Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




যখন তোমরা উপবাস কর

WHEN YOU FAST
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনিয়র।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৫ সালের, ১৬ই অগাষ্ট, সদাপ্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলায় লস্ এঞ্জেল্সের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাকল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, August 16, 2015

“যখন তোমরা উপবাস কর” (মথি ৬:১৬)|

যীশু স্বয়ং তাঁর জাগতিক সেবা কাজের আগে উপবাস করেছিলেন| যীশু বলেছিলেন যে তিনি স্বর্গে ফিরে যাওয়ার পরেও তাঁর শিষ্যরা উপবাস করবে| তিনি বলেছিলেন,

“এবং তখন তাহারা উপবাস করিবে” (মথি ৯:১৫)|

ডঃ জন্ আর. রাইস্ বলেছিলেন যে এটা দেখায় যে পঞ্চসপ্তমীর উদ্দীপনার পূর্বে তারা দশদিন উপবাস ও প্রর্থনা করেছিল| আমি মনে করি যে সেটা একেবারে সত্যি কথা! প্রেরিত পৌল যখন মন পরিবর্তন করেছিলেন সেই সময়ে তিনি তিনদিনের জন্য উপবাস এবং প্রার্থনা করেছিলেন (প্রেরিত ৯:৯, ১১)| আন্তিয়থিয়াতে মন্ডলীর সদস্যেরা ঈশ্বরের ইচ্ছা জানবার জন্যে উপবাস করেছিলেন (প্ররিত ১৩:১২)| আবার যখন তারা প্রেরিত এবং বার্নাবাকে সেবা কাজের জন্য মিশনারি হিসাবে প্রেরণ করেছিলেন তখন তারা “উপবাস এবং প্রার্থনা” করেছিলেন (প্রেরিত ১৩:৩)| প্রেরিত পৌল বলেছিলেন যে তিনি “প্রায়শই উপবাস” অনুশীলন করতেন (২য় করিন্থীয় ১১:২৭)| আর এখানে আমাদের এই পাঠ্যাংশে যীশু আমাদের বলছেন যে আমাদের উপবাস করা উচিৎ| তিনি বলেছিলেন, “যখন তোমরা উপবাস কর” (মথি ৬:১৬)| তিনি বলেছিলেন যে, “এবং তখন তাহারা উপবাস করিবে” (মথি ৯:১৫)|

ডঃ জে. ভারন্ন ম্যাকগীর প্রতি আমি খুব শ্রদ্ধাশীল| ১৯৬০ এর দশকে আমি সম্পূর্ণ বাইবেল অধ্যয়ণ করেছিলাম, একেবারে সামনের মলাট থেকে শেষের মলাট অবধি, রেডিওতে শুনতে থাকতাম বাইবেলের একটির পর আর একটি পদের উপরে তার ব্যাখ্যাগুলি| আমাদের পাঠ্যাংশের সংশ্লিষ্ট বিষয়, “যখন তোমরা উপবাস কর,” প্রসঙ্গে ডঃ ম্যাকগী বলেছিলেন, “আমি এই বিষয়ে নিশ্চিত যে, আমাদের এখনকার দিনে বিশ্বাসীদের জন্য উপবাসের একটি মূল্য আছে” (J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson Publishers, 1983, volume IV, p. 38)|

কোন কোন লোক মনে করেন যে মথি ৬:১৬-১৮ এর অন্তর্ভূক্ত এই অধ্যায়ে যীশু উপবাসের বিরুদ্ধে শিক্ষাদান করছিলেন| কিন্তু তারা ভুল করতেন| তিনি শিক্ষা দিতেন “বাহ্যিক আচরণ সংক্রান্ত বিষয়”এর বিরুদ্ধে যেমনটা স্কোফিল্ডের টীকাতে লেখা আছে| তিনি কপটভাবে উপবাসের বিরুদ্ধে শিক্ষা দিতেন, অন্যদের দ্বারা পরিলক্ষিত হওয়ার জন্য| কিন্তু তিনি কক্ষনো সত্যিকারের উপবাসের বিরুদ্ধে শিক্ষা দিতেন না| একেবারে বিপরীত – তিনি বলেছিলেন, “যখন তোমরা উপবাস কর,” এবং তারপরে তিনি তাদের বলেছিলেন কিভাবে উপবাস করতে হবে, এবং কেন তাদের উপবাস করা উচিৎ| যীশু বলেননি, “যদি তোমরা উপবাস কর|” ওহ, না! যীশু বলেছিলেন, “যখন তোমরা উপবাস কর|”

