Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




তোমরা পৃথিবীর লবণ
এবং জগতের দীপ্তি !

YOU ARE THE SALT OF THE EARTH
AND THE LIGHT OF THE WORLD!
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2017 সালের, 26শে ফেব্রুয়ারী, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord's Day Evening, February 26, 2017

‘‘তোমরা পৃথিবীর লবণ, কিন্তু লবণের স্বাদ যদি যায়, তবে তাহা কি প্রকারে লবণের গুণবিশিষ্ট করা যাইবে? তাহা আর কোন কার্য্যে লাগে না, কেবল বাহিরে ফেলিয়া দিবার ও লোকের পদতলে দলিত হইবার যোগ্য হয়| তোমরা জগতের দীপ্তি; পর্ব্বতের উপরে স্থিত নগর গুপ্ত থাকিতে পারে না| আর লোকে প্রদীপ জ্বালিয়া কাঠার নীচে রাখে না, কিন্তু দীপাধারের উপরেই রাখে, তাহাতে তাহা গৃহস্থিত সকল লোককে আলো দেয়| তদ্রূপ তোমাদের দীপ্তি মনুষ্যদের সাক্ষাতে উজ্জ্বল হউক, যেন তাহারা তোমাদের সৎক্রিয়া দেখিয়া তোমাদের স্বর্গস্থ পিতার গৌরব করে’’ (মথি 5:13-16)|


যীশু গালীল সাগরের তীর ধরে হাঁটছিলেন| তিনি পিতর ও তার ভাই আন্দ্রিয়কে সেখানে দেখতে পেলেন| তার সমুদ্রে জাল ফেলছিলেন, কারণ তারা ছিলেন মাছ ধরা জেলে| যীশু তাদের উদ্দেশ্যে বললেন, ‘‘আমাকে অনুস্মরণ কর, আমি তোমাদের মনুষ্যধারী করিব|’’ তৎক্ষণাৎ তারা তাদের জাল ফেলে দিলেন এবং যীশুকে অনুসরণ করতে থাকলেন| আরও একটু দূরে যাওয়ার পরে যীশু যাকোব এবং যোহন, এই দুই ভাইকে একসাথে দেখতে পেলেন| তারা তাদের মাছ ধরবে বলে তাদের জাল মেরামত করছিলেন| তিনি তাদেরও ডাকলেন এবং তারা নৌকা ছেড়ে তাঁকে অনুসরণ করতে থাকলেন| তারা যীশুকে যা করতে দেখেছিলেন সেটা নিশ্চয়ই খুব রোমাঞ্চকর কিছু একটা হয়ে থাকবে| যীশু প্রচার করছিলেন এবং লোকদের সমস্ত ধরনের রোগের আরোগ্য করছিলেন| বিশাল জনতা যীশুকে অনুসরণ করে চলেছিল| যখন তিনি সেই বিশাল জনতা দেখলেন, তিনি একটি পাহাড়ের উপরে উঠে গেলেন| তিনি সেখানে বসার পরে তাঁর শিষ্যেরা তাঁর কাছে এলেন| এবং যীশু তাঁর শিষ্যদের শিক্ষাদান আরম্ভ করলেন| তিনি তাদের সেই স্বর্গসুখ সম্বন্ধে বলেছিলেন| একজন প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীর আভ্যন্তরীণ গুণাবলীর বর্ণনা দিয়েছিলেন এবং ভবিষ্যতে তাদের আশীর্ব্বাদের প্রতিশ্রুতি দান করেছিলেন| তারপরে তাঁর শিষ্যদের তিনি বলেছিলেন যে তারা হলেন পৃথিবীর লবণ এবং জগতের দীপ্তির মতন| যীশু তাদের সম্বন্ধে যা বলেছিলেন তা এখনও প্রত্যেকটি প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীর জন্য সত্য|

‘‘তোমরা পৃথিবীর লবণ, কিন্তু লবণের স্বাদ যদি যায়, তবে তাহা কি প্রকারে লবণের গুণবিশিষ্ট করা যাইবে? তাহা আর কোন কার্য্যে লাগে না, কেবল বাহিরে ফেলিয়া দিবার ও লোকের পদতলে দলিত হইবার যোগ্য হয়| তোমরা জগতের দীপ্তি; পর্ব্বতের উপরে স্থিত নগর গুপ্ত থাকিতে পারে না| আর লোকে প্রদীপ জ্বালিয়া কাঠার নীচে রাখে না, কিন্তু দীপাধারের উপরেই রাখে, তাহাতে তাহা গৃহস্থিত সকল লোককে আলো দেয়| তদ্রূপ তোমাদের দীপ্তি মনুষ্যদের সাক্ষাতে উজ্জ্বল হউক, যেন তাহারা তোমাদের সৎক্রিয়া দেখিয়া তোমাদের স্বর্গস্থ পিতার গৌরব করে’’ (মথি 5:13-16)|

