Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




প্রত্যেক ব্যক্তি সুসমাচার প্রচার করছেন !

EVERY PERSON EVANGELIZING!
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2017 সালের, 17ই সেপ্টেম্বর, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, September 17, 2017

‘‘যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|


শমরিয়া ও গালীল দেশের মধ্যে দিয়ে ভ্রমণ করার সময়ে যীশু একটা ছোট্ট শহরে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন| সেই গ্রামের বাইরের সীমানাতে দশজন কুষ্ঠ রোগী বাস করতেন| তারা তাঁর থেকে ‘‘দূরে দাঁড়াইল’’ (17:12)| পুরানো নিয়মের বিধান অনুসারে কুষ্ঠ রোগীদের দরকার হতো সেই লোকজনদের থেকে অনেক দূরে বসবাস করার যার ঐ রোগে আক্রান্ত হননি|

‘‘কুষ্ঠী...‘অশুচি, অশুচি’ এই শব্দ করিবে...সে একাকী বাস করিবে, শিবিরের বাহিরে তাহার বাসস্থান হইবে’’ লেবীয় পুস্তক 13:45-46)|

এই দশজন কুষ্ঠ রোগী শুনেছিলেন যে যীশু অলৌকিক সব কাজকর্ম করেন| সুতরাং তারা দূর থেকে উচ্চস্বরে বলতে লাগলেন, ‘‘যীশু, নাথ, আমাদিগকে দয়া করুন’’ (লূক 17:13)| যীশু তাদের কুষ্ঠ তখনই সারিয়ে দেননি, কিন্তু তাদের বলেছিলেন বরং তারা যেন চলে যায় এবং যিরূশালেমের মন্দিরে গিয়ে যাজকদের কাছে নিজেদের দেখায়| যীশু তা করেছিলেন দুটি কারণে: পুরানো নিয়মের বিধি পালন করার জন্যে, যা লেবীয় পুস্তকের 14:1-20 পদগুলিতে বলা হয়েছে, যাতে বলছে যে কুষ্ঠ রোগে আক্রান্ত কোন ব্যক্তি সেরে উঠেছেন কি না তা একমাত্র যাজকই স্থির করতে পারেন| দ্বিতীয় কারণ ছিল ‘‘তিনি যাহার অধিকারী ছিলেন, তাঁহার সেই আরোগ্য দানকারী ক্ষমতার একটি সাক্ষী, একটি সাক্ষ্য হিসাবে যাজক এবং অন্য যিহূদীদের প্রতি দর্শাইতে’’ (থমাস হালে, দ্য এপ্লায়েড নিউ টেস্টামেন্ট, চ্যারিয়ট ভিক্টর প্রকাশনা, 1996, পৃ. 236)|

সেই দশজন কুষ্ঠ রোগী যীশুর কথা মেনে নিলেন এবং যিরূশালেমের মন্দিরের উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন| এতে দেখা যাচ্ছে যে তাদের মধ্যে কিছু পরিমাণে বিশ্বাস ছিল, নয়তো তারা যীশুর কথার বাধ্য হতেন না| কিন্তু, যেমন আমরা দেখবো, যে এটা উদ্ধারের বিশ্বাস ছিল না| তারা বাহ্যিকভাবে খ্রীষ্টের বাধ্য হয়েছিলেন,

‘‘যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|

তারা যখন গালীল প্রদেশ থেকে দক্ষিণে যিরূশালেমের মন্দিরের দিকে যাচ্ছিলেন, তখন তাদের দেহ থেকে কুষ্ঠ রোগ দূর হয়েছিল|

কিন্তু তাদের মধ্যে একজন যখন রোগমুক্ত হলেন তিনি ঘুরে দাঁড়ালেন এবং যেখানে যীশু ছিলেন সেখানে ফিরে আসলেন|

‘‘উচ্চ রবে ঈশ্বরের গৌরব করিতে করিতে ফিরিয়া আসিল, এবং যীশুর চরণে উবুড় হইয়া পড়িয়া তাঁহার ধন্যবাদ করিতে লাগিল...’’ (লূক 17:15-16)|

