাবে সমালোচিত হয়েছি| তারা বলেছেন আমি অত্যন্ত কঠোর| তারা বলেছিলেন ঈশ্বর ও ধনসম্পদের মধ্যে কোনটি মনোনীত করবেন তা আপনাকে স্থির করতে দেওয়াটাই বিধিসঙ্গত ছিল| কিন্তু তারা ভুলে গেছিলেন যে আমি সেই দ্বি-বিভাজন স্থাপন করিনি| সেই পার্থক্য আমি সৃষ্টি করিনি| খ্রীষ্ট করেছিলেন! ইনি প্রভু যীশু খ্রীষ্ট যিনি বলেছিলেন, ‘‘কেহই দুই কর্ত্তার দাসত্ব করিতে পারে না|’’ ইনি প্রভু যীশু খ্রীষ্ট যিনি বলেছিলেন, ‘‘তোমরা ঈশ্বর এবং ধন উভয়ের দাসত্ব করিতে পার না’’ (মথি 6:24)| ইনি প্রভু যীশু খ্রীষ্ট যিনি আমাদের বলেছিলেন,

‘‘কিন্তু তোমরা প্রথমে তাঁহার রাজ্য ও তাঁহার ধার্ম্মিকতার বিষয়ে চেষ্টা কর’’ (মথি 6:33)|

মথি 6:33 পদের বিষয়ে রিফর্মেশন স্টাডি বাইবেল বলছে, ‘‘ঈশ্বরের সর্বভৌম নিয়ম এবং তাঁহার প্রতি একটি সঠিক সম্পর্ক গঠনকে আমাদের নিজেদের জীবনে সর্ব্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হইবে...ঈশ্বর তাহাদের সমস্ত চাহিদা পূরণ করিবেন যাহারা তাঁহার জন্য সমস্ত ঝুঁকি গ্রহণ করিয়াছেন’’ (মথি 6:33 পদ বিষয়ক টীকা)|

খ্রীষ্টমাস এবং নববর্ষের সময়ে আপনাকে মন্ডলী থেকে টেনে দূরে সরিয়ে রাখতে আপনার পরিবার ও আপনার হারানো বন্ধুরা একটা বড় প্রয়াস চালাবেন| লা ভেগাস, সানফ্রানসিস্কো, বা অন্য কোথাও যাওয়ার পরিবর্তে, সেইসময়ে আপনি যদি মন্ডলীতে থাকেন তো তারা আপনাকে ‘‘অদ্ভুত’’ বা ‘‘অন্ধবিশ্বাসী’’ বলবেন! হয় আপনি তাদের প্রতিমার সামনে উপুড় হবেন - অথবা এখানে মন্ডলীতে থেকে ঈশ্বরের সেবা করবেন তার সিদ্ধান্ত আপনাকে নিতে হবে! আপনাকে স্থির করতে হবে!
সব সময় যখন আমি চীনা মন্ডলীতে আমার ভাই ও বোনেদের সঙ্গে থেকে নতুন বছরের প্রাক্কাল অতিবাহিত করতে চাইতাম, আমার নিজের বাবা পাগল হয়ে যেতেন এবং আমার উপরে চেঁচামেচি শুরু করে দিতেন| তিনি চেঁচাতেন এই বলে যে, ‘‘তোমার পরিবারের বদলে কেন তুমি ঐসব চীনা লোকদের সঙ্গে থেকে প্রাক্ নববর্ষ উদযাপন করবে?’’ আমি তার সঙ্গে তর্ক করত্যাম না| কেবল খ্রীষ্টমাস ও নববর্ষে আমি মন্ডলীতে থাকা অব্যহত রাখতাম| আমি তাকে আমার সঙ্গে মন্ডলীতে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানাতাম| যখন তিনি তা প্রত্যাখান করতেন আমি খালি নিজেকে বলতাম, ‘‘আপনি হলেন সেই একজন লোক যিনি পরিবার বিভাজনরত! আপনি হলেন সেই লোক যিনি আমার সঙ্গে মন্ডলীতে আসতে অস্বীকার করছেন!’’