আজকের দিনে উপবাসের মূল্য আছে| কিন্তু বিখ্যাত বাইবেল টীকাকার ম্যাথিউ হেনরী তার নিজের সময়ের কথা পরিতাপের সঙ্গে বলেছিলেন “ইহা…খ্রীষ্ট বিশ্বাসীগণের মধ্যে সাধারনভাবে অবহেলিত হইয়া থাকে” (মথি ১৬:১৬ পদের টীকা)| ম্যাথিউ হেনরী মারা যাওয়ার প্রায় ২৫ বছর পরে জন্ ওয়েসলী সপ্তাহে দুই দিন উপবাসের দ্বারা প্রাচীন খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের উদাহরন অনুসরণ করার কথা, তার নিজেদের লোকদের বলে এই অনুশীলনটি পুনরূজ্জীবিত করেছিলেন| সুতরাং উপবাস এবং প্রার্থনার পুনর্জীবিত আগ্রহের দিনে সেই প্রথম মহা উদ্দীপনা জন্মগ্রহণ করেছিল| উপবাসের উপর এই পুনর্জীবিত প্রবণতার শিকড় অন্তর্নিহিত ছিল খ্রীষ্টের এই উক্তির মধ্যে,

“যখন তোমরা উপবাস কর” (মথি ৬:১৬)|

আর বাইবেল শিক্ষা দেয় যে আজকের দিনের এই সময়ে যখন আমরা এখানে প্রার্থনা করি তখন সেখানে উপবাসের অনেকগুলি কারণ আছে| আজ রাত্রে আমি সেগুলির মধ্যে তিনটি কারণ আপনাদের বলছি|

১| প্রথম, শয়তানের শক্তির উপর বিজয়লাভ করার জন্য আমাদের ঈশ্বরের প্রতি উপবাস ও প্রার্থনা করা প্রয়োজন |

অনুগ্রহ করে মার্ক ৯:২৮-২৯ পদ দেখুন| উঠে দাঁড়ান এবং উচ্চস্বরে এই দুটি পদ পাঠ করুন|

“পরে তিনি গৃহে আসিলে, তাঁহার শিষ্যেরা বিজনে তাঁহাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, আমরা কেন সেটা ছাড়াইতে পারিলাম না? তিনি কহিলেন, প্রার্থনা ও উপবাস ভিন্ন, আর কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না” (মার্ক ৯:২৮-২৯)|

আপনারা এবার বসতে পারেন| এর আগের একটি প্রচারে আমি যেমন বলেছিলাম যে, আমি বিশ্বাস করি এটা ঠিক নয় যে মার্ক ৯:২৯ পদের “এবং উপবাস” শব্দ দুটি বেশির ভাগ আধুনিক অনুবাদ থেকে মুছে ফেলা হয়েছে| আমি মনে করি যে, এটা গ্রন্থের মূল পাঠ নির্ণয় ও সেই সংক্রান্ত সমালোচনা ভিত্তিক একটি ত্রুটি| অতীব দুঃখজনকভাবে “এবং উপবাস” শব্দদুটি এই সমস্ত আধুনিক অনুবাদ থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে| রহস্যজনক জ্ঞানবাদ-প্রভাবিত যাজকদের দ্বারা অনুলিপিত দুইটি প্রাচীন পান্ডুলিপির দ্বারা তারা প্রভাবিত হয়েছিলেন, যে যাজকেরা ঐ শব্দগুলি ছেড়ে দিয়েছিলেন| সুতরাং উপবাসের স্বপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ অনেক কারণগুলির মধ্যকার একটি কারণকে পাশ্চাত্যদেশের খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের চিন্তা ভাবনা থেকে অপসারিত করা হয়েছে, যারা ঐ দুইটি সন্দেহজনক পান্ডুলিপিভিত্তিক সমস্ত আধুনিক অনুবাদ পড়ছেন| শয়তানের বিরুদ্ধে আমাদের মন্ডলীগুলির শক্তি যে এত কম তাতে বিস্মিত হওয়ার মতন কিছু নেই! ডঃ জন্ আর. রাইস বলেছিলেন, “আমরা যেন সন্দেহ না করি যে এই সন্তান আক্ষরিক অর্থেই দিয়াবল [শয়তান] দ্বারা অধিকৃত| মন্দ আত্মা আমাদের চতুর্দিকে ঘুরপাক খাইতেছে” (Commentary on the Gospel According to Matthew, Sword of the Lord Publishers, 1980 edition, p. 364; comment on Matthew 17:14-21)| বাইবেল বলছে,

