Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




বেঁচে থাকার জন্য উদ্দীপনা

REVIVAL FOR SURVIVAL
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2017 সালের, 31শে অগাস্ট, বৃহস্পতিবারের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Thursday Evening, August 31, 2017


অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান এবং আপনার গানের পাতার, “হেয়ার ইজ্ লাভ, ভাস্ট এজ্ দ্য ওশান” এই 19 নং গানটি করুন|

সাগরের ন্যায়, অসীম প্রেম, জোয়ারের ন্যায় দয়া,
   যখন জীবনের রাজা, আমাদের প্রায়শ্চিত্ত, তাঁহার বহুমূল্য রক্ত বহনে|
কে তাঁহার প্রেম স্মরণ করিবে না? কে তাঁহার প্রশংসা গান বন্ধ করিতে পারে?
   তিনি কখনও বিস্মৃত হন না, স্বর্গের অনন্তকালীন দিনগুলি ধরিয়া|

ক্রুশারোপনের মুখগহ্বর গভীর ও বিস্তৃত, উৎস উন্মুক্ত;
   ঈশ্বরের দয়া বন্যার দুয়ারের মাধ্যমে অসীম ও গৌরবময় জোয়ারে প্রবাহিত ছিল|
প্রবল নদীর ন্যায়, অনুগ্রহ ও দয়া, উর্দ্ধ হইতে অবিরাম উপচাইয়া পড়িতেছে,
   স্বর্গের শান্তি ও পূর্ণাঙ্গ ন্যায্যতা প্রেমে দোষী জগতকে চুম্বন করিতেছিল|

আমি তাঁহার সব ভালবাসা গ্রহণ করি, তাঁহাকে ভালবাসি, জীবনের সমস্ত দিন ধরিয়া;
   আমি শুধু তাঁর রাজ্যের অন্বেষণ করি এবং আমার জীবন তাঁহার প্রশংসায় হউক;
তিনি একাই আমার গৌরব হউন, জগতের আর কিছু আমি দেখি না|
   তিনি আমাকে শুচি ও পাপমুক্ত করিয়াছেন, তিনি নিজেই আমাকে বন্ধনমুক্ত করিয়াছেন|

তোমার মধ্যে তোমার আত্মায় তোমার বাক্যের মাধ্যমে তুমি আমাকে নির্দেশ করিয়াছ;
   আমার সাক্ষাতের প্রয়োজন তোমার অনুগ্রহ, আমার প্রভু, যেমন আমি তোমাকে বিশ্বাস করি|
তোমার পূর্ণতা ও তোমার মহাপ্রেম আর ক্ষমতা আমার উপরে বর্ষণ কর,
   পরিমাপ ছাড়া, পূর্ণ এবং অবাধ, আমার হৃদয়কে আকর্ষণ করে|
(“Here is Love, Vast as the Ocean,” William Rees, 1802-1883) |

আজ রাত্রে এখানে আমাদের সঙ্গে উপস্থিত প্রত্যেকে ঈশ্বরের উপস্থিতির জন্যে প্রার্থনা করুন (সকলে প্রার্থনা করলেন)| এখন 22 নম্বরের, এই “দ্য স্ট্রাইফ ইজ্ ওভার” গানটি করুন|

হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!
শত্রুতা শেষ, সাফল্য সিদ্ধ,
জীবনের বিজয় সাফল্য|
বিজয় উল্লাসের গান শুরু, হালেল্লুয়া!
হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!

মৃত্যুর শক্তি তাহাদের চরম মন্দ করিয়াছে,
কিন্তু খ্রীষ্ট তাহার বাহিনী অদৃশ্য করিয়াছেন;
পবিত্র উল্লাসের আহ্বান বিস্ফোরিত হউক, হালেল্লুয়া!
হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!

বিষাদের তিনটি দিন শীঘ্র অগ্রসর হয়;
তিনি মৃত্যু হইতে গৌরবে উঠিয়াছেন;
সব গৌরব আমাদের পরিত্রাতার শিরে! হালেল্লুয়া!
হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!

তিনি নরকের উন্মুক্ত দুয়ার বন্ধ করিয়াছেন;
স্বর্গের উচ্চ দুয়ার হইতে গারদ ভূপাতিত হয়:
তাঁহার জয়োল্লাস বলে প্রশংসার গান, হালেল্লুয়া!
হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!

প্রভু, বেত্রাঘাতের দ্বারা তোমার ক্ষত,
মৃত্যুর আতঙ্কিত যন্ত্রণা হইতে তোমার দাস মুক্ত,
যেন আমরা বাঁচি ও তোমার উদ্দেশ্যে গান করি| হালেল্লুয়া!
হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া! হালেল্লুয়া!
   (“The Strife Is O’er,” translated by Francis Pott, 1832-1909) |

সকলে প্রার্থনা করুন যেন আজ রাত্রে যীশু খ্রীষ্ট এখানে গৌরবান্বিত হন (সকলে প্রার্থনা করলেন)| এখন 23 নম্বরের, এই “এন্ড ক্যান ইট বি?” গানটি করুন|

কেমনে লাভ করিব আমি মহাদান, পরিত্রাতার রক্তে?
মরিলেন তিনি, সহিলেন দু:খ, দিলেন তিনি জীবন আমার তরে?
আশ্চর্য্য প্রেম নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?
আশ্চর্য্য প্রেম! নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?

