Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 38টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




একাকীত্বের শৃঙ্খলগুলি ভেঙ্গে ফেলুন

BREAKING THE CHAINS OF LONELINESS
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জে আর।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৪ সালের, ১৩ই জুলাই, সকালবেলা সদাপ্রভুর দিনে লস্ এঞ্জেলসের
ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাকলে একটি সংবাদ প্রচারিত হয়েছিল
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord's Day Morning, July 13, 2014

“ধিক্ তাহাকে যে একাকী” (উপদেশক ৪:১০)|


লস্ এঞ্জেলসের মানসিক রোগের চিকিৎসক, ডাঃ লিওনার্ড গুনিন, এর মতে মানবজাতির সবথেকে বড় সমস্যা হল একাকীত্ব| মনোরোগ বিশেষজ্ঞ এরিক ফ্রোম্ বলেন, “মানুষের গভীরতম প্রয়োজন হল তার সংযোগচ্যুতি থেকে নিষ্কৃতির প্রয়োজন, এবং তার কারাগারের নিঃসঙ্গতা পরিত্যাগ করা|” বাইবেল বলে, “মনুষ্যের একাকী থাকা ভাল নয়” (আদিপুস্তক ২:১৮)| ইংরাজী কবি জন্ মিলটন আমাদের স্মরণ করিয়ে দেন যে একাকীত্বের এই বিষয়ে ঈশ্বর প্রথমেই বলেছিলেন যে এটা ভাল নয়|

বড় শহর লস্ এঞ্জেলসের মতো ভীষন নিঃসঙ্গতা আর অন্য কোন জায়্গায় নাই| হারবার্ট প্রোচনাউ বলেন, “বৃহৎ জনগোষ্ঠী সম্বলিত একটি শহর হল যেখানে লোকেরা একত্রে নিঃসঙ্গ বোধ করে|” মাদার টেরেজা, যিনি ভারতবর্ষের কলকাতা শহরের একটি বস্তিতে বাস করতেন, তিনি বলেছিলেন, “একাকীত্ব হল ভয়ঙ্কর ধরনের এক দরিদ্রতা|” যদি তা সত্যি হয়, তবে আমেরিকানরা পৃথিবীর ধনী লোকেদের মধ্যে অন্যতম! লস্ এঞ্জেলসের লক্ষাধিক লোক একাকী| এই বিষয়ে আপনার ধারনা কি? আপনি কী কখনো অনুভব করেছেন যে প্রকৃতভাবে কেউ আপনার যত্ন নেয় না – প্রকৃতভাবে কেউ আপনাকে বোঝেনা, অথবা আপনার প্রতি কেউ সহানুভূতি দেখায় না?

আমি বিশ্বাস করি, ডাঃ জুনিন এবং ডাঃ ফ্রোম, সেইসব মনোরোগের চিকিৎসকেরা সঠিক| আমি মনে করি বর্তমানে মানুষ একাকীত্বের মতো গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার সম্মুখীন হয় – বিশেষতঃ লস্ এঞ্জেলসে – এবং সমগ্র পৃথিবীতে| আজ সকালে আপনাদের মধ্যে অনেকেই একাকীত্বের শৃঙ্খলে আবদ্ধ! আর আমি এই ধর্ম্মোপদেশে একাকীত্ব বিষয়েই আলোচনা করব|

১. প্রথম, আমাদের জাতির ও আমাদের সংস্কৃতির একাকীত্ব নিয়ে চিন্তা করুন |

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির এত উন্নতি সত্ত্বেও, বিগত প্রজনন থেকে বর্তমানে আমরা অনেক বেশি নিঃসঙ্গ| কল্পবিজ্ঞানের লেখক এইচ. জি. ওয়েলস্ তার ৬৫তম জন্মদিনে বলেন, “আমি নিঃসঙ্গ, ও কখনো শান্তি খুঁজে পাইনি|” সেই দুঃখিত ও নিঃসঙ্গ বৃদ্ধ ছিলেন নাস্তিক এবং খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের শত্রু|

