Print Sermon

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন প্রতি মাসে 215টিরও বেশি দেশের প্রায় 116,000 কম্প্যুটারে www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটে পাঠানো হয়| আরও শত শত লোক ইউ টিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু খুব শীঘ্রই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান, কারণ প্রত্যেকটি ভিডিও প্রচার তাদেরকে আমাদের ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করে| ইউটিউব আমাদের ওয়েব সাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 37টি ভাষায় প্রচারিত হয় হাজার হাজার লোকের কাছে| প্রচারের এই সব পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখন আপনি ডঃ হেইমার্সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




ক্ষণিক মুহূর্তের স্বর্গ দর্শন

A GLIMPSE OF HEAVEN
(Bengali)

লেখকঃ ডাঃ আর.এল.হাইমার্স, জুনি.
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

লস এঞ্জেলেসের ব্যাপটিস্ট ট্যাবারনেকেলে সদা প্রভুর দিনে এক সন্ধ্যাকালীন মুহূর্তে, এক সংবাদ প্রচারিত হয়েছিল, ২৩ শে ফেব্রুয়ারী, ২০১৪ সালে
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Evening, February 23, 2014

“আর তাহারা এক নূতন গীত গান করেন, বলেন, তুমি ঐ পুস্তক গ্রহণ করিবার, ও তাহার মুদ্রা খুলিবার যোগ্য: কেননা তুমি হত হইয়াছ, এবং আপনার রক্ত দ্বারা সমুদয় বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, ও জাতিকে ঈশ্বরের নিমিত্ত আমাদিগকে ক্রয় করিয়াছ” (প্রকাশিত বাক্য ৫:৯)|


আমার আত্মা! একজন বালক হিসেবে অ্যারিজোনাতে যেতে কতোই না ভালোবাসতাম! মায়ের কাছে ছিল পুরাতন মডেলের একটা ফোর্ড। তিনি সমস্ত কিছু গুছিয়ে তাতে তুলতেন, তারপর আমরা যেতাম, তিনি এবং আমি, এবং আমার বন্ধু চাক। আমাদের দাঁড়াতে হবে রেডল্যান্ডে আর সেখান থেকে পেপসি নেব। ১৯৪০ সালের সময় থেকে সেটাই ছিল সবচেয়ে বড় গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। ৫০ সালের পর থেকে তারা এর আস্বাদকে পরিবর্তন করে ফেলেছে। কিন্তু তখন পেপসী তো এই জগতের বাইরে, আর আমরাও তখন লস এঞ্জেলেসের বাইরে! আমরা সব সময়েই বিকেলে দেরীতে বেরোতাম - আর যে সময়ে আমরা বেরোতাম তখন রেডল্যান্ডের সূর্য্য অস্তগমন করছে, আর আমরাও গান শুরু করতাম। সেই ৬০ বছর আগের কথা স্মরণ করে, মনে হচ্ছে আমরা যেন ফিনীক্স পর্যন্ত গান গাইতে গাইতে এসেছিলাম! যেহেতু মা’র পুরান গাড়ীতে শীততাপ নিয়্ন্ত্রন যন্ত্র ছিল না তাই রাত্রিতেই তিনি গাড়ি চালাতেন। অ্যারিজোনা পর্যন্ত সারা-রাত্রি ধরে যে যাত্রা সেই সম্পূর্ণ রাত্রিটা আমার পছন্দের! সেগুলো ছিল আমার কিছু সুখের মুহূর্ত বিষণ্ন ও কনকনে ঠান্ডার সময়ের বাল্য জীবনের! আমি আমার মায়ের গলা শুনতে পাই, এখনও -“রবার্ট, এস যাই! আজকের রাত্রে আমরা ফিনিক্স যাচ্ছি!” ওহ! কি দারুণ! আমরা পেছনে ছেড়ে চলেছি পুরোনো লস এঞ্জেলেসকে যা ছিল অপরিষ্কার, কুয়াশাচ্ছন্ন, দুঃখী আর শোকার্ত! এখন আমরা চলেছি - অ্যারিজোনা মরুভূমিতে চলেছি, যেখানে রয়েছে ব্যারেলাকৃতি ক্যাকটাস গাছ আর সূচালো তলোয়ারযুক্ত মনসা গাছ, ধেড়ে খরগোশ, তিতির পাখি, লম্বা রোডরানার আর রোয়ের পাখির খামার! আমরা চললাম বার্নার্ড রোয়ের পাখির খামার দেখতে, আর আঙুরের সোডা পান করতে, এবং ডোনাল্ড ডাকের কমিকস পড়তে! ঠিক পুরোনো চলচ্চিত্রে যে ভাবে তারা করে আমরা যেন প্রায় সেই রকম অনুভব করতে থাকলাম - “আমরা আবার বেড়িয়ে পড়লাম জাদুকরের ভেলকিবাজি দেখতে! সে এক বিস্ময়কর অষ্ট্রেলিয়ান জাদুকর!” সেটা ছিল উদ্দীপক, রোমাঞ্চকর, ও অসাধারণ! আমার হৃদয় আনন্দে যেন লাফিয়ে উঠতো মা যখন বলতেন, “চলে এস, রবার্ট, আজকে রাত্রে আমরা অ্যারিজোনা যাচ্ছি!”

