Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




ঈষ্করিয়োতীয় যিহূদা কিভাবে
শয়তানের দ্বারা বিনষ্ট হয়েছিলেন

HOW JUDAS ISCARIOT
WAS DESTROYED BY SATAN
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনিয়র|
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

2016 সালের, 13ই মার্চ, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, March 13, 2016

‘‘আর সেই রুটীখন্ডের পরেই শয়তান তাহার মধ্যে প্রবেশ করিল’’ (যোহন 13:27)|


“ভেজানো রুটি” ছিল একখন্ড তাড়ীশূণ্য রুটি যা যীশু এবং তাঁর শিষ্যেরা শেষ ভোজে খেয়েছিলেন| ‘‘আর সেই রুটীখন্ডের পরেই শয়তান তাহার মধ্যে প্রবেশ করিল|’’ এটা বাইবেলের মধ্যে সবার চাইতে ভয়ঙ্কর একটি পদ| এটা আমাদের বলছে যে শয়তান স্বয়ং যিহূদার শরীরের মধ্যে প্রবেশ করেছিলেন - এবং তিনি দিয়াবলের দ্বারা আবিষ্ট হয়েছিলেন| এটা খুবই অসাধারন কারণ যিহূদা ছিলেন খ্রীষ্টের ঘনিষ্টতম শিষ্যদের মধ্যে একজন| যিহূদার এই গল্পের মধ্যে আমাদের সকলের জন্যে একটি সতর্কবার্তা রয়েছে - সে আমরা পরিত্রাত হয়েছি অথবা হারিয়ে গিয়েছি যাই হোক না কেন|

যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয় ছিলেন শিমোন ঈষ্করিয়োতীয়র ছেলে| ‘‘ঈষ্করিয়োতীয়’’ বলতে যিহূদিয়ার দক্ষিণপ্রান্তে অবস্থিত, তাঁর নিজের শহর কিরিয়থ’কে বোঝান হচ্ছে| কাজেই যিহূদাই ছিলেন বারোজন শিষ্যদের মধ্যে একমাত্র সেই একজন যিনি উত্তরের গালীল থেকে আসেননি| শিষ্যদের তালিকার মধ্যে তাঁর নাম সবসময়ে সকলের শেষে দেওয়া হত| অবশ্যই তিনি খুব গুরুত্বপূর্ণ শিষ্য হয়ে থাকবেন| তিনি তাদের কোষাধ্যক্ষ হিসাবে কাজ করতেন|

যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয়র গল্প খুব অন্ধকারাচ্ছন্ন এবং ভীতিজনক| কিন্তু যেহেতু চারটি সুসমাচারের সব কয়টির মধ্যে গল্পটি দেওয়া আছে সেহেতু এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ, এবং একজন প্রচারকের পক্ষে এই বিষয়ে বলা মাঝে মাঝে দরকার| আমি আপনাকে বলতে যাচ্ছি যে কিভাবে যিহূদা দিয়াবলবিষ্ট হয়ে পড়েছিলেন| এখন সেই গল্প শুনুন|

মার্কের তৃতীয় অধ্যায় বলছে যে খ্রীষ্ট একটি পর্ব্বতের উপরে উঠেছিলেন এবং শিষ্যদের সেখানে তাঁর কাছে ডেকেছিলেন| এরা ছিলেন সেই সমস্ত লোক যারা খ্রীষ্ট আবার স্বর্গারোহণ করার পরে সমস্ত মন্ডলীর প্রতিষ্ঠা করবেন| এখন থেকে খ্রীষ্টের প্রধান কাজ হবে এই বারোজন শিষ্যকে শিক্ষা দেওয়া এবং প্রশিক্ষিত করা| যীশু তাদের বলছেন প্রেরিত - যার অর্থ তাদেরকে ‘‘প্রেরণ’’ করা হয়েছিল| তিনি তাদেরকে তাঁর সঙ্গে থাকতে বলেছিলেন, তাঁর উদাহরণ দ্বারা শিক্ষা গ্রহণ করার জন্য এবং তাঁর সেবাকাজে অংশগ্রহণ করার জন্য| তিনি তাঁর নামে তাদেরকে প্রচারের, রোগ আরোগ্য করার এবং ভূত তাড়ানোর অধিকার দেবেন| তাদের দায়িত্বগুলির মধ্যে একটি ছিল দিয়াবলের শক্তির উপরে বিজয় লাভ করা| তাদের সকলের নাম মার্ক 3:16-19 পদগুলিতে নথিভূক্ত করা আছে| প্রথম ব্যক্তির নাম ছিল পিতর| দ্বাদশতম ব্যক্তির নাম ছিল যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয়|

