Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 40টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




সেবাকাজে ডঃ হেইমার্স তাঁর ষষ্ঠিতম বার্ষিক অনুষ্ঠান উপলক্ষে
“আমার জীবনের আশীর্ব্বাদ” নামক বক্তৃতাটি দিচ্ছেন

DR. HYMERS SPEAKS ON HIS 60TH ANNIVERSARY IN MINISTRY
"THE BLESSINGS OF MY LIFE"
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2018 সালের, 8ই এপ্রিল, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায়
ক্যালিফোরনিয়ার, ইয়র্বা লিন্ডায় অবস্থিত,
রিচার্ড নিক্সন প্রেসিডেন্শিয়াল লাইব্রেরীতে প্রচারিত একটি ধর্ম্মোপদেশ
A sermon preached at the Richard Nixon Presidential Library,
Yorba Linda, California
Lord’s Day Evening, April 8, 2018


অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান যখন আমি আমার জীবনের পদটি পড়ছি|

“খ্রীষ্ট যিনি আমাকে শক্তি দেন, তাঁহাতে আমি সকলই করিতে পারি”
        (ফিলিপীয় 4:13)|

আপনারা বসতে পারেন|

আপনি হয়তো আশ্চর্য্য হয়েছেন যে কেন আমি আমার ষষ্ঠিতম বার্ষিক সেবাকাজের উদযাপনে নিক্সন লাইব্রেরী বেছে নিয়েছি| যখন আপনি আমার আত্মজীবনী পড়বেন আপনি আবিষ্কার করবেন যে কিভাবে আমি রাষ্ট্রপতি নিক্সনের থেকে আমার জীবন পদটি পেয়েছিলাম|

“খ্রীষ্ট যিনি আমাকে শক্তি দেন, তাঁহাতে আমি সকলই করিতে পারি”
        (ফিলিপীয় 4:13)|

আমার দুই বছর বয়েসে আমার বাবা আমাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন| আমি আর কখনও তার সঙ্গে থাকিনি| আমার 12 বছর বয়স পর্যন্ত আমি আমার মায়ের সঙ্গে ছিলাম| তারপর থেকে আমি এক জায়গা থেকে আর এক জায়গায় ঘুরে ঘুরে বাস করেছি, আমার আত্মীয়দের সঙ্গে যারা আমার থাকা পছন্দ করতেন না| উচ্চ বিদ্যালয় থেকে স্নাতক হওয়ার আগে আমি 22টি বিভিন্ন বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছিলাম| সবসময়ে আমি হতাম ‘‘নতুন ছাত্র|’’ ফলত আমি ছিলাম এক অনাথ| কিন্তু সবচেয়ে বড় ক্ষতি হয়েছিল যে আমি বাবা ছাড়াই বড় হচ্ছিলাম| আমি নিজে নিজেই বড় হচ্ছিলাম, কোন সহায়তা বা সমর্থন ছাড়া| কিন্তু সবার মধ্যে সবচেয়ে খারাপ ছিল, পথিকৃৎ হিসাবে আমার কাছে আমার বাবা ছিলেন না| সেইজন্য আমি ঐতিহাসিক চরিত্রগুলি দেখতে শুরু করেছিলাম এবং তাদের দেখে নিজেকে প্রস্তুত করে নিলাম যে একজন মানুষের কি হওয়া উচিৎ| এইসব মানুষেরা আমার আদর্শ হলেন|

আমি তাদের পার্থিব জীবনে কৃতকর্মের আদর্শ এবং খ্রীষ্টিয় জীবনে কৃতকর্মের আদর্শের হিসাবে শ্রেণীভূক্ত করেছিলাম| আমার আদর্শ সেই সব ব্যাক্তিরা ছিলেন যারা মহান পরীক্ষার সম্মুখীন হয়েছিলেন এবং সেইগুলিকে জয় করেছিলেন| আব্রাহাম লিঙ্কন, জন ওয়েসলী, রিচার্ড উর্মব্রান্ড এবং জন আর. রাইসের মতন ব্যক্তিরা আমার খ্রীষ্টীয় আদর্শ ছিলেন| আমার পার্থিব আদর্শ ছিলেন উইনস্টন চার্চিল, এবং রিচার্ড নিক্সন| নিক্সনের জীবনচরিতকারদের একজন বলেছিলেন, ‘‘তিনি কর্তব্যকাজে অন্তর্মূখী ছিলেন না কিন্তু ছিলেন আত্মপরীক্ষারত এক ব্যক্তি| অবিশ্বাস্যভাবে তিনি একজন সফল রাজনীতিবিদের পরিণত হইয়াছিলেন| লাজুক এবং পুস্তকপ্রিয়, তিনি জানিতেন যে তাহাকে হারিতে হইতে পারে, গণনার বাহিরে রাখা হইতে পারে, এবং তাহা সত্ত্বেও - সর্বদা এবং বাধা যাহাই হউক উহা কোন বিষয় নয় - পুনরায় উঠিয়া দাঁড়াও|’’ না, তিনি খ্রীষ্ট বিশ্বাসী ছিলেন না| কিন্তু, হ্যাঁ, তিনি সবসময়ে সংগ্রামের জন্যে ফিরে এসেছেন| বাইবেলের ফিলিপীয় 4:13 ছিল নিক্সনের প্রিয় পদ|

