Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




শেষ দিনে উপবাস ও প্রার্থনা

FASTING AND PRAYER IN THE LAST DAYS
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হেইমার্স, জুনিয়র
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2016 সালের, 24শে এপ্রিল, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, April 24, 2016


অনুগ্রহ করে আমার সাথে মথি 24:12 পদটি খুলুন| এই পদটি আমাকে পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে সান্ত্বনা দিয়ে আসছে| অনুগ্রহ করে এটা জোরে জোরে পড়ুন|

‘‘আর অধর্ম্মের বৃদ্ধি হওয়াতে, অধিকাংশ লোকের প্রেম শীতল হইয়া যাইবে’’ (মথি 24:12)|

কেন এই ভয়াবহ পদটি আমকে সান্ত্বনা দেয়? কারণ এটা পরিস্কার করে শেষ দিনে আমাদের মন্ডলীগুলির অবস্থা বর্ণনা করছে| খাঁটি খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কোন কারণ সেখানে নেই| এইভাবেই যীশু বলেছিলেন যে শেষের সময়ে এইরকম হবে| বাক্যে অনুবাদিত ‘‘ইনইক্যুইটি’’ শব্দটির অর্থ হল ‘‘ব্যবস্থাহীনতা|’’ এ হল ‘‘অনিয়ত বিশৃঙ্খলা’’ - এবং এর অর্থ নতুন নিয়মের ব্যবস্থাগুলিকে ‘‘ভঙ্গ করা’’ অথবা ‘‘আদেশ লঙ্ঘন’’ করা| এটা পরোক্ষভাবে প্রকাশ করছে যে শেষের দিনের মন্ডলীগুলি বাইবেলের শিক্ষা অনুসরণ করবে না| এই ব্যবস্থাহীনতার ফলস্বরূপ ‘‘অধিকাংশ লোকের প্রেম [বৃদ্ধি] শীতল হইয়া যাইবে|’’ এমনকী একটি আধুনিক অনুবাদ এটা আরও শক্তিশালী করেছে, ‘‘অধিকাংশের প্রেম শীতলতায় বৃদ্ধি পাইবে’’ (এনআইভি)| বাক্যে অনুবাদিত ‘‘প্রেম’’ শব্দটি খুব গুরুত্বপূর্ণ| এটা গ্রীক ভাষার ‘‘আগাপে’’ শব্দ থেকে এসেছে - যেটি একচেটিয়াভাবে খ্রীষ্টীয় প্রেমের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়| ভাইন এটিকে বলেন ‘‘খ্রীষ্ট ধর্ম্মের চারিত্রিক শব্দ|’’ শেষের দিনের লাওডিসিয়ান মন্ডলীর বিষয়ে ডঃ হেনরী এম. মরিস মন্তব্য করেছিলেন, ‘‘সেখানে বহুসংখ্যক বৃহৎ এবং প্রাচুর্য্যপূর্ণ মন্ডলী রহিয়াছে যেগুলি সুসমাচার-সংক্রান্ত এবং নামেমাত্র বাইবেল-সংক্রান্ত...যেগুলি আধ্যাত্মিকভাবে দরিদ্র’’ (The Defender’s Study Bible; note on Revelation 3:17)| এই সুসমাচারমূলক এবং বুনিয়াদী মন্ডলীগুলির অবস্থা বর্ণিত হয়েছে প্রকাশিত বাক্য 3:17 পদে, ‘‘কিন্তু জান না যে, তুমিই দুর্ভাগ্য, কৃপাপাত্র, দরিদ্র, অন্ধ ও উলঙ্গ|’’

মন্ডলীগুলির প্রতি প্রয়োগযোগ্য সরলতম পরীক্ষাগুলির একটি হল এটা দেখা যে - তাদের কি ‘‘খ্রীষ্টীয় প্রেম’’ আছে? তারা মন্ডলীতে থাকতে কি ভালবাসে? তারা কি খ্রীষ্টের প্রেমে তাদের ভাই ও বোনেদের সঙ্গে সহভাগিতায় থাকতে ভালবাসে? তাদের বেশির ভাগই ভালবাসেন না| আমাদের ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীর সবচেয়ে বড় দুঃখদায়ক ঘটনার একটি হল তারা রবিবারের সন্ধ্যার উপাসনা ত্যাগ করেছেন| এটা এতই সাধারন ব্যাপার যে ডঃ কেগান টেক্সাসের, ডালাসে একটিও মন্ডলী খুঁজে পাননি যেখানে রবিবারের সন্ধ্যায় উপাসনা হয়ে থাকে! সেখানে হয়তো একটা ছিল, কিন্তু তিনি সেটা খুঁজে পাননি! ডঃ ডব্লিউ. এ. ক্রিস্ওয়েলের মহান প্রথম ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীতে এখন আর রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা হয় না| ডালাসের উপকন্ঠে অবস্থিত ডঃ জিমি ড্রেপার্সের মহান মন্ডলীতে এখন আর রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা হয় না| ফোর্ট ওয়র্থে ডঃ জে. ফ্র্যাঙ্ক নরিসের মহান প্রথম ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীতে এখন আর রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা হয় না| ডঃ জন্ আর. রাইসʼএর মহান প্রথম গলিলিয়ান ব্যপটিষ্ট মন্ডলী, যা ডালাসের এক উপকন্ঠে অবস্থিত, স্পষ্টতই তাদের রবিবারের সান্ধ্য উপাসনাও বাতিল করে দিয়েছে| ডঃ কেগান বলেছেন, ‘‘এটা বিস্ময়কর এমনকী টেক্সাসের, ডালাসের মত জায়গাতেও কত কম সংখ্যায় প্রকৃতই প্রাচীনকালের খ্রীষ্টধর্ম্ম আছে - সেই বাইবেল বলয়ের অত গভীরে|’’

