Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 34টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




জ্ঞানী ব্যক্তিদের উপহার

THE GIFTS OF THE WISE MEN
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৪ সালের, ১৪ই ডিসেম্বর, সদাপ্রভুর একটি দিনে সকালবেলায় লস্ এঞ্জেলসের ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাকল মন্ডলীতে এই ধর্ম্মোপদেশটি প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord's Day Morning, December 14, 2014

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, ও ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাহাকে প্রণাম করিলেন: এবং আপনাদের ধনকোষ খুলিয়া, তাঁহাকে স্বর্ণ, কুন্দুরু, ও গন্ধরস; উপহার দিলেন” (মথি ২:১১)|


যখন আমি লস্ এঞ্জেলসের একটি সাধারন বিদ্যালয়ে পঞ্চম ধাপে পড়তাম, তখন খ্রীষ্টের জন্মদিন উপলক্ষ্যে নাটকে তিন পন্ডিতের মধ্যে একজনের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলাম| বাস্তবিকপক্ষে, সেটা ছিল ১৯৫০ সালের প্রথমের দিক| সেই সময় থেকেই ACLU এবং অন্যান্য শয়তান তুল্য অনুমোদিত প্রতিনিধি দল আমাদের বিদ্যালয়ে যীশুর জন্মদিন উপলক্ষ্যে কোন গল্পের উল্লেখ বন্ধ করে দিয়েছিল| এমনকি তারা “যীশুর জন্ম উৎসব” এই শব্দটির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল| আমরা বলতে পারি তারা ছিল শয়তানতুল্য কারণ তারা প্রবল শক্তিতে “দিন ও রাত্রি” উন্নতিবর্ধন করত, কিন্তু সম্ভাব্য প্রায় সব কিছুই করে চলত খ্রীষ্টমাস এবং ইষ্টার এর দিনে আমাদের সন্তানদের যীশুর চিন্তা থেকে দূরে রাখার জন্য| তারা একে বলত “ইষ্টার অবকাশ” – কিন্তু বর্তমানে তারা একে বলে “বসন্ত অবকাশ”!

কিন্তু সেই নাটকে আমি পন্ডিতদের মধ্যে একজনের ভূমিকায় ছিলাম| আমাদের একটি গান গাইতে হয়েছিল যেটা মিঃ গ্রিফিথ একটু আগেই গেয়েছেন, “আমরা হলাম প্রাচ্যের তিন পন্ডিত|” যখন আমরা একাকী ছিলাম, অন্য বালকদের মধ্যে একজন, সেই গানে কয়েকটি শব্দ যোগ করেছিল, “আমরা প্রাচ্যের তিন পন্ডিত, ধূমপান করি টেন-সেন্ট সিগার|” আপনি জানবেন যে, সেই ছেলেটির ঐভাবে কথা বলাটাকে স্মরণ করা ছাড়া আমি কখনও ঐ গান শুনিনা! এবং তার গলার স্বর বড় ভয়ঙ্কর ছিল| আমি বলতে চাই, সেই স্বর ছিল বীভৎস! শেষ পর্যন্ত আমি তাকে নরম সুরে গান গাইতে শুনেছিলাম, যাতে গানটি কিছুটা ভাল শোনাচ্ছিল| কিন্তু আমি আশ্চর্যান্বিত হয়েছিলাম যে ঐ তিন রাজা কারা ছিলেন, এবং কেন তারা অতদূর থেকে শিশু যীশুকে দেখতে এসেছিলেন|

এইমাত্র মিঃ প্রধ্যুম্নে মথির দ্বিতীয় অধ্যায় থেকে পন্ডিত ব্যক্তি ও শিশু যীশুর গল্প পড়ে শোনালেন| ঘটনা খুবই সহজ সরল| পন্ডিত ব্যক্তিরা প্রাচ্য থেকে এসেছিলেন, একটি নক্ষত্রকে অনুসরণ করে| আমাদের বলা হয়নি যে কতজন পন্ডিত ব্যক্তি সেখানে এসেছিলেন| বড়দিনের কার্ডের ছবিতে আমরা দেখি তাদের তিনজনের ছবি| কিন্তু বাইবেল বলে না যে তারা তিনজন সেখানে ছিল| তিনজন থাকার ধারণা এই ঘটনা থেকে এসেছিল যে তারা শিশু যীশুকে তিনটি উপহার দিয়েছিলেন, স্বর্ণ, কুন্দুরু, এবং গন্ধরস| কিন্তু ডঃ ম্যাকগী বলেন সেখানে অবশ্যই তিনের অনেক বেশী সংখ্যায় তারা ছিলেন| তিনি বলেছিলেন যে তিনজন ব্যক্তির পক্ষে সম্ভব ছিলনা “হেরোদকে উদ্বিগ্ন করা এবং যিরুশালেমকে আন্দোলিত করা” (Thru the Bible; note on Matthew 2:1)| ডঃ ম্যাকগী বলেছিলেন যে সেখানে অবশ্যই অধিক সংখ্যায় এই সব লোকেরা ছিলেন|