কিন্তু পরবর্তী সময়ে আমি যখন অ্যারিজোনা যাই তখন সময়টা আগের মতো ছিল না। যে কোন ভাবেই হোক না কেন সেই আকর্ষণ যেন দূর হয়ে গিয়েছে। আমি তো অ্যারিজোনার জন্য অপেক্ষায় ছিলাম - কিন্তু সেখানে আমি যখন ফিরে গেলাম তখন সেটা ছিল পুরনো জগতের মতোই অন্য যে কোন স্থানের মতন। আর তখনই আমি সত্যি সত্যিই উপলব্ধি করতে শুরু করলাম যে এই জগতের কোন কিছুই প্রকৃত ভাবে আমাদের হৃদয়কে পরিতৃপ্ত করতে পারে না। আপনি দেখতেই পাচ্ছেন, আমি সত্যি সত্যিই আর অ্যারিজোনার জন্য আকাঙ্খা করছিলাম না - আমি তো স্বর্গের জন্য আকাঙ্খিত হচ্ছিলাম! স্কোয়ার পারসন্স সেই অনুভুতিকে ধরেছিলেন তাঁর সঙ্গীতে যা মিঃ গ্রিফিথ এই সবে গাইলেন,

আমি আমার দেশে ফেরার জন্য ঘর কাতুরে
   যেখানে আমি আগে কোন দিনই ছিলাম না;
দুঃখিত বিদায়ী বার্তা সেখানে বলা যাবে না,
   কেননা সময় আর আদপেই কোন মানে রাখে না।
চমৎকার দেশ, আমি তোমার জন্যই আকূল,
   আর একদিন, আমি তোমার কাছে দাঁড়াবো,
সেখানেই আমার অনন্তকালীন বাড়ি হবে,
   চমৎকার দেশ, মধুর সেই চমৎকার দেশ।
      (“Sweet Beulah Land” by Squire Parsons, 1948- ).

এটা হবে অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ, অত্যন্ত রোমাঞ্চকর, অত্যন্ত বিস্ময়কর - যখন যীশু বলেন, “রবার্ট এস চল, আজিকের রাত্রে আমরা স্বর্গে যাইতেছি!”

আমি নদীর ওপারে তাকিয়ে রয়েছি
   যেখানে আমার আস্থার দৃশ্য শেষ হবে;
আর কয়েকদিনের পরিশ্রম বাকি,
   আর তাঁর পরে আমি স্বর্গের রথে আরোহণ করবো।
চমৎকার রম্য দেশ, আমি তোমার জন্য আকূল,
   আর কোন একদিন, আমি তোমার উপরই দাঁড়াবো,
সেখানেই আমার অনন্তকালীন বাড়ি হবে,
   চমৎকার রম্য দেশ, মধুর সেই চমৎকার রম্য দেশ।

“সেই উজ্জ্বল নগরী!” - আমার সঙ্গে গান করুন!

