Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




যীশু খ্রীষ্টের অক্ষয় এবং প্রায়শ্চিত্তকর রক্ত

THE INCORRUPTIBLE AND REDEEMING
BLOOD OF JESUS CHRIST
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনিয়র।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৫ সালের, ১৩ই সেপ্টেম্বর, সদাপ্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাক্ল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord's Day Evening, September 13, 2015

“তোমরা তো জান তোমাদের পিতৃপুরুষগণের সমর্পিত অলীক আচার ব্যবহার হইতে তোমরা ক্ষয়ণীয় বস্তুদ্বারা, রৌপ্য বা স্বর্ণ দ্বারা মুক্ত হও নাই…কিন্তু নির্দ্দোষ ও নিষ্কলঙ্ক মেষশাবকস্বরূপ খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত দ্বারা, মুক্ত হইয়াছ” (১ম পিতর ১: ১৮-১৯)|


উইলিয়াম কাউপার (১৭৩১-১৮০০) তার একটি বিখ্যাত গানে এই সুন্দর শব্দগুলি লিখেছিলেন:

সেই স্রোত হেরি বিশ্বাসে
তুলেছি প্রেমের গানে,
আজীবন গাইব হরষে,
তোমারি কৃত ত্রাণ|

এই গানটি সি. এইচ. স্পারজিয়নের (১৮৩৪-১৮৯২) খুব প্রিয় গান ছিল| সেই মহান প্রচারক বলেছিলেন,

এই মহীয়ান মূলভাব ব্যতীত আমার পক্ষে চিন্তা করা অথবা প্রচার করার অনুরূপ অন্য কিছুই নাই| যীশু খ্রীষ্টের রক্তই হইতেছে সুসমাচারের প্রাণ (C. H. Spurgeon, "The Blood of Sprinkling," February 28, 1886, Metropolitan Tabernacle Pulpit, vol. 32, p. 121, reprinted by Dr. Bob Ross of Pilgrim Publications, P.O. Box 66, Pasadena, Texas 77501)|

কেন স্পারজিয়ন, প্রচারের সেই যুবরাজ, এই ধরনের একটি শক্তিশালী বক্তব্য রেখেছিলেন? কেন তিনি বলেছিলেন, “আমার পক্ষে চিন্তা করা অথবা প্রচার করার অনুরূপ অন্য কিছুই নাই” খ্রীষ্টের রক্তের প্রচার ছাড়া? তার প্রচারিত শতাধিক ধর্ম্মোপদেশ, যেগুলি মেট্রোপলিসান ট্যাবারন্যাক্ল পুলিপিটে প্রকাশিত হয়েছে, পাঠ করলে আপনি দেখতে পাবেন যে এটা খুব সত্যি কথা| কিন্তু কেন? কেন ইংরাজি বলা দুনিয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ প্রচারক খ্রীষ্টের রক্তকে তার প্রচারের মূল বিষয় করেছেন? সেটা এই সহজ কারণে যে বাইবেলে এর চাইতে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ আর অন্য কোন বিষয় নেই!

বাইবেল এই শিক্ষা দেয় যে মানজাতির পরিত্রাণের জন্য যীশু খ্রীষ্টের রক্ত ছাড়া আর অন্য কিছু নেই| আমি চাই যে আজকের সন্ধ্যায় আমরা আমাদের চিন্তা ভাবনা সব খ্রীষ্টের রক্ত সম্পর্কিত এই দুইটি বিষয়ে কেন্দ্রীভূত করব| এই দুইটি বিষয়ই আমাদের পাঠ্যাংশ ১ম পিতর ১:১৮-১৯ পদগুলি থেকে নেওয়া হয়েছে|


১| খ্রীষ্টের রক্ত অক্ষয় |

২| খ্রীষ্টের রক্ত আপনার মুক্তির জন্য প্রয়োজন |

১| প্রথমত, খ্রীষ্টের রক্ত অক্ষয় |

গীতসংহিতায়, ঈশ্বরের বাক্য এই ভাববাণী প্রদান করেছে, যা খ্রীষ্টের মধ্যে সম্পূর্ণতা লাভ করেছিল:

“কারণ তুমি আমার প্রাণ পাতালে পরিত্যাগ করিবে না; তুমি নিজ সাধুকে ক্ষয় দেখিতে দিবে না” (গীতসংহিতা ১৬:১০)|

“ক্ষয়” এই ইব্রীয় শব্দটির অর্থ হল “ধ্বংস” অথবা “অধঃপতন” (স্ট্রং’স কন্কর্ডান্স )|

নতুন নিয়মে গীতসংহিতা থেকে এই পদটি উদ্ধৃত করা হয়েছে:

“কারণ তুমি আমার প্রাণ পাতালে পরিত্যাগ করিবে না, আর নিজ সাধুকে ক্ষয় দেখিতে দিবে না…তিনি (দাউদ) পূর্ব হইতে দেখিয়া খ্রীষ্টেরই পুনরুত্থান বিষয়ে এই কথা কহিলেন যে, তাঁহাকে পাতালে পরিত্যাগও করা হয় নাই, তাঁহার মাংস ক্ষয়ও দেখে নাই” (প্রেরিত ২:২৭, ৩১)|

আমাদের সময়ে কেউ কেউ বলত যে খ্রীষ্টের দেহ পুনরুত্থিত হয়েছিল, কিন্তু তাঁর রক্ত ক্রুশের চারিদিকের নোংরায় সিক্ত হয়েছিল এবং বিনষ্ট হয়ে গিয়েছিল| কিন্তু বাইবেলে অন্য আর একটি পদ আছে যাতে এও বলা হয়েছে যে খ্রীষ্টের রক্ত অক্ষয় ছিল:

“তোমরা তো জান তোমাদের পিতৃপুরুষগণের সমর্পিত অলীক আচার ব্যবহার হইতে তোমরা ক্ষয়ণীয় বস্তুদ্বারা, রৌপ্য বা স্বর্ণ দ্বারা মুক্ত হও নাই…কিন্তু খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত দ্বারা মুক্ত হইয়াছ” (১ম পিতর ১: ১৮-১৯)|

“ক্ষয়” শব্দটি এই পদের মধ্যে এসেছে “বিনষ্ট” অথনা “ধ্বংস” শব্দ থেকে| এই পদটি দেখায় যে খ্রীষ্টের রক্ত বিনষ্ট অথবা ধ্বংস হতে পারে না| রূপা এবং সোনা হল জগতের আর যাবতীয় বস্তুর মধ্যে নূন্যতম বিনাশশীল ধাতু, কিন্তু এমনকী সেই সোনা এবং রূপাও বিনষ্ট হয়ে যায় যখন ঈশ্বরের বিচারে জগতের সবকিছু পুড়ে যায়| আমাদের বলা হয়েছে যে “মূল বস্তুসকল পুড়িয়া গিয়া বিলীন হইবে, এবং পৃথিবী ও তাহার মধ্যবর্ত্তী কার্য্যসকল পুড়িয়া যাইবে…সমস্তই বিলীন হইবে” (২য় পিতর ৩:১০-১১)| সেই সমস্ত মৌল (এই গ্রীক শব্দটির অর্থ “পরমানু”) পুড়ে যাবে| ঈশ্বরের আগুনে জগতে যা কিছু আছে সমস্ত “বিলীন” (আক্ষরিক অর্থে “ধ্বংস”) হয়ে যাবে| সেটা রূপা ও সোনা দুটোকেই অন্তর্ভূক্ত করছে; “সমস্তই বিলীন হইবে|”

কিন্তু ১ম পিতর ১:১৮-১৯ পদদ্বয় আমাদের বলছে যে আমরা কোন ক্ষয়যোগ্য বস্তুর দ্বারা মুক্তি পেতে পারি না, “কিন্তু খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্তের দ্বারা|” এই পদ আমাদের পরিষ্কার করে দেখিয়ে দেয় খ্রীষ্টের অক্ষয়, অবিনশ্বর, অ-ক্ষতিসাধনযোগ্য (স্ট্রং) রক্তকে!