I. প্রথমত, তোমরা পৃথিবীর লবণ |

যীশু বলেছিলেন, ‘‘তোমরা পৃথিবীর লবণ|’’ সেই সময়ে লবণ প্রধানত ব্যবহৃত হত সংরক্ষক হিসাবে| যদি মাংসের সঙ্গে লবণ মিশিয়ে রাখা হত তাহলে সেটা মাস পর মাস রেখে দেওয়া যেত হিমায়িত করা ছাড়াই| লবণ মাংসকে পচে যাওয়া থেকে রক্ষা করত| যখন আদম করেছিলেন তখন তিনি জগতে মৃত্যু এবং পচন এনেছিলেন| সমগ্র মানবজাতি উত্তরাধিকার সূত্রে মৃত্যুকে পেয়েছে প্রথম পাপী, আদমের কাছ থেকে| খ্রীষ্ট ছাড়া আর কেউই সেই মৃত্যুকে আটকাতে পারেন না| তিনি সেই শিষ্যদের বলেছিলেন যে লোকদের ক্ষয় এবং মৃত্যু থেকে সংরক্ষণ করতে, তাদেরকে লবণের মতন হতে হবে| প্রেরিত যাকোব বলেছিলেন, ‘‘যে ব্যক্তি কোন পাপীকে তাহার পথ-ভ্রান্তি হইতে ফিরাইয়া আনে, সে তাহার প্রাণকে মৃত্যু হইতে রক্ষা করিবে...’’ (যাকোব 5:20)|

সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচার এবং প্রার্থনা যা আপনি করছেন সেগুলি হয়তো মূল্যহীন মনে হতে পারে| কিন্তু সেটা দিয়াবল আপনাকে বলছে| একজন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী যিনি সুসমাচার সংক্রান্ত প্রচারে বাইরে যান এবং খ্রীষ্টের কাছে পাপীদের ফিরিয়ে আনেন তিনি হলেন বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একজন মানুষ| তোমরা পৃথিবীর লবণ! সমগ্র পৃথিবীতে আপনারা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করছেন! আপনি গুরুত্বপূর্ণ তা যদি আপনি মনে না করেন, তবে এক যুবক কি বলেছিলেন সেটাই শুনুন, ‘‘অসাধারণ ঘৃণা এবং একঘেয়েমীর সহিত আমি মন্ডলীতে আসিয়াছিলাম... আমি দুর্দশাগ্রস্ত ছিলাম| আমার পরিবার এবং অনেক বন্ধুবান্ধবই আমাকে পতিত হইতে দিয়াছিল| আমার চারিপার্শ্বের জগত চূর্ণ বিচূর্ণ হইতেছে বলিয়া মনে হইতেছিল| মনে হইতেছিল যেন বাঁচিয়া থাকিবার কোন কারণ নাই| কোন কিছু করিবার পক্ষে কোন কারণ ছিল না কারণ সেখানে অত্যাধিক দুর্নীতি ও ধ্বংস ছিল| কখনো কখনো আমি মনে করিতাম যেন আমার কোনদিন জন্ম না হইলেই ভাল হইত, এবং একটি সময়ে আমি আত্মহত্যা করিতে মনস্থ করিয়াছিলাম| আমি বিভ্রান্ত হইয়াছিলাম এবং ঈশ্বরে বিশ্বাস করি নাই|’’

আমাদের মন্ডলীর কেউ একজন সেই যুবককে সুসমাচার শোনাতে মন্ডলীতে নিয়ে এসেছিলেন| যদি আপনি যুবকটিকে পাওয়ার জন্য বাইরে না যেতেন, তবে তিনি কখনও খ্রীষ্টকে জানার জন্য এখানে আসতেন না| আমি জানি না আপনাদের মধ্যে ঠিক কোন সদস্য তাকে মন্ডলীতে নিয়ে এসেছিলেন| আমি বিশদ জানি না| কিন্তু আপনাদেরই কেউ একজন তাকে নিয়ে এসেছিলেন| আপনাদের মধ্যে অন্যেরা তাকে অনুভব করিয়েছিলেন যে আমাদের মন্ডলীতে তিনি তার নিজের বাড়িতেই রয়েছেন| সেই যুবকের প্রাণ রক্ষা করতে ঈশ্বর আপনাদের ব্যবহার করেছিলেন| ঈশ্বর আপনাদের ব্যবহার করেছিলেন তার আত্মাকে মৃত্যু থেকে, একটি হতাশা এবং আশাহীনতার জীবন থেকে উদ্ধার করতে| সেই কারণে যীশু বলেছেন, ‘‘তোমরা পৃথিবীর লবণ’’! আপনাদের ছাড়া যুবকটি হয়তো উদ্ধার পেতেন না|