“কেননা রক্তমাংসের সহিত নয়, কিন্তু…স্বর্গীয় স্থানে দুষ্টতার আত্মাগণের সহিত আমাদের মল্লযুদ্ধ হইতেছে” (ইফিষীয় ৬:১২)|

আজকের দিনে কেবল সুসমাচার প্রচারের দ্বারা মন্ডলীগুলিকে গড়ে তোলা চরম কষ্টকর| এমনকী কেউ কেউ বলছেন যে আমেরিকাতে সুসমাচার প্রচারমূলক কাজ মৃত| আমার কাছে এটা মনে হয় যে আমাদের সময়ে শয়তানের ক্ষমতা খুবই অসামান্য| আমার কাছে এটাও মনে হয় যে “স্বর্গীয় স্থানে দুষ্টতার আত্মাগণের” উপর বিজয় লাভের জন্য আমাদের ঈশ্বরের শক্তি লাভের প্রয়োজন আছে| শয়তানের দূর্গ ভেঙ্গে ফেলার জন্য আসুন আসুন আমরা ঈশ্বরের জন্য উপবাস এবং প্রার্থনা করি! এটা মনে হয় এই সমস্ত স্বধর্মত্যাগ এবং মন্ডলীর শীতলতার দিনে নির্ভুলভাবে যুক্তিযুক্ত যখন শয়তান নিজের ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখছে এতগুলি লোকের উপরে, যাদের আমরা খ্রীষ্টের জন্য জয় করার চেষ্টা করছি| ৬ নম্বর গান, “টিচ মি টু প্রে,” এর দ্বিতীয় স্তবকটি করুন, “পাওয়ার ইন প্রেয়ার|”

প্রার্থনায় শক্তি, প্রভু, প্রার্থনায় শক্তি,
   এখানে ‘জগতের মধ্যে’র পাপ এবং দুঃখ এবং যন্ত্রণা;
মনুষ্যেরা হারাচ্ছে এবং মারা যাচ্ছে, আত্মারা হতাশার মধ্যে;
   হে প্রভু আমাকে শক্তি দাও, প্রার্থনায় শক্তি দাও!
(“Teach Me to Pray” by Albert S. Reitz, 1879-1966)|

আমার কাছে এইরকম মনে হয় যে প্রার্থনাতে শক্তি কথাটি সরাসরিভাবে উপবাসের সঙ্গে জড়িত, কারণ যীশু বলেছেন,

“যখন তোমরা উপবাস কর” (মথি ৬:১৬)|

২| দ্বিতীয়, উদ্দীপনা পাঠানোর মাধ্যমে ঈশ্বরের কাছে মধ্যস্থতা করার জন্যে আমাদের উপবাস এবং প্রার্থনার প্রয়োজন |

না, আমি মনে করি না যে সবকিছু উদ্দীপনার উপর নির্ভর করে| কিন্তু ১৮৫৯ সালের পর থেকে আজ অবধি আমেরিকাতে আমরা জাতিয়-পরিবর্তনমূলক কোন উদ্দীপনা পাইনি – এবং স্থানীয় মন্ডলীতে উদ্দীপনা এতটাই দুস্প্রাপ্য হয়েছে যে খুব অল্প সংখ্যক লোকই হয়ত, আমাদের দেশে কখনো সখনো একটা উদ্দীপনা হতে দেখেছে| আমি স্মরণ করতে পারি যে ডঃ কেন কম্নোলী বলছেন, “আমরা এমন একটি প্রজন্মে বসবাস করিতেছি যাহা কখওন উদ্দীপনা কি জিনিষ তাহা জানে নাই|” কিন্তু প্রেরিত পৌল উদ্দীপনা চিনতেন! ঈশ্বর এসেছিলেন এবং প্রেরিতের গ্রন্থের সর্বাংশে দান করা তার সেবাকাজে আশীর্ব্বাদ করেছিলেন| তাহলে, আমাদের বিস্মিত হওয়া উচিৎ নয়, যখন আমরা পড়ি যে পৌল ছিলেন