সব রহস্য! অমর মৃত্যুতে! পরীক্ষা করিতে তাঁর অদ্ভুত অভিলাষ?
বিফল প্রথম জাত মারফতে চেষ্টা স্বর্গীয় প্রেমের নিগূঢ় প্রকাশ!
সব রহস্য হোক জগতের পূজ্য; মৃতের মন আর অনুসন্ধান না করুক|
আশ্চর্য্য প্রেম! নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?

আজ পিতার সিংহাসন নিঃস্ব হয়ে জগতে এলেন;
শূন্য হলেন, প্রেম দেখালেন, রক্ত দিলেন তিনি মোদের তরে;
হে, আমার প্রভু; সব রহস্য বিশাল ও মুক্ত করলে আমার তরে|
আশ্চর্য্য প্রেম! নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?

আত্মা আমার বদ্ধ ছিল পাপপূর্ণ অন্ধকারে আবৃত;
তোমার দৃষ্টির আলোক রাখি, হৃদয়ে জ্বালালো জ্যোতির শিখা;
আমার শৃঙ্খল স্খলিত, আমার হৃদয় মুক্ত, আমি উঠিলাম, অগ্রসর হইয়া নিকটে যাইলাম|
আশ্চর্য্য প্রেম! নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?

আর নাইকো দোষের ভয়; মোর যীশু, আমার সব, আমি তাঁর!
আমি তাঁর, তাঁতে জীবিত, তিনি আমাতে দিলেন ধার্মিকতার বসন,
সগর্বে অনন্ত সিংহাসনের সামনে, খ্রীষ্টের মাধ্যমে মুকুটের দাবী|
আশ্চর্য্য প্রেম! নয় অসম্ভব, আমার প্রভু জীবন দিলেন?
   (“And Can It Be?”, Charles Wesley, 1707-1788) |

আপনার এবার বসতে পারেন| আমাদের বরিষ্ঠ পরিচারক, মিঃ বেন গ্রিফিত, আমাদের জন্যে গান গাইতে আসবেন|

কেবল যীশু - এবং কেবলমাত্র তাঁরই প্রশংসা ও তাঁকে গৌরবান্বিত করতে আমরা আজ রাত্রে এখানে উপস্থিত হয়েছি| এখন আপনার বাইবেলে হিতোপদেশ, 14 নং অধ্যায়ে, 14 নং পদটি দেখুন| স্কোফিল্ড স্টাডি বাইবেলে এটা 681 নং পাতাতে আছে| যখন আমি পড়ছি অনুগ্রহ করে আবার উঠে দাঁড়ান|

‘‘যে চিত্তে বিপথগামী, সে নিজ আচরণে পূর্ণ হয়’’ (হিতোপদেশ 14:14)|

নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন - ‘‘আমি কি নিজ আচরণে পূর্ণ? আমার হৃদয় কি শীতল হয়ে গেছে? যখন আমি একাকী থাকি তখন প্রার্থনা করার চেষ্টা করি, কিন্তু আমি ঈশ্বরের উপস্থিতি অনুভব করি না|’’ আপনি কি তাই? যখন আপনি সুসমাচার প্রচারে যান তখন আপনার অস্থিতে কি সেই অগ্নি থাকে যা আপনাকে বাধ্য করে হারানো আত্মার অন্বেষনে? অথবা সুসমাচার প্রচারে যে প্রবল উদ্দীপনা এর আগে আপনার ছিল বর্তমানে তা অনেক কমে গেছে? যখন আপনি কাউকে উচ্চস্বরে প্রার্থনা করতে শোনেন, আপনার হৃদয় এবং ওষ্ঠ কি প্রত্যেকটি বিনতির জন্যে, ‘‘আমেন’’ বলে ওঠে? অথবা আপনি কি মনে করেন যে তারা আপনার মতন অতটা ভাল নন যতটা আপনি ছিলেন যখন আপনি প্রথম প্রার্থনা করা শুরু করেছিলেন? অথবা আপনি কি চিন্তা করেন, ‘‘তারা খুব তাড়াতাড়ি পতিত হবেন?’’ আপনি কি একজন নতুন খ্রীষ্ট বিশ্বাসীর মধ্যে ত্রুটি খুঁজে বেড়ান? আপনি কি মনে করেন যে তারা আপনার মতন অতটা ভাল নন যতটা আপনি ছিলেন যখন আপনি প্রথম পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন? যখন প্রচার আপনাকে নিজের ত্রুটির সম্বন্ধে ভাবতে বাধ্য করায়, আপনি কি ভাবেন, ‘‘আমি কক্ষনো সেগুলি সর্বসমক্ষে স্বীকার করব না| একটা স্বীকারোক্তি দেওয়ার জন্যে আপনি আমাকে কখনও পাবেন না’’? যখন নতুন কোন ব্যক্তির মনোযোগ আকর্ষণ করেন তখন আপনি কি আনন্দিত হন? অথবা আপনি কি মনে করেন যে তারা আপনার মতন অতটা ভাল নন যতটা আপনি ছিলেন যখন আপনি প্রথম পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন? যখন আপনি প্রথম পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন তখন যেমন ভাল খ্রীষ্ট বিশ্বাসী ছিলেন এখনও কি ততটাই ভাল আছেন? অথবা আপনার হৃদয় কি শীতল ও শূন্য হয়ে গেছে?