কিন্তু বর্তমানে মন্ডলীগুলি হয়তো তাকে সাহায্য করতে সক্ষম নয়| আমাদের মন্ডলীগুলি ভয়ঙ্কর শীতলতা এবং নীতি বিসর্জনের অবস্থার মধ্যে রয়েছে! ডঃ কার্ল এফ. এইচ. হেনরী (1913-2003) একজন সর্বজনবিদিত ঈশ্বরতত্ত্ববিদ ছিলেন| শেষের দিকে লেখা তার বইগুলির একটি হল ট্যুইলাইট অফ্ এ গ্রেট সিভিলাইজেশন : দ্য ড্রিফ্ট টুওয়ার্ড নিও-পাগানিজম | তিনি বলেছেন যে বর্তমানে আমাদের অধিকাংশ মন্ডলীতে বেঠিক কিছু রয়েছে| তিনি বলেছেন, ‘‘সংগঠিত খ্রীষ্টধর্মের উপরে ভ্রান্তিমোচন বৃহৎ হইয়া উঠিয়াছে; মন্ডলীতে উপস্থিতির নিম্নগামীতার পরিসংখ্যান দৃষ্টে ইহা কেহ দেখিতে পারেন...বর্বরতা একটি অধঃপতিত সভ্যতার ধূলিকণা আলোড়িত করিতেছে এবং ইতিমধ্যেই একটি অক্ষম মন্ডলীর আড়ালে পতিত হইয়াছে [লুকাইয়াছে]’’ (পৃ. 17)| তিনি ঠিক বলেছেন| আমি অন্য মন্ডলীর কথা জানি না কিন্তু লস্ এঞ্জেল্সে আমাদের মন্ডলী শহরের মল এবং ক্যাম্পাসগুলিতে হারানো যুবকদের কাছে পৌঁছাচ্ছে| সাউদার্ণ ব্যাপটিষ্টরা বর্তমানে প্রতি বছর তাদের এক মিলিয়ন সদস্যের মধ্যে প্রায় চার ভাগের এক ভাগ সদস্য হারাচ্ছেন| অন্য সম্প্রদায়গুলির একটিও এর চেয়ে ভাল কিছু করছে না| প্রথমে তারা প্রার্থনা সভা বন্ধ করে দিচ্ছেন| তারপরে তারা রবিবারের সন্ধ্যার সেবাকাজ বন্ধ করেন| এরপরে রবিবার সকালের সেবাকাজ খারাপ হতে শুরু করে| যীশু বলেছিলেন, ‘‘কিন্তু লবণের স্বাদ যদি যায়, তবে তাহা কি প্রকারে লবণের গুণবিশিষ্ট করা যাইবে? তাহা আর কোন কার্য্যে লাগে না, কেবল বাহিরে ফেলিয়া দিবার ও লোকের পদতলে দলিত হইবার যোগ্য হয়’’ (মথি 5:13, KJV, NASV)| মন্ডলীগুলি ‘‘অক্ষম’’ ডঃ হেনরী যেমন বলেছেন| তারা আজ যুবকদের মন পরিবর্তন করতে সক্ষম নয়| সেটা সত্যি কেন হয়েছে? কারণ লবণ তার স্বাদ হারিয়েছে! পদের পর পদ অনুযায়ী বাইবেলের শিক্ষাদান একটি মৃত মন্ডলীকে আরোগ্য করে না! দুর্বল শিক্ষাদান জীবন সৃষ্টি করবে না| একমাত্র শক্তিশালী সুসমাচারমূলক প্রচার তা করতে পারে| আমাদের দরকার ‘‘লবণাক্ত’’ প্রচার, পাপ এবং নরকের বিষয়ে প্রচার, খ্রীষ্টের রক্তের বিষয়ে প্রচার, আত্মা জয়ের উপরে প্রচার| একমাত্র প্রগাঢ় চাঞ্চল্যপূর্ণ আত্মা জয় একটি মন্ডলীতে ‘‘লবণ’’ ধরে রাখতে পারে| শুধুমাত্র শক্তিশালী প্রার্থনা সভা মন্ডলীতে ‘‘লবণ’’ ধরে রাখতে পারে| ডঃ জন্ আর. রাইস সঠিক বলেছিলেন যখন তিনি বলেন, ‘‘শুধুমাত্র সর্বশক্তি প্রযুক্ত কার্য্য নতুন নিয়মের আত্মাজয়ের সহিত সমকক্ষ হইতে পারে’’ (Why Our Churches Do Not Win Souls, p. 149) |