আপনি দেখুন, এটা সেই ধরনের একটা মনোভাব যা একজন সাধারণ খ্রীষ্ট বিশ্বাসী এবং একজন প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীর মধ্যে পার্থক্যের সৃষ্টি করে! যদি কোন কোমল মানসিকতার নব্য-সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচারের সঙ্গে আপনার যোগাযোগ থাকে, তাহলে সেটা আপনার জীবনে ঈশ্বরের ক্রিয়ার ভূমিকা নেয় এটা দেখতে যে তাদের ধর্ম সমঝোতামূলক - দিয়াবলের সঙ্গে একটা সমঝোতা! আমাদের নবীনদের মধ্যে যারা আন্তরিক খ্রীষ্টবিশ্বাসী তাদের কোন একজনের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপন করা আপনার পক্ষে প্রকৃতই অসম্ভব হয়ে পড়ে| হয় তারা সমঝোতা করবে আর নিজেদের আন্তরিকতা ত্যাগ করবে - অথবা আপনাকে আপনার সমঝোতা ত্যাগ করতে হবে এবং একজন অতি সাধারণ (শুধুমাত্র নামে) সুসমাচার সংক্রান্ত হওয়ার পরিবর্তে - আপনাকে একজন প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হতে হবে! আমরা সমঝোতা করতে যাচ্ছি না! কাজেই, এর তুলনায় এটাই ভাল হবে যে আপনিই অভ্যাস করে নিন - হয় সেটা করুন, অথবা অন্য মন্ডলীতে চলে যান! সি. এস. লিউইস ভাল বলেছিলেন, ‘‘স্বধর্ম্মত্যাগী পিউরিটানদের মধ্যে বসবাসরত থাকিয়া, আমি এক মন পরিবর্তনকারী পরজাতীয় হইয়াছি|’’ যেমন কিপলিং বলেছিলেন, ‘‘পূর্ব হইতেছে পূর্বদিকে এবং পশ্চিম হইতেছে পশ্চিমদিকে, এবং দুইটি দিক কখনও মিলিত হইবে না|’’ সুসমাচার সংক্রান্ত মতবাদ হচ্ছে সুসমাচার সংক্রান্ত মতবাদ, এবং মৌলবাদ হল মৌলবাদ, এবং সেই দুটি কখনও মিলিত হবে না| আমাদের সঙ্গে আসুন এবং একজন প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হন! আপনার মৃত এবং মূল্যহীন নব্য-সুসমাচার সংক্রান্ত ধর্ম বিসর্জন দিন! পরিত্যাগ করুন! আসুন আমাদের সঙ্গে আর প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হন|
আপনি জানবেন, কোন ব্যক্তিকে নষ্ট করতে নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তদের সঙ্গে খুব বেশি যোগাযোগ রাখার দরকার হয় না| মাত্র কয়েক মাসের জন্যে তাদের সঙ্গে থাকুন - তাদের স্কুলে বা তাদের মন্ডলীতে যাতায়াত করুন - এবং আমাদের সঙ্গে আপনার ফিরে আসার জন্যে আপনাকে ঈশ্বরের একটা অলৌকিক কাজের সাহায্য নিতে হবে! আমাদের মত করে চিন্তা করতে হলে আপনার জন্যে ঈশ্বরের মন পরিবর্তনের অলৌকিক কাজের সাহায্য নিতে হবে! জর্জ বার্ণার্ড শ বলেছিলেন যে যাদের শিশুর মতন সামান্য মাত্রাতে খ্রীষ্টধর্মের টিকা লাগানো হয়েছে সেই সমস্ত লোক কদাপি প্রকৃত জিনিষটি পায়| ডঃ কার্টিস হাটসন, ‘‘নতুন সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচার, মৌলবাদের শত্রু’’ নামে একটি ছোট বই লিখেছিলেন| তিনি ঠিক লিখেছিলেন| তারা হলেন আমাদের শত্রু| আমরা যতটা সুন্দর হতে পারি ততটাই তাদের প্রতি হয়ে থাকি - কিন্তু তারা সর্বদা আমাদের আক্রমণ করবেন! কেন? কারণ তারা আন্তরিক খ্রীষ্টধর্ম পছন্দ করেন না, সেটাই হল কারণ! স্বধর্ম্মত্যাগী নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তদের মধ্যে বসবাস করে, আমি এক মন পরিবর্তনকারী পরজাতীয় হয়েছি! বহু বছর ধরে, আমি শিখেছি তাদের থেকে আশা করতে যে, তারা আমার বিশ্বাসকে অপছন্দ করবেন এবং আমার বিরুদ্ধে কথা বলবেন! সেটাও আপনার শেখার দরকার রয়েছে - যদি আপনি একটা প্রকৃত মন পরিবর্তনের অভিজ্ঞতা পেতে চান, এবং একজন প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হতে চান!