মথি 10:1-4 পদে, আমাদের বলা হয়েছে যে যীশু এই সব শিষ্যদের ভূত তাড়ানোর জন্যে, অসুস্থদের আরোগ্য করার জন্যে এবং প্রচার করার জন্য পাঠিয়েছিলেন| আরো একবার সেই বারোজনের নাম নথিভূক্ত করা হয়েছে| আবার প্রথম ব্যক্তির নাম বলা হয়েছে পিতর, এবং সর্বশেষ ব্যক্তিকে বলা হয়েছে যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয়| মথি 10:1 পদটি বলছে যে যীশু এই সমস্ত শিষ্যদের ‘‘অশুচি আত্মাদের উপরে ক্ষমতা দিলেন, যেন তাঁহারা তাহাদিগকে ছাড়াইতে,’’ পারেন আর সেইসঙ্গে অন্যান্য অলৌকীক কাজ করতে এবং প্রচার করতে পারেন| যিহূদাকে এই ‘‘ক্ষমতা’’ দেওয়া হয়েছিল - এবং তিনি স্বয়ং দিয়াবল তাড়াতেন, অসুস্থকে আরোগ্য করতেন, এবং প্রচার করতেন| পরবর্তী কালে যিহূদা হয়েছিলেন সেই মানুষ যিনি খ্রীষ্টের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন| কিন্তু যীশু এই মানুষটিকে প্রচার করার ক্ষমতা এবং অধিকার প্রদান করেছিলেন (মথি 10:7)| তাকে ‘‘পীড়িতদিগকে সুস্থ করিবার, মৃতদিগকে উত্থাপন করিবার, কুষ্ঠিদিগকে শুচি করিবার, ভূতদিগকে ছাড়াইবার’’ এই সমস্ত ক্ষমতাও প্রদান করা হয়েছিল (মথি 10:8)| বর্তমানে এটা আমাদের পক্ষে মনে রাখার মতন খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়| এটা আমাদের দেখাচ্ছে যে সেই সমস্ত লোক যারা খ্রীষ্ট বিশ্বাসী বলে নিজেদের দাবী করছেন তাদের সকলকেই বিশ্বাস করতে পারা যায় - এমনকি যদি তারা অসুস্থকে আরোগ্য করতে, ভূত তাড়াতে, - এবং, হ্যাঁ, মৃতদের উত্থাপন করতে সক্ষম থাকেন! খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের ইতিহাসের সর্বত্র কিছু কিছু দুষ্ট মানুষ এই সমস্ত জিনিষগুলি করতে সক্ষম ছিলেন| যেমন উদাহরণস্বরূপ ধরুন রাসপুটিন, যিনি ছিলেন একজন রাশিয়ান সন্ন্যাসী, যাকে রাশিয়ার কাইজার নিজের দূর্গে নিয়ে এসেছিলেন তার ছেলেকে সুস্থ করে তোলার জন্যে| এবং বর্তমানে আমাদের অবশ্যই বিনি হিন্ন, এবং অন্যান্য ‘‘আরোগ্যকারী’’ সুসমাচার প্রচারকদের মতন মানুষদের উপরে লক্ষ্য রাখার প্রতি খুব সতর্ক হতে হবে| যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয় যেমন ছিলেন তারা তার মতন খারাপ হতে পারে - যিনি পরবর্তী কালে গেৎশিমানীর বাগানে খ্রীষ্টকে প্রতারণা করেছিলেন| কিন্তু যিহূদা ঠিক সেই সময়ে দিয়াবলবিষ্ট হয়ে পড়েননি| সেখানে কয়েকটি পদক্ষেপ ছিল যা তিনি বিনষ্ট হওয়ার পথে যাওয়ার সময়ে গ্রহণ করেছিলেন!

যেমন আমি বলেছিলাম যে, যিহূদা ছিলেন শিষ্যদের কোষাধ্যক্ষ| শিষ্যদের যে সামান্য টাকাপয়্সা ছিল তা তিনি বহন করতেন একটি টাকা রাখার ব্যাগ বা ‘‘থলী’’র মধ্যে| যখন তাদের প্রয়োজন হয়েছিল তখন তিনি সেই থলি থেকে কিছু টাকা নিয়ে অন্যান্য শিষ্যদের দিয়েছিলেন| বাইবেল বলছে যে যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয় ‘‘সে চোর, আর তাহার নিকটে [টাকার] থলী থাকাতে, তাহার মধ্যে যাহা রাখা যাইত তাহা হরণ করিত’’ (যোহন 12:6)|

যিহূদা ‘‘চোর ছিলেন|’’ এর মানে তার হৃদয় ছিল চোরের মতন| যা তিনি বহন করতেন সেই টাকার রাখার ব্যাগে (বা টাকার থলিতে) যে অর্থ রাখা হত তিনি তার কিছুটা হরণ করতেন| ম্যাথিউ হেনরীর বর্ণনা বলছে, ‘‘টাকায় অঙ্গুলী সঞ্চালন করিতে তিনি হৃদয় দিয়া ভালবাসিতেন|’’ ভাল কাজ করার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করার মধ্যে খারাপ কিছু নেই| কিন্তু প্রেরিত পৌল বলেছেন,

‘‘কেননা ধনাসক্তি সকল মন্দের একটা মূল: তাহাতে রত হওয়াতে, কতক লোক বিশ্বাস হইতে বিপথগামী হইয়াছে, এবং অনেক যাতনারূপ কন্টকে আপনারা আপনাদিগকে বিদ্ধ করিয়াছে’’ (I তীমথিয় 6:10)|

