Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




গেৎশিমানীতে যীশুর প্রার্থনা

CHRIST’S PRAYER IN GETHSEMANE
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৫ সালের, ২৯শে মার্চ, প্রভুর দিনের সন্ধ্যাবেলা লস্ এঞ্জেলসের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাকল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচার করেন
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, March 29, 2015

যীশু তাঁর শিষ্যদের সঙ্গে শেষ ভোজ খেয়েছিলেন| তারপর তিনি তাদের গেৎশিমানী বাগানে পরিচালনা করেছিলেন| যীশু তাদের বাগানের কিনারায় ছেড়ে দিয়েছিলেন এবং নিজে আরও ভিতরে অন্ধকারের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে গিয়েছিলেন প্রার্থনা করার জন্য| তিনি গভীর মর্ম্মপীড়ার মধ্যে ছিলেন| তিনি নিজেকে রক্ষা করার জন্য ঈশ্বরের জন্য কাঁদছিলেন| যখন তিনি সেখানে নিদারুন যন্ত্রণার মধ্যে প্রার্থনা করছিলেন, তিনি ঘেমে যাচ্ছিলেন “ঘর্ম্ম যেন রক্তের ঘণীভূত বড় বড় ফোঁটা হইয়া ভূমিতে পড়িতে লাগিল” (লূক ২২:৪৪)| এবং এই বাক্য আমাদের পাঠ্যাংশে নিয়ে যায়| গেৎশিমানী বাগানে খ্রীষ্টের প্রার্থনার বিষয়ে এই পাঠ্যাংশ আমাদের বিশদে অনেক কিছু বলে|

“ইনি মাংসে প্রবাসকালে, প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে তাঁহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন যিনি মৃত্যু হইতে তাঁহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ, এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)|

এই পদটির অনেক রকমের ব্যাখ্যা পাওয়া যায় যেগুলি খুবই বিস্ময়কর| সেগুলির বেশির ভাগই বলে যে এটা গেৎশিমানী বাগানে খ্রীষ্টের প্রার্থনার প্রসঙ্গে বলা হয়েছে| কিন্তু তাদের অনেকেই মনে করেন যে পরের দিন ক্রুশের উপরে তাঁর মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচবার জন্য তিনি ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছিলেন| ডঃ লেনস্কি এই সমস্ত বিভ্রান্তিকর ও পরস্পরবিরোধী মতবাদের অনেকগুলির উত্তর দিয়েছিলেন, যে মতবাদগুলি ইব্রীয় ৫:৭ পদ থেকে উদ্ভূত হয়েছে বলে অনুমান করা হয় (R. C. H. Lenski, Ph.D., The Interpretation of the Epistle to the Hebrews and the Epistle of James, Augsburg Publishing House, 1966 edition, p. 162-165; note on Hebrews 5:7)|

আসুন পাঠ্যাংশটির প্রতিটি উক্তি ধরে ধরে বিচার করি, কারণ এটা খ্রীষ্টের ক্রুশারোপিত হওয়ার আগের দিনের রাত্রে গেৎশিমানী উদ্যানে, তাঁর একাকী প্রার্থনা করার বিষয়টি প্রকাশ করছে|

“ইনি মাংসে প্রবাসকালে, প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে তাঁহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন যিনি মৃত্যু হইতে তাঁহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ, এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)|

১| প্রথম, পাঠ্যাংশ খ্রীষ্টের “মাংসে প্রবাসকাল” বিষয়ে বলে |

এই উক্তি আমাদের দেখায় যে পাঠ্যাংশ এমন কোন কিছুই উল্লেখ করছে না যা যীশুর প্রতি ঘটেছিল তাঁর মাংসিক অবস্থায় থাকাকালীন সময়, তাঁর স্বর্গ থেকে নেমে আসার আগে| এটা আরও দেখায় যে স্বর্গারোহন পর্বে খ্রীষ্ট স্বর্গে ফিরে যাওয়ার পরে তাঁর প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা বিষয়ের কোন উল্লেখ পাঠ্যাংশে নাই| এই জগতে “মাংসে প্রবাসকালে” খ্রীষ্ট যে সময়ে প্রার্থনা করেছেন “গভীর আর্তস্বরে” এই পাঠ্যাংশ সেই সময়ের প্রতি দৃষ্টি নিবদ্ধ করছে|

