Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 37টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




একজন সাহসী সংগ্রামী খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হওয়া !

DARE TO BE A FIGHTING CHRISTIAN!
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2017 সালের, 10ই ডিসেম্বর, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে প্রচারিত একটি ধর্ম্মোপদেশ
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, December 10, 2017


সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড পত্রিকাতে আমি একটা চিত্তাকর্ষক প্রবন্ধ পড়েছি| সেইসব চীনা ছাত্রছাত্রী যারা আমেরিকায় পড়াশোনা করার সময়ে সুসমাচার প্রচার সংক্রান্ত মতবাদে বিশ্বাসী বা ইভানজেলিকাল হয়ে গেছিলেন এবং চীনদেশে ফিরে যাওয়ার পরে কিভাবে তাদের বেশির ভাগই ঘরোয়া মন্ডলীতে নিজেদেরকে খাপ খাওয়াতে পারেননি, সেই বিষয়ে এটা লেখা হয়েছে| সুসমাচার প্রচার মতবাদে বিশ্বাসী বা ইভানজেলিকাল ছিলেন এবং চীনে ফিরে গিয়েছিলেন এমন একটি মেয়ে তাদের সন্মুখীন হওয়া সমস্যাগুলি ব্যাখ্যা করেছিলেন| মেয়েটি বলেছিলেন, ‘‘আমি একটি ঘরোয়া মন্ডলী দেখিতে গিয়াছিলাম| কিন্তু আমার অভিজ্ঞতা তাহাদের সহিত ভাগ করা প্রকৃতপক্ষেই কঠিন ছিল| তাহারা ঠিকভাবে সম্পর্কস্থাপন করেন নাই| আমি অত্যন্ত একাকী ও অসহায় অনুভব করিয়াছিলাম|’’ প্রবন্ধটি বলছে মেয়েটির অভিজ্ঞতা খুব বৈশিষ্ট্যমূলক ছিল| যারা আমেরিকাতে ইভানজেলিকাল ছিলেন তাদের অনেকেই সেখানের ঘরোয়া মন্ডলীতে গিয়ে - পারিবারিক চাপ, কর্মসূচি, এবং একটা মূলগতভাবে ভিন্ন মন্ডলী সংস্কৃতির মধ্যে কোনটি খুঁজে পাবেন তার জন্যে প্রস্তুত থাকেন না| ‘‘যাহারা ইভানজেলিকাল হইয়াছিলেন সেই ছাত্রছাত্রীদের প্রায় 80 শতাংশ দুই বৎসর পর হইতেই আর মন্ডলীতে উপস্থিত থাকেন না’’ (ওয়ার্ল্ড ম্যাগাজিন, সেপ্টেম্বর 30, 2017, পৃ.48)| ‘‘তাহাদের প্রত্যাশা চূর্ণ হইয়া যায় যখন তাহারা চীনা মন্ডলীতে প্রবেশ করেন - কোন মন্ডলীতে শীততাপ-নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র অনুপস্থিত বা কোনটির হয়তো গৃহ নাই - যেস্থানে তাহাদের চাহিদা পূরণ করিবার জন্যে কেহই থাকেন না|’’

একই সময়ে চীনদেশের পালকগণ লক্ষ করেছিলেন যে এই ফিরে যাওয়া যুবকেরা মন্ডলীর কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ করেছিলেন এবং তাদের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন| তারা চেয়েছিলেন চীনের ঘরোয়া মন্ডলীগুলি আরও বেশি করে সেই মন্ডলীর মতন হোক যেগুলিতে তারা ইউনাইটেড স্টেটসে হাজির থেকেছেন|

আমার কাছে এটা খুব আকর্ষণীয় মনে হয়েছে কারণ আমাদের মন্ডলীতে আমরা চীনদেশের গৃহস্থ মন্ডলীগুলির বিষয়ে খুব উচ্চ চিন্তা করেছি| এই চীনা খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা বছরের পর বছর কম্যুনিস্টদের দ্বারা অত্যাচারিত হয়েও বেঁচে রয়েছেন| এছাড়া সেখানে চীনা গৃহস্থ মন্ডলীর অনেকগুলিতেই প্রকৃত উদ্দীপনাও হয়েছে| আমাদের মন্ডলীতে আমাদের কাছে মনে হয়েছে যে গৃহস্থ মন্ডলীর এই সমস্ত গম্ভীর-প্রকৃতির এবং উদ্দীপনা-প্রিয় শিশুদের সঙ্গে একসঙ্গে বসবাস করার ব্যাপারটিকে আমেরিকান মন্ডলীর শিশুরা ভালবাসতে পারতেন! কিন্তু না, আচার আচরণে আমেরিকান হয়ে সুসমাচার প্রচার মতবাদে বিশ্বাসীরা গৃহস্থ মন্ডলীতে ‘‘ঠিকভাবে সম্পর্কস্থাপন করেন নাই’’ সেই গভীরভাবে আধ্যাত্মিক চীনা শিশুদের সঙ্গে! "যাহারা ইভানজেলিকাল হইয়াছিলেন সেই ছাত্রছাত্রীদের প্রায় 80 শতাংশ দুই বৎসর পর হইতেই আর মন্ডলীতে উপস্থিত থাকেন না!"