‘‘পরে তিনি তাহাকে বলিলেন, উঠিয়া চলিয়া যাও, তোমার বিশ্বাস তোমাকে সুস্থ করিয়াছে’’ (লূক 17:19)|

এখন, আমার কাছে মনে হয় যে এই অধ্যায়টিতে বহুসংখ্যক শিক্ষা রয়েছে| আমি তাদের সবকটি বলছি না কিন্তু তার মধ্যে তিনটি এখানে বলছি, যা আমি দেখতে পাই|

I. প্রথমত, খ্রীষ্টের প্রতি বাহ্যিক বিশ্বাস থেকে আংশিক শুচিতা আসে |

এই দশ জন লোকের সকলেই একটা বাহ্যিক অসুখ কুষ্ঠ থেকে আরোগ্য লাভ করেছিলেন| যদিও যীশুর স্পর্শের দ্বারা তৎক্ষণাৎ তারা সুস্থ হননি| তারা যিরূশালেমের মন্দিরে যাওয়ার সময়ে রাস্তাতে আংশিকভাবে আরোগ্য লাভ করেছিলেন| কিন্তু তাদের আত্মা তখনও আরোগ্য লাভ করেনি| যীশু বলেছিলেন,

‘‘যাও, যাজকগণের নিকটে গিয়া আপনাদিগকে দেখাও| যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|

সেইসব লোক যারা বাহ্যিকভাবে খ্রীষ্টের প্রতি বাধ্য ছিলেন তারা অনেক আঘাত থেকেই সুস্থ হয়েছিলেন যা তাদের অস্থির করে যারা সম্পূর্ণরূপে বাধ্য থাকেন না| যারা নিয়মিত মন্ডলীতে আসেন, এবং যারা খ্রীষ্টধর্মের মৌলিক নীতির প্রতি বাহ্যিকভাবে নিজেকে খাপ খাইয়ে নেন, তারা আবিস্কার করেন যে তাদের জীবন আরও ভালভাবে নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে, বিদ্যালয়ে তাদের অধ্যয়ণের অভ্যাস আরও ভাল ফল উৎপন্ন করছে| তাদের আবেগগুলি আরও বেশি নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে| সাধারণভাবে, তারা নিজেদের জীবনে আরও বেশি সফল এবং কার্যক্ষম হচ্ছেন তাদের তুলনায় যারা আধুনিক সমাজের বিভ্রান্তির দ্বারা "ইতস্ততঃ পরিচালিত" হচ্ছেন (ইফিষীয় 4:14)|

‘‘জগত’’ মাঝে স্থিত লোকেরা প্রায়ই চিন্তা করেন যে মন্ডলীতে আসলে, তাদের কাজ অথবা শিক্ষাস্থান থেকে খুব বেশি সময় নিয়ে নেওয়ার কারণে তারা তাদের জীবনে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন| খ্রীষ্ট-অবিশ্বাসী পিতামাতা প্রায়ই এইভাবে চিন্তা করে থাকেন| তারা মনে করেন যে মন্ডলীতে আসাটা তাদের ছেলেমেয়েদের থেকে বেশ খানিকটা সময় নিয়ে নেবে, যাতে করে তারা তাদের বিদ্যালয়ে বা কাজে ভাল ফল করতে পারবে না| কিন্তু আমরা বারে বারে দেখেছি যে এর ঠিক বিপরীতটাই সত্যি| যখন যুবকেরা মন্ডলীর উল্লেখিত সেবাকাজগুলিতে হাজির থাকেন, কোন ব্যতিক্রম ছাড়াই, আমরা দেখেছি যে, তারা প্রকৃতপক্ষে আরও অনেক ভাল ছাত্র এবং আরও ভাল কর্মচারী হয়ে থাকেন| তারা নিজেদের পাঠ নিয়ন্ত্রণ করতে শেখেন, ‘‘সুযোগ কিনিয়া লও’’ (ইফিষীয় 5:16; কলসীয় 4:5)| মন্ডলীর নেতাদের পরামর্শ, এবং মন্ডলী সদস্যদের উদাহরণের দ্বারা, তারা নিজেদের কাজকর্মে ও বিদ্যালয়ে পরিশ্রমের গুরুত্ব সম্বন্ধে শিক্ষা পায়| অত বেশি ‘‘বোকার মত ঘুরে বেড়ানোর’’ পরিবর্তে, বিশ্বের অন্যান্য ছেলেমেয়েরা যা করে সেইভাবে, তাদের কাছে উপলব্ধ সময়ে তারা কাজকর্ম ও কঠোর অধ্যয়ন করে|