এই সমস্ত জ্ঞানী ব্যক্তিরা এসেছিলেন ব্যাবিলন থেকে| দানিয়েল ২:২৭ পদে বলা হয়েছে “বিদ্বান [এবং] জোতির্বিদদের” কথা| একজন যুবক ব্যক্তি হিসাবে, দানিয়েল ঐসব “জ্ঞানী ব্যক্তিদের,” ব্যবিলীয় পন্ডিতদের সঙ্গে শিক্ষা নিয়েছিলেন| দানিয়েল তার বৃদ্ধ বয়সে ঐ সমস্ত জ্ঞানী ব্যক্তিদের প্রধান হয়েছিলেন| যখন খ্রীষ্টের জন্ম হয়েছিল, তখনও সেখানে পন্ডিত ব্যক্তিগণ ছিলেন| সম্ভবতঃ দানিয়েলের লেখা বইয়ের নকল তাদের কাছে ছিল| যেহেতু তারা দানিয়েল ৯:২৪-২৬ পদ অধ্যয়ণ করেছিলেন সেহেতু তারা হয়ত শিক্ষালাভ করেছিলেন যিহুদীদের মশিহ আসার বিষয়ে| যখন বছরের ৬৯তম সপ্তাহটি প্রায় শেষ হতে চলেছে, তখন তারা সম্ভবতঃ মশীহের বিষয়ে চিন্তা করেছিলেন| এরপর তারা একটি নক্ষত্র দেখেছিল, যেটা তারা আগে কখনও দেখেনি| সেটা ছিল এক অতিপ্রাকৃত নক্ষত্র| তারা বিশ্বাস করেছিল যে সেটা ছিল স্বর্গের একটা চিহ্ন যে, মশীহ, সেই যিহুদীদের রাজা এসেছেন| তারা তাঁকে উপহার দেওয়ার জন্য, যিরুশালেমের উদ্দেশ্যে যাত্রা করল| যখন তারা যিরুশালেমে পৌঁছিয়েছিল, শাস্ত্রবেত্তারা তাদের মিকাহ ৫:২ থেকে পড়ে শুনিয়েছিল, যে সেই মশীহ বেৎলেহেমে জন্ম নেবেন, যেস্থান যিরুশালেম থেকে অনতিদূরে অবস্থিত| তখন নক্ষত্রটিকে আবার দেখা গেল এবং সেটা তাদের আগে আগে যেতে লাগল “শেষে যেস্থানে শিশুটি ছিলেন সেই স্থানের উপরে আসিয়া নক্ষত্রটি স্থগিত হইয়া রহিল” (মথি ২:৯)| আমরা জানি যে এটা একটা অতিপ্রাকৃত নক্ষত্র কারণ এটা চলছিল, আর তাদের যিশুর দিকে পরিচালনা করছিল| এখন আপনি আপনার বাইবেলের মথি ২:১১ পদটি খুলুন| এটা স্কোফিল্ড বাইবেলের ৯৯৫ পৃষ্ঠায় আছে| অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান যখন আমি পদটি পড়ছি,

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, ও ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাহাকে প্রণাম করিলেন: এবং আপনাদের ধনকোষ খুলিয়া, তাঁহাকে স্বর্ণ, কুন্দুরু, ও গন্ধরস; উপহার দিলেন” (মথি ২:১১)|

আপনারা বসতে পারেন|

মথি পুস্তকের এই অধ্যায়ে আমরা একাধিক বিষয়ে শিক্ষা নিতে পারি| উদাহরনস্বরূপ, আমরা মন্দ রাজা হেরোদের সঙ্গে জ্ঞানী ব্যক্তিদের তুলনামূলক বিরোধীতার কথা পাই| হেরোদ তার রাজ্যপাট হারানোর ভয়ে প্রতিহিংসা-পরায়ণ ও ভীত ছিলেন| হেরোদ যিহুদী ছিলেন না| তিনি একজন ইদোমীয় ছিলেন যিনি নিজের রাজপদ রোমীয় সরকারের কাছ থেকে কিনে নিয়েছিলেন| সেই কারণে তিনি জানতে চেয়েছিলেন যে কোথায় সেই শিশু, যাকে জ্ঞানী ব্যক্তিরা বলেছিলেন “যিহুদীদের রাজা” (মথি ২:২)| কিন্তু তিনি যীশুর আরাধনা করতে চাননি| তিনি চেয়েছিলেন তাঁকে হত্যা করতে, তাঁর থেকে নিজের সিংহাসন বাঁচাতে| জ্ঞানী ব্যক্তিরা চেয়েছিলেন যীশুর আরাধনা করতে, কিন্তু রাজা হেরোদ চেয়েছিলেন তাঁকে হত্যা করতে|