নতুন নিয়ম আমাদের তিনটি উপলক্ষের কথা বলছে যখন যীশু কেঁদেছিলেন| একটি ছিল লাসারের কবরের কাছে| বাইবেল বলছে, “যীশু কাঁদিলেন” (যোহন ১১:৩৫)| দ্বিতীয়বার তিনি কেঁদেছিলেন যিরূশালেম নগর দেখে,

“পরে যখন তিনি নিকটে আসিলেন, তখন নগরটি দেখিয়া, তাহার জন্য রোদন করিলেন” (লূক ১৯:৪১)|

ডঃ জে ভার্নন ম্যাকগী বলেছিলেন, “তৃতীয়বার গেৎশিমানী উদ্যানে গিয়া তিনি কাঁদিয়াছিলেন” (J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson Publishers, 1983, volume V, p. 540; note on Hebrews 5:7)| এটা পরিষ্কার যে আমাদের এই পাঠ্যাংশ তাঁর লাসারের কবরের সামনে কাঁদার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়| এবং এটা তাঁর অশ্রুপাতের সঙ্গেও সম্পর্কযুক্ত নয় যা তিনি প্রবাহিত করেছিলেন যিরূশালেম নগরটি দেখার পর| তাঁর ক্রুশারোপিত হওয়ার আগের রাত্রে, গেৎশিমানী বাগানে তাঁর মর্ম্মযন্ত্রণার সময়ের বর্ণনা এই পাঠ্যাংশের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করছে|

ইহা মধ্যরাত্র, এবং জলপাইয়ের ললাট
   নক্ষত্র হইয়াছিল অনুজ্জ্বল যাহা সম্প্রতি উজ্জ্বল হইয়াছিল;
এখন উদ্যানে মধ্যরাত্র,
   দুঃখভারাক্রান্ত পরিত্রাতা একাকী প্রার্থনারত|

এখন মধ্যরাত্র; এবং অপরের অপরাধের জন্য
   যীশুখ্রীষ্ট রক্তে ক্রন্দনরত;
তথাপি তিনি নিদারুন যন্ত্রনায় নতজানু ছিলেন
   তিনি কি তাঁহার ঈশ্বর দ্বারা পরিত্যক্ত নয়|
(“‘Tis Midnight; and on Olive’s Brow” by William B. Tappan, 1794-1849)|

“ইনি মাংসে প্রবাসকালে, প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে তাঁহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন যিনি মৃত্যু হইতে তাঁহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ, এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)|

২| দ্বিতীয়, পাঠ্যাংশ আমাদের বলে খ্রীষ্ট ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছিলেন, যিনি তাঁকে গেৎশিমানীর বাগানে মৃত্যু থেকে রক্ষা করতে সক্ষম ছিলেন |

মথি ২৬:৩৬-৩৮ পদগুলি সযত্নে শুনুন|

“তখন যীশু তাঁহাদের সহিত গেৎশিমানী নামক এক স্থানে গেলেন, আর আপন শিষ্যদিগকে কহিলেন, আমি যতক্ষণ ওখানে গিয়া প্রার্থনা করি, ততক্ষণ তোমরা এইখানে বসিয়া থাক| পরে তিনি পিতরকে এবং সিবদিয়ের দুই পুত্রকে সঙ্গে লইয়া গেলেন, আর দুঃখার্ত্ত ও ব্যাকুল হইতে লাগিলেন| তখন তিনি তাঁহাদিগকে কহিলেন, আমার প্রাণ, মরণ পর্য্যন্ত দুঃখার্ত্ত হইয়াছে…” [“মৃত্যু পর্য্যন্ত” NIV] (মথি ২৬:৩৬-৩৮)|