আমি বিশ্বাস করি আমেরিকার কলেজ ছাত্র এবং কলেজ স্নাতকদের শতাংশের সর্বাধিক সংখ্যা আমাদের মন্ডলীতে আছেন| আর আমি বিশ্বাস করি সেই প্রমাণের একটা এই যে যারা একটা স্থানীয় মন্ডলীর সহভাগিতায় এবং এর নির্দেশিত সভাতে আসেন না সেইসব লোকদের দ্বারা সম্মুখীন হওয়া অনেক অনেক বাহ্যিক সমস্যা থেকে, যীশুর প্রতি বাধ্যতা তাদেরই ‘‘সুস্থ করে’’ যারা তাঁকে মান্য করেন| বহু বছরের পর্যবেক্ষণে এটাই বারে বারে সত্যি বলে প্রমাণিত হয়েছে|

II. দ্বিতীয়ত, যখন আপনি খ্রীষ্টের কাছে আসেন তখন পূর্ণ পরিত্রাণের অভিজ্ঞতা লাভ করেন |

এই লোকদের মধ্যে নয়জন সন্তুষ্ট হয়েছিলেন যখন তারা বাহ্যিকভাবে সুস্থ হয়েছিলেন, যখন তারা শারীরিকভাবে কুষ্ঠ রোগ থেকে শুচি হয়েছিলেন| কিন্তু তাদের মধ্যে শুধু একজন কেবলমাত্র বাহ্যিক বাধ্যতা নিয়ে সন্তুষ্ট ছিলেন না| ঈশ্বরের প্রতি ধন্যবাদ দিতে তার হৃদয় উত্তাল হয়ে উঠল| তিনি ঘুরে দাঁড়ালেন এবং যে স্থানে যীশু ছিলেন সেইস্থানে ফিরে এলেন| তিনি যীশুর পায়ে উবুড় হয়ে পড়লেন, ‘‘তাঁহার ধন্যবাদ করিতে লাগিলেন’’ (লূক 17:16)| অন্যভাবে বলতে গেলে, এই লোকটি খ্রীষ্টের কাছে এসেছিলেন! তিনি খ্রীষ্টের কাছে এসেছিলেন, এবং শুধুমাত্র শারীরিক আরোগ্য লাভ করেছিলেন তাই নয়, বরং তাঁর পায়ে উবুড় হয়ে, পরিত্রাতা থেকে পূর্ণ পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন|

যদি আপনি আমাদের মন্ডলীতে হাজির হয়ে আসছেন, নিয়মিতভাবে মন্ডলীর সভাগুলিতে যোগদান করে আসছেন, তবে সেটা ভাল| এটা আপনার জীবন এবং কর্মে সাহায্য করবে| কিন্তু এর থেকেও উত্তম একটা জীবন যাপন করতে কেবল আপনাকে সাহায্য করার তুলনায় সেখানে প্রকৃত খ্রীষ্টধর্মে আরও বেশি কিছু থাকে! খুব সফল জীবনযাপন করছিলেন এমন একজন মানুষের উদ্দেশ্যে, যীশু বলেছিলেন,

‘‘তোমাদের নূতন জন্ম হওয়া আবশ্যক, ইহাতে আশ্চর্য্য জ্ঞান করিও [বিস্মিত হইও] না’’ (যোহন 3:7)|

যিনি খ্রীষ্টের কাছে এসেছিলেন সেই কুষ্ঠ রোগীর প্রতি এটাই ঘটেছিল| যীশুর বাধ্য হওয়ার দ্বারা শারীরিকভাবে আরোগ্য লাভ করার পরে, তিনি যীশুর কাছে আবার এসেছিলেন, তাঁর পায়ে উবুড় হয়ে পড়েছিলেন, এবং আভ্যন্তরীনভাবে মন পরিবর্তন করেছিলেন| আর খ্রীষ্ট তাকে বলেছিলেন,