কেন? শীতাতপ-নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র নাই! হতভাগ্য শিশু! সুন্দর মন্ডলী গৃহ নাই! হতভাগ্য, হতভাগ্য শিশু! তাদের চাহিদাগুলি কেউ পূরণ করেননি! হায় আমি! আহা রে! হতভাগ্য শিশুরা! ইউনাইটেড স্টেটসের ইভানজেলিকালদের মতন - আমাদের যা দেওয়া হয়েছে তার সবই আমাদের চাই! আমরা অভিযোগ করছি! মন্ডলীর নেতাদের কর্তৃত্বকে আমরা চ্যালেঞ্জ করছি - ঠিক নষ্ট হওয়া মার্কিনীভূত ইভানজেলিকালদের মতন! আমরা আন্তরিক প্রার্থনা সভায় আগ্রহী নই! কেন তাদের এত বেশি - আর এত উচ্চস্বরে প্রার্থনা করতে হবে! কেন তাদের এত কঠোর - এত উচ্চস্বরে প্রচার করতে হবে! কেন তারা আমাদের সুন্দর একটুখানি বাইবেল অধ্যয়ন দিতে পারছেন না যেমন আমেরিকাতে তারা দিতেন?

এই সব আমেরিকা-প্রশিক্ষিত ইভানজেলিকাল চীনাদের নিয়ে সমস্যাটা কি? এখানে ওয়ার্ল্ড পত্রিকা বলেছে মার্কিনীভূত ইভানজেলিকাল যারা চীনে ফিরে যান তাদের নিয়ে যে সমস্যা তা হল - তাদের 10 জনের 8 জন স্পষ্টভাবে সুসমাচার উচ্চারণ করতে পারতেন না! আমেরিকার ইভানজেলিকাল মন্ডলীতে তারা উদ্ধারপ্রাপ্ত হননি! এই সব মার্কিনীভূত ইভানজেলিকালদের সমস্যার প্রধান বিষয় হচ্ছে এটাই| তাদের 10 জনের 8 জনই প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী নন! চীনা গৃহস্থ মন্ডলীতে তারা যে প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের পছন্দ করেন না তাতে আশ্চর্য্যের কিছু নেই! দ্বিতীয়ত, কেবলমাত্র মন্ডলীর অন্য সদস্যদের ছাড়া, ঈশ্বরের সঙ্গে তাদের কোন ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল না| আপনার মন্ডলীতে যাওয়ার একমাত্র কারণ যদি শুধু বন্ধুত্ব পাতানোই হয়, তবে আপনি বেশিদিন টিঁকতে পারবেন না! যদি আপনি যীশু খ্রীষ্টের সঙ্গে একটা প্রকৃত সম্পর্ক না পাতিয়ে থাকেন, তাহলে আপনি আগে হোক বা পরে হোক মন্ডলী ত্যাগ করে যাবেন! তৃতীয়ত, মন্ডলীতে তাদের ঈশ্বরের সেবা করার শিক্ষা দেওয়া হয়নি| অন্য লোকদের কখনও সেবা না করে এবং খ্রীষ্টের প্রতি তাদের জয় করা ব্যতীত তারা নিজেরা যত্নআত্তি পেতে চেয়েছিলেন!

এইসব যা দেখায় তা হল আমেরিকার ইভানজেলিকালদের শোচনীয় ব্যর্থতা, প্রায় সম্পূর্ণ ব্যর্থতা যুবকদের প্রকৃতভাবে মন পরিবর্তন করানোর এবং খ্রীষ্টের জন্যে কাজ করতে ভালবাসার! আমরা ইতিমধ্যেই সেটা জানতাম, জানতাম না কি? মার্কিনীভূত ইভানজেলিকালসরা বলছেন, ‘‘আমি ধনবান্, ধন সঞ্চয় করিয়াছি, আমার কিছুরই অভাব নাই; কিন্তু জান না যে, তুমিই দুর্ভাগ্য, কৃপাপাত্র, দরিদ্র অন্ধ ও উলঙ্গ...এইরূপে তুমি কদুষ্ণ, না তপ্ত না শীতল, এই জন্য আমি নিজ মুখ হইতে তোমাকে বমন করিতে উদ্যত হইয়াছি’’ (প্রকাশিত বাক্য 3:17, 16)| এই সব গর্বিত, মার্কিনীভূত ছাত্রদের প্রতি খ্রীষ্ট বলছেন, ‘‘আমি তোমাকে আমার মুখ হইতে বমন করিব!’’ (আক্ষরিক)| আর সেটা আমাদের দানিয়েলের বইয়ের চার বন্ধুর কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে| দানিয়েল, শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগো নিজেদের বাড়ি থেকে 1,500 মাইল দূরে অবস্থান করছিলেন| এই যুবকেরা নিজেদের বাড়ি থেকে অনেক দূরে, এক পরজাতির ব্যাবিলনীয় শহরে বসবাসকারী কিশোর মাত্র ছিলেন| তারা কি চীনে প্রস্থানকারী সেই দুর্বল নব্য-ইভানজেলিকালদের মতন হবেন?

এই চারজন নবীন পুরুষই একমাত্র ইব্রীয় বালক ছিলেন না যাদের সেখানে বন্দী অবস্থাতে আনা হয়েছিল| অনুগ্রহ করে দানিয়েল 1:3 পদটি দেখুন| এটা স্কোফিল্ড স্টাডি বাইবেলের 898 পৃষ্ঠায় আছে| আমি সেই পদটি পড়ছি অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান|

‘‘পরে রাজা আপন নপুংসকগণের অধ্যক্ষ অস্পনসকে বলিয়া দিলেন, যেন তিনি ইস্রায়েল সন্তানদের মধ্যে, বিশেষতঃ রাজবংশের ও প্রধানবর্গের মধ্যে কয়েকজন [সেখানে অন্য অনেকে ছিলেন] যুবককে আনয়ন করেন’’ (দানিয়েল 1:3)|