রাষ্ট্রপতি নিক্সন কেন বাইবেলের ঐ পদটি এত পছন্দ করতেন তা জানার পরে, আমি আর তাকে অপছন্দ করতে পারিনি| তিনি এত বাধা অতিক্রম করেছিলেন যে আমি তাকে এক জ্ঞাতিত্ব আত্মা হিসাবে দেখেছিলাম| আমার জীবনের সবচেয়ে অন্ধকারময় দিনগুলিতে, আমি প্রায়ই ভেবেছি, ‘‘যদি রিচার্ড নিক্সন ওয়াটারগেট নিয়েও বেঁচে থাকতে পারেন, তাহলে আমিও এই কাজটি করতে পারি|’’ সাংবাদিক ওয়াল্টার ক্রনকাইট বলেছিলেন, ‘‘যদি আপনি অথবা আমি রিচার্ড নিক্সন হইতাম, আমরা মারা যাইতাম|’’ আমার কাছে তিনি ছিলেন স্থির সংকল্পের মূল আদর্শ| নিক্সন বলেছিলেন, ‘‘একজন মানুষ শেষ হইয়া যান না যখন তিনি পরাজিত হন| তিনি শেষ হন যখন তিনি পলায়ন করেন|’’ কোন কিছুই তাকে আটকাতে পারতো না| 1960 সালে তিনি জন এফ. কেনেডির কাছে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে হেরে যান| 1962 সালে ক্যালিফোরনিয়াতে রাজ্যপালের দৌড়ে তিনি হেরে যান| 1968 সালে তিনি প্রেসিডেন্সীতে জয়লাভ করেন| ওয়াটারগেট এর জন্যে তাকে দপ্তর থেকে বের করে দেওয়া হয়| কিন্তু তিনি সবসময়ে আবার ফিরে এসেছেন| সেই কারণে, এমনকী তিনি খ্রীষ্ট বিশ্বাসী না হওয়া সত্ত্বেও, তিনি আমার পার্থিব আদর্শ পুরুষদের একজন|

প্রেরিত পৌল বলেছিলেন,

“খ্রীষ্ট যিনি আমাকে শক্তি দেন, তাঁহাতে আমি সকলই করিতে পারি”
        (ফিলিপীয় 4:13)|

তার মানে এই নয় যে আমি নিজের মাথায় চুল গজাতে পারি! এটা বোঝায় না যে আমি উড়তে পারি! এটা বোঝায় না যে আমি অঙ্কে ভাল ফল করতে পারি! প্রেরিত বোঝাতে চেয়েছেন যে তিনি সব পরীক্ষা সহ্য করতে পারেন, যে তিনি সব কর্তব্য সম্পাদন করতে পারেন, যে তিনি সব বাধা অতিক্রম করতে পারেন - খ্রীষ্টের মাধ্যমে যিনি তাকে শক্তিশালী করেন| আর আমি দেখেছি যে এটা আমাতেও সত্য| এই পদটির জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| কিন্তু আমাকে শক্তিশালী করতে খ্রীষ্ট দেওয়ার জন্যে আমি ঈশ্বরকে এমনকী আরও বেশী করে ধন্যবাদ দিই! আমি কলেজে অকৃতকার্য্য হয়েছিলাম, কিন্তু খ্রীষ্ট আমাকে ফিরে যাওয়ার ও তিনটি ডাক্তারী ডিগ্রী অর্জন করার শক্তি দিয়েছিলেন| আমি মিশনারি হতে পারিনি, কিন্তু আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খ্রীষ্ট আমাকে বিশ্বের চতুর্দিকের লোকদের কাছে এক শক্তির উৎসে পরিণত করিয়েছেন|

আর আপনি যেমন যেমন আমার বই পড়তে থাকবেন, আপনি দেখবেন মিঃ গ্রিফিথ এককভাবে যে গানটি এখনই গাইলেন সেটা আমার এত প্রিয় গান কেন|

প্রভু আমাদের আহ্বান করেছেন; পথ হয়ত বিষন্ন
   বিপদ ও দুঃখ পথের উপরে এলোমেলোভাবে ছড়ানো;
কিন্তু ঈশ্বরের পবিত্র আত্মা ক্লান্তকে সান্ত্বনা করিবে;
   আমরা পরিত্রাতাকে অনুসরণ করিব পশ্চাতে ফিরিতে পারি না;
প্রভু আমাদের আহ্বান করেছেন, যদিও সন্দেহ ও প্রলোভন
   হয়ত আমাদের ভ্রমণ পরিসর, তবুও আমরা আনন্দে গান করি:
অধিক তাড়নার মধ্যে, ‘‘এগিয়ে যাও, উর্দ্ধে দৃষ্টি কর;’’
   সিয়োনের সন্তান অবশ্যই তাঁহার রাজার অনুসরণ করে|
(“The Master Hath Come,” Sarah Doudney, 1841-1926) |

আমি আমার আত্মচরিত লিখেছি কারণ আমার পুত্র রবার্ট আমাকে লিখতে বলেছিল| এই লেখা আমি উপভোগ করিনি কারণ আমার জীবন খুবই বিপর্যয়, সংগ্রাম এবং বেদনায় পরিপূর্ণ| অনেকবার আমার মনে হয়েছে যেন পান্ডুলিপি ছুঁড়ে ফেলে দিই কারণ এটা অত্যন্ত নেতিবাচক| কিন্তু জন শমূয়েল কেগান বলেছিলেন, ‘‘ডঃ হেইমারস, এটা ফেলে দেবেন না| এর মধ্যে সর্বসাকুল্যে আর মাত্র একটি অধ্যায় যুক্ত করার দরকার রয়েছে| সেই সময়ের কথা বলুন যখন আপনার মা বলেছিলেন ‘গণনা কর তাঁর আশীর্ব্বাদ|’’’ আমি জনের কথা শুনেছিলাম আর শেষ অধ্যায়টি লিখলাম, যা আমি এখন আপনাদের সামনে রাখব সংক্ষিপ্ত আকারে|