ইব্রীয় ৫:৭ পদের বিষয়ে ডঃ জন্ ম্যাকআর্থারের কিছু ভাল বক্তব্য আছে, কিন্তু সেই পদের উপরে বক্তব্যের শেষ বাক্যে তিনি ভুল করেছেন| তিনি বলেছেন, “যীশু কহিয়াছিলেন অবশিষ্ট মৃত্যু হইতে রক্ষা পাইতে হইবে, i.e. [অর্থাৎ] পুনরুত্থিত হইতে হইবে” (John MacArthur, D.D., The MacArthur Study Bible, Word Bibles, 1997, p. 1904; note on Hebrews 5:7)|

যীশু পুনরুত্থানের দ্বারা “অবশিষ্ট মৃত্যু হইতে রক্ষা পাইবার জন্য” প্রার্থনা করছিলেন না! না, মথি ২৬:৩৮ পদটিতে পরিষ্কার করে আমাদের বলা হয়েছে যে যীশু ছিলেন “মরণ পর্যন্ত, দুঃখার্ত্ত” – মৃত্যু অবধি – ঠিক সেইস্থানে সেই গেৎশিমানী উদ্যানে – যীশু প্রায় মৃত্যু পথযাত্রী ছিলেন! ঠিক সেই সময়ে গেৎশিমানীতে মৃত্যু থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য যীশু প্রার্থনা করছিলেন! লূকের সুসমাচার আমাদের বলে, “তাঁহার ঘর্ম্ম যেন রক্তের ঘণীভূত বড় বড় ফোঁটা হইয়া ভূমিতে পড়িতে লাগিল” (লূক ২২:৪৪)| যীশু যন্ত্রণার এমনই এক বিভৎস অব্স্থার মধ্যে ছিলেন যে তিনি রক্তঘাম ঘেমে যাচ্ছিলেন, এবং সেই রাত্রে, তাঁর ক্রুশারোপিত হওয়ার আগের রাত্রে, গেৎশিমানী বাগানে তিনি মৃত্যু পথযাত্রী ছিলেন| যোষেফ হার্ট বলেছিলেন,

ঈশ্বর পুত্রের যন্ত্রণা দেখ,
হাঁফাইতেছেন, গভীর আর্ত্তনাদ করিতেছেন, রক্ত ঘামিতেছেন!
অবাধ সুগভীর ঐশ্বরিক অনুগ্রহ!
যীশু, তোমার এ কী ভালবাসা!
   (“Thine Unknown Sufferings” by Joseph Hart, 1712-1768;
      to the tune of “‘Tis Midnight, and on Olive’s Brow”)|

মথি ২৬:৩৮-৩৯ পদগুলি শুনুন|

“তখন তিনি তাঁহাদিগকে কহিলেন, আমার প্রাণ, মরণ পর্যন্ত দুঃখার্ত্ত হইয়াছে: তোমরা এখানে থাক, আমার সঙ্গে জাগিয়া থাক| পরে তিনি কিঞ্চিৎ অগ্রে গিয়া, উবুর হইয়া পড়িয়া, প্রার্থনা করিয়া, কহিলেন, হে আমার পিতঃ, যদি হইতে পারে, তবে এই পানপাত্র আমার নিকট হইতে দূরে যাউক: তথাপি আমার ইচ্ছামত না হউক, তোমার ইচ্ছামত হউক” (মথি ২৬:৩৮-৩৯)|

এই প্রার্থনার একটি সাধারন ব্যাখ্যা হল এই যে খ্রীষ্ট ঈশ্বরের কাছে যাচ্ঞা করেছিলেন যেন তিনি তাঁকে ক্রুশে যাওয়া থেকে রক্ষা করেন| কিন্তু আমি নিশ্চিত যে বাইবেল যা শিক্ষা দেয় এই ব্যাখ্যা সেইরকমের নয়| ডঃ জে. ভার্নন ম্যাকগী, আমেরিকার সর্বাপেক্ষা সুপরিচিত বাইবেল শিক্ষক, বলেছিলেন,

আমাদের প্রভু চেষ্টা করিয়াছিলেন ক্রুশে যাওয়া এড়াইয়া যাইতে এইরূপ বলা…সত্য নহে| তাঁহার মনুষ্য প্রকৃতিতে তিনি অনুভব করিয়াছিলেন প্রতিকূলতা এবং ভয়ঙ্কর ঘৃণাপূর্ণ জগতের পাপসকল তাঁহার উপরে ন্যস্ত হওয়াকে…(J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, 1983, Thomas Nelson Publishers, volume IV, p. 141; note on Matthew 26:36-39)|