আমাদের নিঃসঙ্গতার পেছনে অনেকটাই রয়েছে প্রযুক্তি| উদাহরন স্বরূপ ধরুন, দূরদর্শন| সংবাদপত্রের বিভাগীয় লেখক আন্না ল্যান্ডারস বলেন, “দূরদর্শন প্রমাণ করেছে যে লোকেরা একে অপরকে দেখার চাইতে এতে যা কিছু দেখায় তাই দেখে|” লোকেরা ঘন্টার পর ঘন্টা দূরদর্শন চালিয়ে রাখে, অথবা ঘন্টাধিক ধরে ভিডিও গেম খেলে| আমরা আর একই পরিবারের মতন বা বন্ধুদের মতন একসঙ্গে বসে খাবার খাই না| আমরা প্রায় ভুলেই গেছি যে কিভাবে কথোপকথন করতে হয়| আমরা অত্যন্ত ব্যস্ত দূরদর্শন দেখতে অথবা আইপ্যাডে একে অপরের সঙ্গে - অর্থপূর্ণ স্তরে কথা বলতে!

লোকেরা তারযুক্ত ছিপি কানে গোঁজে এবং তাদের মস্তিষ্কে পাম্প করে সঙ্গীত পাঠায়| তারা একটা গাড়ীর মধ্যে নিজেদের বন্ধ করে| প্রতিটি গাড়ীতে একজন করে| তারা “চালু করে” নিজেদের কম্পিউটার - একাকী|

দূরদর্শন, গাড়ী, কম্পুউটার, ক্যাসেট - এই সব প্রযুক্তির – কোনটাই আমাদের সুখী করে না| এরা আমাদের আরও নিঃসঙ্গ করেছে| আলবার্ট আইনস্টাইন বলেছেন, “আমাদের প্রযুক্তি সুস্পষ্টভাবে আমাদের মনুষ্যত্বকে অতিমাত্রায় ছাড়িয়ে গিয়েছে|” আজকের দিনে ভিডিও খেলা বহু যুবকের জীবনে নিসঃঙ্গতার মন্দতাকে উৎপন্ন করেছে!

বাইবেল বলছে, “ধিক্ তাহাকে যে একাকী কেননা সে পড়িলে তাহাকে তুলিতে পারে: এমন দোসর আর কেহই নাই” (উপদেশক ৪:১০)| আর আমি বিশ্বাস করি যে এটাই প্রধান কারন যে বহু যুবক মাদকদ্রব্যের প্রতি আসক্ত হচ্ছেন| তারা একাকী| অন্যেরা দূর্বৃত্ত দলের প্রতি আসক্ত হন – যেখানে তারা সঙ্গীর অণ্বেষন করেন যা তারা অনুভব করেন না পরিবারে উপেক্ষিত থাকাকালীন| অন্যেরা একাকীত্বকে অতিক্রম করার অণ্বেষনে - শুক্রবার ও শনিবার পার্টিতে যান| যে কোন ভাবেই হোক তা কার্যকরী হয় না| দুর্বৃত্ত দল একত্রিত থাকে না| পার্টি শেষ হয়ে যায় – আর আপনি বাড়ি যান – এবং আবার একাকী হন|

লোকেদের মধ্যে স্থায়ী সম্পর্ক স্থাপনে স্বার্থপরতা বাধা হয়ে দাঁড়ায়| বাইবেল বলে:

“শেষকালে বিষম সময় উপস্থিত হইবে| কেননা মনুষ্যেরা আত্মপ্রিয়, অর্থপ্রিয়…স্নেহরহিত, ক্ষমাহীন…বিশ্বাসঘাতক…ঈশ্বরপ্রিয়র চাইতেও বিলাসপ্রিয়” (২য় তীমথিয় ৩:১-৪)।

শাস্ত্রের এই অংশ আমাদের একাকীত্বের সময়ের বিষয়ে ভাববাণী করেছেন – এবং ব্যাখ্যা করেছেন কেন বহু লোক একাকী|