এমনকী অধিকাংশ বুনিয়াদী মন্ডলীর মধ্যে কয়েকটি এই পথেই চলছে| সম্প্রতি আমি খুব আঘাত পেয়েছি এটা শুনে যে বুনিয়াদী মন্ডলীর সহভাগিতার একটি বিখ্যাত মন্ডলী তাদের রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা ত্যাগ করেছে| তারা বর্তমানে সকালের উপাসনার পর্তে স্যান্ডউইচ খায়, তারপরে 1:30 মিনিটে বাইবেল অধ্যয়ণ করে| এক প্রচারক বলেছিলেন, ‘‘তারা ঠিক ততখানি বাইবেল পাঠ করে’’ - যেন "বাইবেল পাঠ’ই হচ্ছে মন্ডলীতে যাওয়ার একমাত্র কারণ! পুরানো দিনের ব্যাপটিষ্টদের প্রত্যেক রবিবারের সন্ধ্যায় তাদের লোকদের সঙ্গে করে নিয়ে আসা হারানোদের সুসমাচার শোনানোর জন্যে, সুসমাচার প্রচারমূলক উপাসনা হত| রবিবারের সন্ধ্যায় পুরানো দিনের ব্যাপটিষ্টদের পরম সহভাগিতা থাকত| এইসব স্মরণ করার পক্ষে আমি অনেক বৃদ্ধ হয়েছি| এখন মনে হচ্ছে তারা সাকুল্যে ‘‘বাইবেল পেতে’’ চায়| তারা এমনকি এর থেকেও বেশি বাইবেল ‘‘পেতে’’ পারেন যদি বাড়িতে বসে থাকেন এবং রেডিওতে ডঃ জে. ভারন্ন ম্যাকগীর প্রচার শোনেন! কিন্তু মথি 24:12 পদটি বলে না যে, ‘‘কারণ অধর্ম্মের বৃদ্ধি হওয়াতে, তাহারা কম পরিমানে বাইবেল পাইবে|’’ না! না! পদটি বলে, ‘‘অধর্ম্মের বৃদ্ধি হওয়াতে, অধিকাংশ লোকের [স্বর্গীয়] প্রেম শীতল [বৃদ্ধি] হইয়া যাইবে|’’ সেই ব্যাপটিষ্ট মন্ডলী যেখানে রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা বিসর্জন দেওয়া হয়েছে সেখানে বাস্তবিক পক্ষে স্বর্গীয় সহভাগিতা অনুপস্থিত থাকে| যেসব মন্ডলী 50 বছর আগে থেকে তাদের রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা ত্যাগ করেছে, কয়েক বছর অথবা তারও কম সময়ের মধ্যে সেগুলি ইউনাইটেড মেথডিষ্ট বা ইউনাইটেড প্রেসবাইটেরিয়ান মন্ডলীর মতন নিষ্ফল এবং জীবনহীন হয়ে পড়বে| মনে হয়েছিল যেন এটা বুদ্ধিমানের কাজ হয়েছে, কিন্তু এই কাজটি তাদের ধ্বংস করে দিয়েছিল! বেশ কয়েক বছর ধরে তারা বহু মিলিয়ন সদস্য হারিয়েছিলেন| আশ্চর্যের কিছু নেই যে গত বছরে সাউদার্ণ ব্যাপটিষ্টরা তাদের 250,000 জন সদস্য হারিয়েছেন! লোকেদের তাদের মন্ডলীতে আসার জন্যে সেখানে কোন সহভাগিতা ছিল না, প্রেম ছিল না, এবং কোন কারণ ছিল না| এবং বুনিয়াদী ব্যাপটিষ্টরা এর চাইতে ভাল কিছু একটা করছে না|