হাসপাতালে আমি আমার মায়ের বিছানার পাশে বসে ছিলাম| সেটা ছিল ধন্যবাদদান অনুষ্ঠানের কয়েক সপ্তাহ পরের ঘটনা| আমরা আমাদের প্রিয় লোকদের মধ্যে একজন, আব্রাহাম লিঙ্কন এর সম্বন্ধে, এবং কিভাবে রাষ্ট্রপতি লিঙ্কন ধন্যবাদদান অনুষ্ঠানটিকে একটা জাতীয় ছুটির দিনে পরিণত করেছিলেন সেই প্রসঙ্গে কথা বলছিলাম| ধন্যবাদদান অনুষ্ঠানে আমরা যে গানটি গেয়েছিলাম আমরা দুজনে সেই গানটি করছিলাম|

জীবন তুফানে নিক্ষিপ্ত হও যখন,
হইয়া সর্ব্বস্বান্ত, নৈরাশ্যে গমন,
তখন, একে একে স্মর দয়া তাঁর,
প্রভু যাহা করেছেন তাহা চমৎকার|
কর গণনা তাঁর আশীর্ব্বাদ, এক এক করে স্মর তাঁর প্রসাদ,
নাম ও সংখ্যা কত যে তাঁহার, প্রভু যাহা করেছেন তাহা চমৎকার!
কর গণনা তাঁর আশীর্ব্বাদ, এক এক করে স্মর তাঁর প্রসাদ,
নাম ও সংখ্যা কত যে তাঁহার, প্রভু যাহা করেছেন তাহা চমৎকার|
   (“Count Your Blessings,” Johnson Oatman, Jr., 1856-1922) |

যখন আমরা গান শেষ করলাম, মা বললেন, ‘‘ওহ, রবার্ট, কৃতজ্ঞ হওয়ার জন্যে আমাদের জীবনে সত্যিই আমরা অনেক কিছু পেয়েছি|’’ তখন আমরা ‘‘এক এক করে’’ আমাদের পাওয়া আশীর্ব্বাদ গুণতে শুরু করলাম| আমার দুই ছেলে, রবার্ট ও জনের জন্যে ধন্যবাদ প্রদান দিয় আমার মা শুরু করেছিলেন| তারপরে তিনি আমার স্ত্রী, এলিনার জন্যে ধন্যবাদ দিলেন| ‘‘সে আমার প্রতি এত ভাল, রবার্ট, আর সে এমনই এক ভাল মা এবং স্ত্রী|’’ তিনি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিলেন এইজন্যে যে তিনি আমাদের ঘরে বসবাস করতেন| আমাদের মন্ডলীর জন্যে তিনি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিলেন| আমাদের মন্ডলীর সদস্যদের জন্যে তিনি ধন্যবাদ দিলেন, ‘‘এক এক করে|’’ তারপরে আমি অনেকগুলি জিনিসের কথা বললাম যাদের জন্য ধন্যবাদ দেওয়া দরকার| আর আমরা একসাথে এই গানটি আবার গাইলাম|

কর গণনা তাঁর আশীর্ব্বাদ, এক এক করে স্মর তাঁর প্রসাদ,
নাম ও সংখ্যা কত যে তাঁহার, প্রভু যাহা করেছেন তাহা চমৎকার|

সেদিন রাত্রি অনেক গভীর হয়েছিল| আমি তাকে চুম্বন করলাম, এবং যখন আমি কক্ষ ত্যাগ করছি আমার মা কিছু একটা বলেছিলেন যা আমি যতদিন বেঁচে থাকব কখনও ভুলব না| তিনি বলেছিলেন, ‘‘রবার্ট, তুমি হলে সর্বশ্রেষ্ঠ ঘটনা যা কখনও আমার প্রতি ঘটেছে|’’ আমার চোখদুটি জলে ভরে গেল যখন ঘর ছেড়ে বের হলাম, এবং সেই রাত্রে হাসপাতাল থেকে হাঁটতে হাঁটতে বেরিয়ে গেলাম| সেটাই ছিল তার সঙ্গে আমার হওয়া শেষ কথোপকথন| পরে সেই রাত্রে তিনি প্রবল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন যা তার জীবন নিয়ে নিয়েছিল|

‘‘আপনার বইটি ছুঁড়ে ফেলে দেবেন না, ডঃ হেইমারস| এর মধ্যে সর্বসাকুল্যে আর একটি অধ্যায় যুক্ত করা দরকার| সেই সময়ের কথা বলুন যখন আপনার মা বলেছিলেন ‘গণনা কর তাঁর আশীর্ব্বাদ|’’’ কাজেই এখানে অবিশ্বাস্য আশীর্ব্বাদের কয়েকটির উল্লেখ করছি যা ঈশ্বর আমাকে দিয়েছেন আমার জীবনের তীর্থযাত্রার মাঝে|