“তাহারা আত্মপ্রিয়|” আপনি নিজেকে অন্যের প্রতি আবদ্ধ করতে পারেন না যদি আপনার প্রেম আপনার প্রতি সর্বোচ্চ না হয়| “ঈশ্বরপ্রিয় নয় বরং বিলাসপ্রিয় হইবে|” এর সম্মুখীন হন! অনেকেই স্বার্থপর আর বিলাসপ্রিয় হন এবং ঈশ্বরপ্রিয় হন না! আপনি কি সেইরকম? অন্তর থেকে আপনি কি স্বার্থপর? স্বার্থপরতা হলো পাপের অপরিহার্য বৈশিষ্ট্য – আপনি নিজেকে প্রেম করছেন, কিন্তু ঈশ্বরকে নয়| আপনার আত্মপ্রিয়্তার দ্বারা, আপনি ঈশ্বরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করছেন| আপনার চিন্তার থেকে আপনি ঈশ্বরকে ধাক্কা মেরে বের করে দিয়েছেন| এবং ফলস্বরূপ আপনি একাকীত্বে অভিশপ্ত হয়েছেন| আপনি হয়তো কখনো জানবেন না যে ঈশ্বরের প্রেম কি জিনিষ| আপনি হয়তো পৄথিবীতে স্থায়ী বন্ধু ছাড়াই এগিয়ে যাচ্ছেন| বাইবেল বলে, “যাহার অনেক বন্ধু, তাহার সর্বনাশ হয়” (হিতোপদেশ ১৮:২৪)| যদি আপনি বন্ধু তুল্য না হন, তবে আপনার কোন প্রকৃত বন্ধু হবে না| আমাদের সময়ে ঈশ্বরবিহীন লোকের, হারানোর ও নিঃসঙ্গতার সেটাই প্রতিশ্রুতি|

সেই কারনেই আপনার দরকার আপনার কাজের সময়কে নির্ধারন করা যেন আপনাকে মন্ডলীতে যোগদানের সময়ে কাজ না করতে হয়| আপনার প্রয়োজন ঈশ্বরকে! রবিবার দিনে কাজ করে আপনি য্ত টাকাই উপার্জন করুন না কেন তার চেয়েও বেশি প্রয়োজন হল বন্ধুদের নিয়ে আপনার মন্ডলীতে যাওয়া|

একমাত্র খ্রীষ্ট এবং স্থানীয় মন্ডলী ছাড়া অন্য কিছুই আপনাকে নিঃসঙ্গতা থেকে আরোগ্য দিতে পারে না! আপনি অবশ্যই যীশুর কাছে সমর্পিত হন, এবং তাঁর রক্তে সমস্ত পাপ থেকে ধৌত হন! তারপর আপনি স্থানীয় মন্ডলীতে আসুন এবং স্থায়ী বন্ধুত্ব স্থাপন করুন! কেন একাকী হবেন? আপন গৃহে আসুন - মন্ডলীতে!

পূর্বকালীন খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের বিষয়ে বাইবেল আমাদের বলে:

“আর তাহারা, প্রতিদিন একচিত্তে ধর্ম্মধামে নিবিষ্ট থাকিয়া, এবং বাটীতে রুটি ভাঙ্গিয়া, উল্লাসে ও হৃদয়ের সরলতায় খাদ্য [মাংস] গ্রহণ করিত, তাহারা ঈশ্বরের প্রশংসা করিত, এবং সমস্ত লোকের প্রীতির পাত্র হইল| আর যাহারা পরিত্রাণ পাইতেছিল প্রভু দিন দিন তাহাদিগকে তাহাদের সহিত সংযুক্ত করিতেন” (প্রেরিত ২:৪৬-৪৭)।