মন্ডলীগুলির প্রতি যখন এই সব ঘটনা ঘটে চলেছে সেই একই সময়ে আমেরিকা নৈতিকভাবে এবং আধ্যাত্মিকভাবে পিছিয়ে পড়ছে| শয়তান এবং তার দিয়াবলের ক্ষমতা আমাদের জাতিকে শাসন করছে, যখন ব্যাপটিষ্টরা তাদের রবিবারের সান্ধ্য উপাসনা বন্ধ করে দিচ্ছে যাতে লোকেরা দূরদর্শনে আজেবাজে জিনিষ দেখতে পারে এবং তাড়াতাড়ি বিছানায় যেতে পারে! ঈশ্বর আমাদের সাহায্য করুন! প্রকাশিত বাক্যের বইতে উল্লেখিত সেই সাতটি মন্ডলীকে মুসলমানেরা সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দিয়েছিল| আমি বিস্মিত হব না যদি মুসলমানেরা ঠিক একইভাবে এখানে এসে আমাদের সব কয়টি ব্যাপটিষ্ট মন্ডলী ধ্বংস করে দেয়! কিভাবে তাদের বিরত করা যাবে? সেই সব লোকেরা যারা রবিবারের সন্ধ্যায় মন্ডলীতে যাওয়ার পক্ষে অত্যন্ত অলস তারা নিশ্চয়ই তাদের থামাবে না! তারা কিভাবে এই কাজ করতে পারবে?

শয়তানের দিয়াবলীয় শক্তি আমেরিকা এবং ইউরোপের গলা টিপে ধরেছে! তারা আমদের মন্ডলীগুলিকে শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলছে! II তীমথিয় 3:1-5 পদে উল্লেখিত শেষের দিনে লোকদের একটি বর্ণনা এখানে দেওয়া হল|

‘‘কিন্তু ইহা জানিও, শেষকালে বিষম সময় উপস্থিত হইবে| কেননা মনুষ্যেরা আত্মপ্রিয়, অর্থপ্রিয়, আত্মশ্লাঘী, অভিমানী, ধর্ম্মনিন্দক, পিতামাতার অবাধ্য, অকৃতজ্ঞ, অসাধু, স্নেহরহিত, ক্ষমাহীন, অপবাদক, অজিতেন্দ্রিয়, প্রচন্ড, সদ্বিদ্বেষী, বিশ্বাসঘাতক, দুঃসাহসী, গর্ব্বান্ধ, ঈশ্বরপ্রিয় নয় বিলাসপ্রিয় হইবে; লোকে ভক্তির অবয়বধারী, কিন্তু তাহার শক্তি অস্বীকারকারী হইবে: তুমি এরূপ লোকদের হইতে সরিয়া যাও’’ (II তীমথিয় 3:1-5)|

এই সমস্ত স্বধর্ম্মত্যাগী, তথাকথিত ‘‘খ্রীষ্ট বিশ্বাসীগণ’’ আমেরিকা এবং পাশ্চাত্যের নৈতিকতার শিকড়গুলি ভিতরে ভিতরে নষ্ট করে দিচ্ছে| তারা কেবলমাত্র নিজেদের ভালবাসে| তারা শুধু অর্থ ভালবাসে| তারা বিদ্রোহী, অকৃতজ্ঞ, এবং অপবিত্র| ঈশ্বরের শক্তি ছাড়াই তাদের একটি ধার্মিকতার বহিরাবরণ রয়েছে|

এখন II তীমথিয় 3:12, 13 পদদুটি শুনুন|

‘‘আর, যত লোক ভক্তিভাবে খ্রীষ্ট যীশুতে জীবন ধারণ করিতে ইচ্ছা করে, সেই সকলের প্রতি তাড়না ঘটিবে| কিন্তু দুষ্ট লোকেরা ও বঞ্চকেরা পরের ভ্রান্তি জন্মাইয়া, ও আপনারা ভ্রান্ত হইয়া, উত্তর উত্তর কুপথে অগ্রসর হইবে’’ (II তীমথিয় 3:12, 13)|

এরাই হলেন সেই সমস্ত লোক যাদের আমরা আমাদের মন্ডলীতে খ্রীষ্টের প্রতি জয় করার চেষ্টা করছি! কিভাবে আমরা এটা করতে পারি! এটা মানবিকভাবে অসম্ভব! তাদেরকে মন্ডলীতে নিয়ে আনার জন্যে আমরা আমাদের হৃদয় দিয়ে কাজ করে চলেছি - কিন্তু তাদের মন ভিডিও গেমস্ এবং রহস্যময় চলচ্চিত্রের দ্বারা এতটাই অচৈতন্য ছিল যে এমনকী তাদের প্রথম কয়েকবার উপস্থিতির সময়ে যখন আমি প্রচার করেছি তারা আমার দিকে তাকাতেই পারেনি| তারা নিচে রাখা তাদের হাতের দিকে ভাবলেশহীনভাবে স্থিরদৃষ্টিতে তাকিয়েছিল| তাদের হাতের আঙুলগুলো আপনা আপনি কাঁপছিল কারণ তাদের হাতে খেলার জন্যে কোন সেল ফোন ছিল না! এইচ. জি. ওয়েলস্’এর লেখা ‘‘দ্য টাইম মেশিন’’ বইয়ের মোর্লক্সের মনের মতন তাদের মনও ছিল ভাবলেশহীন| তারা জোম্বিদের মতনই মৃত ছিল যাদের তারা দেখত গভীর রাত্রির টিভিতে!