সেই উজ্জ্বল নগরী, মুক্তার ন্যায় শ্বেত নগরী,
   আমার জন্য আছে এক প্রাসাদ, পদমর্যাদা ও মুকুট;
এখন আমি লক্ষ্য করছি, অপেক্ষায় আছি, এবং আকূল হচ্ছি,
   সেই শ্বেতনগরীর জন্য যোহান যা নেমে আসতে দেখেছিলেন।
(“The Pearly White City” by Arthur F. Ingler, 1902).

১. প্রথম, আসুন দেখি স্বর্গে কি রয়েছে ।

মিঃ প্রধুম্নে হিব্রুজ ১২:২২-২৪ অংশটি বেশ কিছু মিনিট আগেই পাঠ করেছেন। সেই অনুচ্ছেদটি বেশ কিছু বিষয়ে বলেছে যেটা আমরা স্বর্গে দেখব। আমি সেটা আবার পড়ছি।

“কিন্তু তোমরা উপস্থিত হইয়াছ সিনয় পর্বতের নিকটে, জীবন্ত ঈশ্বরের পুরী, সেই স্বর্গীয় জেরুজালেম, অযুত অযুত দূত, প্রথম জাতদের সাধারণ সভা ও মণ্ডলী, যা্হা কিনা স্বর্গে লেখা, সকলের বিচার কর্তা ঈশ্বর, সিদ্ধি প্রাপ্ত ধার্মিকগনের আত্মা, নূতন নিয়মের মধ্যস্থতাকারী যীশু, এবং প্রেক্ষণের রক্ত, যাহা আবেল হইতেও উত্তম কথা বলে” (হিব্রুজ ১২:২২-২৪)|

২২ নং পদে আমাদের বলা হয়েছে এটা নিশ্চিত ভাবেই স্বর্গের একটা চিত্র। এটাকে তিনি তিনটি নামে ডাকেন। একে বলা হয় “সিনয় পর্বত।” একে বলা হয় “জীবন্ত ঈশ্বরের নগরী।” এরপরে, আমরা যে এটাকে বুঝে উঠতে পেরেছি তা নিশ্চিত করার জন্য, তিনি বলেন যে এটা হল “সেই স্বর্গীয় জেরুজালেম।”

এরপরে তিনি আমাদের কাছে বেশ কিছু বিষয়ের তালিকা তুলে ধরেন যেটা সেখানে থাকবে। প্রথম, সেখানে “অগণিত স্বর্গদূতের সাহচর্য” থাকবে। আমি বিশ্বাস করি আমাদের চারপাশে সব সময়ে স্বর্গদূতেরা রয়েছেন, যারা আমাদের পাহারা দিয়ে আমাদের সুরক্ষিত রাখছে। কিন্তু প্রায় সময়ে তারা আমাদের দৃষ্টি বহির্ভূত। আমি বিশ্বাস করি যে আমিও একবার স্বর্গদূত দেখেছিলাম। কিন্তু তা ছিল কেবল একজন স্বর্গদূত, আর তাকে আমি একবারই দেখেছিলাম। কিন্তু স্বর্গে আমরা “অগণিত” স্বর্গদূতদের দেখতে পাবো, সহস্র সহস্র স্বর্গদূতেরা রয়েছেন। প্রকাশিত বাক্য ৫:১১ পদে আমাদের বলা হয়েছে সেখানে “দশ হাজার গুণিত দশ হাজার, এবং হাজারের গুণের হাজার” স্বর্গীয় দূতেরা রয়েছেন। তা সংখ্যায় অত্যধিক! তাদের আপনি দেখতে পাবেন। তাদের কারো কারো সঙ্গে আপনি কথাও বলতে পারবেন। কি দিনই না হবে সেই দিন! কি দৃশ্যই না সেদিন হবে! আমি এর দিকে তাকিয়ে রয়েছি!