সেই কারনে মন্ডলীতে থাকার জন্য তারা “হৃদয় আনন্দপূর্ণ” করে রাখতেন – নিজেদের একাকীত্ব থেকে দূরে থাকতেন| তারা সবসময়ে মন্ডলীতে থাকতেন এবং মন্ডলীর দরজা তাদের জন্য খোলা থাকতো| তাদের আদর্শ অনুসরন করুন! পরের রবিবার এখানে আসুন! আমাদের মন্ডলীর পূর্ণ সহভাগীতায় যোগ দিন! এটি আপনাকে নিঃসঙ্গতা থেকে সুস্থ করবে! খ্রীষ্ট একাকীত্বের শৃঙ্খলকে বিদীর্ণ করবেন! এই মন্ডলীতে আসুন এবং আপনার হৃদয়কে খ্রীষ্টের কাছে সমর্পণ করুন!

২. দ্বিতীয়ত, মৃত্যুর একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন |

বাইবেল আমাদের বলে যে যাকোব বলেছেন:

“আমার পুত্র তোমাদের সঙ্গে যাইবে না [মিশরে]; কেননা তাহার সহোদর মারা গিয়াছে, আর সে একা রহিয়াছে…” (আদিপুস্তক ৪২:৩৮)।

কোন একদিন আপনার আত্মীয় মারা যাবেন – আর আপনি একাকী পড়ে থাকবেন|

মৃত্যু এক ভয়ঙ্কর বিষয় – আর এটা আপনি সহ - প্রত্যেককে আঘাত করে| আর মৃত্যু আপনাকে গভীর একাকীত্ব ও বিষন্নতার মধ্যে ছেড়ে যেতে পারে| আপনাকে হয়তো অভ্যর্থনা জানানো হবে সেই জায়্গায় যেখানে আপনি বলবেন,

“আমি সজাগ থাকি, এবং এমন হইয়াছি যেন চটক ছাদের উপরে একাকী রহিয়াছে” (গীতসংহিতা ১০২:৭)।

আপনি মনে করতে পারেন যে পাখির মতন আপনিও একাকী – একা বাড়ির ছাদের উপরে – একাকী, ফিরিয়ে আনার সঙ্গী কেউ নাই!

পিতর যখন কারাগারে বন্দী ছিলেন তখন ঈশ্বর তাকে মুক্ত করার জন্য এক স্বর্গদূতকে পাঠিয়েছিলেন| স্বর্গদূত বললেন, “শীঘ্র উঠ| তখন তাহার দুইহস্ত হইতে শৃঙ্খল পড়িয়া গেল” (প্রেরিত ১২:৭)| যখন আপনি যীশুর কাছে এসে মন পরিবর্তন করবেন তখন আপনার জীবনেও অনুরূপ ঘটনা ঘটবে| মৃত্যু বন্ধনের শৃঙ্খল খসে পড়বে - এবং আপনি মুক্ত হবেন| খ্রীষ্ট এসেছেন

“…যেন মৃত্যুর দ্বারা, মৃত্যু কর্ত্তৃত্ববিশিষ্ট ব্যক্তিকে, অর্থাৎ দিয়াবলকে শক্তিহীন করেন; এবং যাহারা মৃত্যুর ভয়ে যাবজ্জীবন দাসত্বের অধীন ছিল তাহাদিগকে উদ্ধার [মুক্ত করা] করেন” (ইব্রীয় ২:১৪-১৫)।

চার্লস ওয়েসলী প্রকাশ করেন:

আমার শৃঙ্খল পড়ে গিয়েছে, আমার হৃদয় মুক্ত;
আমি উঠেছিলাম, এগিয়ে গিয়েছিলাম, আর তাঁকে অনুসরন করেছিলাম|
বিস্ময়কর প্রেম! কিভাবে তা হতে পারে
তবু তুমি, আমার ঈশ্বর, আমার জন্য মরিলে?
   (“এবং ইহা হইতে পারে?” চার্লস ওয়েসলী, ১৭০৭-১৭৮৮)|

আপনার মৃত্যুর একাকীত্বের শৃঙ্খল খসে পড়বে যখন আপনি প্রকৃতভাবে খ্রীষ্টের কাছে আসবেন!