আপনি দেখুন, নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তরা প্রকৃতপক্ষে বাইবেল বিশ্বাস করেন না| তারা প্রকৃতপক্ষে বিশ্বাস করেন না যে তাদের অন্তঃকরণ ‘‘সর্ব্বাপেক্ষা বঞ্চক এবং অপ্রতিকার্য্য’’ - যার অর্থ এই যে তারা যিরমিয় 17:9 পদে বিশ্বাস করেন না| তারা মনে করেন যে তারা অন্যান্যদের মতন অতটা খারাপ নন, কাজেই তারা স্বর্গে প্রবেশ করতে পারবেন কারণ তারা অন্য লোকদের মতন অতটা খারাপ নন| এর অর্থ যে তারা বাইবেল বিশ্বাস করেন না, ‘‘কেননা যে কেহ আপনাকে উচ্চ করে, তাহাকে নত করা যাইবে’’ (লূক 18:14); ‘‘হে ঈশ্বর, আমাকে অনুসন্ধান কর, আমার অন্তঃকরণ জ্ঞাত হও; আর দেখ, আমাতে দুষ্টতার পথ পাওয়া যায় কি না’’ (গীতসংহিতা 139: 23, 24)| নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তেরা পাপের চেতনার অধীনে আসেন না, কারণ তারা আন্তরিকভাবে বাইবেলকে গ্রহণ করেন না| তারা নিজেদের জন্যে অজুহাত খাড়া করেন: সেইজন্যে তাদের পরিত্রাণ করা যায় না| তারা শুধুই ধর্ম্মত্যাগী পিউরিটান হতে পারেন| ডঃ এ. ডব্লিউ. টোজার বলেছেন, ‘‘বিশ্বের সর্ব্বাপেক্ষা যুক্তিগ্রাহ্য বই হইতেছে বাইবেল| ঈশ্বর বাস্তব, এবং সেইমতন পাপও বাস্তব এবং মৃত্যু ও নরকও, অবশ্যম্ভাবীভাবে যাহার দিকে পাপ আমাদের চালিত করে’’ (মধ্যরাত্রির পরে জন্মগ্রহণ)|
এই নবীন যুবকেরা নব্য-সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচারক ছিলেন না| তারা ভ্রান্ত, অবাস্তব ঈশ্বরানুভূতি এবং পাপের বিচারের দ্বারা বিষাক্ত হননি| শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো ছিলেন অন্তরে কঠিন, বাইবেল-বিশ্বাসী মৌলবাদী| ঈশ্বরের ভয়ে তারা কম্পিত থাকতেন| তারা ঈশ্বরকে এত ভয় পেতেন যে ঈশ্বরকে অবজ্ঞা করা এবং রাজার প্রতিমার সামনে উপুড় হওয়ার পরিবর্তে তারা জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মারা যেতেও রাজি ছিলেন| বাইবেল বলে, ‘‘সদাপ্রভুর ভয় জ্ঞানের আরম্ভ’’ (হিতোপদেশ 1:7)| কিন্তু নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তেরা ঈশ্বরকে ভয় করেন না| বাইবেল বলে, ‘‘ঈশ্বর-ভয় তাহাদের চক্ষুর অগোচর’’ (রোমীয় 3:18)| স্বয়ং নিজের একটা পরীক্ষা নিন| এই নবীন যুবকদের মতন আপনিও কি ঈশ্বরকে ভয় করেন? অথবা সেখানে কি ‘‘ঈশ্বর-ভয় আপনার চক্ষুর অগোচর’’? যদি সেখানে ঈশ্বর-ভয় না থাকে, তবে আপনি হলেন একজন নব্য-সুসমাচার সংক্রান্ত| ঈশ্বরকে আপনার ভয় করা উচিৎ! বাইবেল থেকে আপনাকে বলা হয়েছে যে আপনি দিশাহারা হয়েছেন! এটা কি আপনাকে বিব্রত করে? এটা কি আপনাকে রাত্রে বিনিদ্র রাখে, নরকের ভয়ে? যদি এরকম না হয় তবে আপনি নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তদের দ্বারা বিষাক্ত হয়েছেন যাদের সংস্পর্শে আপনি এসেছিলেন| এটা বিষ! এটা বিষ! এটা বিষ! ঈশ্বরের ক্রোধের ভয়ে আপনার ভীত হওয়া উচিৎ!