একজন সুপরিচিত ঈশ্বরতাত্ত্বিক, ডঃ জে. ওলিভার বুশওয়েল, বলেছেন,

লূক যেমন বর্ণনা করিয়াছেন তাহা অনুযায়ী অতিমাত্রায় অনর্গল ঘাম নির্গত হওয়া হইতেছে একটি অভিঘাতজনিত অবস্থার বিশিষ্ট লক্ষণ যথায় যন্ত্রনাভোগকারী পতিত হইবার এবং এমনকী মৃত হইবার আসন্ন বিপদেরও সন্মুখীন হইয়া থাকে…আমাদের প্রভু যীশু খ্রীষ্ট, নিজেকে এইরূপ শারীরিক অভিঘাতের মধ্যে দেখিয়া, প্রার্থনা করিয়াছিলেন সেই উদ্যানে মৃত্যু হইতে উদ্ধারের জন্য, এই কারণে যে তিনি যেন [পরবর্তী দিবসে] ক্রুশের উপরে তাঁর উদ্দেশ্য সাধনে অভীষ্টলাভ করিতে পারেন| (J. Oliver Buswell, Ph.D., A Systematic Theology of the Christian Religion, Zondervan Publishing House, 1962, part III, p. 62)|

“পরে তিনি পিতরকে এবং সিবদিয়ের দুই পুত্রকে সঙ্গে লইয়া গেলেন, আর দুঃখার্ত্ত ও ব্যাকুল হইতে লাগিলেন| তখন তিনি তাঁহাদিগকে কহিলেন, আমার প্রাণ, মরণ পর্য্যন্ত দুঃখার্ত্ত হইয়াছে…” [“মৃত্যু পর্য্যন্ত” NIV] (মথি ২৬:৩৭-৩৮)|

এই দুইটি পদ খুবই যত্নসহকারের অধ্যয়ণ করার পর, ডঃ জে. ভার্নন ম্যাকগী এবং ডঃ জে. ওলিভার বুশওয়েল আমাদের যা ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন, ডঃ জন্ আর. রাইস সেই ব্যাখ্যাকে আরও সম্প্রসারিত করেছিলেন| ডঃ রাইস বলেছিলেন,