সর্বপ্রথম, আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই যে আমার মা শেষপর্যন্ত উদ্ধার লাভ করেছিলেন| তার বয়্স আশি বছর হয়েছিল আর আমি ভেবেছিলাম যে তিনি আর কখনও মন পরিবর্তন করবেন না| আমি নিউ ইয়র্কে আমার স্ত্রী এলিনা ও ছেলেদের নিয়ে থাকতাম, যেখানে আমি বিভিন্ন মন্ডলীতে প্রচার করতাম| যখন আমি আমার ঘরে যাওয়া আসা করতাম, আমি সর্বদা আমার মায়ের পরিত্রাণের জন্যে প্রার্থনা করতাম| তখন, হঠাৎ করে, আমি জেনেছিলাম যে তিনি পরিত্রাণ পেতে চলেছেন| যেমন প্রাচীন-কালের লোকেরা বলতেন সেভাবেই আমি ‘‘প্রার্থনার মধ্যে’’ ছিলাম| আমি ডঃ কেগানকে ফোন করলাম এবং তাকে সেখানে যেতে এবং মাকে খ্রীষ্টের প্রতি চালিত করতে বললাম| মা এর আগে কখনও ডঃ কেগানের কথা শোনেননি| কিন্তু এইবারে তিনি খ্রীষ্টে বিশ্বাস স্থাপন করলেন| এটা একটা অলৌকিক কান্ড ছিল, যেমন সব প্রকৃত মন পরিবর্তনে হয়| সেইদিন তিনি ধূমপান ও মদ্যপান বন্ধ করেন| ডাক্তারদের দ্বারা আমাকে বলা হয়েছিল যে এইরকম হঠাৎ করে মদ্যপান বন্ধ করে দেওয়া একজন পানাসক্ত ব্যক্তির খিঁচুনি হতে পারে যদি না তাদের ফেনোবারবিটাল দেওয়া হয়| কিন্তু তার কিছু হয়নি| এটা একটা অলৌকিক ব্যাপার ছিল| তিনি কখনও আর একটিও সিগারেট খাননি এবং কখনও আর মদ খাননি| অনেকবার করে তিনি বাইবেল পাঠ করতেন এবং সপ্তাহে চারদিন আমার সঙ্গে মন্ডলীতে আসতেন| জুলাই মাসের 4 তারিখ, তার প্রিয় ছুটির দিনে আমি তাকে ব্যাপ্তিস্ম দিয়েছিলাম| আমার মায়ের মন পরিবর্তনের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাই|

দ্বিতীয়ত, আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই আমার বিস্ময়কর স্ত্রী, এলিনার জন্যে| সে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে এসেছিল যা আমি চালনা করছিলাম| বিয়ে আরম্ভ হওয়ার আগে আমি যোহন 3:16 পদের উপরে একটি ধর্ম্মোপদেশ প্রচার করেছিলাম| এটা ছিল একটা প্রোটেস্টান্ট মন্ডলীতে তার শোনা প্রথম ধর্ম্মোপদেশ| সে আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েছিল এবং অবিলম্বে পরিত্রাণ পেয়েছিল! প্রথমবার আমি যখন তাকে আমাকে বিয়ে করতে বলেছিলাম, সে বলেছিল, ‘‘না|’’ আমি ভগ্নহৃদয় হয়েছিলাম| অরল্যান্ডো ও আইরিন ভ্যাজক্যুয়েজ (যারা আজ রাত্রে এখানে আছেন) তাদের সঙ্গে আমাকে পিউয়াটো রিকো যাওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন| আমি গিয়েছিলাম, কিন্তু এলিনার কথাই খালি ভাবছিলাম| সেও আমার কথা ভাবছিল| সে বলেছিল, ‘‘আমি আশা করছি যে তিনি আবার আমাকে বলবেন|’’ আমি বলেছিলাম, আর এইবারে এলিনা বলেছিল, ‘‘হ্যাঁ|’’ 35 বছর ধরে আমরা বিবাহিত রয়েছি| আমার মিষ্টি ছোট্ট স্ত্রী’র জন্য আমি প্রত্যেক দিন ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই! সে আমাকে একটি ছোট চিঠি লিখেছিল যা বলেছে, ‘‘রবার্ট, আমি তোমাকে আমার মন ও প্রাণ দিয়ে ভালবাসি| সর্বদা ভালবাসা, এলিনা|’’ এলিনা অনেকটা হিতোপদেশ 31 অধ্যায়ের সেই গুণবতী স্ত্রী এর মতন| সর্বসাকুল্যে আপনাকে সেই অধ্যায়টি পাঠ করতে হবে তাই দেখতে যে এটা আমার প্রিয়া, এলিনার বর্ণনা দিয়েছে| চিরকালের জন্যে আমি তাকে আমার হৃদয়ে যত্নে আগলে রাখব| তার বাবা আজ রাত্রে এখানে আছেন| এখানে হাজির হতে তিনি গুয়াতেমালা থেকে এতটা পথ এসেছেন| আপনাকে ধন্যবাদ, মিঃ ক্যুয়েলার! আর এলিনার ভাই ও তার পরিবারও এখানে রয়েছেন| ধন্যবাদ, আরউইন!