সেই রাজা তাদের বলেছিলেন, ‘‘যদি প্রণাম না কর, তবে সেই দন্ডেই প্রজ্বলিত অগ্নিকুন্ডে নিক্ষিপ্ত হইবে; আর এমন দেবতা কে যে, আমার হস্ত হইতে তোমাদিগকে উদ্ধার করিবে?’’ (দানিয়েল 3:15)|
এই তিন যুবক পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন| তারা সদাপ্রভুকে ভয় করতেন| তারা সদাপ্রভুকে বিশ্বাস করতেন| পূর্ববর্তী বছরগুলিতে তারা ব্যাবিলনীয়দের পাপের সঙ্গে নিজেদের খাপ না খাওয়ানোর শিক্ষা গ্রহণ করেছিলেন| তারা ঈশ্বরের সামনে একাকী দাঁড়ানোর শিক্ষা নিয়েছিলেন!

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহস কর!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহস কর!
   ইহা জানাইতে সাহস কর!
(“Dare to be a Daniel,” Philip P. Bliss, 1838-1876) |

উঠে দাঁড়ান এবং এই গানটি করুন!

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহস কর!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহস কর!
   ইহা জানাইতে সাহস কর!

আমি মাত্র এক যুবক ছিলাম| আমি একাকী ছিলাম! আমার কাছে কোন অর্থ ছিল না! আমাকে সাহায্য করার মতন কেউ ছিলেন না! ডঃ গ্রীন আমাকে দেখেন এবং বলেন, ‘‘যদি আপনি বাইবেল-প্রত্যাখানকারী অধ্যাপকদের প্রশ্নের উত্তর করা বন্ধ না করেন, তো আপনি কখনও সাউদার্ণ ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীর পালক হতে পারবেন না!’’ ঈশ্বরের পক্ষে একাকী দাঁড়ানোর শিক্ষা আমি পেয়েছিলাম| কলেজ করার সময়েও আমি আমার মত করে কাজ করে গেছি| সপ্তাহে সাতদিন, দিনে 16 ঘন্টা করে আমি কাজ করেছি - কলেজ ও সেমিনারিতে আমার নিজের খরচ চালানোর জন্যে| মানুষের তুলনায় বরং, ঈশ্বরকে ভয় পেতে আমি শিখেছিলাম| ডঃ গ্রীন বলেছিলেন, ‘‘যদি আপনি বাইবেল-প্রত্যাখানকারী অধ্যাপকদের প্রশ্নের উত্তর করা বন্ধ না করেন, তো আপনি কখনও সাউদার্ণ ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীর পালক হতে পারবেন না|’’
আমি সরাসরি ঠিক তার চোখের দিকে তাকিয়েছিলাম আর বলেছিলাম, ‘‘যদি এর মূল্য সেটাই হয় তো আমি তা চাই না!’’ আমি সেটা চাই না যার জন্যে এই মূল্য দিতে হবে! আমি সেটা চাই না!