‘‘যে চিত্তে বিপথগামী, সে নিজ আচরণে পূর্ণ হয়’’ (হিতোপদেশ 14:14)|

যখন আপনি প্রথম উদ্ধার পেয়েছিলেন আপনি প্রভুর জন্যে যে কোন কিছু করতেন| সেই সময়ে, আপনি বলতেন, ‘‘আমি যীশুর সেবা করতে ভালবাসি| আমি কখনও তাঁর জন্যে খুব বেশি কিছু করতে পারি না|’’ আপনি কি সেটা বলতে পারবেন এবং এখনও কি সেইরকম মনে করছেন? না কি আপনি এখন একজন বিপথগামী খ্রীষ্ট বিশ্বাসী? আমি শুধু যুবকদের প্রতি বলছি না| আমি ‘‘সেই 39’’ দের প্রতি বলছি - আমি অপেক্ষাকৃত প্রাচীন লোকদের আর সেইসঙ্গে যুবকদেরও বলছি| আমি দিশাহারা যুবকদের প্রতি বলছি না| আমি আপনার উদ্দেশ্যে বলছি যিনি দীর্ঘদিন আগে পরিত্রাণ লাভ করেছিলেন| আপনি কি আপনার প্রথম ভালবাসা হারিয়েছেন? যখন আপনাকে প্রথম পরিত্রাণ দেওয়া হয়েছিল তখন যেমন ছিলেন এখনও কি আপনি খ্রীষ্টের জন্যে সেইরকমের ভালবাসায় পূর্ণ হয়ে আছেন? ইফিষয়ে বসবাসকারী খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের প্রতি যীশু বলেছিলেন,

‘‘তথাচ তোমার বিরুদ্ধে আমার কথা আছে, তুমি আপন প্রথম প্রেম পরিত্যাগ করিয়াছ| অতএব স্মরণ কর, কোথা হইতে পতিত হইয়াছ, এবং মন ফিরাও ও প্রথম কর্ম্ম সকল কর’’ (প্রকাশিত বাক্য 2:4, 5)|

আমি প্রায় 60 বছর ধরে একজন প্রচারক| ঐ ছয় দশকে সময়ে সময়ে আমার হৃদয় পশ্চাদপদ হয়েছিল| কিভাবে আমি ঐ পশ্চাদপদ অবস্থা থেকে বের হয়ে এসেছিলাম? তা এইভাবে হয়েছিল| প্রথমত আমি সচেতন হয়েছিলাম যে আমার হৃদয় আমার নিজস্ব উপায়ে পূর্ণ হয়েছে| আমি আমার স্বয়ং এর জন্যে দুঃখিত হয়েছিলাম| আমি দুঃখ অনুভব করলাম| বিষয়গুলি কত কঠিন সেই সম্বন্ধে আমি অভিযোগ জানিয়েছিলাম| দ্বিতীয়ত, আমি অনুভব করতে শুরু করেছিলাম যে যীশুর জন্যে আমার প্রথম ভালবাসা আমি পরিত্যাগ করেছি| তৃতীয়ত, আমি কতদূর পতিত হয়েছি তা আমি স্মরণ করতে পারলাম| আমি সেই সমস্ত পাপে দোষী সাব্যস্ত হলাম যা আমার ও যীশুর মধ্যে এসেছিল| তারপরে আমি স্মরণ করলাম ক্রুশের উপরে যীশু, আমার পাপের দেনা শোধ করতে মৃত্যুবরণ করছেন| আমি অনুতপ্ত হয়েছিলাম এবং নতুনভাবে তাঁকে বিশ্বাস করেছিলাম| এটা প্রায় দ্বিতীয়বার মন পরিবর্তনের মতন ব্যাপার| “ফিল অল মাই ভিশেন” গানটি করুন|

পরিত্রাতা, প্রার্থনা করি, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর,
   হউক আজ শুধু যীশুকেই দেখি;
যদিও উপত্যকার মধ্য দিয়া তুমি আমায় পরিচালনা কর,
   তোমার অম্লান গৌরব আমায় পরিবেষ্টন করে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|
(“Fill All My Vision,” Avis Burgeson Christiansen, 1895-1985) |