এর পরে আমাদের বলা হয়েছে “প্রথম জাতদের সাধারণ সভা ও মন্ডলী, যা স্বর্গে লিখিত” সেখানে থাকবে (হিব্রুজ ১২:২৩)। বাইবেলের মধ্যে, “মন্ডলীর” প্রতি প্রায় সব কটা নির্দেশই স্থানীয় মন্ডলীর কথা বলে, স্থানীয় সভার কথা বলে, আমাদের মতো। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি এটা হল বিশ্বজনীন মন্ডলীর প্রতি একটা নির্দেশ। প্রতিটি প্রজন্মের খ্রীষ্টান সেখানে থাকবে। তাদের নাম “স্বর্গে লেখা রয়েছে” - মেষ শাবকের জীবন পুস্তকে! সকলেই সেখানে থাকবে - সমস্ত প্রেরিতবর্গ; সমস্ত শহীদ যারা রোমীয় রণক্ষেত্রে খ্রীষ্টের জন্য সিংহের মুখে প্রাণ দিয়েছে; সমস্ত বিশ্বস্ত সন্ত বা পবিত্র ব্যক্তি, যাদের অনেককে মধ্যযুগে নৃশংস ভাবে অত্যাচারিত হতে হয়েছিল; সমস্ত কনভার্ট বা রূপান্তরিত ব্যাক্তিরা যারা সেই তিনটি মহান জাগরণের সময় জেগেছিল; সমস্ত মিশনারীরা; সমস্ত রূপান্তরিত ব্যাক্তিরা যারা সারা বিশ্ব থেকে এসেছিল; সমস্ত যুগের সমুদয় মহান প্রচারকেরা; সমস্ত শহীদেরা যারা বিংশ শতাব্দীতে মুসলমান ও সাম্যবাদীদের দ্বারা নিহত হয়েছে; তারা সকলেই সেখানে থাকবে! হেনরী আলফোর্ড(১৮১০-১৮৭১) এই কথাকে ভালোভাবে ব্যক্ত করেছেন,

দশ হাজার গুন দশ হাজার গৌরবজ্জ্বল উজ্জ্বল পোশাক পরিহিত,
   মুক্ত সন্তবর্গের সেনাদল প্রবলভাবেই জ্যোতির্ময় হইবে;
ইহা শেষ, সমস্ত কিছু শেষ, তাদের লড়াই পাপ ও মৃত্যুর সঙ্গে;
   সেই লড়াই খুলেছে সেই স্বর্ণনির্মিত দ্বার, আর বিজয়ীকে আসতে দাও।
(“Ten Thousand Times Ten Thousand” by Henry Alford, 1810-1871).

“ঈশ্বর যিনি হলেন সকলের বিচার কর্তা” তিনিও সেখানে থাকবেন (হিব্রুজ ১২:২৩)। ঈশ্বর যদি সেখানে না থাকেন তবে সেটা কোন মতেই স্বর্গ হতে পারে না! আমি এটা বিশ্বাস করি না যে আমরা ঈশ্বরকে সরাসরি ভাবে কোনদিন দেখব। গীতসংহিতা ১০৪:২ আমাদের বলে যে ঈশ্বর নিজেকে জ্যোতির মধ্যে আচ্ছাদিত করে রাখেন “ঠিক পরিচ্ছদের ন্যায়।” বাইবেল বলে, “ঈশ্বরকে কেহ কখনো দেখে নাই” (যোহান ১:১৮)। আমি বিশ্বাস করি স্বর্গেও সেটা তেমনই হবে। আমরা তাঁর চারপাশের জ্যোতিকে দেখতে পাবো, কিন্তু আমরা পিতা ঈশ্বরকে নিজে থেকে দেখতে পাবো না। তা সত্ত্বেও আমাদের বলা হয়েছে আমাদের সঙ্গে তিনি সেই স্বর্গে থাকবেন।

“যে আত্মা মানুষকে ধার্মিক গণিত করেছে” তিনিও সেখানে থাকবেন। ডাঃ ম্যাকগী বলেছেন এনারা হলেন “পুরাতন নিয়মের সন্ত বা পবিত্র ব্যাক্তি যাদের পরিত্রাণ এখন সম্পূর্ণ হয়েছে থাকার জন্য যখন খ্রীষ্ট ঈশ্বরের এক মেষ হিসাবে মৃত্যুবরণ করেছেন যিনি এই জগতের পাপভারকে দূর করে দিয়েছেন” (J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson Publishers, volume 5, 1983, p. 608; note on Hebrews 12:23)| পুরাতন নিয়মের সমস্ত সন্তবর্গই সেই স্বর্গে থাকবেন! আদম এবং ইভ সেখানে থাকবেন, যারা মেষ শাবকের রক্তে ধৌত; আবেলও সেখানে থাকবেন। সেই ভাবে ইনোক, এবং নোয়াহ, এবং এ্যাব্রাহাম, এবং সারা, এবং আইজাক, এবং জ্যাকব, এবং যোসেফ, এবং মোজেস, এবং জোসুহা, এবং গিডিয়ান, এবং বারাক, এবং স্যামসন, এবং জেপথা, এবং ডেভিড, এবং স্যামুয়েল, এবং সমস্ত ভাববাদীরা সেখানে থাকবে! তাদের সকলকে যেদিন স্বর্গে একসাথে দেখতে পাব তখন কি মহৎই না হবে সেই দিনটি!