তৃতীয়ত, আমার দুই ছেলে, রবার্ট ও জন এর জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তারা যমজ, আর তারা এখন চৌত্রিশ বছর বয়সী| তারা দুজনেই নর্থরিজে অবস্থিত ক্যালিফোরনিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির স্নাতক| জিন নামের একটি সুন্দরী কোরিয় মেয়ের সঙ্গে রবার্ট বিবাহসূত্রে আবদ্ধ| জিনের বাবা-মা আজ রাত্রে এখানে আছেন, আর সেরকমই তার ভাই ও তার স্ত্রীও রয়েছেন| এখানে আসার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ! রবার্ট আর জিন হল দুই মেয়ে, হান্না ও সারা’র বাবা-মা| এমন সুন্দরী নাতনি দেওয়ার জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই|

আমার অন্য ছেলের নাম জন ওয়েসলী, বিখ্যাত ইংরেজ প্রচারকের নামে তার নাম| আমাদের মন্ডলীর প্রত্যেক সভায় জন ও রবার্ট হাজির থাকেন| ওয়েসলী হল একজন প্রার্থনার মানুষ| তিনি প্রার্থনা করেন এবং বাইবেল পাঠ করেন, প্রায়শই ঘন্টাধিক সময় ধরে| তিনি একজন উত্তম খ্রীষ্ট বিশ্বাসী এবং তিনি আমার বন্ধু| আমার উভয় ছেলেদের নিয়ে আমি সন্তষ্ট| আমার এবং আমার স্ত্রীর প্রতি তারা হল অবিশ্বাস্য আশীর্ব্বাদ|

ডঃ ক্রিস্টোফার কেগানকে পাওয়ার জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তিনি হলেন এক ভাই যা আমার কাছে কখনও ছিল না| তিনি আমার সর্বশ্রেষ্ঠ বন্ধু এবং আমার ঘনিষ্ঠ সহকর্ম্মী| আমরা একে অন্যকে এত শ্রদ্ধা করি যে আমরা কখনও একে অন্যকে প্রথম নাম ধরে সম্বোধন করি না| এমনকী যখন আমরা একা থাকি তখনও আমি সর্বদা তাকে ডঃ কেগান বলি এবং তিনিও সবসময় আমাকে ডাঃ হেইমারস বলে সম্বোধন করেন| আমাকে এরকম একজন জ্ঞানী ও বিশ্বস্ত বন্ধু দেওয়ার জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| আমরা পরস্পরকে বুঝতে পারি| আমাদের উভয়েই অন্তর্মূখী হওয়ার দিকে ঝুঁকি এবং একাকী প্রার্থনা ও বাইবেল অধ্যয়নে আমরা দুইজনেই বহু সময় ব্যয় করি| তার চিন্তাধারায় তিনি অনেক বেশী বিজ্ঞানসম্মত এবং নির্ভুল| আমি বেশী অস্পষ্ট ও স্বজ্ঞাতমূলক| কিন্তু একসাথে কাজ করার ক্ষেত্রে আমরা সঠিকভাবে স্বচ্ছন্দ| হোমস এবং ওয়াটসনের মতন, অথবা জনসন এবং বসওয়েলর মতন (কেউ কেউ যোগ করেছেন, ‘‘লরেল ও হার্ডি অথবা এ্যাবট ও কোস্টেলো,’’ পুরানো দিনের সেই কমেডিয়ানদের মতন) আমরা হলাম সহকর্ম্মী|

আমি হলাম এক সংস্কারক আর উনি হলেন একত্রকারী| আমি হলাম আক্ষরিক-মানসিকতা সম্পন্ন| তিনি হলেন গাণিতিক-মানসিকতা সম্পন্ন| তিনি আমাকে একজন পথপ্রদর্শনকারী হওয়ার প্রতি বিবেচনা করেন| আমি তাকে প্রতিভা-সম্পন্ন হওয়ার প্রতি বিবেচনা করি| আমাদের বন্ধুত্ব আমাদের উভয়ের প্রতি এক আশীর্ব্বাদস্বরূপ| ডঃ ক্রিস্টোফার কেগানের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাই|

জন শমূয়েল কেগানের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তিনি ডঃ এবং মিসেস কেগানের বড় ছেলে| জন এক যুবাপুরুষ যিনি এই সেবাকাজ পরিচালনা করছেন| গতকাল তাকে ব্যাপটিস্ট সেবক হিসাবে অভিষিক্ত করা হয়েছে| কাজেই এখন তিনি রেভারেন্ড জন শমূয়েল কেগান! তিনি একজন অত্যন্ত ভাল প্রচারক ও পরামর্শদাতা| এই সেবাকাজে আমি জন’কে আমার ‘‘ছেলে’’ বলেই বিবেচনা করি| বায়োলা ইউনিভারসিটির টালবট স্কুল অফ্‌ থিয়োলজিতে তিনি দ্বিতীয় বছরে পদার্পণ করেছেন| তিনি অত্যন্ত বুদ্ধিমান| আশ্চর্যের কিছু নেই, যেহেতু তার বাবার দুটি পিএইচ.ডি ডিগ্রী রয়েছে এবং মা জুডি হলেন একজন চিকিৎসক| জন হলেন এক সরাসরি এ-ছাত্র| তিনি থিয়োলজিতে পিএইচ.ডি ডিগ্রী অর্জনের পরিকল্পনা করছেন| 24 বছর বয়সে জন, ভারতবর্ষ, ডমিনিকান রিপাবলিক এবং আফ্রিকার তিনটি দেশে সুসমাচারপ্রচারমূলক সভায় প্রচার করেছিলেন| প্রত্যেক রবিবারের সকালে তিনি আমাদের মন্ডলীতে প্রচার করেন| প্রত্যেক বৃহস্পতিবার বিকালে আমরা একসাথে বসে, থিয়োলজি এবং মিশনারি কাজের বিষয়ে আলোচনা করি| জন এর জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| আমাদের মন্ডলীর পরবর্তী পালক হিসাবে তিনি আমাকে অনুসরণ করবেন| তিনি আমার বন্ধু| এটা সেইরকমই সরল|