৩. তৃতীয়ত, নরকের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন |

বাইবেল আমাদের এক ধনী ব্যক্তির বিষয়ে বলেন যিনি খ্রীষ্ট বিশ্বাসী ছিলেন না| তিনি মারা যান এবং নরকে গিয়েছিলেন| বাইবেল বলে:

“আর পাতালে যাতনার মধ্যে, সে চক্ষু তুলিয়া দূর হইতে আব্রাহামকে, এবং তাহার কোলে লাসারকে দেখিতে পাইল…আর তাহাতে সে উচ্চস্বরে কহিল, পিতঃ আব্রাহাম, আমার প্রতি দয়া করুন, লাসারকে পাঠাইয়া দিন, যেন সে অঙ্গুলির অগ্রভাগ জলে ডুবাইয়া, আমার জিহ্বা শীতল করে; কেননা এই অগ্নিশিখায় আমি যন্ত্রনা পাইতেছি” (লূক ১৬:২৩-২৪)।

নরকে সে এই চিন্তায় আবিষ্ট হয়েছিল যে কেউ যদি তার অত্যন্ত শুকনো মুখে অল্প জল দিয়ে শীতল করে| কিন্তু নরকে সে একাই ছিল| তাকে সাহায্য করার মতো কেউ ছিলনা| সে উচ্চস্বরে বলছিল কেউ যেন তার কাছে আসে এবং কয়েকফোঁটা জল যেন তার জন্য নিয়ে আনে|

সেই ব্যক্তির নিদারুন যন্ত্রনা দেখায় নরকের চরম একাকীত্ব| আপনার বন্ধুরা, তারাও যদি নরকে থাকে, তবুও তারা আর কোনভাবেই আপনাকে সাহায্য করতে পারবে না তাদের তুলনায় আগের বন্ধুরা আপনার যন্ত্রনা থেকে আপনার উপশম করাতে পারে| তারা আপনার থেকে ধোঁয়াশায় আর অন্ধকার এবং আগুনে পৃথক হয়ে যাবে| আপনি একেবারে একা হয়ে যাবেন, যেমন তিনি ছিলেন, অনন্তকালীন একাকীত্বের যন্ত্রনার মধ্যে|

যীশুখ্রীষ্টই একমাত্র আপনার থেকে নরকের শৃঙ্খল ছিঁড়ে ফেলতে পারেন! আর তিনি সেটা পারেন এখনই – যখন আপনি জীবিত আছেন| আপনি যদি আপনার মৃত্যু পর্যন্ত অপেক্ষা করেন, তবে তা অনন্তকালীন দেরী হয়ে যাবে| এখনই খ্রীষ্টের কাছে আসুন – এবং আপনি গাইবেন,

প্রভু, সেই ক্ষত যার দ্বারা তিনি আঘাতপ্রাপ্ত,
ভয়্ঙ্কর মৃত্যুর হুল হইতে তোমার দাস মুক্ত,
যেন আমরা বাঁচি এবং তাঁর উদ্দেশ্যে গান গাই| হালেল্লুইয়া!
   (“The Strife Is O’er,” অনুবাদক ফ্রান্সিস পট, ১৮৩২-১৯০৯)|

মৃত্যু তাহাকে বিনষ্ট করিতে পারে নাই – যীশু আমার পরিত্রাতা!
তিনি শৃঙ্খল ছিঁড়িয়া ফেলিয়াছেন – যীশু আমার প্রভু!
   (“জাগ্রত খ্রীষ্ট” লেখক রবার্ট লোরী, ১৮২৬-১৮৯৯)|

যদি আপনি সম্পূর্ণভাবে যীশু খ্রীষ্টতে ফিরে আসেন তবে নরকের একাকীত্বের শৃঙ্খল চিরকালের জন্য ভেঙে যাবে! তাঁর কাছে আসুন! পাপ থেকে বেরিয়ে আসুন! মণ্ডলীতে আসুন! ঈশ্বরের পুত্র, যীশু নরকে আপনার জন্য একাকীত্বের শৃঙ্খল ভেঙে দেবেন!