আমি নিজে যা করি না আপনাদেরও সেটা করতে বলব না| আমি জন্ কেগানকে প্রচারে সমর্পিত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলাম| শেষ পর্যন্ত তিনি বলেছিলেন যে তিনি তা করবেন| তারপরে আমি দেখলাম যে তিনি আমার তুলনায় অনেক ভাল প্রচারক ছিলেন| তার কাছে যৌবনের ক্ষমতা ছিল, যেখানে আমি ছিলাম বৃদ্ধ এবং আমার সব ক্ষমতা হারিয়েছিলাম| আমি জনের প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়েছিলাম| এটা আমাকে মানসিকভাবে চরম যন্ত্রনা দিচ্ছিল যতক্ষণে এক রাত্রে আমি তার কাছে এটা স্বীকার করেছিলাম| তারপরে আমি সেটা আপনার কাছে স্বীকার করেছিলাম| তারপরে আমি আরোগ্য লাভ করেছিলাম এবং আমার আনন্দ পুনঃস্থাপিত হয়েছিল| আমি যা করেছিলাম তাই করার জন্যে আমি আজ রাত্রে আপনাকে অনুরোধ করছি| আমি হৃদয়ে এতটাই পশ্চাদপদ হয়েছিলাম যে আমি প্রকৃতপক্ষে ভয় পেয়েছিলাম যে আপনি হয়তো চাইবেন যে আমি আপনাদের সামনে আর প্রচার না করি| তারপরে ঈশ্বর আমাদের মন্ডলীতে উদ্দীপনার একটুখানি স্পর্শ পাঠিয়েছিলন এবং আমি অনুতাপ করেছিলাম এবং তাঁর বহুমূল্য রক্তের দ্বারা আরও একবার শুচি হওয়ার জন্যে যীশুর কাছে ফিরে গিয়েছিলাম| আপনার কাছে এটা কি অদ্ভূত মনে হয় না যে একজন 76 বছর বয়স্ক বৃদ্ধের, যিনি 60 বছর ধরে প্রচার করে চলেছেন, অনুতাপের প্রয়োজন আছে? না, এটা অদ্ভূত নয়| এটা হচ্ছে নবজীবন প্রাপ্ত হওয়ার এবং আপনার হৃদয়ে পুনরুজ্জীবিত হওয়ার একমাত্র উপায়| ‘‘এবং মন ফিরাও ও প্রথম কর্ম্ম সকল কর’’ (প্রকাশিত বাক্য 2:5)| বার বার অনুতপ্ত হন। যীশুর কাছে ফিরে আসুন এবং বার বার তাঁর রক্তের দ্বারা শুচি হন! বিখ্যাত সংস্কারক লুথার বলেছিলেন, ‘‘সমগ্র জীবন আমাদের অবিচলিত থাকিতে বা অন্তহীনভাবে অনুতাপিত হইতে হইবে|’’ লুথারকে ক্রমাগতভাবে অনুতপ্ত হতে হয়েছিল এবং শুচি হওয়ার জন্যে যীশুর কাছে ফিরে আসতে হয়েছিল| সেইরকম আপনাকে ও আমাকেও করতে হবে|

আমি বিশ্বাস করি যে উদ্দীপনাতে যাকোব 5:16 পদের একটা প্রয়োগ আছে| এতে বলছে, ‘‘তোমরা এক জন অন্য জনের কাছে আপন আপন পাপ স্বীকার কর, ও এক জন অন্য জনের নিমিত্ত প্রার্থনা কর, যেন সুস্থ হইতে পার...’’ ‘‘পাপ’’ শব্দটি লক্ষ করুন| এর গ্রীক শব্দটি হল “paraptōma” (প্যারাপ্‌তোমা)| ডঃ স্ট্রং বলছেন যে শব্দটির মূল অর্থ হল ‘‘পদস্খলন; [একটি] ত্রুটি বা অপরাধ এবং অন্যান্য পাপসমূহ|’’ যা আমাদের স্বীকার করতে বলা হচ্ছে তা শুধুমাত্র সেই মহা পাপগুলি নয়, কিন্তু এখানে আমাদের বলা হচ্ছে নিজেদের ‘‘পদস্খলন,’’ আমাদের ‘‘ত্রুটি এবং অপরাধ’’ স্বীকার করতে| কারোর প্রতি আমাদের ক্রোধ, আমাদের ক্ষমাহীনতা, আমাদের ঈর্ষা, আমাদের মধ্যে ভালবাসার অভাব, অন্যান্য সমস্ত ত্রুটি যা ঈশ্বর ও আমাদের মধ্যে রয়েছে তা স্বীকার করতে|

কেবলমাত্র ঈশ্বরকে স্বীকারোক্তি দান করার মাধ্যমে আমাদের হৃদয় প্রায়ই আরোগ্য লাভ করে| আমি লক্ষ করেছিলাম কাই পেরনঙ্গ এর মুখমন্ডল ভালবাসায় ও উদ্বেগে উজ্জ্বল হয়েছিল| তার আগে তার মধ্যে একটা তিক্ত, এবং ক্রোধান্বিত দৃষ্টি ছিল| আমি তাকে কি হয়েছে জিজ্ঞাসা করেছিলাম| তিনি আমাকে বলেছিলেন, ‘‘মিসেস শিরলে লী’র উপরে কিভাবে পবিত্র আত্মা কাজ করিয়াছেন তাহা আমি দেখিয়াছি| তাহার যাহা ছিল সেই শান্তি এবং আনন্দ আমি পাইতে চাহিয়াছিলাম| পালক, আমি ঈশ্বরের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়াছিলাম যে আমি আপনার উপরে ক্রোধান্বিত হইয়াছিলাম| তখন আমার নিজের ক্রোধ প্রশমিত হইয়াছিল এবং আমি শান্তি পাইয়াছিলাম এবং অন্যের জন্যে উদ্বিগ্ন হইয়াছিলাম|’’ বিস্ময়কর! এটা আমাকে অত্যন্ত আনন্দ দান করেছিল যখন আমি তাকে সেই কথা বলতে শুনেছিলাম! আমি তাকে বলেছিলাম যে আমি তাকে ভালবাসি| সর্বসাকুল্যে এই হচ্ছে পাপ স্বীকার| এটা হল অন্যকে ক্ষমা করা এবং ঈশ্বরের কাছ থেকে নতুন শান্তি ও আনন্দ লাভ করা সম্বন্ধিত বিষয়! উদ্দীপনা তাই করে থাকে - যখন আপনি ঈশ্বরের প্রতি নিজের দোষ স্বীকার করবেন তখন আপনি নতুন শান্তি ও আনন্দ লাভ করবেন|