এখন 6 নং পদটি দেখুন|

‘‘তাহাদের মধ্যে যিহূদা-বংশীয় দানিয়েল, হনানিয়, মীশায়েল ও অসরিয় ছিলেন’’ (দানিয়েল 1:6)|

আপনারা এখন বসতে পারেন| ঐ পদগুলি আমাদের দেখাচ্ছে যে সেখানে ইস্রায়েলের অন্য অনেক যুবা পুরুষ ছিলেন যাদের সেখানে বন্দী হিসাবে আনা হয়েছিল| কিন্তু এই যুবা পুরুষেরা ছিলেন অতি শ্রেষ্ঠ| তাদের জ্ঞানী করে তুলতে এবং তারপরে ব্যাবিলনের রাজা, নবূখদ্নিৎসরের উপদেশকে পরিণত করতে তাদের তিন বছরের জন্যে প্রশিক্ষিত হতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল| দানিয়েল তাদের একজন ছিলেন এবং বাকি তিনজন ছিলেন শদ্রক, মৈশক, ও অবেদ্নগো| তার সকলেই ছিলেন মেধাবী যুবা পুরুষ, যারা বিদ্যায়, বিজ্ঞানে এবং ভাষায় অতি উন্নত ছিলেন|

কিন্তু সেখানে ঐ চারজন বালকের বিষয়ে অন্য কিছু একটা ছিল যা সম্পূর্ণ আলাদা ছিল| তারা রাজার দেওয়া খাবার খেতে বা তার দেওয়া দ্রাক্ষারস পান করতে চাননি| তারা বলেছিলেন যে খাদ্য ও পানীয়ের ব্যাপারে তারা হয়তো মোশির নিয়ম মেনে চলবেন| তাদের মৃত্যুদন্ডও দেওয়া যেতে পারত| এই অবাধ্য আদালতে ঈশ্বরের জন্যে তারা একটা কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছিলেন| 8 নং পদটি দেখুন| এটা বলছে, ‘‘দানিয়েল মনে স্থির করিলেন যে, তিনি রাজার আহারীয় দ্রব্যে [খাদ্যে] ও তাঁহার পানীয় দ্রাক্ষারসে আপনাকে অশুচি করিবেন না|’’ বাকি তিনজনেও একই কাজ করেছিলেন| ঈশ্বরের জন্যে তারা একটা কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন| আপনি দেখুন যে, যারা তাদের প্রশিক্ষণ দিতেন তাদের মধ্যে খালি রাজার ভৃত্যেরাই ছিলেন তা নয়| ঈশ্বর স্বয়ং তাদেরকে তাঁর পক্ষে দাঁড়ানোর এবং তাঁর জন্যে লজ্জিত না হওয়ার প্রশিক্ষণ দিতেন| প্রত্যেকবার খাওয়ার সময়ে আপনি কি আপনার মাথা নত করেন এবং ঈশ্বরকে সেই খাদ্যের জন্য ধন্যবাদ দেন? এমনকী যখন আপনি সেই লোকদের সঙ্গে থাকেন যারা খ্রীষ্ট বিশ্বাসী নন তখনও কি আপনি তা করে চলেন? যখন আপনি একগাদা লোকের সঙ্গে একটা রেস্টুরেন্টে থাকেন তখনও কি আপনি তা করে চলেন? বড়দিনের প্রাক্কালে, মন্ডলীর ভোজসভায় আপনি কি থাকবেন? না কি একটা পাপের জায়গায় হাজির হতে গিয়ে আপনি বড়দিনের প্রাক্কালে মন্ডলী ছেড়ে দেবেন? নববর্ষের প্রাক্কালে আপনি কি আমাদের সঙ্গে মন্ডলীতে থাকবেন? না কি আপনি একটা পরজাতীয় পার্টিতে থাকবেন? ঐ বালকেরা যা করেছিলেন সেই ধরনের একটা সিদ্ধান্ত নিতে বিশ্বাস ও সাহসের দরকার হয়! এই গানটিতে আমি একটা শব্দের বদল ঘটিয়েছি|

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহসী হও!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহসী হও!
   ইহা জানাইতে সাহসী হও!

উঠে দাঁড়ান আর গানটি করুন!

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহসী হও!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহসী হও!
   ইহা জানাইতে সাহসী হও!

আপনারা বসতে পারেন!

সেই চারজন বালক সেই মার্কিনীভূত চীনা শিশুদের মতন ছিলেন না যারা চেয়েছিলেন চীনদেশের ভাল মন্ডলীগুলি আমেরিকার ইভানজেলিকালদের মতন কোমল ও আপোষকারী হোক| না! না! কেউ সেটা পছন্দ করুক বা না করুক সেই বালকেরা ঠিক ঈশ্বরের বাধ্য হয়েই চলছিলেন! সেই ধরণের শিশুদেরই ঈশ্বর সম্মান করেন! তিনি তাদের সম্মান করতেন এবং তিনি আপনাকেও সম্মান করবেন যদি আপনি সেই বালকদের মত আন্তরিক হন!