এখন লূকের পদের দিকে দেখুন, অধ্যায় 4:18-19| এটা হচ্ছে সেই সমস্ত কাজ যা যীশু খ্রীষ্ট আজকের পাপপূর্ণ যুবকদের জন্যে করতে এসেছিলেন| আমি এটা পাঠ করব| যীশু বলেছিলেন,

‘‘প্রভুর আত্মা আমাতে অধিষ্ঠান করেন, কারণ তিনি আমাকে অভিষিক্ত করিয়াছেন দরিদ্রদের কাছে সুসমাচার প্রচার করিবার জন্য; ভগ্ন হৃদয়দের আরোগ্য করিতে তিনি আমাকে পাঠাইয়াছেন, তিনি আমাকে প্রেরণ করিয়াছেন বন্দিগণের কাছে মুক্তি প্রচার করিবার জন্যে, অন্ধদের কাছে চক্ষুর্দ্দান প্রচার করিবার জন্য, উপদ্রুতদিগকে নিস্তার করিয়া বিদায় করিবার জন্য, প্রভুর প্রসন্নতার বৎসর ঘোষণা করিবার জন্য’’ (লূক 4:18, 19)|

যীশু আজকের যুবকদের জন্য এই জিনিষগুলি করতে এসেছিলেন| কিন্তু শয়তানের ক্ষমতাসকল এতই শক্তিশালী যে খ্রীষ্টের পরিত্রাণের অনুগ্রহ তাদের অধিকাংশের মধ্যেই প্রবেশ করতে পারেনি| আমাদের মধ্যে থাকতে হবে ঈশ্বরের উপস্থিতির শক্তি নয়ত আমরা কখনই তাদের সাহায্য করতে পারব না! আমরা গাড়ির পর গাড়ি ভর্তি করে তাদের মন্ডলীতে নিয়ে আনতে পারি - কিন্তু তাদের মধ্যে খুব অল্প কয়েকজনই যীশুর পরিত্রাণকারী অনুগ্রহ লাভের অভিজ্ঞতা অর্জন করবে! খুব অল্প কয়েকজন পরিত্রাত হবেন - যদি না ঈশ্বর, শয়তানের শক্তির চাইতে বেশি শক্তি, আমাদের মন্ডলীতে প্রেরণ করেন!

এবং এখানেই সেই উপবাস এবং প্রার্থনার কথা এসে পড়ে! মার্ক, নবম অধ্যায়ে উল্লেখিত লোকটিকে শিষ্যেরা সাহায্য করতে পারেননি| সে দিয়াবলের দ্বারা বন্দি হয়েছিল - ঠিক সেইভাবে যেভাবে আমরা শিশুদের মধ্যে এতজনকে সুসমাচার শোনার জন্য মন্ডলীতে ধরে নিয়ে আনছি| সেই বালকটি দিয়াবলের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হত| বাইবেল বলছে যে প্রত্যেকটি হারানো যুবক যাদের আমরা মন্ডলীতে নিয়ে আসি - তাদের প্রত্যেককেই - কিছুটা হলেও শয়তানের দ্বারা অন্ধ করা এবং পরিচালনা করা হচ্ছে - ‘‘আকাশের কর্ত্তৃত্বাধিপতির অনুসারে, যে আত্মা এখন অবাধ্যতার সন্তানগণের মধ্যে কার্য্য করিতেছে’’ (ইফিষীয় 2:2)| মার্ক 9 পদে সেই নবীন যুবকটিও মন্দ আত্মাবিষ্ট হয়েছিলেন| এবং তাকে সাহায্য করার পক্ষে শিষ্যেরা ক্ষমতাহীন ছিলেন| মার্ক 9:28, 29 পদদুটি দেখুন| উঠে দাঁড়ান এবং ঐ দুটি পদ জোরে জোরে পড়ুন|

‘‘পরে তিনি গৃহে আসিলে, তাঁহার শিষ্যেরা বিজনে তাঁহাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, আমরা কেন সেটা ছাড়াইতে পারিলাম না? তিনি কহিলেন, প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না’’ (মার্ক 9:28, 29)|

আপনারা এখন বসতে পারেন| ‘‘প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি [দিয়াবল বিষয়ক] বাহির হয় না|’’

আমি দৃঢ়নিশ্চিত যে আমরা কেবলমাত্র প্রার্থনার দ্বারা অধিকাংশ যুবকদের পরিত্রাণ পেতে সক্ষম করাতে পারব না| ‘‘প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না|’’ আপনি চরমভাবে নিশ্চিত থাকতে পারেন যে ‘‘এবং উপবাস’’ শব্দটি আদি গ্রীক পান্ডুলিপির মধ্যে ছিল| অশুচি আত্মাবিষ্ট জ্ঞানবাদী সাধুরা সেই দুটি শব্দকে বাদ দিয়ে দিয়েছিলেন| আধুনিক মন্ডলীগুলি তাদের তথাকথিত আধুনিক বাইবেলের মধ্যে, ঐ দুটি শব্দ অপসারিত করেছিল| কেন? কারণ অশুচি আত্মাবিষ্ট বিভ্রান্ত যুবকদের রক্ষা করার জন্য দিয়াবল চেয়েছিল শেষদিনে ঈশ্বরের শক্তির অধীনস্থ মন্ডলীগুলিকে ছিনিয়ে নিতে - সেটাই হল কারণ!