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহস কর!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহস কর!
   ইহা জানাইতে সাহস কর!

আমার কোন নিরাপত্তা বেষ্টনী ছিল না! আমি ভেবেছিলাম যে আমার জীবনের অগ্রগতি এখানেই শেষ| আমি ভেবেছিলাম যে আমি কলেজে চার বছর এবং সেমিনারিতে তিন বছর নষ্ট করলাম| কিন্তু আমি আর উদ্বিগ্ন হইনি| বাইবেলের পক্ষে আমাকে তা করতেই হত! এমনকী সেটা আমাকে করতেই হত যদি তার অর্থ এই হত যে পালক হওয়ার জন্যে আমার কাছে কোন মন্ডলী থাকত না তবুও! এমনকী তারা যদি আমাকে একটা জ্বলন্ত, অগ্নিগর্ভ কুন্ডে নিক্ষেপ করতেন তাহলেও! এমনকী আমি যদি কখনও একটা মন্ডলী না পাই তাহলেও!

যদি এর মূল্য সেটাই হয়তো আমি তা চাই না! আমি কি ভয় পেয়েছিলাম? অবশ্যই আমি ভয় পেয়েছিলাম! কিন্তু গত সপ্তাহে আমি আমার জীবন কাহিনী লেখা শেষ করেছি| এই হচ্ছে আমার বই এর শিরোনাম - সমস্ত ভয়ের বিরুদ্ধে!

অনেক মহান এবং বিখ্যাত প্রচারক আমার বইটিকে সমর্থন করেছেন| তাদের বিবৃতিগুলি মলাটের উপরে দেওয়া আছে! ডঃ বিল মনরোই, ব্যাপটিষ্ট বাইবেল ফেলোশিপের ভূতপূর্ব সভাপতি, বলেছেন, ‘‘লস এঞ্জেল্সের ডাউনটাউন - বর্তমানের ব্যাবিলনে হেইমার্স হলেন একজন আধুনিক কালের দানিয়েল| তার কাহিনী পড়ুন এবং আশীর্বাদিত হন, ঠিক যেমন আমি হয়েছি!’’

ডঃ নীল ওয়েভার, লুইসিয়ানা ব্যাপটিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি, লিখেছেন - হেইমার্স হলেন ‘‘সমস্ত প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে [তার] দৃঢ় প্রত্যয় প্রতিপাদনে সংগ্রাম করতে অকুতোভয়| সেই মানুষটি আমার উত্তম বন্ধু, ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র|’’

ডঃ হারবার্ট রওলিংস, ডঃ জন্ রওলিংস এর ছেলে, এবং রওলিংস ফাউন্ডেশনের সিইও, বলেছেন, ‘‘একজন আদি আমেরিকান! একজন স্বপ্নদর্শী! তার জীবনই খ্রীষ্টের জন্যে অন্যকে অনুপ্রাণিত করার প্রতি তার আবেগকে প্রদর্শন করায়|’’

ক্যালিফোরনিয়ার, সান্টা আনা মন্ডলীর পালক, ডঃ ড্যান ডেভিডসন, বলেছেন, ‘‘সেই সব বাধাসমূহ...ডঃ হেইমারসের পথে যা ছড়িয়ে ছিল, অধিকাংশ লোকদের সেবাকাজ থেকে দূরে সরিয়ে রাখত - কিন্তু ডঃ হেইমারস সেগুলি সব অতিক্রম করেছিলেন!’’