এখন এই বালকদের সামনে আর একটা পরীক্ষা দেওয়া হচ্ছে| অশুচি খাদ্য না গ্রহণ করে তারা প্রথম পরীক্ষায় কৃতকার্য্য হয়েছে| সেইজন্যে এখন ঈশ্বর তাদের আর একটি পরীক্ষা দিচ্ছেন - প্রার্থনার পরীক্ষা| রাজা একটা স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং তিনি তার অর্থ জানতে চেয়েছিলেন| কিন্তু স্বপ্নটি কি ছিল রাজা সেটা তার জ্ঞানী ব্যক্তিদের কাউকে বলেননি| তিনি দাবি করেছিলেন যে জ্ঞানী ব্যক্তিরা তার স্বপ্নের অর্থ বলার আগে প্রথমে বলুক যে তার স্বপ্নটি কি ছিল| যদি তারা বলতে না পারেন তবে তাদের ছিঁড়ে টুকরো টুকরো করে ফেলা হবে| রাজা বলেছিলেন, ‘‘সেই স্বপ্ন ও স্বপ্নের তাৎপর্য্য আমাকে জানাও’’ (2:6)| জ্ঞানী ব্যক্তিরা বলেছিলেন যে তিনি যা করতে বলছেন কোন মানুষ সেটা করতে পারবে না| এই কথা রাজাকে ক্রোধান্বিত করেছিল এবং তিনি আদেশ দিয়েছিলেন যে ব্যাবিলনের সব জ্ঞানী ব্যক্তিদের ধ্বংস করা হোক| রাজার আদেশ বাইরে প্রচারিত হয়েছিল এবং তারা জ্ঞানী ব্যক্তিদের সঙ্গে বধ করার জন্যে দানিয়েল ও তার তিন বন্ধুকে খুঁজতে লেগেছিল| দানিয়েল রাজার কাছে গেলেন এবং বললেন আর একটু বেশি সময় দিতে ও তিনি এর উত্তর বলে দেবেন| দানিয়েল তখন কি করলেন? তিনি চলে গেলেন আর শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগোকে, এই তিন বন্ধুকে ডেকে নিলেন| আর এই চারজনে মিলে একটা প্রার্থনা সভা করেছিলেন| এরা আমাকে জন, জ্যাক, নোহ এবং এরনের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে, যারা প্রার্থনার জন্যে আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন| স্বর্গের ঈশ্বরের থেকে তারা করুণা ভিক্ষা করেছিলেন| তারা প্রার্থনা করেছিলেন ঈশ্বর যেন তাদের সেই গোপন স্বপ্নের কথা বলে দেন| দানিয়েল 2:19 নং পদটি দেখুন, ‘‘তখন রাত্রিকালীন দর্শনে দানিয়েলের কাছে ঐ নিগূঢ় বিষয় প্রকাশিত হইল; তখন দানিয়েল স্বর্গের ঈশ্বরকে ধন্যবাদ করিলেন|’’ দানিয়েল 2:23 পদটি দেখুন| দানিয়েল বলেছেন, ‘‘হে আমার পিতৃপুরুষদের ঈশ্বর, আমি তোমার ধন্যবাদ ও প্রশংসা করি, তুমি আমাকে জ্ঞান ও সামর্থ্য দিয়াছ, আমরা তোমার কাছে যাহা চাহিয়াছিলাম, তাহা আমাকে এখন জানাইলে; তুমি রাজার স্বপ্ন আমাদিগকে জানাইলে|’’ উপরে দেখুন| রাজা বলেছিলেন, ‘‘সেই স্বপ্ন ও তাহার তাৎপর্য্য তুমি কি আমাকে জানাইতে সক্ষম?’’ দানিয়েল বলেছিলেন, ‘‘মহারাজ যে নিগূঢ় কথা জিজ্ঞাসা করিয়াছেন তাহা জ্ঞানী ব্যক্তিরা মহারাজকে জানাইতে পারেন না| ‘কিন্তু ঈশ্বর স্বর্গে আছেন, তিনি নিগূঢ় বিষয় প্রকাশ করেন’... ইহাই আপনার স্বপ্ন যাহা আপনি দেখিয়াছিলেন আর ইহা হইতেছে উহার তাৎপর্য্য|’’ তখন দানিয়েল ও তার তিন বন্ধু মিলে রাজাকে তার গোপন স্বপ্নের কথা ও তার অর্থ বললেন| এবার 47 নং পদটি দেখুন, ‘‘রাজা দানিয়েলকে কহিলেন, সত্যই তোমাদের ঈশ্বর দেবগণের ঈশ্বর, রাজাদের প্রভু ও নিগূঢ়তত্ত্বপ্রকাশক, কেননা তুমি এই নিগূঢ়তত্ত্বের বিষয় প্রকাশ করিতে সমর্থ হইয়াছ|’’ এখন উপরে দেখুন| তখন রাজা দানিয়েলকে মহান ব্যক্তিতে উন্নীত করলেন, এবং ব্যাবিলনের সমস্ত প্রদেশের কর্ত্তা হিসাবে নিযুক্ত করলেন, এবং ব্যাবিলনের সব জ্ঞানী ব্যক্তিদের প্রধান অধিপতি করে দিলেন| শদ্রক, মৈশক ও অবেদ্নগোকে উচ্চপদে অধিষ্ঠিত করা হয়েছিল, কিন্তু যুবা পুরুষ দানিয়েলকে ব্যাবিলনিয়ার সমগ্র রাজত্বের প্রধান মন্ত্রী করা হয়েছিল!

রাজার খাদ্য ও দ্রাক্ষারস গ্রহণ করে অশুচি হতে অস্বীকার করার দ্বারা এই বালকগণ প্রথম পরীক্ষাতে কৃতকার্য্য হয়েছিলেন যা ঈশ্বর তাদের দিয়েছিলেন| তারা ঈশ্বরকে প্রথম স্থানে রেখেছিলেন এবং এই পরীক্ষাতে অনায়াসে কৃতকার্য্য হয়েছিলেন!