জে. সি. রাইলী এই বিষয়ে বলেছেন ‘‘অর্থের প্রতি প্রেম অপরিমেয় বিপদ...ইহা যেমন দরিদ্রদের তেমনিই ধনীদের কাছেও হইতেছে একটি প্রলোভন| ইহাতে বিশ্বাস করিলে তাহা আত্মা ধ্বংস করে| আসুন আমাদের যাহা আছে তাহাতেই সন্তুষ্ট থাকি’’ (J. C. Ryle, Expository Thoughts on Mark, Banner of Truth, 1994 paperback, pp. 210, 211; note on Mark 10:23)|

আমি অনেক যুবককে বিপথে চলে যেতে দেখেছি কারণ তারা চায় ‘‘নিরাপত্তা|’’ উচ্চ বেতনের কর্মজীবনের মধ্যে থেকে ‘‘নিরাপত্তা’’ অন্বেষণ করার জন্য তাদের ক্রমশঃ এক শক্তিশালী খ্রীষ্ট বিশ্বাসের সংকল্প বিসর্জন দিতে আমি দেখেছি| গতরাত্রে যখন আমি এই রচনাটি লিখছিলাম তখন আমার এক পুরানো বন্ধুর কথা মনে পড়ছিলো, যিনি অনেকদিন আগে এই জগতের দ্বারা প্রলোভিত হয়েছিলেন এবং যীশুর দিক থেকে পশ্চাদপসরণ করেছিলেন| নিরাপত্তার অন্য আর একটি জগৎ হলো অর্থ| অর্থের উপরে বিশ্বাস রাখা খুব বিপদজনক| যীশু বলেছিলেন, ‘‘যাহারা ধনে [অর্থে] নির্ভর করে ঈশ্বরের রাজ্যে প্রবেশ করা তাহাদের পক্ষে কেমন দুষ্কর’’ (মার্ক 10:24)|

আমার এক সহকর্মী ডঃ কেগানের জীবন হলো হিতোপদেশ 11:4 পদটি, ‘‘ক্রোধের দিনে ধন উপকার করে না’’ (হিতোপদেশ 11:4)| সম্প্রতি ডঃ কেগান আমাকে বলেছিলেন যে যুবকেরা প্রায়ই ভেবে নেন যে ‘‘কামনা’’ শব্দটি শুধুমাত্র যৌনতাজনিত পাপ অথবা মাদকদ্রব্যের সঙ্গেই সম্পর্কযুক্ত| তিনি বলেছিলেন, ‘‘তাহারা অনুভব করিতেছে না যে অর্থ এবং আত্মসম্মান অর্জনের কামনা যৌনতাজনিত পাপ এবং হেরোইনের সমতুল্য বিপদজনক - এমনকি খ্রীষ্ট বিশ্বাসী যুবকদের জন্য তাহা আরও অধিক|’’ ডঃ কেগান স্বয়ং নিরাপত্তা ও আত্মসম্মানের জীবনযাপনের জন্য শয়তানের দ্বারা প্রলোভিত হয়েছিলেন| তার বড় ইচ্ছা ছিল যে তিরিশ বছর হওয়ার আগেই তিনি মিলিয়ন ডলারের মালিক হবেন| যখন তিনি মন পরিবর্তন করেছিলেন তখন সেই কামনা তিনি পরিত্যাগ করেছিলেন| তিনি এখন আমাদের মন্ডলীর সহযোগী পালক| তাঁর উদাহরণ অনুসরণ করুন!

যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয় বিনষ্ট হয়েছিলেন এবং নরকে গিয়েছিলেন কারণ তিনি তাঁর দ্বারা বাহিত টাকার থলিতে রাখা অর্থ আত্মসাৎ করার কামনা করেছিলেন! বীজ বপনের দৃষ্টান্তটি স্মরণ করুন!

‘‘আর যাহা কাঁটা বনের মধ্যে পড়িল, তাহা এমন লোক, যাহারা শুনিয়াছে, কিন্তু চলিতে চলিতে, জীবনের চিন্তা ও ধন [অথবা অর্থ] ও সুখভোগের দ্বারা চাপা পড়ে, এবং পক্ক ফল উৎপন্ন করে না’’ (লূক 8:14)|

আপনিও চলতে চলতে সেইরকম করে আটকা পড়ে যেতে পারেন ‘‘ধন ও সুখভোগ’’ লাভের চেষ্টার মধ্যে এমনভাবে যে ক্রমশঃ আপনার ‘‘দমবন্ধ’’ হয়ে আসে এবং আপনি শুধু নামেই খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হয়ে পড়েন| সেটাই ছিল কারণ যা একজন পূর্ববর্তী নেতাকে ধ্বংস করেছিল যিনি বহুদিন আগে আমাদের মন্ডলীকে বিভাজিত করেছিলেন| এর থেকে দূরে পালিয়ে যান! এর থেকে দূরে পালিয়ে যান! যিহূদার কামনা থেকে পালিয়ে যান!

