Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




কিভাবে দিয়াবলকে জয় করবেন

HOW TO OVERCOME THE DEVIL
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2016 সালের, 6ই নভেম্বর, প্রভুর দিনের
সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি
প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord's Day Evening, November 6, 2016

‘‘আর মেষশাবকের রক্ত প্রযুক্ত, এবং আপন আপন সাক্ষ্যের বাক্য প্রযুক্ত, তাহারা তাহাকে জয় করিয়াছে; আর তাহারা মৃত্যু পর্য্যন্ত আপন আপন প্রাণও প্রিয় জ্ঞান করে নাই’’ (প্রকাশিত বাক্য 12:11)|


শয়তান এবং তার দিয়াবলীয় দূতগণকে স্বর্গরাজ্য থেকে দূরে নিক্ষেপ করা হয়েছিল| স্বর্গীয়স্থানে তারা এখনও বন্ধনহীন| শয়তানকে বলা হয়ে থাকে ‘‘আকাশের কর্ত্তৃত্বাধিপতি’’ (ইফিষীয় 2:2)| দিয়াবল এখনও ‘‘[স্বর্গীয়] স্থানসমূহে’’ (ইফিষীয় 6:12) যেতে সক্ষম - তারা মাঝে মাঝে ‘‘স্বর্গীয়স্থানে’’ যেতে পারত| সেই কারণে ইয়োব 1:6 পদটি আমাদের বলছে যে দিয়াবলেরা ‘‘সদাপ্রভুর সম্মুখে দন্ডায়মান হইবার জন্য উপস্থিত হন, তাঁহাদের মধ্যে শয়তানও উপস্থিত হইল|’’ কিন্তু মহাতাড়নার প্রথম সাড়ে তিন বছর পরে তারা আর এই কাজ করতে সক্ষম হবে না| মহাতাড়না হচ্ছে আগতপ্রায় খ্রীষ্টারীর অধীনে ইস্রায়েল এবং খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের বিরুদ্ধে সাত বছর মেয়াদের এক তাড়না| ইস্রায়েলের সঙ্গে খ্রীষ্টারীর একটি চুক্তি স্বাক্ষর করা দিয়ে মহাতাড়না শুরু হয় (দানিয়েল 9:27)|

সাত বছরের মহাতাড়নার মাঝে শয়তান এবং তার দিয়াবলদের স্বর্গীয়স্থান থেকে বহিষ্কার করা হবে এবং পৃথিবীতে নিক্ষেপ করা হবে! আমরা পড়ি,

‘‘আর স্বর্গে যুদ্ধ হইল; মীখায়েল ও তাঁহার দূতগণ ঐ নাগের সহিত যুদ্ধ করিতে লাগিলেন| তাহাতে সেই নাগ ও তাহার দূতগণও যুদ্ধ করিল, কিন্তু জয়ী হইল না, এবং স্বর্গে তাহাদের স্থান আর পাওয়া গেল না| আর সেই মহানাগ নিক্ষিপ্ত হইল; এ সেই পুরাতন সর্প, যাহাকে দিয়াবল [অপবাদক] এবং শয়তান [বিপক্ষ] বলা যায়, যে সমস্ত নরলোকের ভ্রান্তি জন্মায়; সে পৃথিবীতে নিক্ষিপ্ত হইল, এবং তাহার দূতগণও তাহার সঙ্গে নিক্ষিপ্ত হইল’’ (প্রকাশিত বাক্য 12:7-9)|

এতে করে শয়তান খুব রেগে যাবে| সেইজন্যে আমাদের বলা হচ্ছে ‘‘কেননা দিয়াবল তোমাদের নিকটে নামিয়া গিয়াছে; সে অতিশয় রাগাপন্ন, সে জানে, তাহার কাল সংক্ষিপ্ত’’ (প্রকাশিত বাক্য 12:12)|