৪. অতঃপর, চতুর্থত, খ্রীষ্টের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন |

জগতে তাঁর সেবাকাজের সময়ে খ্রীষ্ট প্রায়ই একাকী থাকতেন| বাইবেল বলে:

“পরে তিনি লোকদিগকে বিদায় করিয়া, বিরলে প্রার্থনা করিবার নিমিত্ত পর্ব্বতে উঠিলেন: সন্ধ্যা হইলে, তিনি সেই স্থানে একাকী থাকিলেন” (মথি ১৪:২৩)।

বিরাট জনতা যীশুকে অনুসরন করেছিল, কিন্তু তিনি প্রায়ই ঈশ্বরের সঙ্গে একাকী থাকার জন্য চলে যেতেন – ভীড় থেকে অনেক দূরে| কিন্তু তিনি প্রায়ই বলতেন, “তিনি আমাকে একা ছাড়িয়া দেন নাই” (যোহন ৮:২৯)| জগতে তাঁর সেবাকাজের সময়ে, ঈশ্বর সবসময়ে যীশুর কাছে কাছে থাকতেন| কিন্তু তারা তাঁকে ধরলো এবং তাঁকে মারলো, এবং তাঁর মাথায় কাঁটার মুকুট পরিয়ে, ব্যঙ্গ করলো| তারা তাঁকে টানতে টানতে একটা পাহাড়ে নিয়ে গেল এবং ক্রুশে পেরেক বিদ্ধ করলো| আর সেই ক্রুশের উপর তিনি যখন মারা যাচ্ছেন, তখন ঈশ্বর তাঁর একজাত পুত্রকে ছেড়ে চলে গেলেন| যীশু উচ্চস্বরে বললেন:

“ঈশ্বর আমার, ঈশ্বর আমার, তুমি কেন আমাকে পরিত্যাগ করিয়াছ? [কেন তুমি আমাকে ছাড়িলে?]” (মথি ২৭:৪৬)।

এই বীভৎস মূহুর্তে ঈশ্বর, তাঁর পুত্র যীশুখ্রীষ্টকে, একাকী ক্রুশের উপরে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন| তিনি সম্পূর্ণভাবে একাকী ছিলেন| তাঁর প্রিয় পুত্র থেকে ঈশ্বর সরে গেলেন – এবং খ্রীষ্ট একাকী ক্রুশের উপর - আমাদের সব পাপ বহন করলেন| লুথার এক মহান ঈশ্বরতত্ত্ববিদ ছিলেন, কিন্তু তিনি বলেন যে এই বিষয়টি তিনিও সম্পূর্ণভাবে বুঝতে পারেন না অথবা মনুষ্য চিন্তায় ব্যাখ্যা করতে পারেন না|

ঈশ্বর পাপের প্রতি দৃষ্টি দিতে পারেন না – সুতরাং ঈশ্বর মুখ ঘুরিয়ে নিলেন যখন যীশু “গাছের উপরে [ক্রুশের উপরে] আমাদের সকল পাপ নিজ দেহে বহন করিলেন” (১ম পিতর ২:২৪)| সেই কারনে একমাত্র যীশুই সেই পাপের শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করতে পারেন যে পাপ আপনাকে পাপপূর্ণ, একাকী, ও হারানো অবস্থায় বেঁধে রেখেছে| খ্রীষ্টই আপনাকে পাপের দন্ড থেকে মুক্ত করতে পারেন কারন তিনি একাই আপনার সমস্ত পাপ সেই ক্রুশের উপর বহন করেছিলেন!