আমি প্রচারের মধ্যে দেখাতে পারি যে আজকের দিনেও, জগৎ এইভাবেই যীশুর প্রতি প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে| ভাল খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা চায় যীশুকে আরাধনা করতে| কিন্তু ACLU এর মধ্যে যারা আছেন, তাদের মতন মন্দ লোকেরা, চায় তাঁকে ছেড়ে দিতে| তারা বিদ্যালয়ে যীশুর জন্ম দিনে কেরোল বা কীর্তন করতে বারণ করে দিয়েছে, এমনকী বর্তমানে জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত কিছু জায়গাতেও সেটা বন্ধ করে দিয়েছে| তারা যীশুর জন্ম উপলক্ষ্যে নাট্যমঞ্চও বন্ধ করে দিয়েছে| এমনকী তারা নিষেধাজ্ঞা জারী করেছে “খ্রীষ্টমাস” শব্দটার উপরেই, কারণ তার মধ্যে খ্রীষ্ট কথাটি রয়েছে| যারা রাজা হেরোদের মতন এবং যারা সেই পন্ডিত ব্যক্তিদের মতন, যারা যীশুকে ভালবাসেন এবং তাঁকে আরাধনা করতে চান, তাদের মধ্যে বৈসাদৃশ্যমূলক একটি ধর্ম্মোপদেশ আমি প্রচার করতে পারি|

অথবা, আমি জ্ঞানী ব্যক্তিদের সঙ্গে অধ্যাপকদের বৈসাদৃশ্য দেখাতে পারি| শাস্ত্রবেত্তারা জানতেন যে যীশু বেৎলেহেমে জন্মগ্রহণ করবেন, কিন্তু তারা সেখানে তাঁকে দেখতে যাননি| তারা যীশুর বিষয়ে জানতেন, কিন্তু তারা স্বল্প দূরবর্তী বেৎলেহেমে যাননি এবং তাঁর আরাধনা করেননি| সেই জ্ঞানী ব্যক্তিরা যীশু যেখানে আছেন সেখানে তাঁকে পাওয়ার জন্য বহুদূর থেকে যাত্রা করেছিলেন| স্মরণ রাখবেন যে তারা উটের পিঠে চড়ে দীর্ঘ, ও কষ্টদায়ক যাত্রা করেছিলেন| উটের পিঠে চড়া সহজ বা আরামদায়ক হয় না| আমি সেটা জানি| আমি উটের পিঠে চড়েছিলাম যখন আমি ও এলিনা মিশরে গিয়েছিলাম| আমি উটের পিঠে চড়ে, স্ফিংক্সের কাছাকাছি জায়্গায়, রহস্যময় বিশাল পিরামিডের চারিদিকে ঘুরে বেড়িয়েছিলাম| খুব অল্পকথায় বলা যায় যে সেটা ছিল এক অস্বস্তিকর অভিজ্ঞতা! আমি এই এই বিষয় প্রচার করতে পারি – শাস্ত্রবেত্তাগণের বৈসাদৃশ্যের বিষয়ে, যারা জানতেন যে তিনি কোথায় আছেন, কিন্তু তারা যাননি সেই জ্ঞানীব্যক্তিদের সঙ্গে, যারা যীশুর অণ্বেষণে বহুদূর থেকে দীর্ঘ, কষ্টকর যাত্রা করে এসেছিলেন| আমি শাস্ত্রবেত্তাদের “মন্ডলীর শিশু” হিসাবে প্রয়োগ করতে পারি যারা বাইবেল জানেন, কিন্তু যীশুতে বিশ্বাস করেন না – তাদের তুলনা করুন সেই সব যুবকদের সঙ্গে যারা, মহা সমস্যার মধ্য দিয়ে জগৎ থেকে বেরিয়ে, যীশুর কাছে এসেছে|

অথবা, আমি তৃতীয় ধর্ম্মোপদেশটি প্রচার করতে পারি – যিহুদী লোকেদের বিষয়ে যারা তাকে প্রত্যাখ্যান করেছিল, যেমন সরাইখানার মালিক এবং শাস্ত্রবেত্তারা করেছিলেন – ব্যাবিলীয় পরজাতির প্রতি, যারা সমস্যার মধ্যেও, তাঁকে অনুসন্ধান করতে এসেছিলেন| আমি জ্ঞানী ব্যক্তিদের তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলির (চীনদেশের, মুসলমান জগতের, কাম্বোডিয়ার জঙ্গলের এবং ভিয়েৎনামের) লোকেদের সঙ্গে তুলনা করতে পারি – যারা যীশুর অন্বেষণ এবং তাঁর আরাধনা করার জন্য মহা বিতর্কের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন| আমি প্রচার করতে পারি যে আমেরিকাবাসী, এবং পাশ্চাত্যের অধিবাসীদের, দেশের প্রতি কোনায় কোনায় মন্ডলী আছে, কিন্তু তবুও তারা তাদের নাক ঘুরিয়ে নিয়ে চলে যায়| খ্রীষ্টের জন্মদিনের সময়ে এটা খুব স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হচ্ছে|