আমাদের আবার এটাও বলা হয়েছে যে “যীশু যিনি হলেন নুতন চুক্তির মধ্যস্থতাকারী” তিনিও সেখানে থাকবেন (হিব্রুজ ১২:২৪)। যীশু যদি সেখানে না থাকেন তবে সেটা স্বর্গই হতে পারে না। আমরা যীশুকে দেখতে চলেছি!

একজন হাতুড়ে ডাক্তার মেয়েটির চোখে বিষ ঢেলে দেয় যখন মেয়েটির বয়স মাত্র কয়েকদিন। সেই থেকে সে বাকি জীবনের জন্য সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু ফ্যানী ক্রসবি, তার এক আকৃষ্টকর গানে, এই কথা বলেন:

...যখন আমি অন্য প্রান্তে পৌঁছাবো আমি আমার পরিত্রাতাকে জানবো,
   আর তাঁর হাসিই আমাকে সর্বপ্রথমে স্বাগত জানাবে।
তাঁকে আমি জানবো, তাঁকে আমি জানবো,
   আর উদ্ধারপ্রাপ্ত বাক্তি হিসেবে আমি তাঁর পাশে দাঁড়াবো,
তাঁকে আমি জানবো, তাঁকে আমি জানবো,
   তাঁর হাতের মুদ্রিত পেরেকে তাঁকে আমি জানবো।
(“My Saviour First of All” by Fanny J. Crosby, 1820-1915).

এর পরে আমাদের বলা হয়েছে স্বর্গে সেখানে আরো একটা বিষয় থাকবে - “এবং সেই রক্তের ছিটা, যা আবেলের থেকেও উত্তম কথা বলে”(হিব্রুজ ১২:২৪)। ডাঃ ম্যাকগী বলেছেন, “আবেলের রক্ত প্রতিশোধের জন্য চিৎকার করেছে, কিন্তু খ্রীষ্টের রক্ত পরিত্রাণের কথা বলে” (ম্যাকগী, ইবিড.)। এটা নিশ্চিত যে রক্তের ছিটা সেখানে রয়েছে! খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্ত না হলে সেটা স্বর্গ হবে না।

ডঃ ডব্লিউ. এ. ক্রিসওয়েল তিনি গ্রীক নুতন নিয়মের উপরে পিএইচ. ডি. করেন। তিনি আমেরিকার অন্যতম মহান প্রচারকের মধ্যে একজন যিনি টেক্সাসের অন্তর্গত, দালাসের প্রথম ব্যাপটিস্ট মন্ডলীতে প্রায় ৬০ বছর যাবৎ প্রচারক ছিলেন। বিলি গ্রাহাম ছিলেন সেই মন্ডলীর একজন সদস্য। ডাঃ ক্রিসওয়েল স্বর্গে যীশুর রক্তের বিষয়ে এই কথা বলেন,

         আমাদের প্রভু পবিত্র স্থানের উর্দ্ধে যবনিকা পার হয়ে চলে যান, রক্ত বহন করেন, তা বৃষ বা ছাগলের নয়, নিজের রক্ত ছিটান আমাদের পাপের প্রায়শ্চিত্ত করার জন্য ও শোধন করার প্রতি... স্বর্গের স্বর্গে, পবিত্র স্থানের মহাপবিত্র স্থানে যেখানে ঈশ্বর রয়েছেন, সেখানে আমাদের খ্রীষ্টকে ধৌতকারী, প্রায়শ্চিত্তকারী এবং ক্ষমামূলক রক্ত নিয়ে প্রবেশ করতে হয়, আর তিনি সেই পবিত্র স্থানকে পরিষ্কার করেন এমন কি আমরা থাকা সত্ত্বেও...তিনি যখন যবনিকার উর্দ্ধে প্রবেশ করেন তখন খ্রীষ্ট সেটাই আমাদের জন্য করেন। কি ভাবে আমরা, পাপী মানব ও মানবী, সেই পবিত্র স্থানে প্রবেশ করতে পারি যেখানে ঈশ্বর বাস করেন? আমরা সেখানে প্রবেশ করি তাঁর রক্তের প্রায়শ্চিত্তে (W. A. Criswell, Ph.D., Great Doctrines of the Bible, Volume 2, edited by Paige Patterson, Zondervan Publishing House, 1982, pp. 194-196)|