‘‘কিন্তু তোমরা প্রথমে তাঁহার রাজ্য, ও তাঁহার ধার্ম্মিকতার বিষয়ে চেষ্টা কর; তাহা হইলে ঐ সকল দ্রব্যও তোমাদিগকে দেওয়া হইবে’’ (মথি 6:33)|

আপনাদের মধ্যে বেশির ভাগ লোকই আমাকে বলতে শুনে থাকবেন সেই সব ঘটনার কথা যা আমার ক্ষেত্রে ঘটেছিল যখন আমি কলেজে পড়তাম| আমার কাছে সেই সব দিনগুলি খুব শ্রমসাধ্য ছিল| আমাকে সকাল 8:00টা থেকে বিকাল 5:00টা পর্যন্ত কাজ করতে হতো| তারপরে রাত্রে আমি ক্যাল স্টেট লস্ এঞ্জেল্সে ক্লাস করতাম| রাত্রিবেলায় এইভাবে পড়ে স্নাতক উপাধি অর্জন করতে আমার আট বছর সময় লেগেছিল| কলেজে পড়াশোনার প্রায় মাঝামাঝি সময়ে আমি এত ক্লান্ত এবং নিরুৎসাহিত হয়ে পড়েছিলাম যে শয়তানের দ্বারা খুব তীব্রভাবে প্রলোভিত হতে চলেছিলাম| ঠিক সেই সময়ে আমার অধ্যাপকদের মধ্যে একজন আমাকে পরামর্শ দিলেন যেন আমি একজন শিক্ষক হই| তিনি সেই মানুষ ছিলেন যাকে আমি শ্রদ্ধা করতাম, যিনি আধুনিক সাহিত্য পড়াতেন| তিনি আমাকে বলেছিলেন যে ইংরাজি শিক্ষক হিসাবে আমি অনেক পেশাগত উন্নতি করতে পারব| আমি সেবাকাজে যোগদান করার পরিকল্পনা পরিত্যাগ করে, তার পরিবর্তে শিক্ষক হওয়ার কথা খুব আন্তরিকভাবে চিন্তা করেছিলাম| আমি সেটা প্রায় করেই ফেলেছিলাম, কিন্তু প্রথমে আমি আমার পালক ডঃ লিনের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম| তিনি আমাকে বললেন যে সেবাকাজ ছাড়া আর অন্য কোন কাজের দ্বারা আমি কখনো সন্তুষ্ট থাকতে পারব না| আমি অনুভব করতে শুরু করলাম যে একজন ইংরাজি শিক্ষক হওয়ার ভাবনাটি ছিল শয়তান থেকে আগত একটি প্রলোভন| ডঃ জন আর. রাইস তার সেবাকাজে যাওয়ার আগে ঠিক এইভাবেই প্রলোভিত হয়েছিলেন| অন্য যে কোন লোকের কাছে শিক্ষক হওয়াটা মোটেও পাপকাজ ছিল না, কিন্তু আমার ক্ষেত্রে সেটা হতো একটা পাপপূর্ণ কাজ| ঈশ্বর আমার জীবনে আমাকে যা করতে চেয়েছিলেন এটা সেইরকম ছিল না|

যদি আমি সেই প্রলোভনে ঝাঁপ দিতাম তাহলে আজ রাত্রে আপনাদের কেউ হয়তো এখানে থাকতেন না! মিঃ গ্রিফিত সম্ভবত উদ্ধার পেতেন না| ডঃ চান হয়তো উদ্ধার পেতেন না| মিঃ লি নন, অথবা আমাদের মন্ডলীর নেতাদের একজনও নন| আপনিও হয়তো উদ্ধারপ্রাপ্ত হতেন না| সত্যি বলতে কি আপনাদের মধ্যে অনেকেরই হয়তো কখনো জন্মপ্রাপ্ত হতেন না! আপনাদের অনেকের পিতামাতা এখানে আমাদের এই মন্ডলীতে মিলিত হয়েছিলেন| হয়তো তাদের পরস্পরের বিয়ে হত না এবং আপনি কখনো জন্ম নিতেন না| এই মন্ডলীর অস্তিত্বই থাকতো না| আমি আমার অতীব সুন্দরী স্ত্রীকে হয়তো চিনতামই না| হয়তো আমার ছেলের জন্ম হতো না, এবং তার সন্তান হান্না হয়তো বাস করতো না|

উত্তর ক্যালিফোর্নিয়াতে আমি যে মন্ডলী প্রতিষ্ঠা করেছিলাম তার অস্তিত্ব থাকতো না| সেই চল্লিশটি মন্ডলী যা এর থেকে জন্ম নিয়েছিল সেগুলির অস্তিত্ব থাকতো না| শতাধিক লোক উদ্ধারপ্রাপ্ত হতেন না - এবং আমাদের ওয়েব সাইটে প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি কখনো প্রচারিত বা পৃথিবীর সর্বত্র প্রকাশিত হত না| আক্ষরিকভাবেই হাজার হাজার জীবন পরিবর্তিত হত আরও খারাপের দিকে যদি আমি কোন একটা কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরাজির অধ্যাপক হওয়ার প্রলোভনের প্রতি ঝাঁপ দিতাম|