আমাদের লোক ছিল এবং আছে যারা বাস্তবে আমাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে, এবং যুবকদের খ্রীষ্টের জন্মদিনের পূর্বাহ্নে এবং নতুন বছরের পূর্বাহ্নে মন্ডলীতে থাকার কথা বলার জন্য, তারা আমার বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর সব কথা বলে! একজন মহিলা তার পুত্রকে মন্ডলী থেকে বের করে নিয়ে যাওয়ার জন্য সব কিছু করেছিলেন| যখন সে মন্ডলী ছেড়ে দিল তখন সে এক দূর্বৃত্তদের দলে চলে গিয়েছিল এবং খুন হয়েছিল| তখন সেই মহিলাই, যিনি তাকে মন্ডলী থেকে বের করে নিয়ে গিয়েছিলেন, কাঁদতে কাঁদতে আমার কাছে এসেছিলেন ছেলের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পাদন করার জন্য – যখন তাকে উদ্ধার করার পক্ষে খুব দেরী হয়ে গিয়েছিল! নিঃসন্দেহে, আমি তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পাদন করেছিলাম, কিন্তু খুব দেরী হয়ে গেছিল তার পুত্রকে রক্ষা করতে! এই সমস্ত লোকেরা কি বোকা! এরা তাদের সন্তানদের যীশুর জন্মদিনের পূর্বাহ্নে এবং নতুন বছরের পূর্বাহ্নে মন্ডলীতে উপস্থিত থাকার বদলে বরং কোন ঈশ্বরবিহীন দলে যোগ দেওয়া পছন্দ করে| শেক্সপীয়রের “এ মিডসামার নাইটস ড্রিম” নামক একটি উত্তরায়নান্ত বা ২৪শে জুনের রাত্রির নাটকে “পাক” বা দুষ্টভূত বলছে, “কত বোকা হয় এই মরণশীল ব্যক্তিরা!” কতটা দুঃখজনকভাবে সত্য! তারা শাস্ত্রবেত্তাদের মতন অন্ধ – আর তাদের মধ্যে কেউ কেউ বৃদ্ধ রাজা হেরোদের মতন পাজি! আপনাকে যেন কেউ বড়দিনের পূর্বাহ্নে অথবা নতুন বছরের প্রাক্কালে মন্ডলী থেকে বাইরে না নিয়ে যায়! তাদের কাউকে আপনাকে মন্ডলী থেকে টেনে বাইরে বের করে, কোন সুরাপানকারী দলে অথবা কোন জাগতিক কর্মসূচীতে নিয়ে যেতে দেবেন না! তাদের কাউকে আপনার প্রতি এটা করতে দেবেন না! তাদের কাউকে আপনার প্রতি এটা করতে দেবেন না! জ্ঞানী ব্যক্তিদের মতন দাঁড়ান এবং দৃঢ় থাকুন! পাপপূর্ণ বৃদ্ধ হেরোদ এবং অবিশ্বাসী শাস্ত্রবেত্তাদের মতন মন্ডলীতে অনুপস্থিত থাকবেন না! বাইবেল বলে,

“অতএব তোমরা তাহাদের মধ্য হইতে বাহির হইয়া আইস, ও পৃথক হও, ইহা প্রভু কহিতেছেন…তাহাতে আমিই তোমাদিগকে গ্রহণ করিব, এবং তোমাদিগের পিতা হইব, এবং তোমরা আমার পুত্র এবং কন্যা হইবে, ইহা সর্বশক্তিমান প্রভু কহেন (২য় করিন্থীয় ৬:১৭, ১৮)|

“ঐ সমস্ত লোক হইতে বাহির হইয়া আসুন” এবং বড়দিনের পূর্বাহ্নে এবং নতুন বছরের পূর্বাহ্নে ঈশ্বরের লোকেদের সঙ্গে থাকুন! খ্রীষ্ট আরাধনাকারী, খ্রীষ্ট বিশ্বাসকারীদের সঙ্গে থাকুন – পৌত্তলিক জাগতিক রোমীয় সাটার্ণ দেবতার উৎসবে নয়, বিয়ার পানকারী গুপ্ত ধর্মানুষ্ঠানে, অথবা খ্রীষ্টবিহীন মদ্যপানোৎসবের সঙ্গে নয়! এর সঙ্গে থাকুন! আসুন এবং নতুন বছরের পূর্বাহ্নে এবং বড়দিনের পূর্বাহ্নে খ্রীষ্টের আরাধনা করুন! আসুন, জ্ঞানীব্যক্তিদের মতন, এবং শুধু খ্রীষ্টকে আরাধনা করুন!

এস, পূজি তাঁহারে,
   এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে,
   খ্রীষ্টেরে|

উঠে দাঁড়ান এবং আমার সঙ্গে এই গান করুন!