এমনকী এখন দিয়াবল আরও বেশি করে ক্ষিপ্ত হতে শুরু করেছে| সে জানে যে ইস্রায়েলের পুনর্জন্ম হল শেষের দিনের একটি চিহ্ন| বেশির ভাগ প্রচারক এবং ঈশ্বরতাত্ত্বিক অধ্যাপকদের তুলনায় দিয়াবল আরও ভালোভাবে শেষের চিহ্নগুলি চেনে| সেই কারণে খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের ‘‘শয়তানের চাতুরির’’ বিষয়ে অবশ্যই আরও বেশি করে সচেতন থাকতে হবে| সেই কারণে আমাদের অবশ্যই শয়তান এবং তার দিয়াবলদের বিরুদ্ধে আরও বেশি বেশি করে ‘‘মল্লযুদ্ধ’’ চালিয়ে যেতে হবে যেহেতু এই যুগের সমাপ্তি আগতপ্রায়| এই কারণে আমাদের এই বলে সতর্ক করা হয়েছে, ‘‘শেষকালে বিষম সময় উপস্থিত হইবে’’ (II তীমথিয় 3:1)| দিয়াবল ইতিমধ্যেই জানে যে ‘‘তাহার কাল সংক্ষিপ্ত’’ (প্রকাশিত বাক্য 12:12)|

কোন কোন লোক শিক্ষা দেন যে আমাদের এখন আমরা কোন উদ্দীপনা পেতে পারি না| তারা বলছেন যে ঈশ্বরের আমাদের মন্ডলীতে উদ্দীপনা প্রেরণ করার পক্ষে শয়তানের শক্তি এখন খুবই বেশি|

সম্প্রতি এটর্নী জয় সিকুলো বলেছেন, ‘‘ইরাক এবং সিরিয়ার খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের জন্য ইহাই হইতেছে চূড়ান্ত পরিস্থিতি| তাহাদের জীবন্ত দগ্ধ, ক্রুশারোপিত এবং মস্তক ছেদন করা হইতেছে| এখন ISIS (আইএসআইএস) রাসায়নিক অস্ত্র ছাড়িতেছে| সেই ব্যাপক হত্যালীলা অসহনীয়|’’ তবুও একই সময়ে ইরাক, ইরান এবং সিরিয়ায় সর্বকালের সর্ববৃহৎ উদ্দীপনা হয়ে চলেছে| মিঃ সিকুলো তাকে টাকা পাঠাতে বলছেন যাতে সেখানে এই মুসলিম জঙ্গী কার্যকলাপ বন্ধ করা যায়| আমি বলি এটা একটা অর্থহীন কথা! চোখে ধূলো দেওয়া! তাদের টাকার প্রয়োজন নাই! তারা চায় আমরা প্রার্থনা করি যাতে উদ্দীপনায় ঈশ্বর সেখানে নেমে আসা বজায় রাখেন! সেই কারণে প্রার্থনা করার জন্যে তাদের খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের দরকার,

‘‘আহা, তুমি আকাশমন্ডল বিদীর্ণ করিয়া নামিয়া আইস, পর্ব্বতগণ তোমার সাক্ষাতে কম্পিত হউক...তোমার বিপক্ষদিগকে তোমার নাম জ্ঞাত কর; তোমার সাক্ষাতে জাতিগণ কম্পমান হউক!’’ (যিশাইয় 64:1-2)|

ডঃ মার্টিন লয়েড-জোন্স বলেছিলেন, ‘‘উহাই হইতেছে উদ্দীপনার সহিত সংযুক্ত চূড়ান্ত প্রার্থনা! ...উদ্দীপনায় ঈশ্বরের আত্মার আমন্ত্রণের জন্য সেই বিশেষ, জরুরী প্রার্থনা| কাউপার এর ‘আহা আকাশমন্ডল বিদীর্ণ করিয়া, নামিয়া আইস, এবং সহস্র হৃদয় তোমার নিজের কর’ গানটিতে ব্যবহৃত ভাষার তুলনায় সেখানে আর কোন পরিভাষা নেই যা একে [প্রার্থনাকে] আরও ভালো করে প্রকাশ করতে পারে... ইস্রায়েলের সেই সন্তানরা...প্রতিকূল জাতির সহিত মিলিত হইবে, শত্রুরা তাহাদের চারিপার্শ্বে একত্রিত হইবে, কিন্তু ইহা কোন বিষয় ছিল কি? এই স্থানে একজন ঈশ্বর আছেন যিনি সকল পর্ব্বত কম্পমান করিতে পারেন এবং এই কারণেই [আমাদের উচিৎ] প্রার্থনা করা’’ (Lloyd-Jones, Revival, Crossway Books, 1994 edition, pp. 305, 307)|