পরবর্তী কালে, যখন আমি কলেজ থেকে স্নাতক হলাম এবং সেমিনারীতে গেলাম, তখন আমি আবার সেই সেবাকাজ ছেড়ে দেওয়ার জন্য ভীষণভাবে প্রলোভিত হয়েছিলাম| প্রকৃতপক্ষে বেশ কয়েকদিনের জন্য আমি সেবাকাজ ছেড়ে দিয়েছিলাম| কিন্তু একরাত্রে ঈশ্বর আমাকে আবার আহ্বান করেছিলেন| অনেক একাকীত্ব এবং হৃদয় যন্ত্রণার মাধ্যমে আমি গিয়েছিলাম - এবং আমি খুশি যে আমি তা করতে পেরেছিলাম| জগতের সমস্ত সোনার চাইতে এই মন্ডলী আমার কাছে বেশি মূল্যবান| লক্ষ লক্ষ ডলারের চাইতে ইন্টারনেটে এই জগত-ব্যাপী সেবাকাজ আমার কাছে অনেক মূল্যবান! এটা হয়তো আপনার কাছে খুব সামান্য বলে মনে হচ্ছে, কিন্তু আমার কাছে এই মন্ডলী জগতের সবার চাইতে গুরুত্বপূর্ণ একটা বস্তু!

আমার জীবন, আমার প্রেম আমি তোমাকে দিই,
   ঈশ্বরের সেই মেষশাবক যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন;
ওহ আমি কি কখন বিশ্বস্ত হইব,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার জীবন কত তৃপ্ত হইবে!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!
(“I’ll Live For Him” by Ralph E. Hudson, 1843-1901;
   altered by Dr. Hymers) |

বর্তমানে এই মন্ডলীর কত ধন সম্পদ আছে আমি শুধু সেটাই দেখছি না - আমি এটাও দেখছি যে এই মন্ডলীর ঠিক কি হওয়া উচিৎ ছিল, এটা কি হতে পারে, এবং ঈশ্বরের অনুগ্রহে, এটা কি হবে! আমার মনে হচ্ছে আমি দেখতে পাচ্ছি যে এই অডিটোরিয়ামের সমস্ত অংশ সুখী যুবকদের দ্বারা পূর্ণ হয়ে আছে! আমি দেখতে পাচ্ছি যে ঈশ্বরের আত্মা নেমে আসছেন| আমি দেখতে পাচ্ছি যে সমস্ত যুবকদের উজ্জ্বল মুখগুলি কাঁদছে এবং প্রার্থনা করছে, এবং আনন্দে চিৎকার করছে! আমি দেখতে পাচ্ছি যে যুবকেরা সেবাকাজে তাদের জীবন উৎসর্গ করছে - এবং কয়েকজন মিশনারি হিসাবে বিদেশের ভূমিতে চলে যাচ্ছেন| আমি দেখতে পাচ্ছি একটি শক্তিশালী মন্ডলীকে, যা জোড়ের মুখে ফেটে পড়ছে - ঈশ্বরের ভালবাসার সঙ্গে সামনের দিকে প্রবাহিত হচ্ছে এখান থেকে আমাদের দেশের এবং পৃথিবীর অন্ধকারাচ্ছন্ন প্রান্তের দিকে! আমি দেখতে পাচ্ছি খ্রীষ্ট যীশু উত্তোলিত হচ্ছেন এবং তাঁর প্রেম পৃথিবীর সর্বত্র শত শত আত্মার মধ্যে বর্ষণ করছেন! আমি শুনতে পাই তারা গাইছে,

আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার জীবন কত তৃপ্ত হইবে!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!

যিহূদা একবার এইরকম অনুভব করেছিলেন| কিন্তু তিনি ছিলেন এক ভাগ্য-বিড়ম্বিত খ্রীষ্ট প্রেমী| তিনি দুইভাবে আকর্ষিত হয়েছিলেন| তার একটা অংশ যীশুকে চেয়েছিল| কিন্তু তার অন্য অংশটি এই জগতের বস্তুগুলি চেয়েছিল| বাইবেল বলছে, ‘‘সে দ্বিমনা লোক, আপনার সকল পথে অস্থির’’ (যাকোব 1:8)| এবং সেই কারণে, যিহূদা তার হাত সেই টাকার থলির মধ্যে ঢুকিয়ে দিয়েছিলেন যেটা নাকি শিষ্যদের ছিল| এটা খুব বেশি কিছু একটা ছিল না - কেবল কয়েক মুঠো খুচরো পয়সা যা লোকেরা দয়াপরবশ হয়ে যীশুকে দিয়েছিলেন যখন তারা তাঁর দ্বারা আশীর্ব্বদ প্রাপ্ত হয়েছিলেন| কিন্তু যিহূদা বারে বারে সেই অর্থ আত্মসাৎ করেছিলেন| যখন তখন তিনি তার নিজের জন্য কিছুটা করে খুচরো পয়সা চুরি করতেন|

অন্য সব শিষ্যদের মতন তার চিন্তাধারাও এইরকম ছিল যীশু এই মুহূর্তে তাঁর জাগতিক সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করবেন| এমনকি মৃত্যু থেকে তাঁর পুনরুত্থানের পর তারা বলেছিল, ‘‘প্রভু, আপনি কি এইসময়ে ইস্রায়েলের হাতে রাজ্য ফিরাইয়া আনিবেন’’ (প্রেরিত 1:6)| তারা খসড়া রচনা করছিল যে তাদের মধ্যে কে সাম্রাজ্যের মধ্যে বৃহত্তম হবে| তারা এই তর্ক করছিল যে, ‘‘তাহাদের মধ্যে কে শ্রেষ্ঠ হইবে’’ (লূক 9:46)|