এস, পূজি তাঁহারে,
   এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে,
   খ্রীষ্টেরে|
(“O Come, All Ye Faithful,” translated by Frederick Oakeley, 1802-1880)|

আমেন! আপনারা বসতে পারেন|

কিন্তু ঐ সমস্ত মূল বিষয়ের উপর ধর্ম্মোপদেশ প্রচার করার পরিবর্তে, আমি আমাদের পাঠ্যাংশ মথি ২:১১ পদের উপর বক্তব্য রাখব,

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, ও ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাহাকে প্রণাম করিলেন: এবং আপনাদের ধনকোষ খুলিয়া, তাঁহাকে স্বর্ণ, কুন্দুরু, ও গন্ধরস; উপহার দিলেন” (মথি ২:১১)|

১| প্রথম, তারা গৃহের মধ্যে এসেছিলেন |

পাঠ্যাংশ বলে, “যখন তাহারা গৃহের মধ্যে আসিলেন|” “কিন্তু,” আপনি হয়ত বলবেন, “খ্রীষ্ট কী গোশালায় জন্ম গ্রহণ করেন নাই এবং যাবপাত্রে কী শোয়ানো ছিলেন না?” হ্যাঁ, তিনি ছিলেন| লূকের সুসমাচার বলে,

“আর তিনি আপনার প্রথমজাত পুত্র প্রসব করিলেন, এবং তাঁহাকে কাপড়ে জড়াইয়া [কাপড়ের লম্বা ফালিতে জড়াইয়া], যাবপাত্রে শোয়াইয়া রাখিলেন; কারণ পান্থশালায় তাঁহাদের জন্য স্থান ছিল না” (লূক ২:৭)|

কিন্তু জ্ঞানী ব্যক্তিরা কোন গোশালায় আসেননি এবং যাবপাত্রে শিশু যীশুকে দেখেননি| না, তারা “গৃহমধ্যে আসিয়াছিলেন” (মথি ২:১১)| মেষপালকেরা যে সময়ে এসেছিলেন জ্ঞানী ব্যক্তিরা সেই সময়ে আসেননি| মেষপালকেরা শিশু যীশুকে দেখেছিলেন সেই গোশালায়, একটি যাবপাত্র বা পশুদের এক খাদ্যপাত্রের ভিতরে, যার মধ্যে পশুদের খাবারের জন্য খড় রাখা হত| সেই মেষপালকেরা যীশু জন্মগ্রহণ করার অল্প সময় পরেই এসেছিলেন| কিন্তু জ্ঞানী ব্যক্তিরা অনেক পরে এসেছিলেন| তারা এসেছিলেন যখন মরিয়ম ও যোষেফ এবং শিশু যীশু একটি ছোট ঘরে চলে গিয়েছিলেন, কারণ তখন সব ঘরগুলিই খুব ছোট ছিল| কিন্তু এখন তাঁরা একটি গৃহে ছিলেন|

ড: ম্যাকগী বলেছিলেন সম্ভবত এটা হতে পারে যে তাঁর জন্মের কয়েক মাস পরে জ্ঞানী ব্যক্তিরা তাঁর কাছে এসেছিলেন এবং উপহার এনেছিলেন| আপনি লক্ষ্য করুন, তারা সম্ভবত খ্রীষ্টের জন্মের সময়ই সেই নক্ষত্রটি দেখেছিলেন| সেইসময় তারা সিদ্ধান্ত নেন যে তাঁর কাছে আসবেন, এবং তাদের বেশ কয়েকমাস সময় লেগেছিল সেখানে তাঁর কাছে পৌঁছাতে| এই ব্যাখ্যা সমর্থিত হচ্ছে সেই প্রকৃত ঘটনার দ্বারা যে ইতিমধ্যেই যীশুর ত্বকচ্ছেদ হয়ে গিয়েছিল, এবং মন্দিরে একজোড়া ঘুঘু উৎসর্গ করা হয়েছিল (লূক ২:২৪)| মন্দিরে মেষশাবক উৎসর্গ না করার এই প্রকৃত ঘটনা থেকে বোঝা যায় যে তাঁরা খুব গরীব ছিলেন| যদি জ্ঞানী ব্যক্তিরা ইতিমধ্যেই, তাঁদের মূল্যবান উপহার সঙ্গে নিয়ে, এসে যেতেন তবে তাঁরা মেষশাবক উৎসর্গ করতে পারতেন| এই ঘটনাগুলি দেখায় যে জ্ঞানী ব্যক্তিরা যীশু জন্মগ্রহণ করার বেশ কয়েক মাস পরে এসেছিলেন|

আপনাকে আমার বলা উচিৎ যে সেই নক্ষত্র ছিল এক অতিপ্রাকৃত “নোভা,” যার পরিচয়ে অভিধান বলছে “একটি নক্ষত্র যাহা নিজস্ব ঔজ্জ্বল্য সহসা অতিমাত্রায় বৃদ্ধি করে এবং ইহার পর কয়েক মাসের মধ্যেই ঔজ্জল্য হারাইয়া পূর্বকালীন অস্পষ্ট অবস্থায় ফিরিয়া যায়” (মেরিয়াম-ওয়েবস্টার ডিকশ্নারী)| তারা এই নক্ষত্রটিকে আকাশের পূর্বদিকে দেখেছিল| তারপর মনে হয় এটা অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিল| কিন্তু যখন জ্ঞানী ব্যক্তিরা যিরুশালেমে পৌঁছেছিলেন, তখন নক্ষত্রটি আবার প্রকাশিত হয়েছিল| যখন তারা সেই নক্ষত্রটিকে আবার দেখলেন “তাহারা মহানন্দে অতিশয় আনন্দিত হইলেন” (মথি ২:১০)| কিন্তু সেটা কোন সাধারন নক্ষত্র ছিল না| সেটা চলছিল “শেষে যেস্থানে শিশুটি ছিলেন তাহার উপরে আসিয়া স্থগিত হইয়া রহিল” (মথি ২:৯)| কিছু টীকা লেখক একে তুলনা করেছেন পুরানো নিয়মের “সখিনা” আলোর সঙ্গে, এবং সেই অগ্নিস্তম্ভের সঙ্গে যা ইস্রায়েল সন্তানদের রাত্রে প্রান্তরে পরিচালনা করত, যা “তাহাদের অগ্রে অগ্রে চলিত… পথ দেখাইবার জন্য…রাত্রে অগ্নিস্তম্ভে থাকিয়া” (যাত্রাপুস্তক ১৩:২১)|