এখন বালকেরা দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও কৃতকার্য্য হলেন| তারা একসাথে মিলিত হয়েছিলেন এবং ঈশ্বর যাতে রাজার স্বপ্ন প্রকাশ করেন তার জন্যে প্রার্থনা জানিয়েছিলেন| প্রার্থনাতে তারা ঈশ্বরের উপরে নির্ভর করেছিলেন এবং অনায়াসে দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও কৃতকার্য্য হয়েছিলেন!

আপনাকে এটা দেখাতে আমি একটু সময় নিয়েছি কারণ এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ| কোন কোন সময়ে আমরা ভাবি যে একজন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হিসাবে আপনি বিশাল ক্ষমতার অধিকারী হতে পারেন| কিন্তু ঈশ্বরের সঙ্গে আপনি বিশাল ‘‘ক্ষমতা’’ পান না| আপনি এর মধ্যে বেড়ে ওঠেন| আপনি উদ্ধারলাভ করেন এবং তারপরে আপনি বেড়ে ওঠেন! যীশু বলেছিলেন,

‘‘যে ক্ষুদ্রতম বিষয়ে বিশ্বস্ত, সে প্রচুর বিষয়েও বিশ্বস্ত; আর যে ক্ষুদ্রতম বিষয়ে অধার্ম্মিক, সে প্রচুর বিষয়েও অধার্ম্মিক’’ (লূক 16:10)|

যদি আপনি বড়দিনের প্রাক্কালে এবং নববর্ষের প্রাক্কালে মন্ডলীতে উপস্থিত হওয়ার মতন সামান্য বিষয়ে বিশ্বস্ত থাকেন, তাহলে এরপরে, আপনি আরও বৃহত্তর বিষয়ে বিশ্বস্ত হবেন!

এই বালকেরা যা খেতেন তাতেই বিশ্বস্ত ছিলেন| তারা সেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিলেন| তারা প্রার্থনাতেও বিশ্বস্ত ছিলেন| তারা সেই পরীক্ষাতেও উত্তীর্ণ হয়েছিলেন|

এর পরেও তাদের সামনে বৃহত্তর আর একটা পরীক্ষা ছিল| তারা কি রাজার স্বর্ণময় প্রতিমার সামনে আনত হবেন ও তার আরাধনা করবেন, অথবা আনত না হওয়ার জন্যে তারা একটা জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ডে জীবন্ত দগ্ধ হওয়ার ঝুঁকি নেবেন? তারা অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন| সেইজন্যে পরবর্ত্তীতে তারা দৃঢ়ভাবে বলতে পারতেন,

‘‘আমরা যাহার সেবা করি, আমাদের সেই ঈশ্বর আমাদিগকে প্রজ্জ্বলিত অগ্নিকুন্ড হইতে উদ্ধার করিতে সমর্থ আছেন, আর, হে, রাজন, তিনি আপনার হস্ত হইতে আমাদিগকে উদ্ধার করিবেন’’ (দানিয়েল 3:17)|

অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র পরীক্ষাগুলিতে উত্তীর্ণ হওয়ার মাধ্যমে তারা শিখেছিলেন যে জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ডের বিরাট পরীক্ষা থেকে ঈশ্বর তাদের উদ্ধার করবেন!

সেই সঙ্গে আন্তরিক প্রার্থনার মাধ্যমে রাজার দ্বারা বধ হওয়ার হাত থেকে তাদের রক্ষা করা হয়েছিল| এরপরে, যখন রাজা দানিয়েলকে গর্জনরত সিংহের খাঁচায় নিক্ষেপ করার হুমকি দিয়েছিলেন, তখন ঈশ্বর কর্তৃক প্রেরিত স্বর্গদূতের দ্বারা সিংহের মুখ বন্ধ করে, দানিয়েলকে সুরক্ষিত রাখা হয়েছিল! যীশু সেই জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ডে ছিলেন এবং তাদের উদ্ধার করেছিলেন| যীশু ছিলেন সেই স্বর্গদূত| যীশু সেই সিংহের খাঁচাতে ছিলেন যখন দানিয়েলকে সেখানে নিক্ষেপ করা হয়েছিল| তাঁর কাছে ছিল দিয়াবলের বিরুদ্ধে দাঁড়াবার বিশ্বাস| বাইবেল বলছে, ‘‘তোমার ঈশ্বরের সঙ্গে মিলিত হইবার জ্ন্য প্রস্তুত হও|’’ যদি প্রস্তুত না হন, তবে আপনি দিয়াবলের কাছে যান এবং প্রভুকে অস্বীকার করুন!

আপনাকে এখন প্রশিক্ষিত হতে হবে যেন আপনি উঠে দাঁড়াতে এবং যোগ্য হতে সক্ষম হতে পারেন| দানিয়েল সেইরকম করেছিলেন| আপনাকেও অবশ্যই সেইরকম করতে হবে, যদি আপনি সেই অগ্নিকুন্ড থেকে রক্ষা পাওয়ার আশা করেন!