‘‘তোমার বিশ্বাস তোমাকে সুস্থ করিয়াছে’’ (লূক 17:19)|

আমি দ্য এপ্লায়েড নিউ টেস্টামেন্ট এর সঙ্গে সহমত| যদিও আমি আশা করি যে এটা নির্ভরযোগ্য কিং জেমস বাইবেল উদ্ধৃত করেছে, তবুও যিনি যীশুর কাছে এসেছিলেন সেই শুচীকৃত কুষ্ঠ রোগীর কি হয়েছিল সেটা এতে ভালভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে| যখন যীশু তাকে বলেছিলেন, ‘‘তোমার বিশ্বাস তোমাকে সুস্থ করিয়াছে,’’ সেই বিবৃতি প্রকাশ করে যে ‘‘যীশু শুধুমাত্র তাহার দেহ সুস্থ করা বিষয় বোঝান নাই, কিন্তু তাহার আত্মাকেও সুস্থ করিবার বিষয়টি বুঝাইয়াছেন| তিনি পরিত্রাণ লাভ করিয়াছেন’’ (আইবিড., পৃ.341)|

আপনাদের কেউ কেউ মন্ডলীতে আসছেন| এটা আপনাকে আশীর্বাদ করেছে এবং সেইরকম করতে আপনাকে সাহায্য করেছে| এর জন্যে আমরা ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি| কিন্তু এখন আমরা আপনাকে আরও এক ধাপ এগিয়ে যেতে এবং বিশ্বাসে যীশুর কাছে আসার দ্বারা, এবং তাঁর সামনে উবুড় হয়ে পড়ে, তাঁকে সম্পূর্ণভাবে বিশ্বাস করে, পূর্ণ পরিত্রাণ, পূর্ণ মন পরিবর্তন লাভ করতে বলছি|

সর্বোপরি, শুধুমাত্র আপনাকে এই বিশ্বে একটা উন্নততর জীবন দান করার জন্যে খ্রীষ্ট দুঃখভোগ করেননি এবং ক্রুশের উপরে মারা যাননি| মোটেও না! তিনি ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করেছিলেন যাতে আপনার সব পাপ ক্ষমা করা যায়, এবং তাঁর মূল্যবান রক্তের দ্বারা আপনাকে শুচি করা যায়| তিনি মৃত্যু থেকে পুনরুত্থিত হয়েছিলেন, এবং এখন পিতা ঈশ্বরের দক্ষিণে, আপনাকে অনন্ত জীবন দান করার জন্যে বসে আছেন| যদি আপনি সরল বিশ্বাসে যীশুর কাছে আসেন, যেমন সেই লোকটি এসেছিলেন, আপনিও পরিত্রাণ লাভ করবেন, নতুন জন্ম লাভ করবেন, সমস্ত কাল ও অনন্তকালের জন্যে| প্রকৃত মন পরিবর্তন দ্রুত আপনার প্রতি প্রদত্ত হোক! কিন্তু আমি বিশ্বাস করি শাস্ত্রের এই অধ্যায়ে তৃতীয় একটা শিক্ষা, প্রত্যেক ব্যক্তি সুসমাচার প্রচার করছেন এই বিষয়ের উপরে একটা শিক্ষা রয়েছে|

III. তৃতীয়ত, অবিলম্বে সুসমাচার প্রচার আরম্ভ করা উচিৎ, এমনকী আপনার মন পরিবর্তন হওয়া আগেই |

লক্ষ করুন যে তারা অশুচীকৃত (অপরিবর্তিত মনের) থাকা সত্ত্বেও যীশু এই দশজন কুষ্ঠ রোগীকে বলেছিলেন

‘‘যাও, যাজকগণের নিকটে গিয়া আপনাদিগকে দেখাও| যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|

যীশুর দ্বারা তারা প্রেরিত হয়েছিলেন, ‘‘একটি সাক্ষী, একটি সাক্ষ্য হিসাবে যাজক এবং অন্য যিহূদীদের প্রতি দর্শাইতে,’’ যীশুর বিষয়ে বলতে (দ্য এপ্লায়েড নিউ টেস্টামেন্ট, আইবিড., পৃ. 236)| তারা শুচীকৃত হওয়ার আগে এবং তাদের একজনেরও মন পরিবর্তন হওয়ার আগে সাক্ষী হিসাবে তাদের প্রেরণ করা হয়েছিল!