‘‘প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না’’ (মার্ক 9:29)|

আপনারা বসতে পারেন|

আমেন! এটাই হল কারণ যে আমাদের প্রার্থনা এবং উপবাস করতে হবে! এটাই হল ঈশ্বরের শক্তি গ্রহণ করার পথ! এটাই হল হারিয়ে যাওয়া লোকদের মন পরিবর্তন করানোর পথ| এটাই হল ঈশ্বরের শক্তি এবং অনুগ্রহের তালা খোলার পথ! এটাই হল শয়তান এবং তার দিয়াবলীয় শক্তিগুলিকে অতিক্রম করার পথ!

‘‘প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না’’!!

হালেল্লুইয়া! ঈশ্বর শত্রুকে পরাস্ত করার জন্য আমাদের একটি তলোয়ার দিয়েছেন| আর সেই তলোয়ার হচ্ছে ‘‘প্রার্থনা এবং উপবাস|’’ এখন যিশাইয় 58:6 পদটি দেখুন|

‘‘আমার মনোনীত উপবাস কি এই নয়? দুষ্টতার গাঁটসকল খুলিয়া দেওয়া, যোঁয়ালির খিল মুক্ত করা, এবং দলিত লোকদিগকে স্বাধীন করিয়া ছাড়িয়া দেওয়া, ও প্রত্যেক যোঁয়ালি ভগ্ন করা কি নয়?’’ (যিশাইয় 58:6)|

আপনারা বসতে পারেন| এই পদটি দেখাচ্ছে যে ঈশ্বর মনোনীত উপবাস খ্রীষ্টের শক্তিকে হারানো মানুষের মধ্যে আনয়ন করে| প্রার্থনা এবং উপবাস দুষ্টতার শৃঙ্খলকে শিথিল করে, এবং যোঁয়ালির খিল মুক্ত করে - দলিতদের মুক্ত করায় - এবং দিয়াবলের সমস্ত যোঁয়ালি ভেঙ্গে দেয়! এটা হল প্রার্থনা এবং উপবাস যা খ্রীষ্টের বিশুদ্ধতাকে শয়তান দ্বারা অন্ধকৃত এবং দিয়াবল-দলিত লোকদের মধ্যে নামিয়ে আনে! যীশু বলেছিলেন,

‘‘প্রভুর আত্মা আমাতে অধিষ্ঠান করেন, কারণ তিনি আমাকে অভিষিক্ত করিয়াছেন দরিদ্রদের কাছে সুসমাচার প্রচার করিবার জন্য; ভগ্ন হৃদয়দের আরোগ্য করিতে তিনি আমাকে পাঠাইয়াছেন, তিনি আমাকে প্রেরণ করিয়াছেন বন্দিগণের কাছে মুক্তি প্রচার করিবার জন্যে, অন্ধদের কাছে চক্ষুর্দ্দান প্রচার করিবার জন্য, উপদ্রুতদিগকে নিস্তার করিয়া বিদায় করিবার জন্য, প্রভুর প্রসন্নতার বৎসর ঘোষণা করিবার জন্য’’ (লূক 4:18, 19)|

এবং এটা হল উপবাস এবং প্রার্থনা যা শয়তান-অধিকৃত পাপীদের সঙ্গে খ্রীষ্টের বিশুদ্ধতার পরিচয় ঘটিয়েছে|

আর্থার ওয়ালিস্ বলছিলেন, ‘‘যিশাইয়ের মাধ্যমে ঈশ্বর প্রকাশ করিয়াছেন যে উপবাসের প্রকৃতি যাহা তিনি মনোনীত করিয়াছেন তাহা [যাহা] হইল মুক্তি বিষয়ক...নিশ্চিতভাবে আত্মিক এলাকাতে ইহার একটি প্রয়োগ আছে| মানুষ বন্দি হইয়া আছে, স্টিলের শৃঙ্খল বা লোহার বেড়ির দ্বারা নহে, কিন্তু শয়তানের অদৃশ্য শৃঙ্খলের দ্বারা| [যাহারা উপবাস করিতেছে তাহারা] নির্যাতনের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে যাহা সামাজিক নহে কিন্তু আধ্যাত্মিক, এমনকি শয়তানীয়...বোধশক্তি সম্বলিত চক্ষু তাহাদের সকলকে চিনিতে পারে যাহাদের আমরা দেখিতেছি জীবনের পথে দিয়াবলের দ্বারা নিপীড়িত হইতেছেন, শয়তানের দ্বারা উৎপীড়িত হইতেছেন, বদ্ধ হইয়া আছেন সেই শক্তির দ্বারা যাহা তাহারা বুঝেন না এবং যাহা হইতে তাহারা মুক্ত হইতে পারেন না’’ (God’s Chosen Fast, pp. 63, 64)| উপবাস এবং প্রার্থনা সেই শৃঙ্খল ভাঙ্গতে সাহায্য করে যা পুরুষ এবং মহিলাদের দিয়াবলের দাসত্বের বন্ধনে বন্দি করে রাখে| উপবাস হল মানুষের হৃদয়ের উপরে শয়তানের আধিপত্য চূর্ণ করার জন্য, ঈশ্বরের দ্বারা নিযুক্ত, শক্তিশালী একটি অস্ত্র|