রেভা. রজার হফম্যান লিখেছেন, ‘‘আমি গভীরভাবে এই বইটির সুপারিশ করছি| আপনি একজন পালক হলে বা না হলেও, বইটি আপনাকে প্রেরণা দেবে এবং আপনার বিশ্বাস বৃদ্ধি করবে|’’

ডঃ রবার্ট এল. সামার বলেছেন, “আমি সম্মান এবং শ্রদ্ধা করি একজন মানুষকে যিনি সত্যের পক্ষে দাঁড়াতে প্রস্তুত এমনকী যখন সমস্ত অস্বাভাবিক বিষয় তার বিরুদ্ধে থাকে তখনও| রবার্ট লেস্লী হেইমার্স, জুনিয়র, হলেন সেই ধরনের একজন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী!”

সাউথওয়েস্টার্ণ [সাউদার্ণ] ব্যাপটিষ্ট থিয়োলজিকাল সেমিনারির অগাস্ট প্রেসিডেন্ট এবং বিখ্যাত মানুষ, ডঃ পাইগ পেটারসন লিখেছেন, ‘‘সমস্ত ভয়ের বিরুদ্ধে বইটি হচ্ছে রবার্ট এল. হেইমার্স, জুনিয়র, সুসমাচারের বিশ্বাসী এক প্রচারকের অসম্ভাব্য এবং অলৌকিক জীবন কাহিনী| এই বইটি পড়ুন এবং আপনি ঈশ্বরের আশীর্বাদ লাভ করবেন|’’

ডঃ বব জোন্স III, বব জোন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য্য, লিখেছেন, ‘‘তার আত্মজীবনী তাকে প্রকাশ করছে...পুরানো নিয়মের একজন ভাববাদী সদৃশ করে... আমি এবং আমার আগে আমার পিতা, গর্বিতভাবে নিজেদের ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র'এর বন্ধু বলে উল্লেখ করছি|’’

ডঃ ক্রেইগটন এল. চান লিখেছেন, ‘‘এই বইটি পড়ুন এবং আপনার ব্যর্থতার সব ভয় জানালা দিয়ে উড়ে বেরিয়ে যাবে! ডঃ হেইমার্সের জীবন থেকে আপনি শক্তি সঞ্চয় করবেন| এই বইটি পড়ুন! এটা আপনাকে প্রেরণা দান করবে|’’

ইন্দোনেশিয়ার ডঃ এডি পুরওয়ান্টো লিখেছেন, ‘‘ঈশ্বর যখন একজন মানুষের সঙ্গে থাকেন তখন তাকে পরাস্ত করা যায় না| ডঃ হেইমার্স হলেন একজন আদর্শ পুরুষ যিনি অনেক মারাত্মক সংগ্রাম করে বেঁচে আছেন|’’

আমি আরও যেতে পারতাম এবং আরও পড়তে পারতাম, কিন্তু এইটুকুই যথেষ্ট| নায়ক হিসাবে আমি নিজেকে মনে করি না| আমি শুধু একজন মানুষ, শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো এর মতন, শুধু একজন মানুষ| শুধু একজন মানুষ যিনি সেই বাইবেল প্রত্যাখানকারী উদারপন্থীদের সামনে নত না হয়ে, হলিউডের যীশুকে আক্রমণ করার সময়ে হলিউডের সামনে নত না হয়ে শুধু ঈশ্বরকে যথেষ্ট ভয় পেতেন, শুধু একজন মানুষ যিনি রিচার্ড ওলিভাস, বা লস এঞ্জেল্স টাইমস্, বা আমেরিকার টিভিতে প্রত্যেক খবরের অনুষ্ঠানের সামনে নত হননি| শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো এর মতন, শুধু একজন মানুষ!
এই বিষয়ে আপনাকে উত্তর করতে আমরা যত্নবান নই| যদি তাই হয়, হে রাজা, আমরা যার সেবা করি আমাদের সেই ঈশ্বর, জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ড থেকে আমাদের মুক্তি দিতে সক্ষম এবং তিনি আমাদেরকে আপনার কবল থেকে মুক্ত করবেন| কিন্তু যদি না হয় (হাঃ! হাঃ! - এটাই হয়!)| ‘‘আর যদি নাও হয়, তবু হে রাজন্, আপনি জানিবেন, আমরা আপনার দেবগণের সেবা করিব না, এবং আপনার স্থাপিত স্বর্ণ-প্রতিমাকে প্রণাম করিব না|’’ মিঃ ম্যানুয়েল মেনসিয়া আমাকে একটা ফলক দিয়েছিলেন যেটা এখানে মন্ডলীতে আমার অফিসে, আমার ডেস্কের উপরে রাখা আছে| সেই ফলকের উপরে মিঃ মেনসিয়া ব্যাবিলনের সেই নায়কদের থেকে পাওয়া শব্দগুলি খোদাই করে দিয়েছিলেন, আর যদি নাও হয়! ঈশ্বর আমাদের উদ্ধার করতে পারেন| আর যদি নাও হয় - এমনকী যদি আমরা জ্বলন্ত পুড়ে মারা যাই, তাও ‘‘আমরা আপনার দেবগণের সেবা করিব না, এবং আপনার স্থাপিত স্বর্ণ-প্রতিমাকে প্রণাম করিব না|’’