         আপনি যদি ৩৭ এবং ৩৮ পদের [মথি ২৬ অধ্যায়ের] প্রতি লক্ষ্য না করিয়া থাকেন, তবে আপনি গেৎশিমানীর প্রার্থনার অর্থকেই হারাইবেন| যীশু ছিলেন দুঃখার্ত্ত ও ব্যাকুল এবং তাঁহার আত্মা “মরণ পর্যন্ত দুঃখার্ত্ত,” অর্থাৎ [তিনি] আক্ষরিকভাবে দুঃখে মৃতপ্রায় ছিলেন…যীশু সেই উদ্যানে প্রায় মরিতে বসিয়াছিলেন| ৩৯ এবং ৪২ পদে যে পানপাত্র বা পেয়ালার উল্লেখ করা হইয়াছে তাহা ছিল মৃত্যু-পেয়ালা, সেই রাত্রে গেৎশিমানী উদ্যানে মৃত্যু| ইহা বিশেষভাবে আরও স্পষ্ট করা হইয়াছে ইব্রীয় ৫:৭ পদে যেখানে আমাদের বলা হইতেছে যে যীশু “প্রার্থনা এবং বিনতি নিদারুন ক্রন্দন এবং অশ্রু সহকারে তাঁহার নিকট উৎসর্গ করিয়াছিলেন যাহাতে তিনি সক্ষম হইয়াছিলেন তাঁহাকে মৃত্যু হইতে রক্ষা করিতে, এবং শোনা হইয়াছিল এই কারণে যে তিনি ভীত হইয়াছিলেন|” গেৎশিমানী উদ্যানে প্রায় মৃতবৎ হইয়া, যীশু প্রার্থনা করিয়াছিলেন যে সেই রাত্রে মৃত্যুরূপ পেয়ালা যেন তাঁহার নিকট হইতে দূরে সরিয়া যায় যাহাতে তিনি পরবর্তী দিনটিতে ক্রুশের উপর মরিবার জন্য বাঁচিয়া থাকিতে পারেন| শাস্ত্র বলিতেছে যে “তাঁর প্রার্থনা শোনা হইয়াছিল”! ঈশ্বর তাঁহার প্রার্থনার উত্তর দিয়াছিলেন…যদি যীশু গেৎশিমানী উদ্যানে মারা যাইতেন, তাহা হইলে আমাদের নিকটে কোন পরিত্রাণের সুসমাচার থাকিত না, কারণ সুসমাচার হইতেছে যে “শাস্ত্রানুসারে খ্রীষ্ট আমাদের পাপের জন্য মরিলেন” [ধর্ম্মগ্রন্থ অনুসারে], ১ করিন্থীয় ১৫:৩| এই মৃত্যু কোন সাধারন মৃত্যু হইতে পারেনা; খ্রীষ্টের মৃত্যু অবশ্যই শাস্ত্রানুসারে হইবে…যীশুর দাড়ি অবশ্যই উপড়াইয়া ফেলা হইবে (যিশাইয় ৫০:৬)| তাঁহাকে অবশ্যই অনেক চাবুকের দ্বারা প্রহার করা হইবে (যিশাইয় ৫৩:৫)…তাঁহাকে অবশ্যই ক্রুশের উপরে দস্যুদিগের মধ্যস্থানে মরিতে হইবে [যিশাইয় ৫৩:১২; সখরিয় ১২:১০; সখরিয় ১৩:৬]| তাহারা অবশ্যই তাঁহার হস্ত এবং তাঁহার পদদ্বয় বিদ্ধ করিবে (গীতসংহিতা ২২:১৬)…এমনকী [তাঁহার] সেই প্রচন্ড ক্রন্দন [ক্রুশের উপর হইতে] “আমার ঈশ্বর, আমার ঈশ্বর, তুমি কেন আমাকে পরিত্যাগ করিয়াছ?”…শাস্ত্রে (গীতসংহিতা ২২:১) এইরূপ পূর্বঘোষনা করা হইয়াছিল| প্রধান যাজক এবং লোকেদের সেই বিদ্রূপ বা উপহাস [যখন তিনি ক্রুশের উপরে ছিলেন] অক্ষরে অক্ষরে পূর্ণ করিতে হইবে যেহেতু তাহা পূর্বেই ঘোষনা করা হইয়াছিল (গীতসংহিতা ২২:৭-৮)| [সেই সৈন্যসকল] অবশ্যই তাঁহার জামা [পরিচ্ছদ] গুলিবাঁট করিবে (গীতসংহিতা ২২:১৮)|
         যীশু যদি আক্ষরিকভাবে “শাস্ত্রানুসারে” না মরিতেন, তাহা হইলে তিনি আমাদের পরিত্রাতা হইতে পারিতেন না| ঈশ্বরকে ধন্যবাদ, যে গেৎশিমানী উদ্যানে তাঁহার প্রার্থনার উত্তর দেওয়া হইয়াছিল! মৃত্যুর পেয়ালা…সেইরাত্রে তাঁহার নিকট হইতে সরিয়া গিয়াছিল [সেই কারণে তিনি যাইতে পারিয়াছিলেন] ক্রুশে যাহাতে আমরা উদ্ধার পাইতে পারি…লূক ২২:৪৩ পদ আমাদের বলিতেছে “তখন স্বর্গ হইতে এক দূত দেখা দিয়া, তাঁহাকে সবল করিলেন|” তাঁহার দেহে এই অতিপ্রাকৃত শক্তির প্রয়োগ ব্যতীত, খ্রীষ্ট নিশ্চিতভাবে সেই রাত্রে ঐ উদ্যানেই মারা যাইতেন (John R. Rice, D.D., The Gospel According to Matthew, Sword of the Lord Publishers, 1980 edition, pp. 441-442; মথি ২৬:৩৬-৪৬ পদগুলির উপর মন্তব্য)|