সেই মুসলমানেরা খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের প্রতি যেসব ভয়ঙ্কর কাজ করছেন সেই বিষয়ে যখন আপনি পড়ছেন, তখন আমেরিকার একজন এটর্নীকে টাকা পাঠাবেন না! কিভাবে তিনি, বা জগতের অন্য কেউ, তাদের সাহায্য করতে পারেন? প্রভু যীশু খ্রীষ্টের প্রতি শত শত মুসলমানের ফিরে আসা সঙ্গে নিয়ে, তারা ইতিমধ্যেই উদ্দীপনার অভিজ্ঞতা পাচ্ছেন| টাকা পাঠাবেন না| সেটা তাদের মোটেও সাহায্য করবে না! সর্ব্বশক্তিমান ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা জানান| তিনি এবং একমাত্র তিনিই তাদের উদ্ধার করতে পারেন| এমনকী যখন এই নতুন খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের জীবন্ত দগ্ধ, ক্রুশারোপিত এবং শিরশ্ছেদ করা হচ্ছে - তখন ঈশ্বর তাঁর বাহুদ্বয় প্রসারিত করবেন এবং স্বর্গের অনন্তকালীন আনন্দের মধ্যে তাদের গ্রহণ করবেন| এবং এই শহীদেরা, তাদের দুঃখভোগের মাধ্যমে, আরও বেশি সংখ্যক মুসলমানদের মধ্যে প্রেরণা সঞ্চার করবেন জঙ্গীপনা ছেড়ে ক্রুশারোপিত খ্রীষ্টের প্রতি ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য, যিনি তাদের আত্মার মুক্তি দিতে ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করেছিলেন| প্রাচীন খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের দ্বিতীয় শতাব্দীতে পরজাতীয় রোমানদের দ্বারা তাড়িত হওয়ার সময়ে, যেমন টারটুলিয়ান বলেছিলেন, ‘‘শহীদের রক্ত মন্ডলীর বীজ|’’ আমরা শুনতে পাচ্ছি যে মুসলমান নেতারা ইতিমধ্যেই ভীত হয়ে পড়েছেন কারণ তাদের অনেক লোক প্রভু যীশু খ্রীষ্টের প্রতি ফিরে আসছেন| মহান সংস্কারক লুথার তার সময়কার তাড়িত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের জন্য একটি গান লিখেছিলেন| সেটা আপনার গানের পাতার 7নং গান|

দৃঢ় দূর্গ মোদের ঈশ্বর, অবিভেদ্য রক্ষা প্রাচীর,
   তিনিই মাত্র মোদের আশ্রয়, যখন পাপ প্লাবন পিছে ধায়|
কারণ চির শত্রু মোদের অমঙ্গল চায়;
   তাহার চাতুরির ছলে, হিংসা লোভের বলে,
জগতে তাহার তুল্য কেহ নয়|

যদি আপন বলে নির্ভর, পরাজিত হইব নিশ্চয়,
   যদি না ঈশ্বর প্রেরিত সুজন, মোদের হন সহায়ক|
কে সেই জন জান কি? খ্রীষ্ট যীশু, সেই ব্যক্তি;
   বিশ্রামবারের কর্তা, ভবের অধিকর্তা,
তিনি হন বিজয়ী নায়ক|
      (“A Mighty Fortress Is Our God” by Martin Luther, Th.D., 1483-1546) |

এবং চীনদেশে একবারে হুবহু এই জিনিষটাই ঘটেছিল| কম্যুনিস্ট একনায়ক মাও সে তুং এর দ্বারা বিদেশী মিশনারিদের সেই দেশ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল| সাংস্কৃতিক আন্দোলনের সময়ে, মন্ডলীগুলিকে পুড়িয়ে মাটিতে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছিল| পালকদের কারাগারে বন্দী করা হয়েছিল| হাজার হাজার চীনা খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের তাড়ন করা হয়েছিল, হত্যা করা হয়েছিল এবং কারাগারে বন্দী করা হয়েছিল| কিন্তু ঈশ্বর তাদের সঙ্গে ছিলেন| খ্রীষ্ট ধর্মের এক মহান উদ্দীপনা শুরু হয়েছিল| খ্রীষ্টধর্মের বিস্তার বন্ধ করতে কম্যুনিস্টরা যা যা পারত তার সবই করার চেষ্টা করেছিল| কিন্তু তবুও তারা অকৃতকার্য্য হয়েছিল| চীনদেশে এখন 150 মিলিয়নেরও বেশি খ্রীষ্ট বিশ্বাসী রয়েছেন| বর্তমানে সমগ্র আমেরিকা, কানাডা এবং ইউরোপের মন্ডলীতে যত লোক আছেন তার তুলনায় চীনদেশের মন্ডলীতে অনেক বেশি সংখ্যায় লোক রয়েছে! ঈশ্বর কম্যুনিস্ট চীনে এটা করেছেন - এবং সেই একই ঈশ্বর মধ্য প্রাচ্যেও এটা করতে পারেন! আসলে, তিনি এটাই করছেন! ঈশ্বর যেন ঐ মুসলমান দেশে আরও হাজার হাজার খ্রীষ্ট বিশ্বাসী গড়ে তোলেন সেই প্রার্থনা করুন! যেমন মার্টিন লুথার বলেছিলেন,