“অনেকবার অনাহারে” (২য় করিন্থীয় ১১:২৭)|

সেই খ্রীষ্টান ঐতিহাসিক, ডঃ স্কেফ, বলেছিলেন যে সেই প্রাচীন “খ্রীষ্ট বিশ্বাসীগণ নির্দ্দিষ্ট করেছিলেন বুধবার এবং বিশেষ করে শুক্রবারের দিনটিকে” উপবাসের দিন হিসাবে (Philip Schaff, Ph.D., History of the Christian Church, Eerdmans Publishing Company, 1976 edition, volume II, p. 379)| প্রথম মহা জাগরণের সময়ে জন্ ওয়েসলী এই রীতি পুনরূজ্জীবিত করেছিলেন|

না, আমি মনে করি না যে উপবাস এবং প্রার্থনা আপনা আপনি উদ্দীপনা নিয়ে আসবে| আমি এটাও মনে করি না যে উপবাস এবং প্রার্থনার জন্য সেখানে কয়েকটি দিন নির্দ্দিষ্ট করা আছে| আমি এই জিনিষটি বাইবেলের মধ্যে দেখিনি| কিন্তু কয়েকটি দিনের উপবাস এবং প্রার্থনা ব্যতীত কিভাবে আমরা আজকের দিনে উদ্দীপনার অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারি সেটা আমি বুঝতে পারছি না| ডঃ জন্ আর. রাইস বলেছিলেন,

বাইবেলের সর্বস্তরে ঈশ্বরের সেই মহান সাধুগণ প্রায়শই উপবাস করিতেন| উপবাস প্রায়শই জড়িত থাকে সর্বান্তঃকরণে প্রার্থনার সহিত, শোকের সহিত, অনুতাপের সহিত, শত্রু হইতে উদ্ধারের অন্বেষণের সহিত অথবা উর্দ্ধ হইতে আগত ইচ্ছার সহিত| মোশি উপবাস করিয়াছিলেন…সিনাই পর্বতের উপরে, এবং আমাদের পরিত্রাতা উপবাস করিয়াছিলেন…প্রান্তরের মধ্যে| যিহোশূয়, দাউদ, ইষ্রা, নহিমিয়, দানিয়েল, ব্যাপ্টিষ্ট যোহনের শিষ্যগণ, হান্না, প্রেরিতগণ, পৌল এবং বার্নাবাস, এবং আরও অন্যান্যরা উপবাস এবং প্রার্থনা করিতেন| ঈশ্বরের পবিত্র ব্যক্তিগণ তাহাদের প্রার্থনার উত্তর পাইয়াছিলেন যখন তাহারা উপবাস এবং প্রার্থনাসহ ঈশ্বরের জন্য অপেক্ষারত ছিলেন| বাইবেলের সময় হইতেই, প্রার্থনার সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যক্তিগণ প্রায়শই উপবাস এবং সেইসঙ্গে প্রার্থনা করিতেন| একজন খ্রীষ্ট বিশ্বাসী উত্তম সহভাগিতার মধ্যে থাকেন যখন তিনি উপবাস এবং প্রার্থনা করেন…পরিত্রাতা কেবল [স্বয়ং] উপবাসই করেন না, কিন্তু তিনি শিষ্যগণকেও উপবাস করিবার শিক্ষা দেন| শিষ্যগণ উহা করিতে থাকেন তাঁহাকে [উর্দ্ধে এবং] তুলিয়া লইবার পরেও (John R. Rice, D.D., Prayer – Asking and Receiving, Sword of the Lord Publishers, 1970 edition, p. 215)|

এছাড়া ডঃ রাইস “উপবাস এবং প্রার্থনা দ্বারা উদ্দীপনা আনয়নের” কথাও বলেছেন (ibid., p. 227)|

তবুও আমাদের চিন্তা করা উচিৎ নয় যে উপবাস এবং প্রার্থনা “বাধ্য করে” উদ্দীপনা আনতে| রেভাঃ আয়ান এইচ. ম্যুররে যথার্থভাবে বলেছিলেন,

এইজন্য নহে যে তাঁহার উদ্দেশ্যের পরিপূর্ণতা আমাদিগের উপর নির্ভরশীল হইবে, পরন্তু তাঁহার উপরেই আমাদিগের পরম নির্ভরশীলতার বিষয়টি শিক্ষা করিতে আমাদিগকে সাহায্য করিবার জন্য, ঈশ্বর প্রার্থনাকে আশির্ব্বাদ দানের একটি উপায় হিসাবে মনোনীত করিয়াছেন… প্রার্থনার এইরূপ এক বোধগম্যতা, ঈশ্বরের উপর নির্ভরতা এবং নিয়তিবাদের প্রতি পরিচালিত হইবার থেকে বহুদূরে থাকিয়া, ঈশ্বর-সচেতনতাময় এক আত্মার জন্ম দেয় এবং যাহাকে সমসাময়িক একজন লেখক বলিতেছেন “মৌলিক…প্রার্থনা এবং উপবাস” (Rev. Iain H. Murray, Pentecost Today? The Biblical Basis for Understanding Revival, The Banner of Truth Trust, 1998, p. 69)|