ক্রুশে যাওয়ার আগে যীশু যদি সেই গেৎশিমানী বাগানে মারা যেতেন তবে আমরা আমাদের পাপ থেকে উদ্ধার পেতে পারতাম না| কেন? কারণ তাহলে খ্রীষ্ট “ধর্ম্মগ্রন্থ অনুসারে” মারা যেতেন না| তিনি তখন আমাদের পরিত্রাণ করতেও পারতেন না যেহেতু তিনি “শাস্ত্রানুসারে” মারা যাননি|

“ইনি মাংসে প্রবাসকালে, প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে তাঁহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন যিনি মৃত্যু হইতে তাঁহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ, এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)|

৩| তৃতীয়, পাঠ্যাংশ আমাদের বলে যে ঈশ্বর খ্রীষ্টকে উত্তর দিয়েছিলেন |

যদি তিনি ক্রুশকে এড়ানোর জন্য প্রার্থনা করে থাকতেন, তাহলে ঈশ্বর তাঁর প্রার্থনা শুনতেন না অথবা তাঁকে উদ্ধার করতেন না! না, ঈশ্বর তাঁর প্রার্থনা শুনেছিলেন এবং তাঁর প্রার্থনার উত্তর দিয়েছিলেন| তিনি সেই গেৎশিমানী বাগানে মারা যাননি! ঈশ্বর তাঁকে উদ্ধার করেছিলেন যেন তিনি আমাদের পাপের জন্য ক্রুশের উপরে মৃত্যুবরণ করতে পারেন “ধর্ম্মগ্রন্থ অনুসারে” – “শাস্ত্রানুসারে”! যীশু “আপন ভক্তিপ্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)| আমি মনে করি এর অর্থ হল এই যে তাঁর ঐশ্বরিক নিয়মসম্মত ভীতি ছিল, যাতে তিনি ক্রুশে যেতে পারার আগেই মৃত হওয়ার দ্বারা ঈশ্বরকে অমান্য করতে ভয় পেয়েছিলেন| বাইবেল বলে যে যীশু, “আপনার সন্মুখস্থ আনন্দের নিমিত্ত ক্রুশ সহ্য করিলেন” (ইব্রীয় ১২:২)| যীশু কোন দূর্ঘটনার ফলে মারা যাননি| না, তিনি আমাদের পাপের পূর্ণ দেনা শোধ করার জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে এবং স্বেচ্ছায় ক্রুশে গিয়েছিলেন|

তাহলে, তখন, সেই গেৎশিমানী বাগানে তাঁর অত্যধিক মানসিক যন্ত্রণা ও ক্লেশ “এমনকী মৃত্যু পর্যন্ত” [“মৃত্যুর মুখ অবধি” NIV] ভোগ করার কী কারণ ছিল (মথি ২৬:৩৮)? কেন তিনি সেখানে “দুঃখার্ত্ত” এবং “খুবই ভারাক্লান্ত” ছিলেন? কেন তিনি “বিস্ময়াপন্ন” ছিলেন (মার্ক ১৪:৩৩)? কেন তিনি “মর্ম্মভেদী দুঃখে” ছিলেন (লূক ২২:৪৪)? কেন তিনি গেৎশিমানীতে ঘর্মাক্ত হয়েছিলেন “যেন ইহা ছিল রক্তের ঘণীভূত বড় বড় ফোঁটা” (লূক ২২:৪৪)?