নোহ সং এর জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তিনি হলেন আমার আর একজন ‘‘প্রচার বালক|’’ নোহ তার কলেজের কাজকর্ম শেষ করতে চলেছেন এবং এরপরে তিনি সেমিনারিতে যাবেন| তিনি ও জন কেগান সুন্দর একটি দল গড়েছেন, এবং ভবিষ্যতে তারা আমাদের মন্ডলীর নেতৃত্ব দেবেন|

নোহ, এরন ইয়ানসি এবং জ্যাক নগান্‌নের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তারা হলেন আমাদের নতুনভাবে অভিষিক্ত ডিকন| এরন আমার অন্তরঙ্গ সঙ্গী| এক ছানাওয়ালা মুরগির মতন তিনি আমার উপরে নজর রাখেন| তিনি আমার ঘনিষ্ঠতম বন্ধুদের একজন| জ্যাক নগান্‌ন বিবাহিত এবং তার দুটি ছেলে রয়েছে| আর এখানে কিছু একটা আছে যা আপনি হয়তো জানেন না| আমি এখনও কাজটির মধ্যে যাইনি! আগামী বছর আমি জ্যাক নগান্‌নের বাড়িতে একটা আনকোরা নতুন চীনা মন্ডলী স্থাপন করতে চলেছি|

জন্‌ কেগান, নোহ সং, এরন ইয়ানসি, জ্যাক নগান্‌ন এবং বেন গ্রিফিথ হলেন আমার প্রার্থনার সঙ্গী| আমার বাড়ির অধ্যয়ন কক্ষে প্রত্যেক বুধবার রাত্রে আমরা একসাথে প্রার্থনা করার উদ্দেশ্যে মিলিত হই| এই সব মানুষদের জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাই| কিছু কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার সময়ে এরা আমাকে সাহায্য করেছিলেন, বিশেষ করে আমার ক্যানসারের চিকিৎসা চলার সময়ে|

আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই ডঃ চান, মিসেস সালাৎজার এবং সেই "39"দের জন্যে| ডঃ চান হলেন আমাদের সহকারী পালক, যিনি সুসমাচারমূলক প্রচার পরিচালনা এবং টেলিফোন অনুধাবন সেবাকাজের দায়িত্বে রয়েছেন| মিসেস সালাৎজার আমাদের স্প্যানিশ সেবাকাজের দায়িত্বে রয়েছেন| ‘‘39’’রা হলেন আমাদের সেইসমস্ত বিশ্বস্ত মানুষজন যারা মন্ডলী ভাঙ্গনের সময় আমাদের মন্ডলীকে দেউলিয়া হওয়া থেকে রক্ষা করেছিলেন| তাদের প্রত্যেকের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| মিঃ আবেল প্রুধোম্মের জন্য আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| তিনি হলেন সেই মানুষ যিনি মন্ডলী ভাঙ্গন থামিয়েছিলেন| এবং আমি ভিরগেল ও বিভার্‌লি নিক্‌কেল এর জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই| এরা হলেন সেই দম্পতি যারা আমাদের মন্ডলী গৃহ কেনার জন্যে বেশীর ভাগ অর্থ ধার দিয়েছিলেন| আমাদের সহযোগিতা দানে তারা কখনই দ্বিধাগ্রস্ত হননি| তারা এখন আমাদের মন্ডলীর সম্মানীয় সদস্য|

আমাদের মন্ডলী প্রায় পঞ্চাশ শতাংশ যুবাপুরুষদের নিয়ে গঠিত যাদের বয়স তিরিশ বছরের কম| সবসময়ে আমি যুবকদের পালকত্ব করার আনন্দ উপভোগ করেছি| আমাদের কাছে বর্তমানে যে দলটি রয়েছে সেটা আমার এপর্যন্ত জানা সুন্দরতম দলগুলির মধ্যে একটি| আমাদের কাছে ডিকনদের একটা বিস্ময়কর দল রয়েছে| সেখানে অভিষিক্ত ডিকন আটজন আছেন, এবং প্রত্যেক দুই বছর অন্তর আমরা তাদের পরিবর্তন করি| এরন ইয়ানসি হলে ডিকনদের স্থায়ী চেয়ারম্যান, সেইজন্যে তিনি হলেন একজন যাকে কখনও পরিবর্তন করা হয় না| এই সব মানুষগণের জন্যে আমি ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিই|

আমরা যা যা করি তার সবকিছুর জন্য আমাদের মন্ডলীর বরিষ্ঠ মানুষেরা আমাদের সমর্থন করেন| তারা প্রত্যেক সভাতে উপস্থিত থাকেন| তারা খুব সুন্দর প্রার্থনা করেন, এবং আমাদের মন্ডলীর বৃদ্ধিতে কঠিন পরিশ্রম করেন| একটা নতুন চীনা মন্ডলী শুরু করতে যখন আমি মন্টিবেলো যাচ্ছি, সেসময় জন কেগান এবং তার বাবার হাতে রবিবার সকালের সেবাকাজের ভার ছেড়ে দিতে আমার কোন ভয় নেই| আমি তাদের সম্পূর্ণভাবে বিশ্বাস করি| প্রত্যেক রবিবার রাত্রে প্রার্থনা করতে আমি আমার মাতৃত্ব মন্ডলীতে ফিরে আসব|