জ্ঞানী ব্যক্তিরা অনেক দূর থেকে এসেছিলেন| তারা বিস্তর মাত্রায় উৎসর্গ করেছিলেন এবং বহু ক্লান্তিভার ও কষ্টের মধ্যে দিয়ে তারা বেৎলেহেমের ছোট ঘরে যীশুর কাছে এসেছিলেন| আসুন আমরা প্রত্যেকে তাদের উদাহরন অনুসরন করি এবং জাগতিক রঙ্গরস অথবা কোন ঘটনার পিছনে দৌড়ানোর পরিবর্তে – বড়দিনের পূর্বাহ্নে মন্ডলীতে সামিল হই! সেই সমবেত সঙ্গীতটি আবার করুন! উঠে দাঁড়ান এবং সেটা গান|

এস, পূজি তাঁহারে,
   এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে,
   খ্রীষ্টেরে|

২| দ্বিতীয়, তারা ভূমিষ্ঠ হলেন এবং তাঁর আরাধনা করলেন |

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, এবং ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাঁহাকে প্রণাম করিলেন…” (মথি ২:১১)|

তথাকথিত কিছু অবিশ্বাসী “পন্ডিতগণ” এবং ভক্তিবিশ্বাসী বলেছেন যে যীশুর আরাধনা করাটা ভুল| তারা বলেন আমাদের উচিৎ শুধুমাত্র ঈশ্বরের আরাধনা করা| তাদের এই মনোভাব দেখায় যে তারা বাইবেল সম্বন্ধে অজ্ঞ ছিলেন, কারণ যীশু হলেন ঈশ্বরের মূর্ত – ঈশ্বর মানবদেহে আবির্ভূত! যোহন প্রথম অধ্যায়ে প্রেরিত যোহন যীশুকে “বাক্য” বলে অভিহিত করেছেন| আর প্রেরিতরা বলেছেন,

“আর সেই বাক্য মাংসে মূর্ত্তিমান হইলেন, এবং আমাদিগের মধ্যে প্রবাস করিলেন, (আর আমরা তাঁহার মহিমা দেখিলাম, যেন পিতা হইতে আগত একজাতের মহিমা,) তিনি অনুগ্রহে ও সত্যে পূর্ণ” (যোহন ১:১৪)|

চার্লস ওয়েস্‌লী, মহান যীশুর জন্ম উৎসবের উদ্দেশ্যে, তার গানে বলেছেন,

নিতে পাপ ও দুঃখের ভার,
   হইলেন তিনি নরাকার,
মর্ত্যলোকে মর্ত্য সাথ,
   প্রবাস করিলেন, যীশুনাথ|
শুন! স্বর্গদূতের রব,
   “নবজাত রাজার স্তব|”
(“Hark, the Herald Angels Sing” by Charles Wesley, 1707-1788)|

এরপর, লক্ষ্য করুন যে জ্ঞানী ব্যক্তিরা “শিশুটিকে তাঁহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, এবং ভূমিষ্ট হইয়া, তাঁহাকে প্রণাম করিলেন” (মথি ২:১১)| ডঃ জে. ভারন্‌ন ম্যাকগী বলেছিলেন, “যদি সেখানে কোন সময় থাকিত তাহা হইলে হয়ত মরিয়মও সেইস্থানে পূজিত হইতেন, ইহাই ছিল রীতি| কিন্তু তাহারা তাহাকে অর্থাৎ মরিয়মকে আরাধনা করেন নাই – তাহারা ছিলেন জ্ঞানী ব্যক্তি! তাহারা তাঁহাকে আরাধনা করেন…” (ibid.; মথি ২:১১ পদের টীকা)| বাইবেল কখনও আমাদের কুমারী মরিয়মকে আরাধনা করতে বলছে না, বা তার কাছে প্রার্থনা করতে বলেনা! তিনি অবশ্যই সম্মানিত হবেন যীশুর মা হিসাবে, কিন্তু আমরা কখনও তার আরাধনা করব না, অথবা তার কাছে প্রার্থনা করব না|

এস, পূজি তাঁহারে,
   এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে,
   খ্রীষ্টেরে|

যখন শিষ্যেরা গালীলে পুনঃরুত্থিত খ্রীষ্টকে দেখেছিলেন তখন আমাদের বলা হয়েছিল,

“আর তাহারা তাঁহাকে দেখিয়া, প্রণাম করিল…” (মথি ২৮:১৭; লূক ২৪:৫২)|

আমেন! আসুন আমরা সকলে বড়দিনের পূর্বাহ্নে মন্ডলীতে তাঁহার আরাধনা করি, কারণ তিনিই একমাত্র বড়দিনে, এবং সারা বছর ধরে আমাদের আরাধনা পাওয়ার যোগ্য!