এটা খুব ভাল বলা হয়েছিল যে “যখন ঈশ্বর তাঁর লোকদের আশীর্ব্বাদ করিতে মনস্থ করেন, তিনি তাহাদের প্রথমেই প্রার্থনার প্রতি নিযুক্ত করেন|” জন্ ওয়েস্লী এটাকে একটু অন্যভাবে বলেছেন,

আসুন আমাদের উপবাস করা হউক প্রভুর প্রতি আমাদের দৃষ্টি…নিবদ্ধ করিয়া| আসুন এক্ষণে আমাদিগের মনোগত বাসনা ইহাই হউক, এবং শুধুমাত্র ইহাই হউক, যেন স্বর্গে আমাদের পিতার গৌরব হয় (The New Encyclopedia of Christian Quotations, Baker Books, 2000, p. 360)|

উপবাস এবং প্রার্থনা উদ্দীপনার “কারণ” নয়| ঈশ্বর হলেন সেই কারণ| উপবাস এবং প্রার্থনার মাধ্যমে, আমরা ঈশ্বরের দিকে আরও বেশি করে আকর্ষিত হই, এবং যখন তিনি উপযুক্ত মনে করেন, তিনি তখন উথলিয়ে উদ্দীপনা প্রেরণ করেন| এর সমস্তটাই ঈশ্বরের হাতে| তবুও, এটাও সত্যি যে, একটি উদ্দীপনার সময়ে, লোকেদের প্রার্থনাগুলি অনেক প্রাণবন্ত হবে এবং আরও গভীর হবে এবং আরও সমৃদ্ধ হবে যেহেতু লোকেরা উপবাস এবং প্রার্থনা করছেন| এটা ছিল সেই একটা সময় যখন ঈশ্বর ইতিমধ্যেই উদ্দীপনা পাঠানো শুরু করে দিয়েছিলেন যাকে জন্ ওয়েস্লী বলতে পারতেন,

আপনি কী উপবাস এবং প্রার্থনার নিমিত্ত কোন নির্দ্দিষ্ট দিনকে স্থির করিয়াছেন? অনুগ্রহের সিংহাসনকে নড়াইয়া দিন, এবং তন্মধ্যে অটল থাকুন, তাহা হইলে করূণা নামিয়া আসিবে (Letters of John Wesley, p. 340)|

তবুও আমরা অভিজ্ঞতার মাধ্যমে জানি যে, জন্ ওয়েস্লী যেমন বর্ণনা করেছেন সেইরকমভাবে, আমরা উদ্দীপনার সময় লাভ করতে পারি না যদি না প্রথম থেকেই ঈশ্বর স্বয়ং আমাদের প্রার্থনায় শক্তি প্রদান করেন| ঈশ্বর স্বয়ং হলেন প্রার্থনার রচয়িতা যিনি নড়িয়ে দিতে পারেন “অনুগ্রহের সিংহাসনকে [যতক্ষণ না] করুণা [নেমে] আসে|” ঈশ্বর তাঁর তীব্র উদ্দীপনা উপবাস এবং প্রার্থনার স্রষ্টা| যেহেতু কেবলমাত্র ঈশ্বর হলেন এর স্রষ্টা এবং কারিগর সেহেতু আমরা কি এমনভাবে উপবাস এবং প্রার্থনা করতে পারি যা তাঁকে উদ্দীপনা পাঠানোর জন্য সন্তুষ্ট করে তোলে| অন্যথায় আমাদের উপবাস এবং প্রার্থনা কোন কাজেই আসবে না| আসুন আমরা ঈশ্বরের শ্রীমুখের অন্বেষণ করি, এবং তাঁহার প্রতি আমাদের আত্মাকে সমপর্ণ করি, উপবাস এবং প্রার্থনা করি যাতে তিনি তাঁর মন্ডলীর মধ্যে গৌরবান্বিত হন| কেবলমাত্র এইরকম ঈশ্বর-কেন্দ্রিক প্রার্থনা এবং উপবাস সত্যিকারের উদ্দীপনাসহ আশীর্ব্বাদিত হতে পারে| অনুগ্রহ করে আবার উঠে দাঁড়ান এবং “টিচ মি টু প্রে” গানটি করুন! গানের পাতায় এটা হচ্ছে ৬ নম্বর গানের, দ্বিতীয় স্তবক|