আমার প্রিয় যুবক বন্ধুগণ, আপনারা আমাকে অনেকবার প্রচার করতে শুনেছেন| আমি আপনাদের জন্যে খুব গর্বিত! আপনাদের মধ্যে তাদের সম্বন্ধে আমি বড়াই করি যারা আমি যেখানেই যাই সেখানেই পরিত্রাণ লাভ করেন| কিন্তু আপনাদের কয়েকজন এখনও উদ্ধার লাভ করেননি| আপনাদের অবশ্যই নব্য-সুসমাচার সংক্রান্তদের বেড়ী ও শিকল ছুঁড়ে ফেলতে হবে! আপনাদের অবশ্যই যীশুর কাছে আসতে হবে| আপনাদের অবশ্যই পরিত্রাতার উপরে নিজেদের সমর্পণ করতে হবে যিনি আপনাদের জন্যে মৃত্যুবরণ করেছেন| নিজেকে যীশুতে সমর্পণ করুন| তিনি আপনাকে রক্ষা করতে পারেন| তিনি আপনার পাপের ক্ষমা করতে পারেন এবং আপনাকে অনন্ত জীবন দান করতে পারেন| আপনি বলছেন, ‘‘তিনি আমাকে নাও উদ্ধার করতে পারেন|’’ আমাদের নবীন ইব্রীয় নায়কদের কথা দিয়েই আমি এর উত্তর করছি, ‘‘আর যদি নাও হয়, তবু হে শয়তান, আপনি জানিবেন যে, আমরা আপনার দেবগণের সেবা করিব না এবং জড়বাদের স্বর্ণ-প্রতিমাকে প্রণাম করিব না, আমাদের প্রলোভিত করিতে যাহা আপনি স্থাপন করিয়াছেন!’’
কিভাবে তারা এত নিশ্চয়তা অর্জন করেছিলেন? যদি তারা নিজেদের বিশ্বাস করেছিলেন তবে দিয়াবল তাদের স্মরণ করিয়ে দিতেন যে তারা কতখানি দুর্বল ছিলেন| কিন্তু তারা নিজেদের শক্তিতে বা নিজেদের ক্ষমতায় বিশ্বাস করেননি| তারা খ্রীষ্টে বিশ্বাস করেছিলেন (কারণ তিনি তাদের সঙ্গে অগ্নিকুন্ডে ছিলেন)| ‘‘খ্রীষ্টে বিশ্বাস করুন,’’ আপনি বলছেন, ‘‘সর্বসাকুল্যে এইটুকুই কি আমার দরকার?’’ হ্যাঁ, সর্বসাকুল্যে এটাই আপনার দরকার| আমি জানি, সেখানে এমন অনেক সময় আসে যখন আমার বিশ্বাস করার মতন এছাড়া অন্য কিছুই ছিল না! আমি খুব দুর্বল ও অসহায় বোধ করেছি| কিন্তু খ্রীষ্ট সর্বদা আমাকে রক্ষা করেছেন, এমনকী আমার দুর্বলতার সময়েও| প্রত্যেক দুর্বলতা এবং প্রলোভনের মধ্যেও খ্রীষ্ট আমাকে নিরাপদ রেখেছেন| মহান স্পারজিয়ন বলেছিলেন, ‘‘যদি আপনি খ্রীষ্টে বিশ্বাস করেন এবং আপনার নরকভোগ হয়, তবে আমিও আপনার সঙ্গে নরকভোগ করব| কারণ আমার পরিত্রাণের একমাত্র আশা খ্রীষ্টের মধ্যে নিহিত আছে| আমি যীশুতে বিশ্বাস করি এবং তিনিই আমার শক্তি ও আমার পরিত্রাণ|’’ আপনি বলছেন, ‘‘তিনি আমাকে পরিত্রাণ নাও করতে পারেন|’’ সেটাই হচ্ছে দিয়াবল| তার কথা শুনবেন না! যীশু কখনও একটিও আত্মা হারাননি যারা তাঁর উপরে বিশ্বাস স্থাপন করেছিল| তাদের একজনও হারাননি যারা যীশুকে বিশ্বাস করেছিলেন! আর তিনি সেটা কখনও করবেন না|