যখন আমরা উপবাস করি তখন আমাদের উচিৎ প্রার্থনা করা যাতে ঈশ্বর আমাদের পাপের গভীর চেতনা প্রদান করেন| মানুষ কখনই স্বভাবগতভাবে পাপের চেতনা পায় না| স্বভাবগতভাবে প্রত্যেকটি লোক স্ব-ন্যায্যতা প্রতিপাদনকারী হয়ে থাকেন| সেখানে পবিত্র আত্মার একটি কর্ম্মসম্পাদনের প্রয়োজন আছে| যখন পবিত্র আত্মা কর্ম সম্পাদন করে, লোকেরা তাদের পাপকে ঘৃণা করে, এবং পাপপূর্ণ কার্যকলাপ পরিত্যাগ করে| তারা নিজেদের পাপপূর্ণ হৃদয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হয়| যখন আমরা উপবাস করি তখন আমাদের উচিৎ প্রার্থনা করা যাতে ঈশ্বর আমাদের পাপের গভীরতর চেতনা প্রদান করেন| সেই সমস্ত লোক যারা কেবল চেষ্টা করে চলেন যে ‘‘কিভাবে পরিত্রাণ লাভের শিক্ষা পাওয়া যায়’’ তাদের অবশ্যই তাদের পাপপূর্ণ এবং বিদ্রোহী হৃদয়কে গভীর চেতনার অধীনে নিয়ে আনতে হবে| এই ধরনের চেতনা আনার জন্যে উপবাস এবং প্রার্থনা ঈশ্বরের দ্বারা ব্যবহৃত হতে পারে| পাপের চেতনা ব্যতীত খ্রীষ্টের সুসমাচার তাদের কাছে কোন উপলব্ধি নিয়ে আসে না| সেই সমস্ত ‘‘মন্ডলী শিশু’’দের অনেকের ক্ষেত্রেই সেখানে ভুল হয়ে থাকে| কোন একদিন রাত্রে আমি তাদের সংখ্যা গুনেছিলাম| তাদের মধ্যে খুব অল্প কয়েকজনই খ্রীষ্টের অনুসরণকারী হয়েছিলেন| অন্যদের কেউই তাদের পাপের চেতনা এবং জাগতিকতার অনুতাপের অধীনস্ত হননি| আমরা অবশ্যই উপবাস এবং প্রার্থনা করব যেন ঈশ্বর তাদের চেতনা দেন, এবং তাদের হৃদয়সমূহ ভগ্ন করেন, এবং তাদের যীশুর এক নম্র শিষ্যে পরিণত করেন!

একমাত্র ঈশ্বরের আত্মাই লোকদের অনুতাপ করাতে পারে| উপবাস এবং প্রার্থনা প্রায়ই মূর্খ লোকদের নিয়ে আসে এটা দেখানোর জন্য যে পাপ-ঘৃণাকারী ঈশ্বরের দৃষ্টিতে তাদের শুচি করানোর জন্য সেখানে খ্রীষ্টের রক্তের প্রয়োজন আছে| উপবাস এবং প্রার্থনা হল সেই উপায় যা ঈশ্বর আমাদের দিয়েছেন আমাদের মধ্যকার সেই সমস্ত বিদ্রোহী পাপীদের অন্তরে কাজ করার প্রতি সেই পবিত্র আত্মাকে নামানোর জন্য!

ডঃ জন্ আর. রাইস বলেছিলেন, ‘‘সেখানে এমন একটি সময় আছে যখন আমাদের সকলের উচিৎ জগতের বাকি সমস্ত কিছু হইতে পৃষ্ঠপ্রদর্শন করার এবং ঈশ্বরের মুখের প্রতি দেখার| উপবাস এবং প্রার্থনার সময়গুলিই সেই উচিৎ সময়’’ (Prayer: Asking and Receiving, p. 216)|