প্রার্থনায় শক্তি, প্রভু, প্রার্থনায় শক্তি,
   এখানে ‘জগতের মধ্যে’র পাপ এবং দুঃখ এবং যন্ত্রণা;
মনুষ্যেরা হারাচ্ছে এবং মারা যাচ্ছে, আত্মারা হতাশার মধ্যে;
   হে প্রভু আমাকে শক্তি দাও, প্রার্থনায় শক্তি দাও!
(“Teach Me to Pray” by Albert S. Reitz, 1879-1966)|

৩| তৃতীয়, ব্যক্তিগতভাবে মন পরিবর্তনের জন্য আমাদের উপবাস এবং প্রার্থনা করা উচিৎ |

যীশু বলেছেন,

“যখন তোমরা উপবাস কর” (মথি ৬:১৬)|

ঈশ্বর ভাববাদী যিশাইয়ের প্রতি বলেছিলেন,

“আমার মনোনীত উপবাস কি এই নয়? দুষ্টতার গাঁট সকল খুলিয়া দেওয়া, যোঁয়ালির খিল মুক্ত করা, এবং দলিত লোক-দিগকে স্বাধীন করিয়া ছাড়িয়া দেওয়া, ও প্রত্যেক যোঁয়ালি ভগ্ন করা কি নয়?” (যিশাইয় ৫৮:৬)|

সেই বালক যাকে শিষ্যগণ কোন সাহায্য দান করতে পারেনি সে “দুষ্টতার গাঁট সকল” দ্বারা আবদ্ধ ছিল| শিষ্যগণ তাকে কোন সাহায্য দান করতে পারেনি তার কারণ হল,

“প্রার্থনা এবং উপবাস ভিন্ন, কিছুতেই এই জাতি বাহির হয় না” (মার্ক ৯:২৯)|

আপনি কী মনে করেন না যে যারা রোজ মন্ডলীতে আসছেন তাদের মধ্যের কয়েকজন এই একইরকম অবস্থার মধ্যে রয়েছেন? এই কি নয় যে শয়তান “এই যুগের দেব…অবিশ্বাসীদের মন অন্ধ করিয়াছে”? (২য় করিন্থীয় ৪:৪)| আপনি কী মনে করেন না যে ঈশ্বর আমাদের প্রতি বলছেন যখন তিনি বলেছিলেন,

“আমার মনোনীত উপবাস কি এই নয়? দুষ্টতার গাঁট সকল খুলিয়া দেওয়া, যোঁয়ালির খিল মুক্ত করা, এবং দলিত লোক-দিগকে স্বাধীন করিয়া ছাড়িয়া দেওয়া, ও প্রত্যেক যোঁয়ালি ভগ্ন করা কি নয়?” (যিশাইয় ৫৮:৬)|

আমার মনে হয় যিশাইয়ের সেই পদটির কথা চার্লস ওয়েস্লীর মনে ছিল যখন তিনি লিখেছিলেন,

নাশ করেন যীশুর পাপের ফল,
   দেন মুক্তি তাহারে;
পাপ-কলঙ্ক সব মোচন হয়;
   তাঁর পূণ্য রুধিরে|
(“O For a Thousand Tongues” by Charles Wesley, 1707-1788)|

অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান এবং “O Set Ye Open Unto Me” গানটির সুরে এই গানটি করুন|

নাশ করেন যীশুর পাপের ফল,
   দেন মুক্তি তাহারে;
পাপ-কলঙ্ক সব মোচন হয়;
   তাঁর পূণ্য রুধিরে|

আপনারা এবার বসতে পারেন|

ওহ, এখানে উপস্থিত যারা এখনও মন পরিবর্তন করেননি তাদের মধ্যে কোন কোন ব্যক্তির জীবনে খ্রীষ্ট যেন সেইরকম করেন তার জন্যে কিভাবে আমাদের অবশ্যই উপবাস এবং প্রার্থনা করা উচিৎ! ওহ, আমরা খ্রীষ্টের সামনে কিভাবে প্রার্থনা করব ভেঙ্গে ফেলতে সেই পাপের শক্তিকে যা তাদের শয়তান এবং জগতের মুঠোর মধ্যে ধরে রেখেছে! ওহ, কিভাবে আমাদের খ্রীষ্টের সামনে অবশ্যই উপবাস এবং প্রার্থনা করা উচিৎ যাতে সম্ভব হয়

“দুষ্টতার গাঁট সকল খুলিয়া দেওয়া, যোঁয়ালির খিল মুক্ত করা, এবং দলিত লোক-দিগকে স্বাধীন করিয়া ছাড়িয়া দেওয়া…”! (যিশাইয় ৫৮:৬)|

তবুও পুনরায় চার্লস ওয়েস্লীর গানটি করুন!