‘‘সেই সময় অবধি যীশু আপন শিষ্যদিগকে স্পষ্টই বলিতে লাগিলেন যে, তাঁহাকে যিরূশালেমে যাইতে হইবে, এবং প্রাচীনবর্গের, প্রধান যাজকদের ও অধ্যাপকদের হইতে অনেক দুঃখ ভোগ করিতে হইবে ও হত হইবে...’’ (মথি 16:21)| আমি বিশ্বাস করি যে যিহূদা এটা চিন্তা করতে শুরু করেছিলেন যে যীশু মারা যাবেন এবং তাঁর সাম্রাজ্য স্থাপন করবেন না - যে এখনও যীশুকে অনুসরণ করার মধ্যে তার কোন লাভ নেই| যিহূদা যখন এই সমস্ত বিষয় চিন্তা করছিলেন তখন দিয়াবল যিহূদার আরও এবং আরও বেশি করে, তার কাছে এগিয়ে এসেছিল|

এখন নিস্তারপর্বের ভোজ আসছে| প্রধান যাজক এবং অধ্যাপকরা যীশুকে হত্যা করার কোন একটা উপায় খুঁজছেন| ‘‘আর শয়তান ঈষ্করিয়োতীয় নামক যিহূদার ভিতরে প্রবেশ করিল...তখন সে গিয়া, প্রধান যাজকদের ও সেনাপতিদের সহিত [কথা বলিল] কথোপকথন করিল, কিরূপে তাঁহাকে তাহাদের হস্তে সমর্পণ করিতে পারে| তখন তাহারা আনন্দিত হইল, ও তাহাকে টাকা দিতে [সম্মত হইল] প্রতিজ্ঞা করিল’’ (লূক 22:3-5)| ‘‘তখন শয়তান যিহূদার ভিতরে প্রবেশ করিল|’’ সব সময়ের জন্য তিনি টাকা চেয়ে এসেছিলেন| এখন দিয়াবল তার দূর্বল জায়গায় আঘাত করল, এবং যিহূদা তার সুযোগ করে দিলেন - ‘‘আর শয়তান যিহূদার ভিতরে প্রবেশ করিল’’ - এবং পরিত্রাতাকে অস্বীকার করার জন্য তিনি প্রধান যাজকদের কাছে চলে গেলেন| যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয় টাকার জন্য যীশুর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন! লালসা তার আত্মাকে বিনষ্ট করেছিল!

আজ সকালে ডঃ কেগান একটি জোরালো প্রচার করেছেন ‘‘চক্ষুর অভিলাষ ও জীবিকার দর্প’’ (১ম যোহন 2:16) বিষয়ের উপরে| ডঃ কেগান বলেছেন, ‘‘আমি ‘চক্ষুর অভিলাষ, এবং জীবিকার দর্প’ বলিতে কি বুঝিতেছি? আমি টাকার বিষয়ে এবং টাকা দিয়া যাহা যাহা ক্রয় করা যায় - বাড়ি, গাড়ি, সুন্দর পোষাক, খেয়ালি ও পচ্ছন্দসই প্রমোদভ্রমণ, আরও বাকি যাহা সব তাহাদের বিষয়ে কথা বলিতেছি...যখন টাকা এবং তাহা যা ক্রয় করিতে পারে সেই দ্রব্যগুলি আপনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং আপনার প্রধান লক্ষ্য হইয়া উঠে এবং আপনি বেশি, আরও বেশির দিকে ছুটিয়া চলেন, তখন আপনি চক্ষুর অভিলাষের দ্বারা বন্দী এবং উহার ক্রীতদাসে পরিণত হইয়াছেন| আমি [আরও] বলিতেছি হারানো মানুষদের প্রশংসার বিষয়ে| আপনার প্রাপ্ত সম্মান ও উন্নতি এবং খেতাব ও শংসাপত্র, এবং অন্যান্য আরও সুন্দর সুন্দর কথা যাহা লোকে আপনার বিষয়ে বলিয়া থাকে, আমি সেই সকলের বিষয়ে বলিতেছি| হ্যাঁ, বিদ্যালয়ে আপনার ভাল ফল করা উচিৎ| আপনার একটি ভাল চাকুরী পাওয়া উচিৎ এবং সেখানে কঠোর পরিশ্রম করা উচিৎ| কিন্তু যখন সেই সম্মান ও উন্নতি এবং খেতাব ও প্রশংসা ঈশ্বরের দ্রব্যগুলির দিক হইতে আপনার দৃষ্টি ঘুরাইয়া দেয়, তখন আপনি জীবিকার দর্পের দ্বারা বন্দী হইয়া পড়েন|’’