আমার সমগ্র জীবন আমাদের মন্ডলীর লোকজনের চারিপাশে প্রদক্ষিণ করে| তারা সকলেই হলেন আমার ‘‘পরিবার-পরিজন|’’ এমন একটি বিস্ময়কর যৌথ পরিবারের কুলপতি হওয়া আমাকে পরম আনন্দদান করে| যীশু বলেছেন,

“তোমরা যদি আপনাদের মধ্যে পরস্পর প্রেম রাখ, তবে তাহাতেই সকলে জানিবে যে, তোমরা আমার শিষ্য” (যোহন 13:35)|

আপনাদের একটা সত্যি ঘটনা বলা ছাড়া এই বার্তা শেষ করার আর অপেক্ষাকৃত ভাল কোন উপায় আমি ভাবতে পারছি না| মেরিন কাউন্টির ওপেন ডোর মন্ডলীতে যখন আমি প্রচার করতাম, সেই সময়ে প্রত্যেক শুক্রবার ও শনিবারের রাত্রে আমি সবসময় যুবকদের একটা দলকে সানফ্রানসিস্‌কো নিয়ে যেতাম| আমি রাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রচার করতাম যেখানে তারা বই বিলি করতেন| আমরা প্রায়ই শহরের নর্থ বিচ এলাকাতে যেতাম| এটা ছিল আপাত-সুন্দর অগোছালো একটা জায়গা, যেখানে লোকেরা মাদক সেবন করত, আর সেখানে বেশ কয়েকটি ‘‘স্ট্রিপ-টিজ’’ এর জায়গা ছিল| আমি সাধারণত ‘‘দ্য গার্ডেন অফ্‍ ইডেন’’ নামের একটা স্ট্রিপ-টিজ স্থানের পাশের রাস্তাতে প্রচার করতাম!!!

এক রাত্রে বাচ্চাদের কয়েকজন মিলে এক যুবককে আমার কাছে নিয়ে আসল| সে আমাকে বলেছিল যে তার খুব দামী এক ধরণের হেরোইন সেবনের অভ্যাস আছে| সে বলেছিল যে সে এর থেকে মুক্তি পেতে চায়| তার সঙ্গে কথা বলে আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে সে এই ব্যাপারে আন্তরিক ছিল| সন্ধ্যার শেষে আমি তাকে আমার গাড়িতে বসতে বললাম এবং তাকে সঙ্গে করে আমি আমার আবাসনে নিয়ে গেলাম| আমি তাকে রান্নাঘরে ঢুকিয়ে দিলাম, আমার শোয়ার ঘরে তালা দিলাম, আর শুতে চলে গেলাম|

পরবর্তী বেশ কয়েকদিন ধরে রান্নাঘরের মেঝেতে বসে বসেই সে ভয়ানক মাদক-প্রত্যাহার পর্বের মধ্যে দিয়ে গেল| শেষপর্যন্ত সে যা হোক কিছুটা শান্ত হল এবং কারো কাছে একটা গীটার আছে কি না আমার কাছে জানতে চাইল| আমার বাচ্চার একটা ছিল যা আমি এনে দিলাম| সেই মেঝেতে বসেই বেশ কয়েকদিন ধরে সে সেটা এলোপাথারি বাজিয়ে গেল| তারপরে সে আমার কাছে একটা গানের বই চাইল| আমি তাকে একটা এনে দিলাম এবং সে গানগুলির একটির জন্যে একটা করে নতুন সুর আবিষ্কার করা শুরু করল| আমি ছেলেটির আসল নাম ভুলে গেছিলাম| আমি সবসময়ে তাকে ডিএ বলে ডাকতাম, যা ছিল ড্রাগ-এডিক্ট এর সংক্ষিপ্ত রূপ!

তারপরে একদিন ডিএ আমাকে বলল, ‘‘এটা শুনুন|’’ সে গীটার তুলে নিল, গানের বইটি খুলল, এবং তার দেওয়া নতুন সুরে এলবার্ট মিডলেনের (1825-1909), ‘‘তাঁর কার্য্য উদ্দীপ্ত কর’’ গানটি গাইল| পরম সুন্দর! আমরা আজ ডিএ’র দেওয়া সুরে সেই গানটি গাইব!

ও প্রভু! তোমার কাজ উদ্দীপ্ত কর, শুধুমাত্র তোমার শক্তিশালী হস্ত;
   উচ্চস্বরে বল উন্নীত শির, এবং তাঁহার লোক শুনুক|
উদ্দীপ্ত! উদ্দীপ্ত! তোমার সতেজ বর্ষন দাও;
   সমস্ত গৌরব তোমার নিজের; আশীর্ব্বাদ আমাদের|
(“Revive Thy Work,” Albert Midlane, 1825-1909) |

যখন আমি লস্ এঞ্জেল্স’এ নিজের বাড়ি ফিরে আসলাম, ডিএ’র সঙ্গে আমার যোগাযোগ হারিয়ে গেল| জীবন কেটে যাচ্ছিল এবং শেষপর্যন্ত আমাদের মন্ডলী সেই গৃহে স্থানান্তরিত হল যা এখন আমরা অধিকার করে আছি| এক রাত্রে ফোন বাজল| আমি উঠে আমার অফিসে গেলাম এবং ফোন তুলে বললাম, ‘‘হ্যালো|’’ ফোনের মধ্যে স্বরটি বলল, ‘‘হাই, ডঃ হেইমার্স, আমি ডিএ বলছি|’’ আমি বলেছিলাম, ‘‘কে?’’ সে বলল, ‘‘ডিএ| আপনার মনে পড়ছে, ড্রাগ এডিক্ট - ডিএ|’’ আমি প্রায় পড়ে যাচ্ছিলাম| প্রায় তিরিশ বছর হল আমি তার গলার স্বর শুনিনি! আমি বললাম, ‘‘তুমি কোথায়?’’ সে বলল, ‘‘আমি ফ্লোরিডাতে| আমি বিবাহিত| আমার কয়েকটি ছেলেমেয়ে, এবং সুন্দরী স্ত্রী আছে| আর আমি আমাদের মন্ডলীর সানডে স্কুলে পড়াই|’’