অন্ধকারময় গেৎশিমানীতে খ্রীষ্ট একাই প্রার্থনা করেছিলেন,
তিনি একাই তিক্ত রস পান করেছিলেন আর আমার জন্য সেখানে দুঃখভোগ করেছিলেন|
একাকী! একাকী! তিনি একাকী সকলই বহন করেছিলেন|
তাঁর নিজেদের উদ্ধারেরজন্য তিনি নিজেকে দিলেন,
তিনি দুঃখভোগ করলেন, রক্ত বহালেন, এবং একাকী মারা গেলেন, একাকী|
   (“একাকী” লেখক বেন্ এইচ. প্রাইস, ১৯১৪)|

পাপ দ্বারা মনুষ্য আত্মার প্রতি বাহিত সেই নিঃসঙ্গতা থেকে আপনাকে রক্ষা করার জন্য খ্রীষ্ট ক্রুশের উপর নিঃসঙ্গ অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেছেন| আপনার পাপের মূল্য দিতে, তিনি আপনার পরিবর্তে ক্রুশের উপরে মারা গেলেন| খ্রীষ্ট পারেন আপনার পাপের শৃঙ্খল ভেঙে দিতে কারন তিনি আপনার জন্য ক্রুশের উপরে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেছিলেন! সম্পূর্ণভাবে যীশুর প্রতি ফিরে আসুন এবং আপনি পাপের দোষ থেকে মুক্ত হবেন!

৫. কিন্তু পঞ্চমত, মন পরিবর্তনের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন |

আপনি আমার দ্বারা খ্রীষ্টেতে মন পরিবর্তন করবেন না| একজন প্রচারক হিসাবে – আমি এক উপায় মাত্র – যাত্রিকের গতির প্রচারকের মতো – আমি শুধু খ্রীষ্টের দিকে যাওয়ার - সঠিক পথের দিশা নির্দেশ করছি| কিন্তু আপনি অবশ্যই নিজেই খ্রীষ্টকে খোঁজ করুন| আপনাকে একাই যীশুর কাছে যেতে হবে| একাকীত্বের মধ্যে মন পরিবর্তনের একটি পরিষ্কার চিত্র আমরা দেখতে পাই যাকোবের পরিত্রাণের অভিজ্ঞতায়:

“আর যাকোব তথায় একাকী রহিলেন; এবং এক পুরুষ প্রভাত পর্যন্ত তাহার সহিত মল্লযুদ্ধ করিলেন” (আদিপুস্তক ৩২:২৪)।

যে “পুরুষটি” রাত্রে যাকোবের সাথে মল্লযুদ্ধ করেছিলেন তিনি মাংসে আবির্ভূত খ্রীষ্ট, যিনি রাত্রের অন্ধকারে যাকোবের কাছে এসেছিলেন যখন সে একাকী ছিল|

আপনাদের কারো কারো মতনই, যাকোব তখন পর্যন্ত খ্রীষ্টকে ব্যক্তিগতভাবে জানতো না| ঐ একাকীত্বের সময়ে তিনি খ্রীষ্টের সঙ্গে সারারাত্রি মল্লযুদ্ধ করেছিলেন| আর আপনাকে, অবশ্যই, নিজের সমস্ত কিছুর মাধ্যমে যীশুর কাছে আসতে হবে| আপনি দেখেছেন, যে আমি আপনাকে পরিবর্তন করতে পারি না| আমি আপনাকে প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী করে তুলতে পারি না| সেটা আপনি ও একা খ্রীষ্টের মাধ্যমেই সম্ভব|

“আর যাকোব তথায় একাকী রহিলেন; এবং এক পুরুষ প্রভাত পর্যন্ত তাহার সহিত মল্লযুদ্ধ করিলেন” (আদিপুস্তক ৩২:২৪)।

আপনার পাপের দেনা শোধ করার জন্য খ্রীষ্ট ক্রুশের উপর মৃত্যুবরণ করলেন| কিন্তু আপনি অবশ্যই যীশুর কাছে নিজেকে “অর্পণ” করুন| আপনি অবশ্যই নিজেকে খ্রীষ্টের কাছে সঁপে দিন| আপনি অবশ্যই আপনার গর্বিত ও বিদ্রোহরত হৃদয়ের কথা শুনবেন না| আপনি অবশ্যই অসহায় পাপীর মতন খ্রীষ্টের পায়ে নিজেকে সমর্পণ করুন| আপনি অবশ্যই নিজেকে তাঁর কাছে সঁপে দিন, এবং আপনার বিশ্বাসকে সম্পূর্ণভাবে তাঁর উপরে অর্পণ করুন| তিনি আপনার হৃদয়কে পরিবর্তিত করবেন! তিনি পাপের শৃঙ্খলকে ভেঙে ফেলবেন! তিনি আপনার সমস্ত পাপ তাঁর রক্তে ধৌত করবেন!