তারপরে ডঃ কেগান সেই সমস্ত লোকদের বিষয়ে বলেছেন যাদের দিয়াবল ব্যবহার করবে আপনাকে প্রলুব্ধ করতে| ডঃ কেগান বলেছেন, ‘‘সেই সকল ব্যক্তিগণকে সে ব্যবহার করিবে যাহাদের আপনি পছন্দ এবং সম্মান করেন| সেই সকল লোকদের ব্যবহার করিবে...যাহাদের নিকট আপনি শিক্ষা লইয়াছেন - ব্যবসার জগতে যাহাদের ‘পরামর্শদাতা’ বলা হয়| সে আপনার কলেজের সেই সকল ব্যক্তিদিগকে ব্যবহার করিবে যাহাদের আপনি প্রশংসা এবং শ্রদ্ধা করেন - আপনার জীবনের অধ্যাপক এবং অন্যান্য ‘পরামর্শদাতা’দিগকে| আপনি তাহাদের কথা শুনিবেন এবং তাহাদের উপদেশ পালন করিবেন| আপনি এইরূপে বিষয়টিকে চিন্তা করেন না, কিন্তু তাহারা আপনার প্রকৃত পালক হইয়া পড়িবেন - আপনার মেষপালক, আপনার পথপ্রদর্শক... ইহা একটি প্রলোভন তাহা আপনি চিন্তা করিয়া দেখেন না| আপনার নিকট ইহা ভাল বলিয়া বোধ হইবে| কিন্তু ইহা আপনার ভালবাসা খ্রীষ্টের দিক হইতে অন্যদিকে আকর্ষণ করিবে... যখন আপনি যুবক ছিলেন, তখন খ্রীষ্ট এবং মন্ডলী আপনার নিকট খুব গুরুত্বপূর্ণ মনে হইত, কিন্তু এখন আপনি উহাকে আপনার জীবনের একটি ক্ষুদ্র অংশের মধ্যস্থিত একটি তাকের উপরে রাখিতে উদ্যত হইয়াছেন... আর ইহা এইভাবেই চলিবে - চলিতেই থাকিবে - যতক্ষণ না আপনি একজন বন্দীতে পরিণত হইতেছেন - অন্ধ চক্ষুবিশিষ্ট, জগতের জাঁতাকলে নিষ্পেষণরত শিমশনের ন্যায়!’’ (Christopher L. Cagan, Ph.D., “The Church World or the Wide World?”, Lord’s Day Morning, March 13, 2016)|

যখন আমি ডঃ কেগানের এই বিখ্যাত ধর্ম্মপ্রচারটি পড়লাম আমি তখন চিন্তা করলাম, ‘‘হে ঈশ্বর! আমার ইহা আরও বহু পূর্বেই প্রচার করা উচিৎ ছিল!’’ এই কথাগুলি কি শুধুমাত্র আমাদের একজন বা দুইজন যুবকের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য? আমি এই বিষয় নিয়ে কিছুক্ষন চিন্তা করেছিলাম| তারপরে আমি এক টুকরো কাগজের উপরে আমাদের মন্ডলীর সেই বারোজন যুবকের নাম লিখলাম যারা ডঃ কেগানের বলা এই ধরনের প্রলোভনের দ্বারা শয়তানীয় অন্ধতার প্রতি পরিচালিত হয়েছিলেন| আমার হৃদয় অসুস্থ হয়েছিল যেহেতু আমি অনুভব করছিলাম যে আমার প্রচার এই বিষয়ে অকৃতকার্য্য হয়েছিল, কারণ সেই বারোজন যুবক জাগতিকতার মধ্যে ডুবে গিয়েছিলেন সেই একই মন্দ আত্মার দ্বারা যা যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয়কে, ধাপে ধাপে, পরিচালিত করেছিল পরিত্রাতাকে অস্বীকার করতে!

যেমন যেমন যিহুদা নিজেকে অল্প অল্প করে প্রলোভনের মধ্যে নিয়ে যাচ্ছিলেন, তিনি কখনো কল্পনা করেন নি যে এইভাবে এটা শেষ হয়ে যাবে| সবশেষে শয়তান তার দেহে প্রবেশ করেছিল এবং তিনি যীশুর প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন| আপনি কি জানেন খ্রীষ্টকে প্রতারণা করার জন্য তিনি কত টাকা পেয়েছিলেন? তিনি শুধুমাত্র তিরিশটি রৌপ্যমুদ্রা পেয়েছিলেন| ডেভিস ডিকশনারি অফ বাইবেল বলছে সেটা ছিল ‘‘প্রায় 19.50 ডলার, যাহা হইতেছে ক্রীতদাসের জন্য সাধারন এক মূল্য|’’ বেশির ভাগ লোককে দিয়াবল খুব সস্তায় পায়! সে কদাচিৎ বড় পাওনা মেটায়| সে খুব সস্তায় বেশির ভাগ লোকদের পেয়ে যায়! অদ্ভূতভাবে, আমি আমাদের মন্ডলীর সেই বারোজনকে খুঁজে পেয়েছিলাম যাদের শয়তান এইভাবে সংগ্রহ করেছিল| তারপরে আমার মনে মনে আমি তিরিশ বছর আগেকার দিনে পিছিয়ে গেলাম, এবং সঠিকভাবে সেই বারোজন লোকের নাম লিখলাম যারা আমাদের এই মন্ডলীর বেতনভূক কর্মচারী ছিল - যাদের শয়তান ঠিক একইভাবে ধ্বংস করেছিল! হে আমার ঈশ্বর, আমি অবশ্যই এই বিষয়ে বার বার প্রচার করব! হ্যাঁ ঈশ্বর, আমি এই প্রতিজ্ঞা করছি যে আজকের এই রাত্রি থেকে আমি আমার প্রচারে জাগতিকতার প্রলোভনকে এক বিশেষ প্রাধান্যযুক্ত স্থান দেব!