তাঁকে বিশ্বাস করার মানে কি? এটা রাত্রে বিছানাতে ঢুকে পড়ার মতন| আমাকে উপরে ধরে রাখবে বলে আমি বিছানাটিকে বিশ্বাস করি| আমি এর উপরে শুয়ে পড়ি এবং বিশ্রাম নিই| যীশুকে বিশ্বাস করার সেটাই হচ্ছে উপায়| খ্রীষ্টের উপরে শুয়ে পড়ুন| তাঁকে বিশ্বাস করুন ‘‘প্রতিটি বিশাল ঝঞ্ঝাবহুল প্রবল বাতাসেও|’’ তাঁকে বিশ্বাস করুন যখন "আপনার চতুর্দিকের সব আত্মা ছেড়ে চলে গেছে| ‘‘সুন্দরতম কাঠামোর উপরে ঝোঁকাতে বিশ্বাস রাখার সাহস আমার নেই, কিন্তু যীশুর নামের উপরে আমি সম্পূর্ণভাবে ঝুঁকে পড়ি|’’ যীশুর উপরে ঝুঁকে পড়ুন| রাত্রে যেভাবে নিজের বিছানাতে নিজেকে ছুঁড়ে ফেলেন সেভাবেই নিজেকে তাঁর উপরে ছুঁড়ে ফেলুন| বিছানাটি আপনাকে পড়ে যেতে দেবে না| যীশু আপনাকে অসফল হতে দেবেন না| রাত্রে যেমন নিজের বিছানাকে বিশ্বাস করেন সেভাবেই তাঁকে বিশ্বাস করুন| তিনি আপনাকে সহায়তা দেবেন, এমনকী চরম মন্দ সময়েও| অভিজ্ঞতার মাধ্যমে আমি জেনেছি| ‘‘আর যদি নাও হয়, তবু হে রাজন্, আপনি জানিবেন, আমরা আপনার দেবগণের সেবা করিব না, এবং আপনার স্থাপিত স্বর্ণ-প্রতিমাকে প্রণাম করিব না|’’ খ্রীষ্টে বিশ্বাস করুন! খ্রীষ্টে বিশ্বাস করুন! আপনাকে রক্ষা করতে তিনি দুঃখভোগ করেছিলেন এবং আপনার পরিবর্তে নিজে মৃত্যুবরণ করেছিলেন| তাঁকে বিশ্বাস করুন এবং তিনি আপনাকে সহায়তা দান করবেন জীবনের ‘‘প্রতিটি বিশাল ঝঞ্ঝাবহুল প্রবল বাতাসেও!’’ প্রত্যেকটি প্রলোভন এবং ভীতিতে| প্রত্যেক পরিস্থিতিতে, এমনকী মৃত্যুতেও, যীশু আপনাকে অসফল করাবেন না!


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Dare to be a Daniel” (Philip P. Bliss, 1838-1876) |