আমাদের মন্ডলীর মৃত্যু হোক তা যদি আমরা না চাই তবে আমাদের অবশ্যই ক্রমাগতভাবে কাজ এবং প্রার্থনা করে যেতে হবে, এবং সুসমাচার শোনার জন্য হারানো যুবকদের মন্ডলীর ভিতরে আনতে সম্ভাব্য সবকিছু করতে হবে! যীশু বলেছিলেন, ‘‘বাহির হইয়া রাজপথে রাজপথে ও বেড়ায় বেড়ায় যাও, এবং আসিবার জন্য লোকদিগকে পীড়াপীড়ি কর, যেন আমার গৃহ পরিপূর্ণ হয়’’ (লূক 14:23)| আমাদের অবশ্যই আত্মা জয়কে আমাদের জীবনের এক নম্বর বিষয়ে পরিণত করতে হবে অথবা আমাদের মন্ডলী তার জীবন সংরক্ষিত করার ‘‘লবণ’’ হারাবে| যদি আমরা সেটা করতে অকৃতকার্য্য হই, তবে আমাদের মন্ডলী ‘‘আর কোন কার্য্যে লাগে না, কেবল বাহিরে ফেলিয়া দিবার ও লোকের পদতলে দলিত হইবার যোগ্য হয়’’ (মথি 5:13)| আমাদের মন্ডলীকে মারা যেতে দেবেন না! বাইরে যান আর যীশুর বিষয়ে শুনতে এবং তাঁর দ্বারা উদ্ধারপ্রাপ্ত হতে পাপীদের ভিতরে আনুন!

II. দ্বিতীয়ত, তোমরা জগতের দীপ্তি |

যীশু বলেছিলেন, ‘‘তোমরা জগতের দীপ্তি; পর্ব্বতের উপরে স্থিত নগর গুপ্ত থাকিতে পারে না’’ (মথি 5:14)| ডঃ লয়েড জোন্স বলেছেন, ‘‘বিবৃতির শক্তি হল এই: ‘আপনি, এবং আপনি একাই, হলেন জগতের দীপ্তি,’ - ‘আপনি’ তে জোর দেওয়া হয়েছে এবং তা বহন করছে সেই পরামর্শ...সেখানে কিছু নিশ্চিত বিষয় পরোক্ষভাবে প্রকাশিত হয়েছে| প্রথম বিষয়টি হল যে জগত একটি অন্ধকারাচ্ছন্ন অবস্থায় রয়েছে’’ (Sermon on the Mount, p. 139) | আজ রাত্রে জগত এক ভয়ানক অন্ধকার অবস্থাতে আছে| যীশু বলছেন যে একমাত্র প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরাই অন্যদের দেখাতে পারেন যে কিভাবে সেই অন্ধকার থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া যায়| এই জগতে আদৌ কোন দীপ্তি নেই| প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী এবং আমাদের মত একটা মন্ডলী থেকেই কেবলমাত্র দীপ্তি আসছে| যীশু তাঁর শিষ্যদের ছোট্ট দলটির দিকে তাকিয়েছিলেন| তিনি তাদের বললেন, ‘‘তোমরা, এবং একমাত্র তোমরা, হলে জগতের দীপ্তি|’’ এখানে এর কয়েকটি উদাহরণ দেওয়া হল|

আপনাদের একজন যে যুবককে এই মন্ডলীতে নিয়ে এসেছিলেন তিনি বলেছিলেন, ‘‘মনে হইতেছিল যেন বাঁচিয়া থাকিবার কোন কারণ নাই...কখনো কখনো আমি মনে করিতাম যেন আমার কোনদিন জন্ম না হইলেই ভাল হইত, এবং একটি সময়ে আমি আত্মহত্যার বিষয়ে চিন্তা করিব...ডঃ হেইমার্স আমাকে জিজ্ঞাসা করিয়াছিলেন ঈশ্বর আমাকে ভালবাসিয়াছেন কিনা| আমি দ্রুত উত্তর দিয়াছিলাম ‘হ্যাঁ|’ কিন্তু ডঃ হেইমার্স আরও একবার জিজ্ঞাসা করিয়াছিলেন...সহসা আমি বলিলাম ‘না,’ এবং অশ্রুতে আমার চক্ষুদ্বয় সজল হইল... তাহার পরে ডঃ হেইমার্স আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন আমি যীশুকে বিশ্বাস করিব কিনা, কিন্তু আমি পারিলাম না, আমার পাপ ত্যাগ করিতে আমি খুবই ভীত হইয়াছিলাম| পরবর্তী সপ্তাহে আরও প্রচন্ডভাবে আমি আমার পাপের বিষয়ে সচেতন হইয়াছিলাম| নিজের পাপের বিষয়ে চিন্তা করিবার সময়ে, আমি নিজেকে বিশ্রাম কক্ষে আবদ্ধ করিতাম এবং ক্রন্দন করিতাম| এমনকী যখন আমি বিদ্যালয়ে অথবা কর্মরত থাকিতাম তখনও পাপ আমাকে একাকী ছাড়িত না| রবিবারে আমি নিজেকে অর্পণ করিলাম এবং খ্রীষ্টের জন্য আমার সর্বস্ব ত্যাগ করিতে প্রস্তুত হইলাম| আমি ডঃ হেইমার্সের সহিত সাক্ষাৎ করিতে গিয়াছিলাম এবং যীশুকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম| আমি সাধারণভাবে যীশুকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম কেবলমাত্র বিশ্বাসের দ্বারা| সেই দিন আমি অবিশ্বাস্যভাবে আনন্দিত ছিলাম এবং রাত্রির নিদ্রায় সক্ষম হইয়াছিলাম| একজন ক্রুশারোপিত এবং প্রেমপূর্ণ পরিত্রাতার প্রতি আমার বিদ্রোহ সত্ত্বেও আমাকে অনুগ্রহ দেখানো হইয়াছিল, এবং ইহা আমি কখনও ভুলিব না|’’