ধার্মিক এবং জ্ঞানীগণ যাউক, অধিকন্তু এই নৈতিক জীবন;
   এই দেহ তাহারা হয়ত হত্যা করিবে: ঈশ্বরের সত্য সর্বদা বাস করিবে,
তাঁহার রাজ্য অনন্তকালীন|

এবং আসন্ন মহাতাড়নার সময়ে প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের প্রতি হুবহু এইরকম ঘটনাই ঘটবে| শয়তান তাদের প্রচন্ডভাবে আক্রমন করবে|

খ্রীষ্টের শত্রুরা এগিয়ে আসবে এবং হাজার হাজার খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের কারাগারে বন্দী করবে এবং মুন্ডচ্ছেদ করবে| কিন্তু তারা শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করবে! কিভাবে?

‘‘আর মেষশাবকের রক্ত প্রযুক্ত, এবং আপন আপন সাক্ষ্যের বাক্য প্রযুক্ত, তাহারা তাহাকে জয় করিয়াছে; আর তাহারা মৃত্যু পর্য্যন্ত আপন আপন প্রাণও প্রিয় জ্ঞান করে নাই’’(প্রকাশিত বাক্য 12:11)|

‘‘মেষশাবকের রক্ত প্রযুক্ত|’’ যীশু খ্রীষ্টের রক্ত তাদের অনন্তকালীন সুরক্ষা দিবে| এমনকী বর্তমানেও, যখন শয়তান আপনাকে আক্রমন করবে, যখন সে আপনাকে দুঃখিত এবং আশাহীন অনুভব করাবে, তখন খ্রীষ্টের রক্তের কথা স্মরণ করুন| যখন আপনি পরিত্রাতার রক্তের প্রতি দৃষ্টিপাত করবেন, তখন ঠিক সেই তাড়নার মধ্যে অবস্থানকারী খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের মতন, আত্মকরুণা এবং ভয় থেকে আপনাকেও মুক্তি দেওয়া হবে| ঈশ্বরের মেষশাবকের রক্তের দ্বারা আপনি শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করবেন যা সমস্ত পাপ এবং বিষন্নতা দূর করবে|

এবং তারা শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করবে

‘‘আপন আপন সাক্ষ্যের বাক্য প্রযুক্ত|’’ তারা সাক্ষ্য দেবে যে যীশুই তাদের পরিত্রাতা| শহীদের আত্মবলি হল শয়তানের উপরে একটি মহান বিজয় লাভ| ‘‘শহীদের রক্ত [বাস্তবিকই] মন্ডলীর বীজ|’’ পালক শ্যামূয়েল লামকে বেশ কয়েকবার চীনের একটি কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছিল| শেষ অবধি তিনি বলেছিলেন, ‘‘কম্যুনিস্টরা আমাকে গ্রেপ্তার করা বন্ধ করিয়াছিল| তাহারা এই গ্রেপ্তারি বন্ধ করিয়াছিল তাহার কারণ এই ছিল যে যতবার তাহারা আমাকে কারাগারে নিক্ষেপ করিত, প্রত্যেকবারই আমাদের মন্ডলী বৃদ্ধি পাইত| অধিক তাড়নার অর্থ হইতেছে অধিক আশীর্ব্বাদ!’’