কিন্তু যখন ঈশ্বর আমাদের মাঝে বিচরন করছেন, আপনার উচিৎ হবে একজন ভাই বা বোনের কাছে আপনার নিজের দোষ সরাসরি স্বীকার করা| আপনাদের উচিৎ একে অন্যের প্রতি দোষ স্বীকার করা| যাকোব 5:16 পদটিকে আক্ষরিকভাবে অনুবাদ করা যেতে পারে এইভাবে ‘‘‘আপনার ত্রুটিগুলি অন্যের কাছে স্বীকার করা অনুশীলন করুন এবং একে অন্যের জন্যে প্রার্থনা করা অনুশীলন করুন’ এর অর্থ আপনার স্বীকারোক্তির আগে যতক্ষণে অসুস্থতা আঘাত হানছে আপনাকে আর অপেক্ষা করতে হচ্ছে না’’ (আর. সি. এইচ. লেনস্‌কি)| চীনদেশে তারা একে অন্যের কাছে দোষ স্বীকারের এবং একে অন্যের জন্যে প্রার্থনা করার একটা অভ্যাস গড়ে তুলেছিলেন| সেটাই কারণ যে চীনদেশে তারা অবিচলভাবে উদ্দীপনা পেয়েছেন|

আমি এক ভাইকে বলেছিলাম যে আমি আপনাকে আসার জন্যে এবং আপনার জন্যে প্রার্থনা করার জন্যে একটা আমন্ত্রণ জানাবো, যেমন এর আগে আমি বারদুয়েক করেছি| আমি তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, ‘‘আপনি কি মনে করছেন কেউ আসবে?’’ তিনি কিছুক্ষণ এই বিষয়ে চিন্তা করলেন, আর তারপরে আমাকে বললেন, ‘‘না| একজনও আসবে না|’’ আমি তাকে বললাম আপনি কেন আসবে না| তিনি বললেন যে আপনি ভাবছেন যে আমি উদ্দীপনা চাই যাতে আরও বেশি লোক আমাদের মন্ডলীতে আসেন| কিন্তু সেটা কারণ নয়| আপনি নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন, যদি আরও বেশি লোক আসতেন তাতে কি ভাল হত? তারা যদি আসতেন আমরা তাদের কিভাবে সাহায্য করতে পারতাম? আমরা তাদের বন্ধুত্ব, আনন্দ, এবং গভীর সহভাগিতা দিই| কিন্তু আপনার নিজের মধ্যে কি সেগুলি আছে? আছে কি? অথবা আপনার মধ্যে শুধু ভালবাসাহীন কর্তব্য পালনের ধর্ম আছে? আপনারা ভালবাসছেন না এবং পরস্পরের প্রতি যত্ন নিচ্ছেন না, নিচ্ছেন কি? আপনার মধ্যে আনন্দ নেই, আছে কি? আপনার কাছে গভীর বন্ধুত্ব নেই, আছে কি? আপনার হৃদয় নতুন লোকদের গভীরভাবে ভালবাসে না, এটা কি ঠিক? সৎ হন, আপনার মধ্যে যীশুর জন্যে একটা গভীর ভালবাসা আর নেই, আছে কি? যখন আমাদের নিজেদের কাছেই এই সব জিনিষ নেই তখন আমরা কিভাবে সেইগুলি অন্যদের প্রদান করতে পারি?

আমি যখন আপনাকে আপনার দোষ এবং পাপ স্বীকার করতে বলি তখন আপনি চিন্তা করেন, ‘‘সেটা করলে আমাকে বিব্রত হতে হবে|’’ আপনি ইতিমধ্যেই কাজ করে যাচ্ছেন - অনেক অনেক কাজ! এগুলি খুব বড় কাজ নয় যা আপনার করা দরকার| সেটা হল আরও বেশি ভালবাসা! খ্রীষ্টের জন্যে আরও বেশি ভালবাসা! একে অন্যের প্রতি ভালবাসা কেবল তখনই আরও বেশি হতে পারে যখন আমাদের কাছে তাঁর জন্যে আরও বেশি ভালবাসা থাকে!

সকল ইচ্ছা, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর
   তোমার গৌরবের জন্য রাখ; আমার আত্মা অনুপ্রাণিত,
তোমার পূর্ণাঙ্গ রূপ, তোমার পবিত্র প্রেম,
   উর্দ্ধ হইতে আলোর স্রোত আমার পথ|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|

অন্য এক রাত্রে আমি হতভাগ্য শিম্শোনের কথা ভাবছিলাম| বাইবেলের চারটি গোটা অধ্যায় শিম্শোনের প্রতি উৎসর্গ করা হয়েছে| একজন উদ্ধারপ্রাপ্ত মানুষ হিসাবে তাকে ইব্রীয় 11:32 পদে তালিকাভূক্ত করা হয়েছে| তিনি কখন উদ্ধার পেয়েছিলেন? আমার বিশ্বাস যে তার মৃত্যুর কয়েক মিনিট আগে পর্যন্ত তিনি উদ্ধার পাননি যখন শেষ পর্যন্ত তিনি ঈশ্বরের কাছে আর্তস্বরে সাহায্য চেয়েছিলেন| কিন্তু যীশু তাকে একজন পবিত্র মানুষ বলে উল্লেখ করেছিলেন, ‘‘ঈশ্বরের উদ্দেশ্যে নাসরীর’’ (বিচারকর্ত্তৃগণের বিবরণ 13:5)| ‘‘আর সদাপ্রভুর আত্মা প্রথমে তাঁহাকে চালাইতে লাগিলেন’’ (বিচারকর্ত্তৃগণের বিবরণ 13:25)| কিন্তু শিম্শোন তার সমস্ত হৃদয় দিয়ে ঈশ্বরকে ভালবাসতে ব্যর্থ হয়েছিলেন| তার সংক্ষিপ্ত জীবনের অধিকাংশ ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন আপনার মতন| তিনি ভেবেছিলেন তার নিজস্ব ক্ষমতায়, তার নিজস্ব শক্তিতে তিনি খ্রীষ্টিয় জীবন যাপন করতে পারবেন| কিন্তু তিনি পারেননি| তিনি বারে বারে অকৃতকার্য্য হয়েছিলেন, যেমন আপনি ও আমি হচ্ছি| সব শেষে শয়তানীয় শক্তি তাকে অধিকার করেছিল এবং তার চোখদুটি উপড়ে নিয়েছিল, ‘‘এবং তিনি কারাগারে যাঁতা পেষণ করিতে থাকিলেন’’ (বিচারকর্ত্তৃগণের বিবরণ 16:21)|