আমি মনে করি যে আপনাদের মধ্যে যারা পরিত্রাণ পেয়েছেন তারা অনুভব করছেন যে আমাদের মন্ডলীতে আরও বেশি করে পবিত্র আত্মার উপস্থিতির প্রয়োজন আছে| আমরা যখন প্রার্থনা করি তখন তাঁর উপস্থিতির প্রয়োজন আছে| আমাদের জীবনের সঙ্গে তিনি কি করতে চাইছেন সেটা আমাদেরকে দেখানোর জন্য তাঁর উপস্থিতির প্রয়োজন আমাদের আছে| কি প্রচার করতে হয় সেটা পালককে দেখানোর জন্য তাঁর উপস্থিতির প্রয়োজন আমাদের আছে| আমাদেরকে প্রার্থনা যোদ্ধায় পরিণত করানোর জন্য তাঁর উপস্থিতির প্রয়োজন আমাদের আছে| হারানোদের আকর্ষণ করার এবং তাদের মন পরিবর্তন করানোর পরে তাদের এখানে ধরে রাখার জন্যে তাঁর উপস্থিতির প্রয়োজন আমাদের আছে| আমাদের মধ্যে দীর্ঘকাল অনুপস্থিত একটি উদ্দীপনা আনার জন্যে আমাদের তাঁকে প্রয়োজন| আমাদের অবনত করতে, ভগ্ন করতে, এবং তাঁর ইচ্ছাপূরণের জন্য আমাদের ছাঁচে ফেলে তৈরী করার জন্যে আমাদের নিজেদের তাঁকে প্রয়োজন| আমরা প্রায়ই গাই,

জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|
জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|
আমাকে ক্ষীণ কর, মৃৎপুত্তলী কর, আমাকে ভগ্ন কর, আমাকে অবনত কর|
জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|
   (“Spirit of the Living God” by Daniel Iverson, 1899-1977;
      altered by Dr. Hymers).

এই ছোট্ট গানটি একটি প্রকৃত প্রার্থনা হয়ে ওঠে যখন আমরা এর স্বপক্ষে উপবাস এবং প্রার্থনা করি| আপনারা যারা আধ্যাত্মিক খ্রীষ্ট বিশ্বাসী তারা জানেন যে আমাদের দরকার ঈশ্বরের আত্মার আমাদের মধ্যে নেমে আসা - আমাদের জাগতিক যুবকদের, জাগতিক মন্ডলী এবং মন্ডলীর বাইরে থেকে আসা উভয় শিশুদের হৃদয় পরিবর্তন করানোর জন্য| অতএব আমি বলছি যে আপনি পরের শনিবারটিকে উপবাস এবং প্রার্থনার দিন হিসাবে সরিয়ে রাখুন - যতক্ষণ না আমরা এখানে এই মন্ডলীতে বিকাল 5:30 মিনিটে একটি প্রার্থনা সভার জন্যে মিলিত হই| প্রার্থনা সভার পরে আমরা একটি হালকা মধ্যাহ্নভোজ সারবো| পরের শনিবারের রাত্রিতে কোন সুসমাচার প্রচার হবে না, কেবল গোটা দিনের উপবাসের পর একটি প্রার্থনা| আমরা সুসমাচার প্রচারের ক্ষেত্রে চমৎকার কাজ করেছি - কিন্তু সম্প্রতি আমরা তার থেকে প্রচুর মাত্রায় ফল পাচ্ছিনা| পল জি. কুক, তার ফায়ার ফ্রম হেভেন, নামের বইতে বলেছেন, ‘‘সুসমাচার একাকী দীর্ঘস্থায়ী ফল উৎপন্ন করিতে পারে না, যদি না পবিত্র আত্মার একটি পরিচালনা ইহার অনুষঙ্গী হয়’’ (পৃ: 108)| তিনি বলেছিলেন যে প্রাচীন মেথোডিষ্টরা ‘‘জানিতেন যে তাহাদের মন্ডলীর সমৃদ্ধি এবং তাহাদের নিজেদের সৌভাগ্য নির্ভর করিতেছে ঈশ্বরের আগমন এবং তাহাদের সহিত তাঁর সাক্ষাতের উপর|’’ তিনি বলেছিলেন, ‘‘এই সকল সাধারন, বিশ্বাসী পুরুষ এবং মহিলাগণ তাহাদের মধ্যে ঈশ্বরের অলৌকিক কার্য্যের অন্বেষণ করিতেন| তাহারা বিশ্বাস করিত যে ঈশ্বর যদি না কার্য্য করেন তাহা হইলে তাহারা তাঁহার নামে কোন কিছু অর্জন করিতে শক্তিহীন থাকিবেন| ইহা ব্যাখ্যা করিতেছে যে কেন তাহারা এত অধিক প্রার্থনা করিত এবং আন্তরিকতার সহিত তাহা করিত’’ (পৃ: 105)| ‘‘তাহারা বিশ্বাস করিতেন যে সুসমাচারের বিস্তার এবং মন্ডলীর স্বাস্থ্য সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করিতেছে ঈশ্বরের শক্তি এবং আনুকূল্যের উপর, এবং সেই কারণেই তাহারা এত অধিক প্রার্থনা করিতেন’’ (পৃ: 28)|