এবার খুব স্বচ্ছ-জীবনযাপনকারী এক চীনা যুবতীর কথা শুনুন| তিনি বলেছিলেন, ‘‘আমি মন্ডলীতে প্রবেশ করিলাম এবং আমার হৃদয় ভারাক্রান্ত ছিল| ঈশ্বর আমাকে জাগ্রত করিয়াছিলেন ইহা অনুভব করিতে যে আমি পাপী ছিলাম| আমার চারিপার্শ্বের সকলেই প্রফুল্লচিত্ত ছিল, কিন্তু আমি আমার অপরাধবোধ দমন করিতে পারিতেছিলাম না| আমি আর অবজ্ঞা করিতে পারিলাম না যে আমার অন্তর কুৎসিত, বিদ্রোহী, এবং ঈশ্বর বিরোধী ছিল| আমি ঠিকভাবে ছিলাম আর উত্তম ব্যক্তি ছিলাম এই চিন্তার সহিত আমার হৃদয় আমাকে আর প্রতারণা করিতে পারিল না| আমি ঠিকভাবে ছিলাম না এবং আমার মধ্যে কোন সদ্গুণ ছিল না| যখন আমি ধর্ম্মোপদেশ শুনিতেছিলাম, ইহা অনুভূত হইতেছিল যেন পালক সরাসরি আমাকেই উহা বলিতেছেন| যখন তিনি আমার মৃত্যুর বিষয়ে বলিতেছিলেন তখন আমি অনুভব করিলাম এক প্রবল অস্বস্তি আমাকে ধৌত করিতেছে| আমার বোধ হইল যেন আমি সরাসরি নরকে যাইব| আমি নরকে যাইবার যোগ্য ছিলাম| আমি পাপী ছিলাম| যদিও আমি ভাবিয়াছিলাম আমার পাপগুলিকে আমি লোকদের নিকট হইতে লুকাইতে পারিব, কিন্তু ঈশ্বর হইতে উহাদের লুকাইতে পারিব না| ঈশ্বর ঐগুলি সবই দেখিয়াছেন...আমি সম্পূর্ণ আশাহীন অনুভব করিলাম| তাহার পরে, যখন প্রচার শেষ হইবার নিকটস্থ হইতেছে, আমি প্রথমবার সেই সুসমাচার শুনিলাম| আমার সকল পাপের দেনা শোধ করিতে, আমার স্থানে খ্রীষ্ট ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করিয়াছিলেন| আমার জন্য, একজন অপরাধগ্রস্ত পাপীর জন্য তাঁহার ভালবাসা এত বিশাল যে তিনি আমার জন্য ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করেছেন। তাঁহার রক্ত প্রবাহিত হইয়াছিল পাপীদের জন্য| তাঁহার রক্ত প্রবাহিত হইয়াছিল আমার জন্য! আমার অদম্যভাবে যীশুকে প্রয়োজন ছিল! বরং আমার অন্তরে সদ্গুণ অন্বেষণ না করিয়া, আমি প্রথমবার যীশুর প্রতি তাকাইলাম| আর সেই মুহূর্তে যীশু আমাকে উদ্ধার করিলেন, এবং তাঁহার রক্ত দিয়া আমার পাপ ধৌত করিলেন| আমি যীশুকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম এবং তিনি আমাকে উদ্ধার করিয়াছিলেন| আমার ন্যায় একজন নগন্য পাপীকে আমার সদ্গুণসকল রক্ষা করিতে পারিত না, কিন্তু খ্রীষ্ট একাই আমাকে রক্ষা করিয়াছেন! পাপের যে সকল শৃঙ্খল আমাকে বাঁধিয়া রাখিত খ্রীষ্ট সেইগুলি ভগ্ন করিয়াছিলেন| খ্রীষ্ট তাঁহার রক্ত দিয়া আমাকে আচ্ছাদিত করিয়াছিলেন| তাঁহার ধার্ম্মিকতায় তিনি আমাকে আবরিত করিয়াছিলেন| একমাত্র খ্রীষ্টেই আমার বিশ্বাস এবং আশ্বাসন| আমি একজন পাপী ছিলাম, কিন্তু যীশু খ্রীষ্ট আমাকে উদ্ধার করিয়াছেন!’’