নাশ করেন যীশুর পাপের ফল,
   দেন মুক্তি তাহারে;
পাপ-কলঙ্ক সব মোচন হয়;
   তাঁর পূণ্য রুধিরে|

চার্লস ভ্রাতৃদ্বয় জন্ ওয়েস্লী এটা খুব ভাল করে বলেছিলেন, উদ্দীপনার একটি সময়ে,

আপনি কী উপবাস এবং প্রার্থনার নিমিত্ত কোন নির্দ্দিষ্ট দিনকে স্থির করিয়াছেন? অনুগ্রহের সিংহাসনকে নড়াইয়া দিন, এবং তন্মধ্যে অটল থাকুন, তাহা হইলে করূণা নামিয়া আসিবে (ibid.)|

পরবর্তী শনিবারে আমরা কি যথাযথভাবে এই জিনিষটি পুনরায় করতে পারি! আমরা যারা নিজেদের বাড়িতে এইভাবে উপবাস এবং প্রার্থনা করতে সক্ষম, তারা কি আমাদের মধ্যে যারা হারিয়ে গিয়েছেন তাদের জন্য এই কাজ করতে পারি! অবশ্যই, আপনাদের মধ্যে সকলেই উপবাস করতে পারেন না| কিন্তু যেহেতু সময়, স্বাস্থ্য, এবং পরিস্থিতি তাদেরকে অনুমতি দিচ্ছে, সেহেতু যারা এইভাবে উপবাস ও প্রার্থনা করতে সক্ষম থাকেন তাদেরকে সেটা করতে দিন| তারপরে পরবর্তী শনিবার সন্ধ্যা ৫.৩০ মিনিটে এখানে এই মন্ডলীতে ফিরে আসুন, এবং তাদের জন্য পুনরায় প্রার্থনা করুন, তারপরে একটি আহার গ্রহণ করে উপবাস ভঙ্গ করুন, এবং ঈশ্বরের নামে আনন্দ করতে করতে বাড়ি ফিরে যান! প্রকৃতপক্ষে, চার্লস ওয়েস্লীর গানটি অতীব সত্য! পুনরায় গানটি করুন!

নাশ করেন যীশুর পাপের ফল,
   দেন মুক্তি তাহারে;
পাপ-কলঙ্ক সব মোচন হয়;
   তাঁর পূণ্য রুধিরে|

আজকের রাত্রে এখানে কী এমন কোন ব্যক্তি আছেন যিনি হারিয়ে গিয়েছেন? আমরা আপনার জন্য প্রার্থনা করেছি| শয়তানের দৃঢ় মুষ্ঠি থেকে আপনি মুক্ত হতে চাইলে এবং তাঁর বহুমূল্য রক্তের দ্বারা আপনার কৃত পাপ থেকে আপনি শুচী হতে চাইলে আপনার জীবনে যীশুর প্রয়োজন আছে| আমরা প্রার্থনা করছি যে আপনি যীশুতে বিশ্বাস স্থাপন করবেন এবং পরিত্রাত হবেন|

এখন একটি তালিকা দেওয়া হল যা আপনি শনিবার দিনে যা করতে পারেন যেহেতু যারা হারিয়ে গিয়েছেন তাদের জন্য আমরা প্রার্থনা করছি|


১|     আপনার উপবাস গোপন করে রাখুন (যতটা সম্ভব)| লোকদের বলে বেড়াবেন না যে আপনি উপবাস করছেন|

২|    বাইবেল পাঠে কিছুটা সময় দিন| প্রেরিত পুস্তকের কিছু অংশ পড়ুন (বিশেষ করে শুরুর দিকটি)|

৩|    শনিবারের উপবাসকালে যিশাইয় ৫৮:৬ মুখস্থ করুন|

৪|    প্রার্থনা করুন যেন ঈশ্বর আমাদের মন্ডলীতে দশজন অথবা তার চেয়েও বেশি নতুন যুবকদের এনে দেন যারা আমাদের সঙ্গে থাকবেন|