আপনি যদি খ্রীষ্টের কাছে সমর্পণ এবং প্রকৃত খ্রীষ্ট বিশ্বাসী হওয়ার বিষয়ে আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চান, তবে অনুগ্রহ করে বসার আসনটি ত্যাগ করে এখনই এই ঘরের পিছনের দিকে চলে যান| ডঃ কেগান আপনাকে আর একটি ঘরে নিয়ে যাবেন যেখানে আমরা কথা বলতে পারবো| ডঃ চ্যান, অনুগ্রহ করে প্রার্থনা করুন যেন আজ সকালে কোন একজন খ্রীষ্টে বিশ্বাস করতে পারেন|


যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তাহলে ডঃ হাইমার্স আপনার কাছ থেকে কিছু শুনতে চান| যখন আপনি ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখবেন তখন অবশ্যই তাকে জানাবেন যে কোন দেশ থেকে আপনি তাকে লিখছেন নয়ত তিনি আপনার ই-মেলের জবাব দিতে সক্ষম হবেন না| যদি এই প্রচার আপনাকে আশীর্বাদ দান করেছে তবে ডঃ হাইমার্সকে একট ই-মেল পাঠান এবং তাকে সেইকথা জানান, কিন্তু কোন দেশ থেকে আপনি লিখছেন চিঠিতে সেটা অবশ্যই অন্তর্ভূক্ত করবেন| ডঃ হাইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net (এখানে ক্লিক করুন) | আপনি যে কোন ভাষায় ডঃ হাইমার্সকে চিঠি লিখতে পারেন, কিন্তু যদি পারেন তো ইংরাজিতেই লিখুন| যদি আপনি ডঃ হাইমার্সকে ডাক-ব্যবস্থার মাধ্যমে চিঠি পাঠাতে চান, তবে তার ঠিকানা হল P.O. Box 15308, Los Angeles, CA 90015 | আপনি তাকে (818)352-0452 নম্বরে ফোন করতে পারেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| ক্লিক করুন “প্রচার পান্ডুলিপি|”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মি. আবেল প্রধুম্মে: উপদেশক ৪:৮-১২ |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মি. বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Ten Thousand Angels” (by Ray Overholt, 1959).


খসড়া চিত্র

একাকীত্বের শৃঙ্খলগুলি ভেঙ্গে ফেলুন

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জে আর।

“ধিক্ তাহাকে যে একাকী” (উপদেশক ৪:১০)|

(আদিপুস্তক ২:১৮)

১. প্রথম, আমাদের জাতির ও আমাদের সংস্কৃতির একাকীত্ব নিয়ে চিন্তা করুন,
উপদেশক ৪:১০; ২য় তীমথিয় ৩:১-৪; হিতোপদেশ ১৮:২৪; প্রেরিত ২:৪৬-৪৭ |

২. দ্বিতীয়, মৃত্যুর একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন, আদিপুস্তক ৪২:৩৮;
গীতসংহিতা ১০২:৭; প্রেরিত ১২:৭; ইব্রীয় ২:১৪-১৫ |

৩. তৃতীয়, নরকের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন, লূক ১৬:২৩-২৪ |

৪. চতুর্থ, খ্রীষ্টের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন, মথি ১৪:২৩; যোহন ৮:২৯;
মথি ২৭:৪৬; ১ম পিতর ২:২৮ |

৫. পঞ্চম, মন পরিবর্তনের একাকীত্বের বিষয় চিন্তা করুন, আদিপুস্তক ৩২:২৪ |