এখন অন্য আর একটি মেয়ের কথা শুনুন| বিশ্বের চোখে তিনি ছিলেন একজন ‘‘ভাল’’ মেয়ে| তার গোটা জীবন ধরেই তিনি মন্ডলীতে এসেছিলেন কিন্তু তাও তিনি তখনও হারিয়ে ছিলেন| তবুও ঈশ্বরের প্রতি তিনি মনে মনে রেগে থাকতেন| তার কথা শুনুন| ‘‘সভা যতই আগাইয়া যাইতেছিল ততই আমার কষ্ট বাড়িতেছিল| যখন অন্য সকলেই করমর্দন করিতেছিলেন আমি সামান্য হাসিতেও পারিতেছিলাম না| পাপের বিষয়ে আমার পরাজয় এবং বিরক্তির অনুভূতি বৃদ্ধি পাইতেছিল| আর তাহার পরেই জন কেগান ‘ঈশ্বর সঠিক, এবং আপনি ভুল’ এই প্রচারটি করিয়াছিলেন| প্রত্যেকটি ধাপ অন্তরে প্রবেশ করিতেছিল এবং আমার পাপের বিরক্তিকর চিন্তাকে তীব্রতর করিতেছিল| যখন জন প্রচার করিতেছিলেন, আমি অনুভব করিলাম ঈশ্বর আমার সহিত কথা বলিতেছেন| যতক্ষণে জন প্রচার শেষ করিয়াছিলেন আমি অত্যন্ত হতাশাগ্রস্ত হইয়াছিলাম| তাহার পর ডঃ হেইমার্স পুলপিটে আসিলেন এবং ব্যাভিচারের অভিযোগে ধৃত এক বেশ্যাকে যীশুর ক্ষমা দানের বিষয়ে বলিতে লাগিলেন| যদিও সেই গল্পটি আমি ইহার পূর্বে শুনিয়াছি, তাহা আমার মনে ততখানি আঘাত করে নাই যতখানি সেইদিনের সকালে করিল| যীশুর ভালবাসা আমাকে অনেক দূরে লইয়া গেল| আমি যীশুর নিকটে আসিবার এক শক্তিশালী ইচ্ছা অনুভব করিতে শুরু করিলাম| ডঃ হেইমার্স আমাকে তাহার সহিত কথা বলিবার জন্য নিকটে ডাকিলেন| আমার মনে তখন চিন্তা এবং ভয়ের ঘূর্ণি চলিতেছিল| ডঃ হেইমার্স নিজেকে নির্দেশ করিলেন এবং আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন যে আমি তাহাকে বিশ্বাস করিয়াছি কিনা, আর আমি বলিয়াছিলাম, ‘হ্যাঁ|’ তখন তিনি আমাকে বলিলেন উহাই হইতেছে পথ যাহাতে কেহ যীশুকে বিশ্বাস করেন| আমি সবসময়ে ইহাই ঘৃণা করিয়া আসিতেছি যখন আমাকে ‘যীশুকে বিশ্বাস’ করিতে বলা হইল| ‘এই জগতে উহার অর্থ কী?’ আমি ভাবিতেছিলাম| ‘কিভাবে আমাকে উহা করিতে হইবে?’ এবং তাহা সত্ত্বেও যখন ডঃ হেইমার্স ইহা ব্যাখ্যা করিলেন যে যেমন তাহাকে বিশ্বাস করিতেছি, অনুরূপ ইহাও বিশ্বাস করিতে হইবে, ইহার অর্থ বুঝিলাম| সেই মুহূর্তগুলিতে আমি সাধারণভাবে জানিয়াছিলাম যে যীশু আমাকে ভালবাসেন| যেমনি আমি হাঁটুতে ভর দিয়া বসিলাম, সর্বসাকুল্যে যাহা চিন্তা করিতে পারিলাম তাহা হইল যে যীশু আমাকে ভালবাসেন| যে তিনি আমার পাপের ক্ষমা করিবেন| যে আমি গুরুতরভাবে তাঁহাকে চাহিয়াছিলাম| ডঃ হেইমার্স আমার মস্তকে নিজ হ্স্ত রাখিলেন এবং ক্রন্দন করিলেন আর আমার জন্য প্রার্থনা করিলেন| তিনি আমাকে বলিলেন যে যীশু চাহিয়াছিলেন যেন আমি তাঁহাকে বিশ্বাস করি| এমনকী বিশ্বাসের ক্ষুদ্রতম একটি কণাও তাঁহার পক্ষে যথেষ্ট ছিল| সর্বসাকুল্যে যীশু তাহাই যাচ্ঞা করিয়াছিলেন| আর তখন, ইহা ছিল শুধু সামান্য কয়েক মুহূর্ত সময়, আমি যীশুকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম| আমি তাহা বিশ্বাস করি নাই যে তিনি আমাকে উদ্ধার করিবেন| যেভাবে আমার পালক, ডঃ হেইমার্সকে আমি বিশ্বাস করিয়াছিলাম তাহার তুলনা করিয়া - আমি যীশু স্বয়ংকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম| আমি যীশুকে বিশ্বাস করিবার একটি পথ নিজের মনের অতল গহ্বরে অন্বেষণ করিব, এবং উহা অনুসরণ করিবার অভিজ্ঞতা অর্জন করিব| একটি অনুভূতি ব্যতীত, শুধু যীশুকে বিশ্বাস করিতে আমি অস্বীকার করিয়াছিলাম| এবং তখন, আমি অকৃতকার্য্য হইবার পরে, হতাশা এবং নিজের প্রতি সমবেদনায় আমি ক্রন্দন করিতাম| আমি মিথ্যা মন পরিবর্তন করিবার ভয়েও ভীত হইতাম| আমি সম্পূর্ণরূপে শুভনাস্তিক হইবার বিপদের মধ্যে ছিলাম| এবং তৎসত্ত্বেও, যত্নপূর্ণ চিন্তাভাবনার পরে, আমি বুঝিয়াছিলাম যে আমাকে দান করিবার ন্যায় এই জগতের নিকটে কিছুই নাই| না ভালবাসা| না উদ্দেশ্য| এবং না আশা| আমি এখন যীশুকে বিশ্বাস করি| তিনিই হইতেছেন আমার একমাত্র আশা| ইহা আমার মনকে উদাস করিয়া দেয় যে যীশু যাহা সর্বসাকুল্যে চাহিয়াছিলেন তাহা ছিল যেন আমি তাঁহাকে বিশ্বাস করি| তিনি শুধু চাহিয়াছিলেন যেন আমি তাঁহাকে, এবং একমাত্র তাঁহাকেই বিশ্বাস করি| তাহার পরে তিনি বাকি সকলই করিয়াছিলেন| আমার সাক্ষ্য প্রকৃতই অতি সাধারণ| আমি যীশুকে বিশ্বাস করিয়াছিলাম এবং তিনি আমাকে উদ্ধার করিয়াছেন|’’