হে, ভাই ও বোনেরা, আপনাদের মধ্যে কেউ কেউ কি হতভাগ্য শিম্শোনের মতন নন? আপনি যীশুর দ্বারা আহুত হয়েছিলেন| অতীতে আপনি ঈশ্বরের জন্যে মহান কিছু করার প্রতি পবিত্র আত্মা দ্বারা চালিত হয়েছিলেন| কিন্তু ক্রমশঃ আপনি তিক্ত ও বিষন্ন হয়ে পড়েছেন| আপনি এখন আনন্দিত নন| মন্ডলীর প্রতি প্রকৃত ভালবাসা এখন আপনার কাছে নেই| দৃষ্টিহীন চোখ নিয়ে আপনি এখন মন্ডলীতে আসছেন| আপনার ধর্ম হল গোলামি, আনন্দ ব্যাতীত কঠোর শ্রম| গোলামি, ক্রীতদাসের কাজ! এই পর্যন্তই! একজন ক্রীতদাস হিসাবে আপনি মন্ডলীতে আসেন| এটা হল নিছক গোলামি| এখানে থাকতে আপনি আর ভালবাসেন না| হতভাগ্য শিম্শোনের মতন আপনি ‘‘কারাগারে যাঁতা পেষণ’’ করছেন| আমি জানি না অন্যেরা তার সম্বন্ধে কি ভাবেন, কিন্তু আমি খুব অশ্রুপাত করেছিলাম যখন তার সম্বন্ধে পড়েছিলাম ‘‘কারাগারে যাঁতা পেষণ করিতে থাকিলেন’’ - পিতলের হাতকড়া ও শিকলের দ্বারা বদ্ধ হয়ে, যাঁতা পিষে চলেছেন, ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে ঘুরিয়ে চলেছেন সেই যন্ত্র, যা শষ্যচূর্ণ করছে|

আর আমি জানি যে সেটা আপনার ধর্মও বটে, এবং কোন কোন সময়ে আমার হৃদয় আপনার জন্যে কেঁদে ওঠে| আপনার কোন আনন্দ নেই| আপনার কোন আশা নেই| একজন ক্রীতদাস হিসাবে আপনি শুধু কারাগারে যাঁতা পিষে চলেছেন| হ্যাঁ! আপনাদের মধ্যে কিছু লোকের জন্যে এই মন্ডলী হল একটি কারাগার, একটা কারাগার যেখানে আপনি সেবার মাধ্যমে যাঁতা পিষে চলেছেন, যেখানে আপনি সুসমাচার প্রচারের ক্রীতদাসসুলভ কাজকর্মের মাধ্যমে যাঁতা পিষে চলেছেন| আপনি এইভাবেই একে ঘৃণা করেন! কিন্তু কিভাবে মুক্তি পেতে হয় আপনি জানেন না! আত্মিক শিকল দিয়ে আপনি বাঁধা আছেন, পিষে চলেছেন, পিষে চলেছেন, আশাহীন অবস্থাতে থেকে পিষে চলেছেন| কোন কোন সময়ে আপনি ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবেন| আমি জানি আপনাদের কয়েকজন তা করবেন| কিন্তু আপনি ছাড়তে পারেন না| যিনি আপনার একমাত্র বন্ধু তিনি এখানে আছেন| যিনি আপনার একমাত্র আত্মীয় তিনি এখানে আছেন! কিভাবে আপনি কখনও মুক্তি পেতে পারেন সেই বিরামহীন পেষণ, ঘৃণাপূর্ণ গোলামি এবং একটি মন্ডলীর একঘেঁয়ে কাজকর্ম থেকে যা আপনার কাছে কারাগারের মতন মনে হয়? আমি আপনাকে সাহায্য করতে চাই! ঈশ্বর জানেন আমি সাহায্য করি! সেখানে মুক্তি পাওয়ার কেবলমাত্র একটাই উপায় আছে| পালক, আপনি তা কিভাবে জানলেন? কারণ আপনি এখন যে স্থানে আছেন আমিও সেই একই স্থানে ছিলাম! একটা মন্ডলীতে আমাকে শৃঙ্খলিত করে রাখা হয়েছে, পিষে চলেছি, পিষে চলেছি, কাজটিকে ঘৃণা করছি - কিন্তু মুক্তির কোন পথ দেখছি না! মুক্তির একমাত্র পথ হচ্ছেন যীশু! আপনার দোষগুলি স্বীকার করুন! না কেন? আপনার দোষগুলি হল সেই শিকল যা আপনাকে বেঁধে রেখেছে! সেই সবের হাত থেকে নিস্তার পান! অনুতাপ করুন এবং রক্তের দ্বারা শুচি হন, কারণ একমাত্র যীশুই পারেন আপনার শিকল আলগা করতে এবং আবার আপনাকে মুক্ত করতে|