আমি জানি না কোন ব্যাক্তি কি ভাবে বিশ্বাস করেন মৌখিক অনুপ্রেরণার প্রতি হিব্রু এবং গ্রীক বাইবেলের, ঈশ্বরের বাক্যের ভুল হওয়ার অসমর্থতা থেকে, যা সেই বাক্যগুলিকে বিভাজন করতে পারে বাইবেল থেকে, “এবং ছিটান রক্তের প্রতি।” রাজা জেহোইয়াকিম ও তার দাস ছুরি নিয়ে ঈশ্বরের বাক্যকে কেটে আগুনে ফেলে দেয়। “তিনি সেটাকে ছোট ছুরি দিয়ে কেটে ফেলেন, এবং আগুনের মধ্যে ছুঁড়ে ফেলে দেন যা আঙিনায় জ্বলছিল” (জেরেমিয়া ৩৬:২৩)। হে প্রিয় ভাই, প্রচারক, দেখবেন কর্ণেল আর. বি. থিয়েমি বা জন ম্যাকআর্থার যেন ঈশ্বরের এই বাক্যকে তাঁর অনুপ্রাণিত অধ্যায় থেকে কেটে না ফেলেন! “এবং ছিটান রক্ত” – যা একে মুদ্রাঙ্কিত করে আর চিরকালের জন্য স্থির করে, যা কিনা মহা শক্তিমান ঈশ্বরের মৌখিক ভাবে অনুপ্রাণিত ঈশ্বরের বাক্যের পাঠ্যাংশ! “আর সেই ছিটান রক্তকে।” সর্বকালের জন্য, এবং সমুদয় অনন্তকালে, সেটা সেখানে মহাপবিত্র স্থানে ছিল; সেই সিনয় পর্বতে, জীবন্ত ঈশ্বরের নগরীতে, যা হল স্বর্গীয় জেরুজালেম!

বেশ কিছু লোক আমাকে বলেছেন, “কেন আপনি কর্নেল থিয়েমি এবং ম্যাকার্থারকে রক্তের সঙ্গে উল্লেখ করেন? একে এই ভাবেই রাখুন! একে এই ভাবেই যেতে দিন!” কিন্তু, আপনি দেখুন, আমি একে এই ভাবে যেতে দিতে পারি না। এই লোকেরা হাজার হাজার প্রচারকদের অনুপ্রাণিত করেছেন। তাদের সেটা আছে! সেটা আছে! শেষবার কখন আপনি শুনেছেন এক সম্পূর্ণ প্রচার কেবল খ্রীষ্টের রক্তের উপরে? শেষবার কখন আপনার মন্ডলী “রক্তের” উপরে গান গেয়েছে? শেষ বারের মতো কখন আপনার মন্ডলী এই গান গেয়েছে “অন্য কিছু নয় কেবলমাত্র খ্রীষ্টের রক্ত,” বা “ক্রুশারোপিত ব্যক্তির রক্তের দ্বারা উদ্ধার প্রাপ্ত,” বা “রক্তের মধ্যে সেখানে রয়েছে শক্তি,” বা “যখন আমি সেই রক্তকে দেখি,” অথবা “সেখানে এক স্রোত রয়েছে যা রক্তের দ্বারা পরিপূর্ণ”?