আমি আনন্দে হেসে উঠলাম! সেই রাত্রে বাড়ি ফেরার গোটা রাস্তা আমি গান করতে করতে এসেছিলাম! এটা হল এই ধরণের একটা সময় যা আমাকে আনন্দিত করছে এইজন্যে যে আমি 60 বছর আগে সেবাকাজে যোগ দিয়েছিলাম| মোটের উপর এটা দুঃখভোগ ও যন্ত্রণার মূল্য ছিল! ডিএ’র মতন যুবকদের, জয় করা, আমার আনন্দ সম্পূর্ণ করেছিল!

যারা পরিত্রাণ পেয়েছেন সেই যুবকদের কথা যখনই আমি ভাবি আমার যন্ত্রণা ও দুঃখ বিগলিত হতে থাকে| সেবাকাজে আমার ৬০ বছর আমাকে পরম সুখের সময় দিয়েছে| কোন জিনিসের বিনিময়ে আমি এই সেবাকাজ নিয়ে ব্যবসা করব না!

যেমন সর্বদা করি, সুসমাচার ব্যাখ্যা করতে আমাকে অবশ্যই কয়েক মিনিট সময় নিতে হবে| যীশু স্বর্গ থেকে নেমে এসেছিলেন একটা প্রধান কারণে - আমাদের পাপের দেনা শোধ করার জন্যে ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করতে তিনি এসেছিলেন| ইস্টারের রবিবারে তিনি সশরীরে, মাংস এবং অস্থিতে, পুনরুত্থিত হয়েছিলেন| আমাদের সব পাপ থেকে শুচি করতে তিনি তাঁর বহুমূল্য রক্ত ঝরিয়েছিলেন| তিনি আমাদের বলেছিলেন তাঁকে বিশ্বাস করতে, এবং আমরা পাপ থেকে শুচি হব|

নির্ভুল হওয়ার মাধ্যমে আমি আমার পরিত্রাণ অর্জনের চেষ্টা করছিলাম| আমি ছিলাম এক ফরীশী| কিন্তু 1961 সালের, 28শে সেপ্টেম্বর বায়োলা কলেজে, আমি যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করেছিলাম| এটা ছিল সেই গান যা আমাকে খ্রীষ্টের কাছে নিয়ে এসেছিল:

আমার দীর্ঘ্য বন্দীত্বে আত্মা শায়িত
   পাপে বন্দী স্বভাবে মৃত|
তোমার চক্ষুর তীক্ষ্ণ জ্যোতি পরিব্যপ্ত,
   অন্ধকারে আলোর শিখায়, আমি জাগরিত|
আমার শৃঙ্খল স্খলিত, হৃদয় জাগরিত,
   আমি উঠি, এগিয়ে যাই, ও অনুসরণ করি|
আশ্চর্য্য প্রেম! কিভাবে ইহা হইতে পারে
   তুমি, আমার ঈশ্বর, আমার জন্য মরিয়াছ?
(“And Can It Be?”, Charles Wesley, 1707-1788) |

যীশু ছিলেন মাংসে মূর্ত্ত ঈশ্বর| তিনি আমার জন্যে মারা গিয়েছেন| এক নতুন উপায়ে আমি তার সম্বন্ধে ভাবছিলাম| আমি খ্রীষ্টে বিশ্বাস করেছিলাম| এই আমার প্রার্থনা যে আপনি তাঁকে বিশ্বাস করবেন এবং পরিত্রাণ লাভ করবেন| তারপর একটা বাইবেল-বিশ্বাসী মন্ডলীতে প্রবেশ করতে নিশ্চিত থাকুন এবং যীশু খ্রীষ্টের জন্য আপনার জীবন অতিবাহিত করুন|

আর আপনাদের সকলের প্রতি আমি বলছি, ‘‘ঈশ্বর আপনাদের আশীর্ব্বাদ করুন যেমন তিনি আমাকে সব মন্দ এবং সব ভয়ের বিরুদ্ধে আশীর্ব্বাদ করেছেন|’’ ‘‘আমার সন্তানগণ সত্যে চলে, ইহা শুনিলে যে আনন্দ হয়, তদপেক্ষা মহত্তর আনন্দ আমার নাই’’ (III যোহন 4)| আমেন|

এই সেবাকাজ শেষ করার জন্যে, এখন আমি কর্মসূচি ফিরিয়ে দেব রেভাঃ জন কেগানের কাছে| (দুটি কেক, আর ‘‘হ্যাপি বার্থডে টু ইউ’’ ধ্বনি সহ জন্ ডঃ এবং মিসেস হেইমার্সের জন্মদিন ঘোষণা করলেন|)


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com
ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ জন ওয়েসলী হেইমার্স: গীতসংহিতা 27:1-14 |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
      “Must Jesus Bear the Cross Alone?” (by Thomas Shepherd, 1665-1739;
প্রথম ও শেষ স্তবক)/
      “The Master Hath Come” (by Sarah Doudney, 1841-1926; শেষ দুটি স্তবক) |