আমি বিশ্বাস করি যে ঐ রাত্রে গেৎশিমানী বাগানে ঈশ্বর যীশুর উপরে, সেই মেষশাবকের উপরে তাঁর লোকেদের পাপ বর্ত্তিয়েছিলেন| বাইবেল বলছে, “সদাপ্রভু আমাদের সকলকার অপরাধ তাঁহার উপর বর্ত্তাইলেন” (যিশাইয় ৫৩:৬)| আমি বিশ্বাস করি যে এই ঘটনা গেৎশিমানী বাগানে ঘটেছিল| সেই রাত্রে “তিনি নিজ দেহে” আপনার সমস্ত পাপ বর্ত্তিয়েছিলেন, এবং পরের দিন সকালে আপনার সমস্ত পাপের দেনা শোধ করার জন্য, তিনি সেগুলি ক্রুশের উপরে বহন করেছিলেন| ইনি হলেন যীশু, “যিনি আমাদের পাপভার তুলিয়া লইয়া আপনি নিজদেহে কাষ্ঠের উপরে বহন করিলেন” – ক্রুশের উপরে (১ পিতর ২:২৪)| সেই গেৎশিমানী বাগানে, চরম মানসিক যন্ত্রণার মধ্যে, রক্তঘাম ঝরা অবস্থার মধ্যে তাঁকে দেখুন, যখন ঈশ্বর “আমাদের সকলকার পাপ তাঁহার উপর বর্ত্তাইলেন|” দেখুন গেৎশিমানী বাগান থেকে ক্রুশের দিকে তিনি যাচ্ছেন আপনার সমস্ত পাপ “নিজদেহে কাষ্ঠের উপর” বহন করে| এঁর মতন এমন একজন মহান পরিত্রাতাকে কী আপনি প্রত্যাখান করবেন? না কি আপনি তাঁর কাছে আসবেন, যিনি আপনার পরিবর্তে দুঃখভোগ করেছিলেন এবং মৃত্যুবরণ করেছিলেন, যাতে আপনাকে ক্ষমা করা যায় এবং আপনার পাপের দেনা থেকে আপনাকে উদ্ধার করা যায়?

মহান গীতলেখক যোষেফ হার্ট (১৭১২-১৭৬৮) একেবারে সঠিকভাবে দেখেছিলেন যে গেৎশিমানী বাগানে যীশুর প্রতি কি ঘটেছিল|

ঈশ্বর পুত্রের যন্ত্রনা দেখ,
হাঁফাইতেছেন, গভীর আর্ত্তনাদ করিতেছেন, রক্ত ঘামিতেছেন!
অবাধ সুগভীর ঐশ্বরিক অনুগ্রহ!
যীশু, তোমার এ কী ভালবাসা!
   (“Thine Unknown Sufferings” by Joseph Hart, 1712-1768;
      to the tune of “‘Tis Midnight, and on Olive’s Brow”)|

অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান এবং যোষেফ হার্টের অন্য আর একটি গান করুন| এটা আপনার গানের পাতার ৫ নম্বর গান|

অনেক দুঃখ তিনি সহ্য করিয়াছেন, অনেক যন্ত্রণাময় প্রলোভনের সন্মুখীন হইয়াছেন,
ধৈর্য্যশীল, এবং যন্ত্রণা অভ্যস্ত: কিন্তু তবুও অন্তিম যন্ত্রণাময় পরীক্ষা
তাঁহাতেই বহন ক্ষমতা ছিল, আবছা, বিষন্ন গেৎশিমানী!
তাঁহাতেই বহন ক্ষমতা ছিল, আবছা, বিষন্ন গেৎশিমানী!

শেষ পর্যন্ত আসিল সেই ভয়ঙ্কর রাত্রি; অভিশাপ এই লৌহশলাকায়
দাঁড়াইল, আর একত্রিত শক্তিতে যেন চূর্ণ করিল ঈশ্বরের সেই নির্দোষ মেষশাবককে|
আমার আত্মা, দেখ, পরিত্রাতা দেখ, গেৎশিমানীতে ভূপাতিত!
আমার আত্মা, দেখ, পরিত্রাতা দেখ, গেৎশিমানীতে ভূপাতিত!

ঈশ্বরের পুত্র আমার সব পাপ বহন করিলেন; ইহা অনুগ্রহের মাধ্যমে বিশ্বাস করা যায়;
কিন্তু পরম বিতৃষ্ণা গর্ভধারনে অতি বৃহৎ তিনি অনুভব করিলেন|
কেহই তাহা বিদ্ধ করিতে পারে না, গুমোট, অন্ধকার গেৎশিমানীতে!
কেহই তাহা বিদ্ধ করিতে পারে না, গুমোট, অন্ধকার গেৎশিমানীতে!

পবিত্র ঈশ্বরের বিরুদ্ধে পাপ; তাঁহার ধার্ম্মিক নিয়মের বিরুদ্ধে পাপ;
তাঁহার ভালবাসার বিরুদ্ধে পাপ, তাঁহার রক্ত; তাঁহার নাম এবং নিমিত্তের বিরুদ্ধে পাপ;
পাপসকল অপরিমেয় সাগর যেমন হয় – হে গেৎশিমানী, আমাকে লুকাও!
পাপসকল অপরিমেয় সাগর যেমন হয় – হে গেৎশিমানী, আমাকে লুকাও!