ফ্রন্টলাইন নামের একটি পত্রিকাতে প্রাশিত একটি প্রবন্ধে বলা হয়েছে,

যখন খ্রীষ্টের রক্ত প্রবাহিত হইয়াছিল, তখন উহা জমাট বাঁধে নাই এবং মাটির ধূলার মধ্যে অদৃশ্য হইয়া যায় নাই| তাহা হইতে পারে না, কারণ ঈশ্বরের বাক্য বলিয়াছে যে উহা হইতেছে অক্ষয় রক্ত| কালভেরী পর্বতের বালুকণা ঈশ্বরের মেষশাবকের সেই বহুমূল্য রক্ত শোষণ করে নাই| যেহেতু উহা “অক্ষয়” সেহেতু শব্দটিকে যখন খ্রীষ্টের দেহের প্রতি প্রয়োগ করা হয় তখন তাহা নির্দেশ করে দেহের পুনরুত্থানের প্রতি, অক্ষয় রক্তের একমাত্র অর্থ হইতে পারে যে খ্রীষ্টের দেহ সেই একই রকমের অতিপ্রাকৃতিক ক্রিয়াকর্মের দ্বারা পুনরুত্থিত হইয়াছিল (Frontline magazine, March/April 2001, p. 5)|

যখন খ্রীষ্ট মৃত্যু থেকে পুনরুত্থিত হয়েছিলেন, তিনি বলেছিলেন:

“আমার হাত ও পা দেখ, এ আমি স্বয়ং: আমাকে স্পর্শ কর, আর দেখ; কারণ আমার যেমন দেখিতেছ, আত্মার এরূপ অস্থি-মাংস নাই” (লূক ২৪:৩৯)|

শিষ্যেরা সকলে পুনরুত্থিত খ্রীষ্টকে দেখে আশ্চর্যান্বিত হয়ে গিয়েছিলেন| তারা “মনে করিলেন আত্মা দেখিতেছি” (লূক ২৪:৩৭)| বর্তমানে অনেক লোক মনে করেন যে যীশু আত্মা হিসাবে মৃত্যু থেকে পুনরুত্থিত হয়েছিলেন| এই পদগুলি সেই “Docetic” ধারণা যাতে মনে করা হয় যে খ্রীষ্টের কোন মানবীয় শরীর ছিল না এবং ক্রুশের উপরে তাঁর কষ্টভোগ আপাত কিন্তু বাস্তব নয় অর্থাৎ সেই আত্মা-স্বরূপ খ্রীষ্টের ধারণাকে সংশোধন করে দেয়| না, তিনি মাংস এবং অস্থিসহ পুনরুত্থিত হয়েছিলেন| তিনি শিষ্যদের বলেছিলেন তাঁর হাত এবং তাঁর পায়ের মস্ত ফাঁক হয়ে থাকা ক্ষতগুলি দেখতে বলেছিলেন|

“পরে তিনি থোমাকে কহিলেন, এদিকে তোমার আঙ্গুল বাড়াইয়া দেও, আমার হাত দুইখানি দেখ; আর তোমার হাত বাড়াইয়া দেও, আমার কুক্ষিদেশ মধ্যে দেও; এবং অবিশ্বাসী হইও না, বিশ্বাসী হও” (যোহন ২০:২৭)|

যখন খ্রীষ্ট ক্রুশের উপরে ছিলেন তখন সৈন্যদের বর্শার আঘাতের দ্বারা সৃষ্ট, তাঁর কুক্ষিদেশের গর্তের উপরে হাত রাখার কথা খ্রীষ্ট থোমাকে বলেছিলেন|