‘‘অতএব তোমরা এক জন অন্যজনের কাছে আপন আপন পাপ স্বীকার কর, ও এক জন অন্য জনের নিমিত্ত প্রার্থনা কর, যেন সুস্থ হইতে পার’’ (যাকোব 5:16)|

স্বীকার করুন আপনার সব ভয়, আপনার সব সন্দেহ, আপনার সব পাপ, আপনার ক্রোধ, আপনার তিক্ততা, আপনার ঈর্ষা| ‘‘অতএব তোমরা এক জন অন্যজনের কাছে আপন আপন পাপ স্বীকার কর, ও এক জন অন্য জনের নিমিত্ত প্রার্থনা কর, যেন সুস্থ হইতে পার’’ (যাকোব 5:16)| মিসেস লী এটা করেছিলেন! আর যীশু তাকে আরোগ্য দিয়েছিলেন| কাই পেরনঙ্গ এটা করেছিলেন, আর যীশু তাকে আরোগ্য দিয়েছিলেন| এই মুহূর্তে সেখানে একটা আশার আলো আছে| আপনি চিন্তা করছেন, ‘‘এটা কি সত্যি হতে পারে?’’ হ্যাঁ! এটা সত্যি! সবাই, অনুগ্রহ করে অন্য কারো নিমিত্ত প্রার্থনা করুন যেন তিনি তার দোষ স্বীকার করেন এবং যীশুর দ্বারা সুস্থ হন (সকলে প্রার্থনা করলেন)|

‘‘খ্রীষ্ট বলেছিলেন, ‘ধন্য যাহারা শোক করে’ (মথি 5:4) যা তাদের কথা বলছে যারা নিজেদের পশ্চাদপদ হওয়ার বিষয়টি অনুভব করেন এবং এর জন্যে কাঁদেন| সব সময়ে পাপ সেই সব খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের কাছে একটা সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় যারা উদ্দীপনার আকাঙ্খা করেন, এবং উদ্দীপনা সর্বদা অস্বস্তিকরভাবে সেই সমস্ত বিষয় নিয়ে লেনদেন করে যা জগত দেখে না| উদ্দীপনা অন্ধকারময় স্থানে আলোকপাত করে... উদ্দীপনার জন্যে প্রস্তুত করতে, ইভান রবার্টস তাদের স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন যে যতক্ষণ লোকেরা প্রস্তুত না হবেন ততক্ষণ সেই [পবিত্র] আত্মা আসবেন না: ‘আমাদের [মন্ডলীকে] অবশ্যই মুক্ত হতে হবে সব মন্দ অনুভূতি থেকে - সব বিদ্বেষ, ঈর্ষা, কুসংস্কার, এবং ভুল বোঝাবুঝি থেকে| যতক্ষণে না সব অপরাধ মার্জনা করা হচ্ছে [প্রার্থনা করবেন না]: কিন্তু যদি আপনি অনুভব করেন যে আপনি ক্ষমা করতে পারছেন না, ভূমিতে নত হন, এবং ক্ষমাদানকারী আত্মার জন্যে যাচ্ঞা করুন| তখন আপনি তা পাবেন’’’...একমাত্র শুচি খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা ঈশ্বরের ঘনিষ্ঠ সান্নিধ্যে বাস করতে পারেন (Brian H. Edwards, Revival, Evangelical Press, 2004, p. 113)... ‘‘প্রতিটি মানুষ একে অন্যকে বিস্মৃত হয়েছেন| প্রত্যেকে ঈশ্বরের মুখোমুখি ছিলেন [যেহেতু তারা তাদের সব পাপ স্বীকার করেছিলেন]... [এটা হল] প্রায় প্রত্যেকটি লিপিবদ্ধ উদ্দীপনার একটি আদর্শস্বরূপ| পাপের গভীর, অস্বাচ্ছন্দ্যকর এবং বিনম্র চেতনা ছাড়া কোন উদ্দীপনা হতে পারে না’’ (আইবিড. পৃ.116)... ‘‘আমাদের কাছে বর্তমানে একটি অপবিত্র মন্ডলী রয়েছে কারণ খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা এখন আর পাপের অনুভূতি বা ভয় পান না... যারা উদ্দীপনার আকাঙ্খা করছেন তাদের এক পবিত্র ঈশ্বরের সামনে নিজেদের হৃদয় এবং জীবন পরীক্ষা করার দ্বারা তা আরম্ভ করা উচিৎ| যদি আমরা আমাদের সব পাপ ঢেকে রাখি আর এখন সেগুলি স্বীকার না করি [আমরা উদ্দীপনা পাব না]... এমনকী খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের ক্ষুদ্রতম পাপের সম্বন্ধেও এক পবিত্র ঈশ্বর তাদের সচেতন করান... যারা জানেন যে তারা এক পবিত্র ঈশ্বরের উপস্থিতির মধ্যে রয়েছেন তারা সর্বদা নিজেদের ব্যক্তিগত পাপের সম্পর্কে সচেতন থাকেন... নব-আবিস্কৃত ক্ষমার মধ্যে দিয়ে দৃঢ় প্রত্যয়ের এই গভীর ক্রিয়া সর্বদা মুক্তি ও আনন্দের প্রতি চালিত হয়| ‘হৃদয়ের আঘাত’ অনুসরণ করে বিস্ফোরিত হয় পরিত্রাণের আনন্দ’’ (আইবিড. পৃ.120)|