উঠে দাঁড়ান এবং আপনার গানের পাতার 8 নং গানটি করুন|

আমাদের পিতাদের বিশ্বাস! এখনো জীবিত,
   অন্ধকার কারাকক্ষ, অগ্নি, ও অসির পরিবর্তে:
ওহ, কেমন উচ্চ আনন্দ আমাদের হৃদয়ের স্পন্দনে
   যখনই আমরা শুনি ঐ গৌরবময় জগতের বিষয়!
আমাদের পিতাদের বিশ্বাস, পবিত্র বিশ্বাস!
   আমরা মৃত্যু পর্য্যন্ত তোমার সহিত স্থির থাকিব!
(“Faith of Our Fathers” by Frederick W. Faber, 1814-1863) |

এবং খ্রীষ্টের জন্য মৃত্যুবরণ করার সাগ্রহ সম্মতি দানের দ্বারা খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা তাড়নায় শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করবে| ‘‘আর তাহারা মৃত্যু পর্য্যন্ত আপন আপন প্রাণও প্রিয় জ্ঞান করে নাই|’’ এমনকী যদি তাদের খ্রীষ্টের জন্য প্রাণত্যাগ করতে হয় তবুও তারা নিজেদের জীবনকে ভালবাসেননি| ঐভাবেই তারা শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করে! উঠে দাঁড়ান এবং 8 নং গানটি আবার করুন,

আমাদের পিতাদের বিশ্বাস! এখনো জীবিত,
   অন্ধকার কারাকক্ষ, অগ্নি, ও অসির পরিবর্তে:
ওহ, কেমন উচ্চ আনন্দ আমাদের হৃদয়ের স্পন্দনে
   যখনই আমরা শুনি ঐ গৌরবময় জগতের বিষয়!
আমাদের পিতাদের বিশ্বাস, পবিত্র বিশ্বাস!
   আমরা মৃত্যু পর্য্যন্ত তোমার সহিত স্থির থাকিব!

আমাদের পিতাগণ, অন্ধকার কারাগারে বন্দী ছিলেন,
   সেখানে হৃদয় ও বিবেক তখনো মুক্ত ছিল;
তাহাদের সন্তানদের ভাগ্য কত মধুর হইবে,
   যদি তাহারা, তাঁহাকে ভালবাসে, তাঁহার জন্য মরিতে পারে!
আমাদের পিতাদের বিশ্বাস, পবিত্র বিশ্বাস!
   আমরা মৃত্যু পর্য্যন্ত তোমার সহিত স্থির থাকিব!

‘‘আর মেষশাবকের রক্ত প্রযুক্ত, এবং আপন আপন সাক্ষ্যের বাক্য প্রযুক্ত, তাহারা তাহাকে জয় করিয়াছে; আর তাহারা মৃত্যু পর্য্যন্ত আপন আপন প্রাণও প্রিয় জ্ঞান করে নাই’’(প্রকাশিত বাক্য 12:11)|

যারা বর্তমানে শয়তানের উপরে বিজয় লাভ করছে তারা হলেন সেই সমস্ত লোক যারা নিজেদের জীবনে ঐ বাক্যগুলিকে এখনও জীবিত করে রেখেছেন| ঈশ্বর আমাদের মন্ডলীতে উদ্দীপনা প্রেরন করুন তার জন্য আমরা 42 বছর ধরে প্রার্থনা করেছিলাম| কিন্তু কোন উদ্দীপনা আসেনি| এর কারণটি আমার কাছে পরিস্কার| লোকেরা কিছু সময়ের জন্য আসতেন এবং তারপরে আবার পাপের প্রতি ফিরে যাওয়ার জন্য চলে যেতেন| কিভাবে এই ধরনের অপরিত্রাণপ্রাপ্ত লোকেরা কখনো উদ্দীপনার অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারবে? এটা সম্ভব ছিল না| বছরের পর বছর ধরে তারা পাপপূর্ণ, স্বার্থপর জীবন অতিবাহিত করার জন্য চলে গেছিলেন| শেষপর্য্যন্ত তারা এই চলে যাওয়া বন্ধ করেছিলেন| শেষপর্য্যন্ত আমাদের নিজেদের সন্তানদের মধ্যে কয়েকজন প্রকৃতভাবে মন পরিবর্তন করেছিলেন| তারপর, ক্রমে ক্রমে আরও বেশ কয়েকজন ভিতরে প্রবেশ এবং প্রকৃতভাবে মন পরিবর্তন করেছিলেন| সব শেষে সেখানে মাত্র চার অথবা পাঁচজন ‘‘মন্ডলী’’ বালক বাকি ছিলেন যারা অপরিত্রাণপ্রাপ্তই থেকে গিয়েছিলেন| তখন ঈশ্বর শেষপর্য্যন্ত আমাদের সমস্ত প্রার্থনার উত্তর দিয়েছিলেন| যখন দুষ্টজনেরা চলে গিয়েছিল, ঈশ্বর আমাদের কাছে একটি উদ্দীপনা পাঠিয়েছিলেন|