আমার বক্তব্য হল এই: খ্রীষ্ট শিষ্যদের বলেছিলেন তাঁর হাত, তাঁর পা, এবং তাঁর কুক্ষিদেশের গর্তের দিকে তাকাতে| যদি তাঁর পুনরুত্থিত “মাংস এবং অস্থিসহ” দেহের মধ্যে অবশিষ্ট একটুও রক্ত থাকত, তবে তা সেই ক্ষতগুলি দিয়ে নির্গত হয়ে আসত| কিন্তু তাঁর দেহে আর কোন রক্ত অবশিষ্ট ছিল না| ঈশ্বরের ক্ষমতার দ্বারা সব রক্ত ইতিমধ্যেই পুনরুত্থিত হয়েছিল|

মৃত্যু থেকে পুনরুত্থানের পরে যখন মেরী ম্যাগদালীনি যীশুর সঙ্গে মিলিত হয়েছিলেন, তখন খ্রীষ্ট তাকে বলেছিলেন,

“আমাকে স্পর্শ করিও না; কেননা এখনো আমি উর্দ্ধে পিতার নিকটে যাই নাই, কিন্তু তুমি আমার ভ্রাতৃগণের কাছে গিয়া, তাহাদিগকে বল, যিনি আমার পিতা, ও তোমাদের পিতা, এবং আমার ঈশ্বর ও তোমাদের ঈশ্বর, তাঁহার নিকটে আমি উর্দ্ধে যাই” (যোহন ২০:১৭)|

যদিও, তার খুব বেশি একটা পরে নয়, শিষ্যেরা “তাঁহার নিকটে আসিয়া তাঁহার চরণ ধরিলেন” (মথি ২৮:৯)| তিনি মরিয়মকে তাঁকে স্পর্শ করতে দেননি, কারণ তিনি তখনও উর্দ্ধে ঈশ্বরের কাছে যাননি, তবুও তার অল্প কিছু সময় পরেই, তিনি শিষ্যদের তাঁর চরণ স্পর্শ করার অনুমতি দিয়েছিলেন| স্কোফিল্ডের টীকার মধ্যে এর ব্যাখ্যা আমাদের কাছে দেওয়া হয়েছে, যা আমার কাছে যথার্থই বাইবেলভিত্তিক ব্যাখ্যা বলে মনে হয়:

যীশু মরিয়মকে বলিয়াছিলেন যখন মহাযাজক প্রায়শ্চিত্তের দিন পরিপূর্ণ করিয়াছিলেন (লেবীয় পুস্তক ১৬)| বলিদান সম্পাদিত হইলে, তিনি স্বর্গে পবিত্র রক্ত উপস্থিত করিবার পথে ছিলেন, এবং তাহা, উদ্যানে মরিয়মের সহিত মিলিত হওয়া এবং মথি ২৮:৯ পদের মধ্যে লিখিত মিলিত হওয়ার মধ্যে, তিনি উর্দ্ধে উঠিয়াছিলেন এবং ফিরিয়া আসিয়াছিলেন, একটি আদর্শের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গী (Scofield note on John 20:17)|

এটা সেই একই ধরনের দৃষ্টিভঙ্গী যা ডঃ জন্ আর. রাইস বিশ্বাস করতেন|

পুরানো নিয়মে মহাযাজক রক্ত নিতেন এবং মহাপবিত্র স্থানের পাপহরণের উপর দিতেন| সেই কারণে, মরিয়মের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং শিষ্যদের সঙ্গে সাক্ষাতের মধ্যবর্তী সময়ে খ্রীষ্ট স্বর্গে তাঁর রক্ত নিয়ে গিয়েছিলেন:

“কিন্তু খ্রীষ্ট আগত উত্তম উত্তম বিষয়ের মহাযাজকরূপে উপস্থিত হইয়া, যে মহত্তর ও সিদ্ধতর তাম্বু, অহস্তকৃত, অর্থাৎ, এই সৃষ্টির অসম্পর্কীয় সেই তাম্বু দিয়া; ছাগদের ও গোবৎসদের রক্তের গুণে নয়, কিন্তু নিজ রক্তের গুণে একবারে পবিত্র স্থানে প্রবেশ করিয়াছেন, ও অনন্তকালীয় মুক্তি উপার্জ্জন করিয়াছেন” (ইব্রীয় ৯:১১-১২)|