সেই কারণে আপনাকে এখন অবশ্যই প্রশিক্ষণ নেওয়া শুরু করতে হবে! কিন্তু এখনই, পরে নয়! হঠাৎ করে আপনি একজন বিশ্বাসের মহান ব্যক্তি হয়ে যেতে পারেন না! না! এর জন্যে অনুশীলনের প্রয়োজন হয়! আমার স্ত্রী, মিসেস হেইমার্সের সম্বন্ধে ডঃ চান কি বলেছেন শুনুন| ডঃ চান বলেছেন, ‘‘মিসেস হেইমার্স এক রাত্রের মধ্যে এখনকার মহান খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হন নাই| অনেক বছর ধরিয়া প্রভুর প্রতি বিশ্বস্ত কার্য করিবার মাধ্যমে তিনি পরিপক্ক হইয়াছেন| একজন যুবতী মহিলা হিসাবে তিনি নিজের জীবন মন্ডলীর সেবাকার্য্যে নিয়োজিত করিয়াছেন এবং নিজের জন্যে কিছুই ধরিয়া রাখেন নাই| এই কারণে ঈশ্বর তাহাকে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করিয়াছেন|’’ 16 বছর বয়সে তিনি মন্ডলীর জন্যে তার পক্ষে যতটা সম্ভব সেরা কাজ করতে শুরু করেছিলেন| বহু বছর পরে, এখন তিনি হলেন, বিশ্বাসে বিশালাকার| যদি আপনি এখন, আপনার করণীয় যে ছোট ছোট কাজ রয়েছে তাতে আন্তরিক ও বিশ্বাসী না হন, তবে হঠাৎ করে ভবিষ্যতে আপনি মহান আত্মা জয়কারী এবং প্রার্থনার যোদ্ধা হবেন না|

দানিয়েল ও তার তিন বন্ধুর জন্যে সেখানে হ্রস্বতর পথ বলে কিছু ছিল না - আর আপনার জন্যেও হ্রস্বতর কোন পথ নেই| আন্তরিকভাবে এবং প্রবল উদ্দীপনার সঙ্গে খ্রীষ্টে প্রবেশের জন্যে এখনই সংগ্রাম শুরু করুন| যদি আপনি শুরুতেই অলস থাকেন, তাহলে এরপরে আর কখনই আপনি এক মহান খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হবেন না| এখনই আপনার সর্বশক্তি দিয়ে খ্রীষ্টে প্রবেশ করতে সংগ্রাম আরম্ভ করুন| কেউ একজন বলেছেন, ‘‘উত্তম সূচনাকৃত হইল অর্দ্ধাংশ সম্পূর্ণকৃত|’’ মিসেস হেইমার্স যখন আমাকে সুসমাচার প্রচার করতে শুনেছিলেন তখন একেবারে প্রথম বারেই তিনি পাপ থেকে সরে এসেছিলেন এবং যীশুকে বিশ্বাস করেছিলেন! ডঃ জুডিথ কেগান সেইরকম করেছিলেন| ডঃ ক্রেইগটন চান সেইরকম করেছিলেন| মিসেস মেলিসা স্যান্ডার্স সেইরকম করেছিলেন| মিঃ বেন গ্রিফিথ সেইরকম করেছিলেন| আশ্চর্য্যের কিছু নেই যে তারা সকলেই এখন শক্তিশালী খ্রীষ্ট বিশ্বাসী! তারা এত দ্রুত উদ্ধার লাভ করেছিলেন যে এক মহিলা খুব বিস্মিত হয়ে আমার দিকে তাকিয়েছিলেন| অনেক বছর ধরে তিনি স্বয়ং এখানে দিশাহারা অবস্থাতে আছেন| ‘‘কিভাবে এত দ্রুত তারা এইকাজ করলেন?’’ তিনি প্রশ্ন করেছিলেন| তারা আন্তরিক ছিলেন এবং আপনি আন্তরিক ছিলেন না| ঐভাবেই! যদি আপনি বোকার মতন ঘুরে বেড়ান এবং শুরুতেই সেই স্বর্গরাজ্যে প্রবেশের জন্যে কঠোর সংগ্রাম না করেন, আপনি সর্বদা একজন দুর্বল নব্য-সুসমাচার প্রচারমূলক হবেন, সেই চীনা শিশুদের মতন যারা নিস্তেজ, দুর্বল, নব্য-সুসমাচার প্রচারমূলক মন্ডলীতে যোগদানের দ্বারা নষ্ট হয়েছিলেন| বাইবেল বলছে, ‘‘তুমি খ্রীষ্ট যীশুর উত্তম যোদ্ধার মত [আমার] সহিত ক্লেশভোগ স্বীকার কর’’ (II তীমথিয় 2:3)| দানিয়েলের মতন সাহসী হন! এই গানটি করুন!

দানিয়েলের ন্যায় সাহসী হও,
   একাকী দাঁড়াইতে সাহসী হও!
বলিষ্ঠ উদ্দেশ্য সাধনে সাহসী হও!
ইহা জানাইতে সাহসী হও!

নিশ্চয়ই আমি অবশ্যই যুদ্ধ করিব, যদি আমি রাজত্ব করিব;
   প্রভু, আমার সাহস বৃদ্ধি কর!
আমি পরিশ্রম সহ্য করিব, যন্ত্রণা সহ্য করিব,
   তোমার বাক্যের সমর্থন লইয়া|
(“Am I a Soldier of the Cross?” by Dr. Isaac Watts, 1674-1748) |