আমি দৃঢ়ভাবে নিশ্চিত যে কর্ণেল আর. বি. থিয়েমির কাছ থেকে ডঃ ম্যাকআর্থার খ্রীষ্টের বহুমূল্য রক্তের নিম্ন মূল্যায়ন জেনেছিলেন। আমি সেখানে ছিলাম, ১৯৬১ সালে যে সভা হয়েছিল, সেই সভাতে। রক্তের উপরে তাঁর এই অস্বাভাবিক মতবাদ থাকার ফলে বায়োলা বিশ্ববিদ্যালয়ে সেই কথা বলা থেকে থিয়েমি বাধা পেয়েছিলেন। তাই তিনি একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে সেটা শিখিয়েছিলেন। বায়োলা থেকে আমরা সকলেই কৌতুহলের বশে গেছিলাম। থিয়েমি যখন সেই রক্তের অবমূল্যায়ন করতেন তখন ডাঃ ম্যাকআর্থারকে রাতের পর রাত ধরে নোট বা টীকা নিতে দেখেছি। আমি যখন ম্যাকআর্থারের বিবৃতি পড়লাম, তখন আমি দেখতে পেলাম যে সেগুলো যেন সরাসরি ভাবেই তারই ভাষণ থেকে আসছে, যা সেই অদ্ভুত ব্যাক্তি, কর্ণেল থিয়েমি দ্বারাই প্রদান করা হয়েছে।

কিন্তু আমি জানি যে আরো একটা উদ্দীপনা আসবে না যতক্ষণ পর্যন্ত না যে সম্মানের তিনি যোগ্য সেই পরিত্রাতা খ্রীষ্টের রক্তের মর্যাদা দেওয়া হচ্ছে। ডঃ মার্টিন লয়েড-জোনস ছিলেন এই উদ্দীপনার এক কর্তৃত্বকারী ব্যাক্তি, আর তিনি বলেন,

         আপনি দেখতে পাবেন যে উদ্দীপনার প্রতিটি সময়েই, বিনা প্রত্যাশাতেই, সেখানে খ্রীষ্টের রক্তের বিষয়ে ভীষণ ভাবে জোর দেওয়া হয়েছে...অবশ্যই, এই ভাবে নিঁখুত ভাবে বিষয়গুলোকে আমি যখন দেখলাম তখন আমিও বলছি সেখানে যেন কিছু একটা অস্বাভাবিকত্ব ছিল আর সেটা আজকের এই বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় নয়। সেখানে আমার খ্রীষ্টিয়ান প্রচারকেরাও রয়েছেন যারা মনে করেন রক্তের উপরে ধর্মতত্ত্বকে উপহাসকের মতো ঢেলে দেওয়ার মতোই নিজেদের চতুর বলে পরিচয় দেন। এই বিষয়কে তারা নিদারুণ অবজ্ঞার সঙ্গেই পরিত্যাগ করেন [কিন্ত] আমি কোন আশাই দেখতে পাই না উদ্দীপনার জন্য যখন পুরুষ এবং নারীরা ক্রুশের রক্তের বিষয়টাকে অস্বীকার করেন, আর ঘৃণা উদ্‌গার করেন সেই অবজ্ঞাত রুধির ধারার প্রতিই যার প্রতি গর্ব করা দরকার (Martyn Lloyd-Jones, M.D., Revival, Crossway Books, 1987, pp. 48, 49)|

রক্তে পুর্ণ এক স্রোত সেখানে রয়েছে
   যা ইমানুয়েলের ধমনী হতে নির্গত;
আর পাপীরা, সেই রক্তের নীচে নিমজ্জিত,
   যেখানে তাদের সমস্ত দোষের পাপকে মুক্ত করেছে|
(“There is a Fountain” by William Cowper, 1731-1800).

হে আমার প্রিয় খ্রীষ্টিয়ান বন্ধু, আপনি যখন সিনয় পর্বতে, জীবন্ত ঈশ্বরের নগরীতে, সেই স্বর্গীয় জেরুজালেমে যাবেন সেখানে আপনি এই সমস্ত রকমের বিস্ময়কর ও পবিত্র জিনিসগুলো দেখতে পাবেন! আর তাই খ্রীষ্টের রক্ত ছাড়া আর অন্য কোন কিছুই অতটা গুরুত্বপূর্ণ হবে না!