লক্ষ্য করুন যে এই পাঠ্যাংশ বলছে তিনি প্রবেশ করেছেন “একবারে পবিত্র স্থানে|” সেটা অবশ্যই হয়েছিল তাঁর স্বর্গারোহন থেকে অন্য কোন সময়ে, কারণ বাইবেল বলছে,

“তাহাদের সহিত কথা কহিবার পর, প্রভু যীশু উর্দ্ধে স্বর্গে গৃহীত হইলেন, এবং ঈশ্বরের দক্ষিণে বসিলেন” (মার্ক ১৬:১৯)|

নতুন নিয়মে আমাদের বার বার করে বলা হয়েছে যে তিনি স্বর্গে ঈশ্বরের ডান দিকে বসে থাকেন, এবং এই পদ আমাদের বলছে যে তিনি শিষ্যদের সঙ্গে কথা বলার এবং স্বর্গারোহণের পরেই অবিলম্বে সেখানে বসার জন্য চলে গিয়েছিলেন| এটা কমপক্ষে এইটুকু বিশ্বাসযোগ্য করে তোলে যে তিনি আগে স্বর্গারোহণ করেছিলেন এবং স্বর্গে তাঁর রক্ত সেই “পবিত্র স্থানে” (ইব্রীয় ৯:১২) রেখেছিলেন|

“তোমরা ক্ষয়ণীয় বস্তুদ্বারা, রৌপ্য বা স্বর্ণ দ্বারা মুক্ত হও নাই…কিন্তু নির্দ্দোষ ও নিষ্কলঙ্ক মেষশাবকস্বরূপ খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত দ্বারা মুক্ত হইয়াছ” (১ম পিতর ১: ১৮-১৯)|

খ্রীষ্টের সেই রক্ত এখন স্বর্গে ঈশ্বরের অনুগ্রহ সিংহাসনের উপর রাখা আছে| এর কোন বিনাশ নেই| এটা বিনষ্ট অথবা ক্ষয় হয়ে যেতে পারে না| এইসবই হল অতিপ্রাকৃতিক ঘটনা| বাস্তবিক! অতিপ্রাকৃতকে বের করে নিন এবং দেখবেন কোন খ্রীষ্টধর্ম্ম থাকবে না – শুধুমাত্র নৈতীকতা| কিন্তু এটা কোন যাদুবিদ্যা নয়! আপনি খ্রীষ্টের রক্তকে নিজের উদ্দেশ্য সাধনে ব্যবহার করতে পারেন না| যাদুবিদ্যা নয়! সেই রক্ত হচ্ছে অতিপ্রাকৃত, কিন্তু তা যাদুবিদ্যাতে সাড়া দেয় না| “সিদ্ধান্তবাদ” হচ্ছে যাদুবিদ্যা! সেই কারণে আমরা সেটা বর্জন করে চলি| ইনি হলেন ঈশ্বর যিনি রক্তের সাহায্যে আপনাকে শুচি করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন|