‘‘বিশ্বাসের উত্তম যুদ্ধে প্রাণপণ কর; অনন্ত জীবন ধরিয়া রাখ’’ (I তীমথিয় 6:12)|

অলস নব্য-ইভানজেলিকালরা কখনও মন্ডলীতে ভাল সদস্য তৈরী করতে পারেন না! তারা একেবারে বিশ্বাস করেন না যে তাদের নব্য-ইভানজেলিকালরা ভুল করছেন! সেটাই কারণ যে নব্য-ইভানজেলিকালরা খুব কমই উদ্ধারলাভ করেন| যেহেতু প্রথমবার সুসমাচার শোনার পরে তারা কখনও উদ্ধার লাভ করেন না| তাদের ধর্ম যে ভুল তা মেনে নেওয়ার আগে আপনাকে তাদের সঙ্গে বছরের পর বছর সংগ্রাম চালাতে হবে| সেই কারণে তারা কখনও মন্ডলীতে ভাল সদস্য তৈরী করতে পারেন না! কখনও না! কখনও না! কখনও না! আপনার পথ খ্রীষ্টের প্রতি নিয়ে যাওয়ার জন্যে সংগ্রাম চালাতে আপনি যদি অতি অলস হন তবে আপনি কখনও খ্রীষ্টিয় জীবনের উপযুক্ত অন্য কোন কিছুর জন্যেই সংগ্রাম করতে সক্ষম হবেন না! আমি কি কাজের মাধ্যমে পরিত্রাণ লাভের বিষয়ে কথা বলছি? না, আমি বলছি না| আমি অনুগ্রহের দ্বারা পরিত্রাণের বিষয়ে বলছি, অনুগ্রহ যা আপনার সন্দেহ ও ভীতি নিরসন করে আপনার নিজের পথে আপনাকে সংগ্রাম করতে আকর্ষণ করে| আমি সেই বিশ্বাসের বিষয়ে বলছি যা খ্রীষ্টের পথে থেকে সংগ্রাম করে, আর তারপরে খ্রীষ্টের মন্ডলীর মঙ্গলের জন্যে সংগ্রাম করে চলে| ডঃ আর. এ. টোরীর একটা ধর্ম্মপোদেশের শিরোনাম ছিল - ‘‘প্রয়োজন, যুদ্ধরত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী!’’ শুরু থেকেই একজন হন! যদি আপনি একজন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হওয়ার ব্যাপারে অলস হন - আপনি আপনার সমগ্র জীবনে ধরে অলস হয়ে থাকবেন! ‘‘প্রয়োজন, যুদ্ধরত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী!’’ এই ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এখন একমাত্র এই ধরনের খ্রীষ্ট বিশ্বাসী আছে| যদি আপনি অলস খ্রীষ্টধর্ম্ম চান, তবে অন্য মন্ডলীতে যান! সেখানে অনেক দুর্বল নব্য-ইভানজেলিকাল মন্ডলী রয়েছে! যে কোন একটাতে চলে যান! যে কোন একটাতে চলে যান! যে কোন একটাতে চলে যান! বেরিয়ে যান আর যে কোন একটাতে চলে যান!

কিন্তু একটু অপেক্ষা করুন! আমি এখনও সব বলিনি! প্রকৃতপক্ষে আমি যেতে চাই না| আমি চাই আপনারা থাকুন আর উদ্ধারলাভ করুন! এখন খুব যত্ন নিয়ে আমার কথা শুনুন| যদি আপনি উদ্ধার লাভ না করে থাকেন তবে এটা হল ধর্ম্মোপদেশের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ| আমি আপনাকে এখন কি বলছি তার উপরে দৃষ্টিপাত করুন| এটা শুনুন কারণ আপনি এর আগে কখনও এটা শোনেননি!

রাজা সেই তিনজন বালককে একটা প্রজ্জ্বলিত, অগ্নিগর্ভ অগ্নিকুন্ডে নিক্ষেপ করেছিলেন| তারা সব আশা পিছনে ফেলে এসেছিলেন| এখন আপনি কি সেইরকম অনুভব করছেন না? আপনি একটা আশাহীন অবস্থাতে রয়েছেন| আপনি স্বয়ং নিজেকে রক্ষা করতে পারেন না| আসলে, আপনি উদ্ধারলাভের সব আশা বিসর্জন দিয়েছেন| ‘‘আমি ডঃ চান বা মিঃ গ্রিফিথ বা জুডি কেগান বা মিসেস হেইমার্সের মতন হতে পারব না|’’ আপনি আশাহীন অনুভব করছেন| আপনি জানেন যে আপনি নরকে পুড়তে চলেছেন এবং স্বয়ং নিজেকে রক্ষা করার জন্যে আপনি কিছুই করতে পারেন না! কিন্তু, দাঁড়ান! যখন রাজা সেই অগ্নিময় কুন্ডের দিকে দৃষ্টিপাত করেছিলেন তিনি কেবল সেই তিনজন বালককে দেখেননি| তিনি অগ্নিকুন্ডে চারজন মানুষ দেখেছিলেন, ‘‘মুক্ত হইয়া অগ্নির মধ্যে গমনাগমন করিতেছে, উহাদের কোন হানি হয় নাই; আর চতুর্থ ব্যক্তির মূর্ত্তি দেবপুত্ত্রের সদৃশ’’ (দানিয়েল 3:25)| স্পারজিয়ন ঠিক বলেছিলেন| অগ্নিতে চতুর্থ ব্যক্তিটি ছিলেন যীশু - দেহধারণের পূর্বে ঈশ্বরের পুত্র| যীশু তাদের সঙ্গে অগ্নিতে সেখানে ছিলেন| যীশু সেখানে থেকে সেই বালকদের অগ্নিকুন্ড থেকে রক্ষা করছিলেন! বাইবেল বলছে যে, তাদের প্রজ্জ্বলিত করতে ‘‘অগ্নি তাহাদের শরীরের উপরে কিছুই শক্তি প্রদর্শন করে নাই’’ (দানিয়েল 3:27)| যীশু তাদের সঙ্গে সেখানে ছিলেন এবং তিনি তাদের অগ্নি ও নরক থেকে উদ্ধার করেছিলেন|

আমার প্রিয় বন্ধু, যীশু আপনাকেও উদ্ধার করবেন| তাঁর করুণা আপনার উপরেও রয়েছে| তিনি আপনাকে ভালবাসেন| আপনার বিশ্বাস যত কমই হোক না কেন, যীশু সর্ব-শক্তিমান| আর যীশু আপনার পক্ষে আছেন! বাইবেল সেই রকমই বলছে! বাইবেল বলছে, ‘‘খ্রীষ্ট যীশু পাপীদের পরিত্রাণ করিবার জন্য জগতে আসিয়াছেন’’ (I তীমথিয় 1:15)|