আসুন আমরা উপবাস এবং প্রার্থনা করি যেন আমাদের জাগতিক যুবকদের, মন্ডলী শিশু এবং নতুন শিশু উভয়ের হৃদয় পরিবর্তন করানোর শক্তি নিয়ে ঈশ্বরের আত্মা আমাদের মধ্যে নেমে আসেন| যদি আপনি যথেষ্ট সুস্থ হন, তবে অনুগ্রহ করে পরের শনিবারে এই মন্ডলীতে বিকাল 5:30 মিনিটের প্রার্থনা সভার শেষ অবধি সমস্ত খাদ্য থেকে বিরত থাকুন| যদি আপনি উপবাস করার মতন সুস্থ না হন, তবে গোটা দিনভর কেবল প্রার্থনা করে যান যেন ঈশ্বর আমাদের এই মন্ডলীতে নেমে আসেন| উপবাস করার পক্ষে আপনি যথেষ্ট স্বাস্থ্যবান কি না সেই বিষয়ে আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে, অনুগ্রহ করে প্রথমেই সেটি ডঃ চেন অথবা ডঃ জুডিথ কেগান’এর কাছে জিজ্ঞাসা করে নিন| তারা আপনাকে বলে দেবেন যে উপবাসের পক্ষে আপনি যথেষ্ট সুস্থ কি না| আপনি যদি কফি বা চা পানে অভ্যস্ত হন, তাহলে মাথাব্যাথা আটকাতে আপনি এক বা দুই কাপ খেতে পারেন| বাকি সময়ে শুধু জল পান করুন| গোটাদিনে প্রচুর পরিমান জল পান করেছেন সেই বিষয়ে নিশ্চিত হন, বিশেষ করে যদি আপনি কোন কাজ করে চলেছেন| প্রত্যেক ঘন্টা বা সেইরকম সময় বাদে বাদে এক গ্লাস করে জল পান করুন| আসুন আমরা সকলে একসাথে উঠে দাঁড়াই এবং 6 নং গানটি গাই|

যখন প্রভুর সাথে চলি তাঁর বাক্যতে,
   হয় মোদের জীবন পথ গৌরবময়!
তাঁর ইচ্ছা পালনে সদা থাকেন সাথে,
   যারা সদা রয় তাঁর বাধ্যতায়|
রও বাধ্যতায়, রাখ বিশ্বাস তাঁহায়
   যীশুতে সুখী হওয়ার, একমাত্র এই উপায়|

তাঁর প্রেমের আনন্দ প্রমাণ তবেই পাব
   যবে সঁপি সব তাঁর বেদীতে;
তাঁর অপূর্ব দয়া, তাঁর অপার করুণা,
   কেবল আসে বিশ্বাস ও বাধ্যতায়|
রও বাধ্যতায়, রাখ বিশ্বাস তাঁহায়
   যীশুতে সুখী হওয়ার, একমাত্র এই উপায়|

সুমধুর সহভাগিতায় আমরা তাঁর পদতলে বসিব|
   পথে আমরা তাঁর সাথে সাথে হাঁটিব;
তিনি যাহা বলিবেন তাহা করিব, যেখানে পাঠাইবেন সেখানে যাইব;
   কখনও ভয় নয়, শুধু বিশ্বাস ও বাধ্যতা|
রও বাধ্যতায়, রাখ বিশ্বাস তাঁহায়
   যীশুতে সুখী হওয়ার, একমাত্র এই উপায়|
(“Trust and Obey” by John H. Sammis, 1846-1919) |

এই প্রচারটি আজ রাত্রে আপনি বাড়িতে নিয়ে যান| আগামি সপ্তাহের প্রত্যেক রাত্রে বিছানায় শুতে যাওয়ার আগে আবার এটা পড়বেন| শোয়ার আগে যখন আপনি প্রার্থনা করেন তখন কোরাস এবং গানটি গাইবেন| শনিবারে আবার এটা পড়ুন আর দিনেরবেলা যখন প্রার্থনা করেন তখন গান এবং কোরাসটি গাইবেন| কোরাসটি আবার গান,

জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|
জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|
আমাকে ক্ষীণ কর, মৃৎপুত্তলী কর, আমাকে ভগ্ন কর, আমাকে অবনত কর|
জীবন্ত ঈশ্বরের আত্মা, নেমে এস, আমরা প্রার্থনা করি|

যদি আপনি এখনও পরিত্রাণ না পেয়ে থাকেন, আমরা প্রার্থনা করছি যে আপনি অনুতাপ করবেন এবং যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করবেন| তাঁর রক্ত আপনাকে সমস্ত পাপ থেকে শুচি করবে| মৃত্যু থেকে তাঁর পুনরুত্থান আপনাকে অনন্তজীবন দান করবে| তাঁকে বিশ্বাস করুন এবং তিনি আপনাকে পাপ থেকে এবং আসন্ন বিচারের হাত থেকে রক্ষা করবেন| আমেন|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রুধোম্মে: মথি 17:14-21 |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Come, My Soul, Thy Suit Prepare” (by John Newton, 1725-1807) |