ঐ সব আত্মাকে খ্রীষ্টের প্রতি জয় করতে অনেক লোকের দরকার হয়েছিল| টেলিফোন করে একজন তাদের ডেকেছিলেন| তাদের নিয়ে আনার জন্যে ডঃ চান গাড়ীর ব্যবস্থা করেছিলেন| সেখানে মন্ডলীর বাইরের, জগতে বাইরে...যা জগত দিতে পারে সেই শূন্যতা এবং শীতলতার বিষয়ে এরন ইয়ান্সীর বক্তব্য ছিল| সেখানে ডঃ কেগানের টাইপ করা প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি ছিল, যা তারা পড়েছেন, এবং মিঃ অলিভাসের প্রস্তুত করা আমাদের প্রচারের ভিডিওগুলি ছিল, যা তারা দেখেছেন| সেখানে জন কেগানের উপদেশ ছিল| সেখানে ছিল বন্ধুত্ব যা আপনারা তাদের দিয়েছেন| সবশেষে সেখানে ছিল আমার প্রচার, জন কেগানের প্রচার, এবং নোহ সং এর প্রচার ছিল| কখনও কয়েক সপ্তাহ ধরে স্থায়ী থাকা একটি আভ্যন্তরীন সংগ্রামের পরে, আমি নিজে তাদের প্রশ্ন করেছি, ‘‘আপনারা কি যীশুকে বিশ্বাস করবেন?’’ তখন তারা যীশুকে বিশ্বাস করেছেন| এটা শোনায় এত সহজ এবং এটা হল সহজ| তাদেরকে যীশুর প্রতি পরিচালিত করতে ঈশ্বরের দ্বারা আমাদের মন্ডলীর অনেক লোক ব্যবহৃত হয়েছেন| এই অন্ধকার জগতে যীশুর অন্বেষণ করায় তাদেরকে সাহায্য করতে আমাদের সকলেই ‘‘দীপ্তি’’ ছিলেন| যেমন ডঃ লয়েড জোন্স বলেছিলেন, ‘‘আপনি, এবং আপনি একাই, হলেন জগতের দীপ্তি|’’ যেমন একটি পুরানো গানে বলা হয়েছে,