আপনি এই মুহূর্তে কতখানি আশাহত অনুভব করছেন তা আমি গ্রাহ্য করি না| আসল, আপনি যতই আশাহত বলে অনুভব করেন ততই ভাল! কেন? কারণ তার অর্থ হল যীশুকে সমস্ত পরিত্রাণ করতে দিতে আপনি হয়তো প্রস্তুত থাকেন| আপনি স্বয়ং নিজেকে পরিত্রাণ করতে পারেন না| আপনি জানেন যে আপনি পারেন না| আপনি জানেন যে আপনি যথেষ্ট ভাল বা শক্তিশালী হতে পারেন না| ভাল! এখন আপনার অগ্নিকুন্ডে যীশুকে সেই চতুর্থ ব্যক্তি হতে দিন| তাঁকে দিন আপনাকে উদ্ধার করতে|

আপনি বলছেন, ‘‘আমার যথেষ্ট বিশ্বাস নেই|’’ আমি জানি| কিন্তু যীশু যে কোন উপায়ে আপনাকে উদ্ধার করবেন| যখন আমি পরিত্রাণ লাভের সব আশা হারিয়েছিলাম তখন যীশু আমাকে উদ্ধার করেছিলেন| তিনি আমার কাছে এসেছিলেন এবং সন্দেহ ও ভীতির অগ্নিকুন্ড থেকে আমাকে উদ্ধার করেছিলেন| আপনাকে উদ্ধার করতে যীশু ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করেছিলেন| আপনাকে উদ্ধার করতে যীশু মৃত্যু থেকে পুনরুত্থিত হয়েছিলেন| আজ রাত্রে আপনার জন্যে যীশু এখানে উপস্থিত আছেন| আপনার সন্দেহ ও ভীতির অগ্নিকুন্ডে তিনি আপনার কাছে নেমে আসবেন| তিনি আপনাকে শান্তি ও আশা দেবেন| আমি জানি যে আপনি এটা বিশ্বাস করছেন না| কিন্তু তার কাছে পৌঁছান এবং তিনি এখানে আপনার জন্যেই রয়েছেন| নিজের দিকে দেখবেন না| তাঁর প্রতি দৃষ্টিপাত করুন| সামান্য একটুখানি, প্রায় কিছুই না এমন বিশ্বাস নিয়ে তাঁকে বিশ্বাস করুন| এটা খুব বেশি কিছু চাইছে না! শুধু সামান্য একটুখানি বিশ্বাস| আপনার সঙ্গে এই অগ্নিকুন্ডে তিনিও আছেন| তাঁকে শুধু একটুখানি বিশ্বাস করুন আর সব কিছুর মঙ্গল হবে| এমনকী আপনাকে এটা বিশ্বাসও করতে হবে না| শুধু আমাকে বিশ্বাস করুন| আমি জানি তিনি আপনাকে উদ্ধার করবেন| আমার বিশ্বাসকে আপনাকে সাহায্য করতে দিন। আপনি যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করবেন তার জন্যে আমাকে সাহায্য করতে দিন এবং সবেতে মঙ্গল হবে| ‘‘ডাঃ হেইমার্স বিশ্বাস করেন যে যীশু আমাকে উদ্ধার করবেন, সেইজন্যে আমি পালককে বিশ্বাস করব এবং যীশুকেও বিশ্বাস করব!’’ ‘‘একমাত্র তাঁকে বিশ্বাস করুন, একমাত্র তাঁকে বিশ্বাস করুন, এখন তাঁকেই একমাত্র বিশ্বাস করুন| তিনি আপনাকে পরিত্রাণ দেবেন, তিনি আপনাকে পরিত্রাণ দেবেন, এখন তিনিই আপনাকে পরিত্রাণ দেবেন|’’ ‘‘কিন্তু,’’ আপনি বলছেন, ‘‘তিনি আমাকে এর পূর্বে পরিত্রাণ করেন নাই|’’ এটা হয়তো সেইভাবে মনে হচ্ছে, কিন্তু এখন তিনি আপনাকে উদ্ধার করবেন|

এস, পাপে ভারাক্রান্ত প্রত্যেক আত্মা, সেখানে প্রভুর সহিত ক্ষমা আছে,
আর তাঁর বাক্যে বিশ্বাসের দ্বারা তিনি নিশ্চয়ই আপনাকে বিশ্রাম দিবেন|
কেবল তাঁকে বিশ্বাস কর, কেবল তাঁকে বিশ্বাস কর, এখন কেবল তাঁকে বিশ্বাস কর,
তিনি আপনাকে উদ্ধার করবেন, তিনি আপনাকে উদ্ধার করবেন, এখন তিনিই আপনাকে উদ্ধার করবেন|
      (“Only Trust Him” by John H. Stockton, 1813-1877) |

আপনার দুর্বল নব্য-সুসমাচার প্রচারমূলক ধর্ম্ম থেকে ফিরে আসুন| এখনই তার থেকে ফিরে আসুন! আর যীশুকে বিশ্বাস করুন এবং তাঁর দ্বারা - ক্রুশের উপরে আপনার জন্যে তিনি যে রক্ত ঝরিয়েছিলেন তার দ্বারা পাপ থেকে পরিত্রাণ লাভ করুন!


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Dare to Be Like Daniel” (by Philip P. Bliss, 1838-1876; altered by Dr. Hymers) |