৩| তৃতীয়, তারা উপহারসহ তাঁর কাছে উপস্থিত হয়েছিলেন |

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, ও ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাঁহাকে প্রণাম করিলেন: এবং আপনাদের ধনকোষ খুলিয়া, স্বর্ণ, কুন্দুরু, ও গন্ধরস; তাঁহাকে উপহার দিলেন” (মথি ২: ১১)|

“তাহারা তাঁহাকে উপহার দিলেন…” ডঃ জন্‌ আর. রাইস্‌ বলেছেন,

তাহারা ভূমিষ্ঠ হইয়া তাঁহাকে প্রণাম করিয়াছিলেন! তারপর তাহারা আনন্দের অশ্রুতে, এবং কম্পান্বিত ওষ্ঠে, এবং আনন্দসহ দ্রুতগামী ধমনীর স্পন্দনে, তাহাদের নিস্তেজ অঙ্গূলীগুলির দ্বারা ক্ষুদ্র বাক্সখানির তালা খুলিয়া ফেলিয়াছিলেন, অথবা সেই রজ্জুটি খুলিয়াছিলেন যাহার দ্বারা তাহাদের ধনকোষ আবদ্ধ করা ছিল এবং, তাহা খুলিয়া, তাহাদের নিকটে রক্ষিত সর্বাপেক্ষা মূল্যবান বস্তু যাহা ছিল তাহা যীশু খ্রীষ্টকে অর্পণ করিলেন! (John R. Rice, D.D., “Gifts of the Wise Men,” I Love Christmas, Sword of the Lord Publishers, 1955, p. 47)|

এরপর ডঃ রাইস্‌ বলেছেন,

তাহারা তাহাদের ধনকোষ খুলিয়াছিলেন এবং প্রভু যীশুকে অর্পণ করিয়াছিলেন| এবং আজ আমি আপনাদের নিকট মিনতি করিতেছি…আপনারা যীশু খ্রীষ্টকে আপনাদের হৃদয়ের গোপন অন্তঃস্থলে লইয়া যান, আপনাদের ধনকোষকে অনাবৃত করুন, এবং সর্বাপেক্ষা পছন্দসই ও সর্বাপেক্ষা উত্তম বস্তুটি তাঁহাকে অর্পণ করুন, হ্যাঁ, তাঁহাকে সর্বস্ব অর্পণ করুন, এবং আনন্দ করুন এইজন্য যে সেগুলি গ্রহণ করিয়া তিনি প্রসন্ন [অধীনস্থ ব্যক্তির প্রতি সদয়] হইবেন (ibid., p. 48)|

আমি সবসময়ে ভালবাসি ফ্রানসিস্‌ হেভারগেল এর পুরনো গানটি, “Take My Life, and Let it Be,”

প্রভু, লহ আমার, এ জীবন, তোমায়, করি সমর্পণ;
আমার হস্ত পদদ্বয়, গ্রহণ কর দয়াময়
প্রিয়কার্য্যে তা রত থাকুক সর্বদা, প্রিয়কার্য্যে তা রত থাকুক সর্বদা|

লহ মম কন্ঠস্বর গাহি স্তুতি নিরস্তর লহ ওষ্ঠ রসনা করি মুক্তি ঘোষনা,
স্বর্ণ রৌপ্য নিঃশেষে সঁপি তোমার উদ্দেশ্যে,
বল ও বুদ্ধি যা আমার, কর তুমি ব্যবহার|

প্রতিভক্তি সমুদয়, আমার ঈশ্বর, অর্পণ করি তব পদে,
মম দেহ আত্মা প্রাণ গ্রহণ কর দয়াময়
গ্রহণ কর দয়াময়, গ্রহণ কর দয়াময়|
   (“Take My Life, and Let it Be” by Frances R. Havergal, 1836-1879)|

সবই যীশুর জন্য! সবই যীশুর জন্য!
   আমার সমস্ত শক্তির স্বত্ত্ব মুক্তিপণ;
সবই যীশুর জন্য! সবই যীশুর জন্য!
   আমার সমস্ত দিন এবং আমার সমস্ত দন্ড|
(“All For Jesus” by Mary D. James, 1810-1883)|

যদি এই গানগুলি কোনভাবে কোন অর্থ বোঝায়, তা নিশ্চয়ই আমাদের শিক্ষা দেয় যে আমরা যেন মন্ডলীতে থাকি, এবং জাগতিক রঙ্গশালায় না গিয়ে – বরং বড়দিনের প্রাক্কালে যীশুর আরাধনা করি!