এখন, এটা কি বৈশিষ্ট্যপূর্ণ নয়? বর্তমানে, বেশির ভাগ সুসমাচার সংক্রান্তরা মনে করেন যে বাইরে বেরিয়ে আপনি সুসমাচার প্রচার করবেন তা আশা করতে পারার আগে, আপনাকে খুবই শক্ত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হতে হবে, বিশ্বাসে দৃঢ় ভিত্তিযুক্ত হতে হবে, বাইবেল বিষয়ক অনেক জ্ঞানের অধিকারী হতে হবে| আমি বলি যে এটা চরম অর্থহীন! এটা সেইরকমের বোকামি কাউকে এই রকম বলার মতোই যে মন্ডলীর নির্দেশিত সভাতে তিনি আসবেন তা আশা করতে পারার আগে, তাকে খুবই শক্ত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হতে হবে! তা সত্ত্বেও আমি বিশ্বাস করি সেখানে কিছু মূর্খ লোক আছেন, যারা ঐরকমই চিন্তা করেন! এটা সেই জিনিস নয় যা বাইবেল আমাদের শিক্ষা দেয়| যীশুর দ্বারা বারো জন শিষ্যকে সুসমাচার প্রচারের কাজে অবিলম্বে বাইরে প্রেরণ করা হয়েছিল| ওশারʼর বংশাবলী অনুসারে, শিষ্যদের সুসমাচার প্রচারের কাজে সেই একই বছরে পাঠানো হয়েছিল যে বছরে যীশু তাদের আহ্বান করেছিলেন তাঁকে অনুসরণ করতে| সেই বছরে খুব অল্প সময়ের জন্যে তারা তাঁর অনুসরণকারী ছিলেন যে সময়ে তিনি বলেছিলেন,

‘‘দুই দুই জন করিয়া তাঁহাদিগকে প্রেরণ করিতে আরম্ভ করিলেন... পরে তাঁহারা প্রস্থান করিয়া এই কথা প্রচার করিলেন যে, লোকেরা মন ফিরাউক’’ (মার্ক 6:7, 12)|

অন্ততপক্ষে শিষ্যদের মধ্যে একজন [যিহূদা] এমনকী মন পরিবর্তনও করেননি| তাদের অবিলম্বে প্রচারে প্রেরণ করা হয়েছিল, মন পরিবর্তন হয়েছিল বা হয়নি, বিশ্বাসে দৃঢ় ছিলেন বা ছিলেন না তা সত্ত্বেও! সুসমাচার প্রচারের কাজে তারা বাইরে গেছিলেন - খ্রীষ্টের আদেশে!

আমি মনে করি খ্রীষ্টের পদ্ধতি থেকে আমরা একটা বড় বিষয় শিখতে পারি| সুসমাচার প্রচারের কাজে বাইরে যাওয়া হচ্ছে খ্রীষ্টের একটা আদেশ, তাঁর বিখ্যাত আদেশগুলির মধ্যে একটি:

‘‘তোমরা গিয়া সমস্ত জাতিকে শিক্ষা দেও’’ (মথি 28:19)|

তাঁকে মান্য করার আগে আমাদের কি অবশ্যই প্রশিক্ষিত হওয়ার জন্যে অপেক্ষা করতে হবে? যাজক এবং অন্য যিহূদীদের কাছে প্রচারে যাওয়ার আগে সেই দশজন কুষ্ঠ রোগীকে প্রশিক্ষিত করা হয়নি| কেন, মানব, তারা এমনকী উদ্ধার লাভও করেননি! তাও খ্রীষ্ট তাদের যেতে বলেছিলেন এবং ঐ যাজকদের কাছে সুসমাচার প্রচারের দ্বারা তাঁর কথা মান্য করতে বলেছিলেন তৎক্ষণাৎ, সেই মুহূর্তে| শিষ্যেরাও মোটামুটিভাবে অনভিজ্ঞ, প্রায় অশিক্ষিত মৎস্যধারী ছিলেন, কিন্তু যীশু তাদের অবিলম্বে দুইজন দুইজন করে, সুসমাচার প্রচারের কাজে, বাইরে পাঠিয়েছিলেন|