উদ্দীপনার জন্য প্রথমে একটি মেয়ে প্রকৃত, আন্তরিক প্রার্থনা করতে শুরু করেছিলেন| তারপরে মহিলাদের মধ্যে একজন ভেঙ্গে পড়লেন এবং উদ্দীপনার জন্য অশ্রুসজল চোখে প্রার্থনা করা শুরু করলেন| প্রায় সেই একই সময়ে তিনজন যুবক আমার সঙ্গে উদ্দীপনার জন্য প্রার্থনা করবেন বলে আমার বাড়িতে এলেন| সব শেষে, যখন প্রায় সমস্ত হারিয়ে যাওয়া জাগতিক লোকেরা চলে গেলেন, আমাদের সমস্ত প্রার্থনার উত্তর দেওয়া হল| মাত্র কয়েক সপ্তাহ কালের মধ্যে 24 জন লোক আশান্বিতভাবে পরিত্রাণ পেয়েছিলেন! তারা পাপের গভীর চেতনার অধীনস্থ ছিলেন| যীশুর কাছে আসতে আসতে তারা আর্তনাদ করছিলেন এবং কাঁদছিলেন| তাদের মধ্যে দুইজন ছিলেন প্রায় 80 বছরেরও বেশি বয়স্ক, আমাদের সময়ে যা বেশ অস্বাভাবিক| তাদের মধ্যের তের জন ছিলেন কলেজ বয়সী যুবক| তাদের মধ্যে একজন ছিলেন হারানো সাউদার্ণ ব্যাপটিষ্ট| সেই লোকটি বেশ কয়েক মাস ধরে আমার সঙ্গে তর্ক চালিয়ে গেছিলেন যে তিনি ইতিমধ্যেই পরিত্রাণপ্রাপ্ত হয়েছেন| কিন্তু তিনি প্রকৃতপক্ষে পরিত্রাণ পেয়েছিলেন এই বছরের সেই উদ্দীপনায়! এত সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে আমরা কখনও 24 জন লোকের মন পরিবর্তিত হতে দেখিনি! আমাদের মধ্যে সকলেই সেইদিনের সভায় ঈশ্বরের উপস্থিতি অনুভব করতে পেরেছিলাম| মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই আমি তাদের মধ্যে অর্দ্ধেক লোককে ব্যাপ্তিষ্ম দেব|

ঈশ্বরের আত্মার এই ধরনের একটি অবতরনের জন্য, ক্রুশের উপরে খ্রীষ্ট যে রক্ত ঝরিয়েছেন তার দ্বারা লোকদের সমস্ত পাপ থেকে মুক্ত করতে খ্রীষ্টের প্রতি লোকদের আকর্ষন করার জন্য, ঈশ্বরের প্রতি ধন্যবাদ জানানোর একটি সময়, যেটা বড়ই সুখের সময় হওয়া উচিৎ| পরবর্তী শনিবার রাত্রে ঈশ্বর আপনার জন্য কি করেছেন সেই বিষয়ে একটি সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হন!

এই বছর শেষ হওয়ার আগেই সম্ভবত আরও কয়েকটি আশাজনক মন পরিবর্তন হবে| গত রাত্রে আমাদের অন্য একটা মন পরিবর্তন হয়েছে| এবং আমি নিশ্চিত যে আমাদের প্রথম ঈশ্বর-প্রেরিত উদ্দীপনার বছর হিসাবে এই 2016 সালটিকে আমরা সবসময়ে মনে রাখব|