৫|    আমাদের অপরিত্রাত যুবকদের মনপরিবর্তনের জন্য প্রার্থনা করুন| প্রার্থনা করুন ঈশ্বর যেন তাদের জন্য তাই করেন যেমন তিনি যিশাইয় ৫৮:৬ পদে বলেছেন|

৬|   প্রার্থনা করুন যে আজকের দিনের (রবিবার) যিনি প্রথম সাক্ষাৎকারী তিনি পুনরায় আকর্ষিত হবেন পরের রবিবারেও| যদি সম্ভব হয় তো নাম ধরে ধরে তাদের জন্য প্রার্থনা করুন|

৭|    পরের রবিবারে – সকালে এবং সন্ধ্যায় আমি কি প্রচার করবো তা ঈশ্বর যেন আমাকে দেখান তার জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করুন|

৮|    প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন| প্রত্যেক ঘন্টায় প্রায় এক গ্লাস করে| শুরুতে আপনি পান করতে পারেন বড় কাপের এক কাপ কফি যদি আপনার প্রতিদিন সেটা পান করার অভ্যাস থাকে তাহলে| নরম পানীয়, উদ্দীপক পানীয়, ইত্যাদি গ্রহণ করবেন না|

৯|    যদি আপনার স্বাস্থ্য সম্বন্ধিত কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে উপবাসের আগে একজন চিকিৎসকের সঙ্গে দেখা করুন| (আপনি আমাদের মন্ডলীর ডঃ ক্রেইগটন চ্যান অথবা ডঃ জুডিথ ক্যাগন’এর সঙ্গে দেখা করতে পারেন|) উপবাস করবেন না যদি আপনার সঙ্কটজনক কোন রোগ থাকে, যেমন বহুমূত্র বা উচ্চ রক্তচাপ| এই সমস্ত প্রার্থনার জন্য খালি শনিবারের দিনটি ব্যবহার করুন|

১০|  শুক্রবারের সন্ধ্যার খাবারের পর আপনার উপবাস শুরু করুন| শুক্রবারের রাতের খাবারের পর আর কিছু খাবেন না যতক্ষণ না শনিবার সন্ধ্যা ৫.৩০ মিনিটে আমাদের মন্ডলীতে একটি আহার গ্রহণ করা হচ্ছে|

১১|   মনে রাখবেন যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা প্রার্থনা করতে হয় তা হল আমাদের মন্ডলীর হারানো যুবকদের মন পরিবর্তনের জন্য প্রার্থনা - এবং এই সময়কালের মধ্যে এসেছেন, এমন নতুন যুবকদের আমাদের সাথে স্থায়ীভাবে থাকার জন্য প্রার্থনা|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে অনুগ্রহ করে ডঃ হাইমার্সকে
একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে বলুন| অনুগ্রহ করে তাকে এটাও বলুন যে কোন
দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল
rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন)| আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ
হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রধুম্মে: ইফিষীয় ৬:১০-১৯ |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“I Am Praying For You” (by S. O’Malley Clough, 1837-1910) |


খসড়া চিত্র

যখন তোমরা উপবাস কর

WHEN YOU FAST

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।

“যখন তোমরা উপবাস কর” (ইফিষীয় ৬:১০-১২)|

(মথি ৯:১৫; প্রেরিত ৯:৯, ১১; ১৩:২, ৩;
২য় করিন্থীয় ১১:২৭; মথি ৯:১৫)

১| প্রথম, শয়তানের শক্তির উপর বিজয়লাভ করার জন্য আমাদের ঈশ্বরের প্রতি উপবাস ও প্রার্থনা করা প্রয়োজন, মার্ক ৯:২৮-২৯; ইফিষীয় ৬:১২ |

২| দ্বিতীয়, উদ্দীপনা পাঠানোর মাধ্যমে ঈশ্বরের কাছে মধ্যস্থতা করার জন্যে আমাদের উপবাস এবং প্রার্থনার প্রয়োজন, ২য় করিন্থীয় ১১:২৭ |

৩| তৃতীয়, ব্যক্তিগতভাবে মন পরিবর্তনের জন্য আমাদের উপবাস এবং প্রার্থনা করা উচিৎ, যিশাইয় ৫৮:৬; মার্ক ৯:২৯; ২য় করিন্থীয় ৪:৪ |