আমি মনে করছি বর্তমানে আমাদেরও এই জিনিস করা দরকার| যীশু যে নকশা স্থাপন করে গেছেন আমাদের তা অনুসরণ করা দরকার| আমাদের দরকার লোকদের বাইবেলের বিষয়ক শিক্ষা দেওয়ার| হ্যাঁ! কিন্তু তারা সম্পূর্ণভাবে প্রশিক্ষিত হওয়ার আগেই তাদের দরকার সুসমাচারের কাজ শুরু করা| শাস্ত্রের সব মতবাদ শোনার আগেই তাদের দরকার সুসমাচার প্রচারে যাওয়া!

আপনি অন্তহীনভাবে লোকদের প্রশিক্ষন দিয়ে যেতে পারেন এবং তবুও তাদের কখনও দেখবেন না যে তারা একটাও আত্মাকে সুসমাচার শোনার জন্যে মন্ডলীতে নিয়ে আসছেন| আপনার সেবাকাজে একটাও হারানো আত্মাকে তারা নিয়ে আসছেন, তা কখনো না দেখেও আপনি শাস্ত্রের অর্থ ভালভাবে লোকদের কাছে ব্যাখ্যা করে দিতে পারেন, বাইবেলের পদ ধরে ধরে তাদের ব্যাখ্যা করে দিতে পারেন|

যে কোন চিন্তাশীল মানুষ জানেন যে এটা সত্যি, আর তা সত্ত্বেও এর জন্যে যে কি করতে হয় তারা মনে হয় তা জানেন না| কিন্তু এর জন্যে কি করতে হবে যীশু আমাদের তা বলে গেছেন - যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাদের সুসমাচার প্রচারের কাজে প্রেরণ করুন, প্রশিক্ষিত হোক বা না হোক, মন পরিবর্তন করুক বা না করে থাকুক! আমি বিশ্বাস করি যে মন্ডলীর প্রত্যেকের সুসমাচার প্রচারে যাওয়া উচিৎ| খ্রীষ্টের প্রতি বাধ্য থাকতে এটা একটা স্বাভাবিক অংশ হওয়া উচিৎ, আর আমি বিশ্বাস করি এটা তাদের প্রত্যেকের জন্যে যারাই আমাদের মন্ডলীর দরজা দিয়ে একবার বা দুইবারের বেশি প্রবেশ করেন|

তাদের খুব বেশি কিছু জানার প্রয়োজন নেই| সর্বসাকুল্যে তাদের বলা দরকার ‘‘মন্ডলীতে কিছু আশ্চর্য্য জিনিস ঘটছে, এবং আপনাকে সেখানে থাকতে হবে,’’ এই ধরনের সহজ কিছু একটা| আর তারপরে তাদের ফোন নম্বর নিয়ে নিন এবং মন্ডলীর নেতাদের তাদের অনুধাবন করতে দিন| এই পরিকল্পনা ব্যবহার করে আমাদের মন্ডলীতে প্রত্যেক রবিবারে আমরা অনেক দর্শনার্থী পেয়েছি| প্রত্যেক রবিবারের সভাতে আমি সুসমাচার প্রচার করি| প্রত্যেক সভাতে অনেক অপরিত্রাণপ্রাপ্ত লোক থাকার ফলে সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচারের প্রয়োজন হয়|