ইহা আমার দাবি, এবং এখানে একাকী; অধিক প্রয়োজন পরিত্রাতা ছাড়া কেহ নয়;
আমি কোন ধার্ম্মিকতার কাজ করি নাই; না, কোন ভাল কাজের জন্য মিনতি করি না:
আমার জন্য আশার কোন ক্ষীণ আলোক নাই, শুধুমাত্র গেৎশিমানী!
আমার জন্য আশার কোন ক্ষীণ আলোক নাই, শুধুমাত্র গেৎশিমানী!
   (“Many Woes He Had Endured” by Joseph Hart, 1712-1768;
      altered by the Pastor; to the tune of “Come, Ye Sinners”)|

যীশু আপনাকে ভালবাসেন আর সেই কারণে তিনি আপনার সমস্ত পাপ বহন করেছিলেন ক্রুশের উপরে| যীশু আপনাকে ভালবাসেন আর সেই কারণে তিনি আপনাকে সমস্ত পাপ থেকে শুচি করার জন্য তাঁর রক্ত ক্রুশের উপরে ঝরিয়েছেন| এটাই আমার প্রার্থনা যে আপনি সেই পরিত্রাতার উপরে বিশ্বাস স্থাপন করবেন যিনি এক অনন্তকালীন প্রেমে আপনাকে প্রেম করেন!

যীশুর ন্যায় আপনাকে আর কেহ ভালবাসেনা;
   তাঁহার ন্যায় আর কেহই আপনার যত্ন নেননা;
আপনি আর কখনও কোন প্রকৃত বন্ধু পাইবেন না,
   তবে তাঁকে বিশ্বাস করুন এবং আপনার নতুন জীবন হইবে|
যীশুকে আপনার নিজের করুন!

ডঃ চেন, অনুগ্রহ করে আমাদের প্রার্থনায় পরিচালনা করুন| আমেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রধুম্মে: মথি ২৬:৩৬-৩৯|
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Gethsemane, the Olive-Press!” (by Joseph Hart, 1712-1768)|


খসড়া চিত্র

গেৎশিমানীতে যীশুর প্রার্থনা

CHRIST’S PRAYER IN GETHSEMANE

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।

“ইনি মাংসে প্রবাসকালে, প্রবল আর্ত্তনাদ ও অশ্রুপাত সহকারে তাঁহারই নিকটে প্রার্থনা ও বিনতি উৎসর্গ করিয়াছিলেন যিনি মৃত্যু হইতে তাঁহাকে রক্ষা করিতে সমর্থ, এবং আপন ভক্তি প্রযুক্ত উত্তর পাইলেন” (ইব্রীয় ৫:৭)|

(লূক ২২:৪৪)

১| প্রথম, পাঠ্যাংশ খ্রীষ্টের “মাংসে প্রবাসকাল” বিষয়ে বলে, যোহন ১১:৩৫;
লূক ১৯:৪ |

২| দ্বিতীয়, পাঠ্যাংশ আমাদের বলে খ্রীষ্ট ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছিলেন, যিনি তাঁকে গেৎশিমানীর বাগানে মৃত্যু থেকে রক্ষা করতে সক্ষম ছিলেন,
মথি ২৬:৩৬-৩৯; লূক ২২:৪৪; ১ করিন্থীয় ১৫:৩;
যিশাইয় ৫০:৬; ৫৩:৫, ১২; সখরিয় ১২:১০; ১৩:৬;
গীতসংহিতা ২২:১৬, ১, ৭-৮, ১৮; লূক ২২:৪৩ |

৩| তৃতীয়, পাঠ্যাংশ আমাদের বলে যে ঈশ্বর খ্রীষ্টকে উত্তর দিয়েছিলেন,
ইব্রীয় ১২:২; মথি ২৬:৩৮; মার্ক ১৪:৩৩; লূক ২২:৪৪; যিশাইয় ৫৩:৬;
১ পিতর ২:২৪ |