পাপের অন্ধকারে সমস্ত জগত হারাইয়া গিয়াছে;
   যীশুই জগতের জ্যোতি;
মধ্যাহ্নের ঔজ্জ্বল্যের ন্যায় তাঁহার গৌরব উজ্জ্বল,
   যীশুই জগতের জ্যোতি|
দীপ্তির নিকটে আইস, ইহা তোমার জন্য উজ্জ্বল;
   সুমধুর জ্যোতি আমার উপরে উদিত হইয়াছে;
একদা আমি অন্ধ ছিলাম, কিন্তু এখন দেখিতে পাই;
   যীশুই জগতের জ্যোতি|
(“The Light of the World is Jesus,” Philip P. Bliss, 1838-1876) |

প্রিয় ভাই ও বোনেরা, পাপে অন্ধকারাচ্ছন্ন জগতে যীশুর দীপ্তিকে প্রতিফলিত করার বিশাল সুযোগ আপনাদের এবং আমার কাছে রয়েছে| খ্রীষ্ট আমাদের দীপ্তি দিয়েছেন| আমাদের উদ্দীপনার গান এটা স্পষ্ট করে ব্যাখ্যা করছে,

আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|
(“Fill All My Vision,” Avis Burgeson Christiansen, 1895-1985) |

প্রিয় ভাই ও বোনেরা, খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হিসাবে আমাদের অবিশ্বাস্য কাজ করার রয়েছে| আমরা পৃথিবীর লবণ| আমরা, আর কেবল আমরাই, হলাম জগতের দীপ্তি! আসুন আমাদের সকলেই এক অন্ধকার এবং ভীতিপ্রদ জগতের প্রতি খ্রীষ্টের দীপ্তিকে প্রতিফলিত করি! আত্মা জয় করতে কখনও বিরত হবেন না| এবং আত্মা জয়ে কখনো, চিরকাল, নিরুৎসাহ হয়ে থাকবেন না| যীশু আপনাদের সঙ্গে রয়েছেন| সমস্ত অসুবিধা এবং কষ্টের মধ্যে দিয়ে তিনি আপনাদের নিয়ে আসবেন|

এবারে, যারা এখনও হারিয়ে রয়েছেন তাদের প্রতি বলছি যে এটা আমার কাছে একটা বিশেষ বড় সুযোগ আপনাদের বলা যে যীশু আপনাদেরও উদ্ধার করবেন| আপনাদের করার মতন খুব বেশি কিছু কাজ সেখানে নেই কেবল যীশুকে বিশ্বাস করা ছাড়া, সেই মানুষটিকে বিশ্বাস করা যিনি আপনার পরিবর্তে ক্রুশের উপরে নিজে মৃত্যুবরণ করেছিলেন, এবং আপনাকে সমস্ত পাপ থেকে শুচি করতে তাঁর বহুমূল্য রক্ত ঝরিয়েছিলেন| একটা গান রয়েছে যাতে স্পষ্ট করে এই সব কথা বলা আছে,

কেবল তাঁহাকে বিশ্বাস, কেবল তাঁহাকে বিশ্বাস,
   এখন কেবল তাঁহাকেই বিশ্বাস কর|
তিনি তোমাকে উদ্ধার করিবেন, তিনি তোমাকে উদ্ধার করিবেন,
   এখন তিনি তোমাকে উদ্ধার করিবেন|
(“Only Trust Him,” John H. Stockton, 1813-1877) |


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Saved by the Blood” (S. J. Henderson, 19th century) |


খসড়া চিত্র

তোমরা পৃথিবীর লবণ
এবং জগতের দীপ্তি !

YOU ARE THE SALT OF THE EARTH
AND THE LIGHT OF THE WORLD!

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র

‘‘তোমরা পৃথিবীর লবণ, কিন্তু লবণের স্বাদ যদি যায়, তবে তাহা কি প্রকারে লবণের গুণবিশিষ্ট করা যাইবে? তাহা আর কোন কার্য্যে লাগে না, কেবল বাহিরে ফেলিয়া দিবার ও লোকের পদতলে দলিত হইবার যোগ্য হয়| তোমরা জগতের দীপ্তি; পর্ব্বতের উপরে স্থিত নগর গুপ্ত থাকিতে পারে না| আর লোকে প্রদীপ জ্বালিয়া কাঠার নীচে রাখে না, কিন্তু দীপাধারের উপরেই রাখে, তাহাতে তাহা গৃহস্থিত সকল লোককে আলো দেয়| তদ্রূপ তোমাদের দীপ্তি মনুষ্যদের সাক্ষাতে উজ্জ্বল হউক, যেন তাহারা তোমাদের সৎক্রিয়া দেখিয়া তোমাদের স্বর্গস্থ পিতার গৌরব করে’’ (মথি 5:13-16)|

I.   প্রথমত, তোমরা পৃথিবীর লবণ, যাকোব 5:20; মথি 5:13; লূক 14:23 |

II.  দ্বিতীয়ত, তোমরা জগতের দীপ্তি, মথি 5:14 |