আমাদের সতেরো জন যুবক ছিলেন যারা আশান্বিতভাবে ঐ সব সভাতে মন পরিবর্তন করেছিলেন| ঐ সভাগুলিতে আমরা উদ্দীপনার একটা স্পর্শ অনুভব করেছিলাম| খুব কম হলেও সেই যুবকেরা জাগরিত হয়েছিলেন| তাদের জাগরিত করা যাবে এবং আশান্বিতভাবে তারা মন পরিবর্তন করবেন বলে কেউ আশা করেননি| তা সত্ত্বেও যখন আমি তাদের নামগুলি ঘোষণা করেছিলাম, আমাদের সেই সমাবেশে কেউ আনন্দ প্রকাশ করেননি| আপনারা কেন আনন্দ প্রকাশ করেননি? চীন দেশে তারা হয়তো আনন্দে কেঁদেই ফেলতেন! এখানে কেন হল না?

সতেরো জন যুবক আশান্বিতভাবে উদ্ধার পেলেন কিন্তু সেখানে আনন্দের অশ্রু বয়ে গেল না, আমাদের মধ্যে মোটেও কোন আনন্দ হল না| কেন? কারণ ‘‘যে চিত্তে বিপথগামী, সে নিজ আচরণে পূর্ণ হয়’’ (হিতোপদেশ 14:14)|

‘‘তুমিই কি আবার আমাদিগকে সঞ্জীবিত করিবে না, যেন তোমার প্রজাগণ তোমাতে আনন্দ করে?’’ (গীতসংহিতা 85:6)|

যতক্ষণে আমরা চোখের জলে আমাদের ত্রুটি স্বীকার না করছি ততক্ষণ আমরা চোখের জলে আনন্দ প্রকাশ করতে পারি না! চীন দেশে সেইরকম ঘটছে! আমাদের মন্ডলীতে ঘটছে না কেন? যাতে সুস্থ হন সেইজন্যে, একে অন্যের কাছে নিজেদের পাপ স্বীকার করতে, এবং একে অন্যের জন্যে প্রার্থনা করতে আপনারা ভয় করছেন| অন্যেরা কি ভাববেন সেই ভয় আপনাদের পাপের স্বীকারোক্তি দেওয়া থেকে বিরত করছে| যিশাইয় বলেছিলেন, ‘‘তুমি কে যে মর্ত্ত্যকে ভয় করিতেছ, সে ত মরিয়া যাইবে...আর তোমার নির্ম্মাতা সদাপ্রভুকে ভুলিয়া গিয়াছ...’’ (যিশাইয় 51:12, 13)|

‘‘হে ঈশ্বর, আমাকে অনুসন্ধান কর, আমার অন্তঃকরণ জ্ঞাত হও; আমার পরীক্ষা কর, আমার চিন্তাসকল জ্ঞাত হও;
আর দেখ, আমাতে দুষ্টতার পথ পাওয়া যায় কি না,
এবং সনাতন পথে আমাকে গমন করাও’’
(গীতসংহিতা 139:23, 24)|

পাপের ধ্বংস হউক, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর
   উজ্জ্বল জ্যোতি অন্তরে প্রতিবিম্বিত হউক|
আসুন শুধু তোমার আশীর্ব্বাদের মুখ দেখি,
   তোমার অনন্ত অনুগ্রহ আমার আত্মার পর্ব্ব|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|
(“Fill All My Vision,” Avis Burgeson Christiansen, 1895-1985) |

আপনি এর আগে আসেননি| আপনি জানতেন যে আপনার উচিৎ, কিন্তু আপনি ভয় পেয়েছিলেন| মিসেস চান ফোন করে আমাকে বলেছিলেন যে তিনি ভয়ানকভাবে পশ্চাদপদ হয়েছেন| তারপরে রবিবারের সকালে আমি তার দিকে দেখলাম - আর মিসেস চান আমার দিকে তাকালেন| আমি দেখতে পাচ্ছিলাম যে তিনি আসতে চাইছেন| আমি তার হাত ধরলাম এবং বললাম, ‘‘আসুন|’’ তিনি আসলেন| তিনি আসতে ভয় পাচ্ছিলেন| সর্বোপরি, তিনি ছিলেন ডঃ চান এর স্ত্রী! লোকেরা কি ভাববেন যদি তিনি নিজের সব দোষ স্বীকার করেন? অন্যেরা কি ভাবছেন তা ভুলে যান! যখন আমরা উঠে দাঁড়াচ্ছি আর গান করছি, আপনি এখানে আসুন এবং নতজানু হন আর আপনার সব দোষ স্বীকার করুন| ঈশ্বর আপনাকে চেতনা দিন, এবং তারপরে ক্রুশের উপরে খ্রীষ্টের ঝরানো সেই রক্ত আপনাকে নতুনভাবে শুচি করুক|

পাপের ধ্বংস হউক, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর
   উজ্জ্বল জ্যোতি অন্তরে প্রতিবিম্বিত হউক|
আসুন শুধু তোমার আশীর্ব্বাদের মুখ দেখি,
   তোমার অনন্ত অনুগ্রহ আমার আত্মার পর্ব্ব|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|
(“Fill All My Vision,” Avis Burgeson Christiansen, 1895-1985) |


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“More Love to Thee” (Elizabeth P. Prentiss, 1818-1878) |