যখন জ্ঞানী ব্যক্তিরা প্রভু যীশুকে প্রণাম করেছিলেন, তখন তারা তাঁকে স্বর্ণ, এবং কুন্দুরু, এবং গন্ধরস দিয়েছিলেন| ঐগুলি ছিল খুবই মূল্যবান উপহার, জ্ঞানী ব্যক্তিদের কাছে যা যা ছিল তার মধ্যে সবচাইতে শ্রেষ্ঠ| স্বর্ণ হল রাজার প্রতি অধীনতার নিদর্শন স্বরূপ| গন্ধরস ছিল মূল্যবান ধুনো| মন্ডলীর পিতা ওরিজিন (১৮৫-২৫৪) বলেছেন যে সেটা ছিল এক ঐশ্বরিক গন্ধরস| ওরিজিন কোন কোন বিষয়ে ঠিক বলেননি, কিন্তু এই গন্ধরসের বিষয়ে তিনি সঠিক বলেছিলেন| গন্ধরস তাঁর মানবরূপ ঈশ্বরের কথা বলে| অগুরু হল এক ধরনের মশলা যা যিহুদীরা ব্যবহার করত মৃতদেহ কবর দেওয়ার সময়ে| যোহন ১৯:৩৯ পদে আমাদের বলা হয়েছে যে নিকোদিমাস অগুরু নিয়ে এসেছিলেন এবং যীশুর মৃতদেহের উপর রেখেছিলেন, “যিহুদীদের কবর দেওয়ার রীতি অনুযায়ী|” স্বর্ণ রাজার জন্য| গন্ধরস মানবরূপী ঈশ্বরের জন্য| অগুরু তাঁর জন্য যিনি দুঃখভোগ করবেন এবং আমাদের পাপের দেনা শোধ করার জন্য যিনি ক্রুশের উপর মৃত্যুবরণ করবেন| অনুগ্রহ করে উঠে দাঁড়ান এবং আপনার গানের পাতার পাঁচ নম্বর গানটি করুন,

এস, ভক্তবৃন্দ, কর জয়ধ্বনি,
   এস হে সবে, যাই বেৎলেহেমে!
এস হেরি তায়, জাত দূত রাজায়;
   এস, পূজি তাঁহারে, এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে, খ্রীষ্টেরে|

গাও, হে স্বর্গদূতগণ, মহানন্দে গাও হে!
   গাও, সবে উর্দ্ধে স্বর্গবাসীগণ;
ঈশ্বরের গৌরব, সর্ব্বোপরি স্বর্গে;
   এস, পূজি তাঁহারে, এস, পূজি তাঁহারে,
এস, পূজি তাঁহারে, খ্রীষ্টেরে|

হে, প্রভু, প্রণাম তোমায়, ‌হইলে ভবে জাত,
   যীশু, চিরদিন তোমার গৌরব হোক;
পিতার যে বাক্য, মাংসে হন প্রত্যক্ষ,
   এস, পূজি তাঁহারে, এস, পূজি তাঁহারে,
এস পূজি তাঁহারে, খ্রীষ্টেরে|
    (“O Come, All Ye Faithful,” translated by Frederick Oakeley, 1802-1880)|

এবং আপনি যদি এখনও পরিত্রাণ না পেয়ে থাকেন, তাঁর কাছে আসুন! তাঁকে বিশ্বাস করুন এবং তিনি আপনার সব পাপ ক্ষমা করবেন, আর তাঁর বহুমূল্য রক্তের সাহায্যে আপনাকে ধৌত ও শুচি করবেন! আমেন| ডঃ চ্যান, অনুগ্রহ করে আমাদের প্রার্থনায় পরিচালনা করুন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রধুম্মে: মথি ২:১-১০ |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“We Three Kings” (by John H. Hopkins, Jr., 1820-1891) |


খসড়া চিত্র

জ্ঞানী ব্যক্তিদের উপহার

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জুনিয়র।

“পরে তাহারা গৃহমধ্যে গিয়া, শিশুটিকে তাহার মাতা মরিয়মের সহিত দেখিতে পাইলেন, ও ভূমিষ্ঠ হইয়া, তাহাকে প্রণাম করিলেন: এবং আপনাদের ধনকোষ খুলিয়া, তাঁহাকে স্বর্ণ, কুন্দুরু, ও গন্ধরস; উপহার দিলেন” (মথি ২:১১)|

(দানিয়েল ২:২৭; মথি ২:৯, ২; ২য় করিন্থীয় ৬:১৭, ১৮)

১| প্রথম, তারা গৃহের মধ্যে এসেছিলেন, লূক ২:৭,২৪; মথি ২:১০,৯; যাত্রাপুস্তক ১৩:২১ |

২| দ্বিতীয়, তারা ভুমিষ্ঠ হলেন এবং তাঁর আরাধনা করলেন, যোহন ১:১৪; মথি ২৮:১৭;
লূক ২৪:৫২ |

৩| তৃতীয়, তারা উপহারসহ তাঁর কাছে উপস্থিত হয়েছিলেন, যোহন ১৯:৩৯ |