আমি সুপারিশ করছি যীশু যে সহজ উপায়ে জগতের মধ্যে সুসমাচার প্রচারে পাঠিয়েছিলেন আমরা সেই রাস্তাতে ফিরে যাই| সর্বোপরি, অন্য পদ্ধতিগুলি প্রকৃতপক্ষে খুব একটা ভাল কাজ করে না, করছে কি? কিন্তু আমি জানি যে যীশুর পদ্ধতি প্রত্যেক সেবাতে যে কোন মন্ডলীকে পূর্ণ করবে বিশ্বের সব জায়গা থেকে আগত ডজন ডজন লোকের দ্বারা, যারা এটা ব্যবহার করেন| ডঃ জন্ আর রাইস প্রায়ই বলতেন, ‘‘একমাত্র বাইরে যাওয়ার প্রয়াস নতুন নিয়মের আত্মা জয়ের সমকক্ষ হইতে পারে’’ (জন্ আর. রাইস, ডি.ডি., হোয়াই আওয়ার চার্চেস ডু নট উইন সোলস, সোর্ড অফ দ্য লর্ড পাবলিশার্স, 1966, পৃ. 149)| ঐ বিষয়ে আমি তার সঙ্গে সম্পূর্ণভাবে সহমত!

এবং আর একটা বিষয়, যখন লোকেদের সুসমাচার প্রচারে বাইরে পাঠানো হয় তারা খ্রীষ্টে বৃদ্ধি পায়| যদি লোকে প্রচার না করেন তারা বছরের পর বছর নিরুদ্যম হয়ে যেতে পারেন| কিন্তু অভিজ্ঞতার মাধ্যমে আমি জানি যে প্রত্যেক সপ্তাহে তারা যদি সুসমাচার প্রচারে যেতে থাকেন তবে তারা খুব দ্রুত দৃঢ় খ্রীষ্ট বিশ্বাসীতে পরিণত হন| এই মহান আদেশের বাধ্যতার মধ্যে খ্রীষ্ট বিশ্বাসীর বৃদ্ধির চবিকাঠি সুপ্ত রয়েছে!

‘‘যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|

যখন আপনি সর্বত্র গিয়ে লোকদের কাছে সুসমাচার প্রচার করেন তখন আপনার জীবন পরিবর্তিত হবে! আর তারপরে, স্বভাবতই, তখন আপনার অবশ্যই পুনর্জন্ম হবে! যখন আপনারা বিশ্বাসে খ্রীষ্টের কাছে আসেন, ঈশ্বর আপনাদের প্রত্যেককে নতুন জন্ম প্রদান করুন| তখন দিশাহারা মানুষদের সামনে প্রচারে আপনি এমনকী আরও বেশি সাফল্য অর্জন করবেন| যাতে আপনি নিজেকে সুসমাচার প্রচারের কাজে নিক্ষিপ্ত করতে পারেন, তার জন্যে ঈশ্বর আপনাকে অনুপ্রেরণা দান করুন এবং তা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করুন| আমেন|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন ডঃ ক্রেইগটন এল. চান: লূক 17:11-19 |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“So Little Time” (Dr. John R. Rice, 1895-1980) |


খসড়া চিত্র

প্রত্যেক ব্যক্তি সুসমাচার প্রচার করছেন !

EVERY PERSON EVANGELIZING!

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র

‘‘যাইতে যাইতে তাহারা শুচীকৃত হইল’’ (লূক 17:14)|

(লূক 17:12; লেবীয় পুস্তক 13:45-46; লূক 17:13, 14, 15-16, 19)

I.   প্রথমত, খ্রীষ্টের প্রতি বাহ্যিক বিশ্বাস থেকে আংশিক শুচিতা আসে, লূক 17:14;
ইফিষীয় 4:14; 5:16; কলসীয় 4:5 |

II.  দ্বিতীয়ত, যখন আপনি খ্রীষ্টের কাছে আসেন তখন পূর্ণ পরিত্রাণের অভিজ্ঞতা
লাভ করেন, লূক 17:16; যোহন 3:7; লূক 17:19 |

III. তৃতীয়ত, অবিলম্বে সুসমাচার প্রচার আরম্ভ করা উচিৎ, এমনকী আপনার মন
পরিবর্তন হওয়া আগেই, লূক 17:14; মার্ক 6:7, 12; মথি 28:19 |