কিন্তু আমরা যেন অবশ্যই মনে না করি যে মন্ডলী সর্বদা একটা উদ্দীপনার অবস্থায় থাকবে| ঈশ্বর আবার এই জিনিষ করার আগে, সেখানে কেটে যেতে পারে বেশ কয়েক মাস, এমনকী অনেক বছর| এর মাঝখানে আমরা অবশ্যই তাঁর আত্মার মহান অবতরনের জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি| আমরা যেন অবশ্যই ক্রমাগত উদ্দীপনার অবস্থায় থাকার চেষ্টা না করি অথবা আমরা হতাশ এবং দুঃখিত হয়ে পড়ব| একটি মন্ডলী কখনও ধারাবাহিক উদ্দীপনার অবস্থায় থাকতে পারে না| আমরা স্টেরয়েড নিয়ে পুনর্জাগরিত হব! এটা আমাদের পুড়িয়ে মারে| সেইজন্য, আসুন আমরা কিছু সময়ের জন্য থেমে যাই এবং শুধু সেই 24 জনের মন পরিবর্তনের জন্য ঈশ্বরের প্রশংসা করি| সময়ে সময়ে আরও অনেক মন পরিবর্তন হবে| এবং ভবিষ্যতে, আমি বিশ্বাস করি খুব ভালোভাবে আর একটি উদ্দীপনা হতে পারে, আরও বড় আকারে| কিন্তু বছরের বাকি সময়ের জন্য, আসুন ঈশ্বরের ক্ষমতা এবং খ্রীষ্টের রক্তের বিষয়ে আনন্দ করি| এবং আসুন আমরা সবাই এই সমস্ত নতুন মন পরিবর্তনকারীদের জন্য প্রার্থনা করি, যাতে তারা, তাড়নের মধ্যে থাকা খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের মতন, ‘‘মেষশাবকের রক্ত প্রযুক্ত, এবং আপন আপন আপন বাক্যের সাক্ষ্য প্রযুক্ত; এবং...মৃত্যু পর্য্যন্ত আপন আপন প্রাণও প্রিয় জ্ঞান না করার দ্বারা [শয়তানের উপরে] বিজয় লাভ করে’’ [প্রকাশিত বাক্য 12:11)| আসুন উঠে দাঁড়াই এবং ঈশ্বর প্রেরিত এই উদ্দীপনার থিম সংগীতটি গাই| এটা আপনার গানের পাতার 9 নং গান|

পরিত্রাতা, প্রার্থনা করি, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর,
   হউক আজ শুধু যীশুকেই দেখি;
যদিও উপত্যকার মধ্য দিয়া তুমি আমায় পরিচালনা কর,
   তোমার অম্লান গৌরব আমায় পরিবেষ্টন করে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|

সকল ইচ্ছা, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর
   তোমার গৌরবের জন্য রাখ; আমার আত্মা অনুপ্রাণিত,
তোমার পূর্ণাঙ্গ রূপ, তোমার পবিত্র প্রেম,
   উর্দ্ধ হইতে আলোর স্রোত আমার পথ|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হউক|

পাপের ধ্বংস হউক, আমার সকল দর্শন পূর্ণ কর
   উজ্জ্বল জ্যোতি অন্তরে প্রতিবিম্বিত হউক|
আসুন শুধু তোমার আশীর্ব্বাদের মুখ দেখি,
   তোমার অনন্ত অনুগ্রহ আমার আত্মার পর্ব্ব|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, স্বর্গীয় পরিত্রাতা,
   তোমার গৌরবের সহিত আমার আত্মা উজ্জ্বল হইবে|
আমার সমস্ত দর্শন পূর্ণ কর, যাহা সমস্ত আমি দেখি|
   তোমার পবিত্র আকার আমাতে প্রতিবিম্বিত হোক|
(“Fill All My Vision” by Avis Burgeson Christiansen, 1895-1985) |

এবং যদি আপনি এখনও উদ্ধার না পেয়ে থাকেন তাহলে আমরা বলি যে আপনি আপনার পাপের জন্য অনুতাপ করুন - এবং খ্রীষ্টের দিকে ঘুরে দাঁড়ান এবং তাঁকে বিশ্বাস করুন, এবং তাঁর রক্তের দ্বারা আপনার পাপ থেকে শুচি হন যা তিনি আপনার জন্য ক্রুশের উপরে ঝরিয়েছিলেন| আপনাকে অবশ্যই অনুভব করতে হবে যে আপনি পাপপূর্ণ| তারপরে যীশু যে রক্ত ক্রুশের উপরে ঝরিয়েছিলেন তার দ্বারা আপনার পাপকে ধৌত করে দূরে সরিয়ে দেওয়ার জন্য আপনি অবশ্যই যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করুন| আমেন|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রুধোম্মে:প্রকাশিত বাক্য 12:7-12 |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
      “A Mighty Fortress Is Our God” (by Martin Luther, 1483-1546) |