আমি জানি যে ডঃ জন্ ম্যাকআর্থার এই যুক্তি বিশ্বাস করেন না| আমি এটাও জানি যে তিনি রক্তের বিষয়ে এই ভ্রান্ত ধারণা পেয়েছিলেন কর্নেল আর. বি. থাইমি, জুনিয়র নামের অদ্ভূত এক মানুষের কাছ থেকে| ১৯৬১ সালের গোড়ার দিকে যখন যুবক জন্ ম্যাকআর্থার থাইমির দ্বারা পরিচালিত একটি ধারাবাহিক বাইবেল অধ্যয়ণে অংশগ্রহণ করতেন তখন আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম এবং সেখানে তিনি (থাইমি) সেই একই জিনিষের শিক্ষা দিতেন যা তারপর থেকে ম্যাকআর্থার বছরের পর বছর ধরে শিক্ষা দিয়ে চলেছেন| আমার দৃঢ়বিশ্বাস যে ডঃ ম্যাকআর্থার তার এই ধারণা আর. বি. থাইমির কাছ থেকে পেয়েছিলেন, কারণ আমি তাকে এই বিষয়গুলিই সংক্ষিপ্তাকারে লিখে নিতে দেখেছিলাম| থাইমি শিক্ষা দিয়েছিলেন যে “রক্ত” শব্দের অর্থ হচ্ছে “মৃত্যু” – এইরকম নয় যে “কিছু রক্ত বাতাসের মধ্যে কোন কোন জায়গায় ভেসে বেড়াচ্ছে|” এইগুলিই হল সেই ধারণা যা মাঝে মধ্যেই ডঃ ম্যাকআর্থারের প্রচারের মধ্যে বিচ্ছিন্নভাবে চলে আসত, এবং আমি ব্যক্তিগতভাবে জানি যে তিনি সেই সব ধারনা কর্নেল আর. বি. থাইমির কাছেই পেয়েছিলেন| এটা খুব দুঃখদায়ক ঘটনা, কারণ ডঃ ম্যাকআর্থার অন্য কোন কোন বিষয়ে ভাল মতবাদের প্রচার করতেন| আমাদের মন্ডলী প্রত্যেক সপ্তাহে ডঃ ম্যাকআর্থারের জন্যে প্রার্থনা করে চলেছে যেন তিনি যীশুর রক্তের বিষয়ে আর. বি. থাইমির এই অদ্ভূত মতবাদ থেকে ঘুরে দাঁড়ান|

২| দ্বিতীয়ত, খ্রীষ্টের রক্ত আপনার মুক্তির জন্য প্রয়োজন |

এই পাঠ্যাংশ আমাদের বলছে যে তোমরা ক্ষয়ণীয় কোন জিনিষের দ্বারা মুক্ত হবে না, কিন্তু খ্রীষ্টের রক্তের দ্বারা তোমরা মুক্তি পেতে পার| ১ম পিতর ১:১৮ পদের অন্তর্ভূক্ত “মুক্ত” শব্দটি হচ্ছে গ্রীক শব্দের অনুবাদ যার অর্থ হল “বন্ধন মুক্ত করা” অথবা “মুক্তি দেওয়া” (স্ট্রং’স, ভাইন’স ), “মুক্তি দেওয়ার চিহ্নস্বরূপ” (ভাইন’স )|

যদি না আপনি খ্রীষ্টের রক্তের দ্বারা “বন্ধন মুক্ত হন” এবং যদি না আপনাকে “মুক্তি দেওয়া হয়”, আপনি চিরকালের জন্য থাকবেন

১| “ব্যবস্থার শাপের” অধীনস্ত (গালাতীয় ৩:১৩)| আপনি ব্যবস্থার দ্বারা শাপগ্রস্ত হন কারণ আপনি সেটা ধরে রাখতে পারছেন না| আপনি সঠিকভাবে ঈশ্বরের ব্যবস্থার আজ্ঞা ধরে রাখতে সক্ষম নন| সেটাই হল কারণ যে ব্যবস্থা আপনাকে শাপ দেয়| এটা আপনাকে দোষী সাব্যস্ত করে এবং বিচার থেকে আপনার নিষ্কৃতি লাভের কোন পথ করে দেয় না| খ্রীষ্টের রক্ত ব্যতীত অন্য কোন কিছুই আপনার পাপ ধুয়ে দিতে পারে না, যাতে করে আপনি “বন্ধন মুক্ত” হতে পারেন এবং আপনাকে “মুক্তি দেওয়া” যেতে পারে|