এবং সেইজন্যে, সেই ভয়ঙ্কর রাত্রিতে যিহূদা খ্রীষ্টের শত্রুদের গেৎশিমানীর সেই বাগানের দিকে পরিচালিত করেছিলেন| এবং সেইজন্যে, তারা যীশুকে টেনে হিঁচড়ে দূরে নিয়ে গিয়েছিলেন চাবুকের দ্বারা প্রহারিত এবং ক্রুশারোপিত হওয়ার জন্য| এবং সেইজন্যে, যিহূদা 30টি রৌপ্যমুদ্রা পেয়েছিলেন - যার দাম ছিল প্রায় 19.50 ডলার|

পরে সেই রাত্রে, ‘‘তখন যিহূদা, যে তাঁহাকে সমর্পণ করিয়াছিল, সে যখন বুঝিতে পারিল যে, তাঁহার দন্ডাজ্ঞা হইয়াছে, তখন অনুশোচনা [তীব্র অনুতাপ] করিয়া সেই ত্রিশ রৌপ্যমুদ্রা প্রধান যাজক ও প্রাচীনবর্গের নিকটে ফিরাইয়া দিল, আর কহিল

‘নির্দ্দোষ রক্ত সমর্পণ করিয়া আমি পাপ করিয়াছি|’

তখন সে ঐ মুদ্রা সকল মন্দিরের মধ্যে ফেলিয়া দিয়া, চলিয়া গেল, গিয়া গলায় দড়ি দিয়া মরিল’’ (মথি 27:3-5)| সে তার গলার চারিদিকে একটা দড়ি্র ফাঁস লাগিয়েছিলেন এবং নিজেই নিজেকে ফাঁসি দিয়েছিলেন! এটা ছিল সেই প্রথম বাইবেল পদ যা আমি মুখস্থ করেছিলাম, ‘‘নির্দ্দোষ রক্ত সমর্পণ করিয়া আমি পাপ করিয়াছি’’ (মথি 27:4)| আমি সেই পদটি মুখস্থ করেছিলাম এবং ক্যালিফোর্নিয়ার হান্টিংটন ফার্স্ট ব্যাপটিষ্ট মন্ডলীতে যীশুর গভীর যন্ত্রণাভোগ ও মৃত্যু বিষয়ক একটি আবেগপ্রবন নাটকে যিহূদা ঈষ্করিয়োতীয়ের ভূমিকায় যখন অভিনয় করেছিলাম তখন সেটা বলেছিলাম| আমি তখন আঠারো বছর বয়স্ক ছিলাম| তার দুই বছর পরে আমি মন পরিবর্তন করলাম আর ততদিন ধরে এই পদটি আমাকে তাড়া করে বেড়িয়েছিল| ‘‘নির্দ্দোষ রক্ত সমর্পণ করিয়া আমি পাপ করিয়াছি|’’

আজ রাত্রে আমি আপনাকে জিজ্ঞাসা করছি, আপনি কি আপনার জীবনে যীশুকে প্রতারণা করবেন? না কি আপনি খ্রীষ্ট এবং মন্ডলীকে আপনার হৃদয়ে এবং জীবনে প্রথম স্থান দিবেন? আপনি কি তাঁকে বিশ্বাস করবেন এবং তাঁর জন্য, এবং একমাত্র তাঁর জন্যই জীবনযাপন করবেন? আজ থেকে তিরিশ বছর পরেও কি আপনি আপনার হৃদয় থেকে সক্ষম থাকবেন এই গানটি গাইতে?

আমার জীবন, আমার প্রেম আমি তোমাকে দিই,
   ঈশ্বরের সেই মেষশাবক যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন;
ওহ আমি কি কখন বিশ্বস্ত হইব,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার জীবন কত তৃপ্ত হইবে!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!

হে, যুবক, যীশু খ্রীষ্টের কাছে আপনার হৃদয় এবং আপনার জীবন সমর্পণ করুন - কখনো তাঁর দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়ে এই জগতের সমস্ত প্রলোভনের দিকে দৃষ্টিপাত করবেন না! আমার সঙ্গে একসাথে সেই গানটি করুন| এটা আপনার গানের পাতার তিন নম্বর গান|

আমার জীবন, আমার প্রেম আমি তোমাকে দিই,
   ঈশ্বরের সেই মেষশাবক যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন;
ওহ আমি কি কখন বিশ্বস্ত হইব,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার জীবন কত তৃপ্ত হইবে!
আমি তাঁহার জন্য বাঁচিব যিনি আমার জন্য মৃত্যুবরণ করিয়াছেন,
   আমার পরিত্রাতা এবং আমার ঈশ্বর!

আমেন|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রুধোম্মে: যোহন 13:21-30 |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
     “Yield Not to Temptation” (by Horatio R. Palmer, 1834-1907) |