২| যদি না আপনি খ্রীষ্টের রক্তের দ্বারা “বন্ধন মুক্ত হন” এবং যদি না আপনাকে “মুক্তি দেওয়া হয়” তাহলে আপনি চিরকালের জন্য শয়তানের কর্তৃত্বের অধীনস্ত থাকবেন, “তাঁহার ইচ্ছা সাধনের নিমিত্ত প্রভুর দাসের দ্বারা দিয়াবলের ফাঁদ হইতে জীবনার্থে ধৃত” (২য় তীমথিয় ২:২৬)| খ্রীষ্টের রক্ত ব্যতীত, অন্য কোন কিছুই আপনার উপরে করা তার কর্তৃত্বের বন্ধন থেকে, আপনাকে “বন্ধন মুক্ত” করতে অথবা “মুক্তি দেওয়াতে” পারে না!

৩| যদি না আপনি খ্রীষ্টের রক্তের দ্বারা, “বন্ধন মুক্ত হন” এবং যদি না আপনাকে “মুক্তি দেওয়া হয়” তাহলে আপনি চিরকালের জন্য পবিত্র ঈশ্বরের ক্রোধ এবং বিচারের অধীনস্ত থাকবেন| যীশু খ্রীষ্টের রক্ত ব্যতীত অন্য কোন কিছুই ঈশ্বরের বিচারের হাত থেকে আপনার “বন্ধন মুক্ত” করতে অথবা আপনাকে “মুক্তি দেওয়াতে” পারে না|


হে, আমার বন্ধু, আপনাকে অবশ্যই খ্রীষ্টের রক্ত পেতে হবে! আপনাকে অবশ্যই খ্রীষ্টের রক্ত পেতে হবে নিজেকে ব্যবস্থার শাপ থেকে মুক্ত করতে, নিজেকে শয়তানের দাসত্ব থেকে মুক্ত করতে, এবং এক ক্রোধী ঈশ্বরের ক্রোধ থেকে নিজেকে মুক্ত করতে! ওহ, আপনাকে অবশ্যই –আপনাকে অবশ্যই –নিজেকে ব্যবস্থার অভিশাপ থেকে, দাসত্ব থেকে, এবং ঈশ্বরের ক্রোধ থেকে মুক্ত করার জন্যে যীশু খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত পেতে হবে| আমি আবার বলছি, আপনাকে অবশ্যই খ্রীষ্টের রক্ত পেতে হবে! আমি এই প্রার্থনা করছি যে শীঘ্রই আপনি যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করবেন!


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রুধোম্মে |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Jesus, Thy Blood and Righteousness”
(by Count Nicholas von Zinzendorf, 1700-1760; translated by John Wesley, 1703-1791) |


খসড়া চিত্র

যীশু খ্রীষ্টের অক্ষয় এবং প্রায়শ্চিত্তকর রক্ত

THE INCORRUPTIBLE AND REDEEMING
BLOOD OF JESUS CHRIST

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।

“তোমরা তো জান তোমাদের পিতৃপুরুষগণের সমর্পিত অলীক আচার ব্যবহার হইতে তোমরা ক্ষয়ণীয় বস্তুদ্বারা, রৌপ্য বা স্বর্ণ দ্বারা মুক্ত হও নাই…কিন্তু নির্দ্দোষ ও নিষ্কলঙ্ক মেষশাবকস্বরূপ খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত দ্বারা, মুক্ত হইয়াছ” (১ম পিতর ১: ১৮-১৯)|

১| প্রথমত, খ্রীষ্টের রক্ত অক্ষয়, গীতসংহিতা ১৬:১০; প্রেরিত ২:২৭, ৩১; ১ম পিতর ১:১৮-১৯; ২য় পিতর ৩:১০-১১; লূক ২৪:৩৯, ৩৭; যোহন ২০:২৭, ১৭; মথি ২৮:৯; ইব্রীয় ৯:১১-১২; মার্ক ১৬:১৯ |

২| দ্বিতীয়ত, খ্রীষ্টের রক্ত আপনার মুক্তির জন্য প্রয়োজন, গালাতীয় ৩:১৩; ২য় তীমথিয় ২:২৬; গীতসংহিতা ৭:১১ |