প্রিয় মৃত্যুমুখী মেষশাবক, তোমার বহুমূল্য রক্ত
   কোন সময়েই তাঁর শক্তিকে হারাবে না,
যতক্ষণ পর্যন্ত না ঈশ্বরের বিক্রিত মন্ডলী আর
   পাপ না করার দ্বারা, উদ্ধারলাভ করছে।
(“There Is a Fountain” by William Cowper, 1731-1800)

২. দ্বিতীয়, স্বর্গে আমরা যা করবো তার একটা বিষয় আমি আপনাকে দেখাতে চাই ।

এখন, এবার, আমরা আমাদের দ্বিতীয় বিষয়টাতে, এবং আমাদের দ্বিতীয় পাঠ্যাংশে আসছি। অনুগ্রহ করে প্রকাশিত বাক্য ৫:৯ খুলুন আমি অংশটা পাঠ করছি।

“আর তাহারা এক নূতন গীত গান করেন, বলেন, তুমি ঐ পুস্তক গ্রহণ করিবার, ও তাহার মুদ্রা খুলিবার যোগ্য: কেননা তুমি হত হইয়াছ, এবং আপনার রক্ত দ্বারা সমুদয় বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, ও জাতিকে ঈশ্বরের নিমিত্ত আমাদিগকে ক্রয় করিয়াছ” (প্রকাশিত বাক্য ৫:৯)|

এখানে আমরা দেখতে পাচ্ছি ২৪ জন প্রাচীন, যারা জগতের সমস্ত খ্রীষ্টিয়ানদের স্বর্গে উপস্থাপন করছেন। “আর তারা সকলে মিলে একটা নূতন গান গাইছেন।” অষ্টম পদের শুরুতেই যে বিষয়টা রয়েছে তার উপরে আমি কোন মন্তব্য করতে চাইছি না। আমরা স্বর্গে কি গান গাইবো সেই মুখ্য বিষয়ের প্রতি আমি আলোকপাত করতে চাইছি। আমরা যে বিষয়টা নিয়ে গান গাইবো এখানে সেটা এই রকমের,

“...তুমি হত হইয়াছ, এবং আপনার রক্ত দ্বারা সমুদয় বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, ও জাতিকে ঈশ্বরের নিমিত্ত আমাদিগকে ক্রয় করিয়াছ” (প্রকাশিত বাক্য ৫:৯)|

স্বর্গে, অগণিত খ্রীষ্টিয়ান, আমাদের মতো অযুত অযুত যারা, কণ্ঠস্বর মিলিয়ে খ্রীষ্টের প্রশংসা সংগীত গাইবো। “সেই নূতন গীত” যা কিনা নুতন চুক্তি বা নিয়মের গান, খ্রীষ্টের বলিকৃত প্রায়শ্চিত্তের দ্বারা উদ্ধারের এক গান। নিশ্চিতভাবেই, এই গান হবে ক্রুশের উপরে যীশুর মৃত্যু বিষয়ক, ও তাঁর বহুমূল্য রক্ত বিষয়ক গান! অন্য শব্দে বলা যায়, আমরা গান গাইবো প্রভুর নৈশভোজের যে দুটি উপাদান উপস্থাপন করে সেই বিষয়ে। “তুমি হত হইয়াছ” - তাঁর ক্রুশারোপিত শরীর, প্রভুর ভোজের রুটির দ্বারা ইহাকে প্রকাশ করে। “আর তোমার রক্তের দ্বারা ঈশ্বরের প্রতি আমাদের উদ্ধার করিতেছ” - তাঁর মহা মূল্যবান রক্ত, প্রভুর ভোজের পেয়ালার মধ্য দিয়ে তাঁর বহুমূল্য রক্তকে উপস্থাপন করে। এই ভাবে, সেই মৃত্যু ও খ্রীষ্টের রক্ত প্রভুর ভোজের মধ্য দিয়ে আলাদা ভাবে উপস্থাপিত করা হয়েছে। সুতরাং ডঃ ম্যাকআর্থার এই জায়গাটিতে ভুল ছিলেন যেখানে তিনি বার বার বলেছেন যে যীশুর “রক্ত” কেবল মাত্র তাঁর “মৃত্যুর” জন্য আলাদা একটা শব্দমাত্র, তাঁর মৃত্যুর এক “প্রতিশব্দ” মাত্র। এই ক্ষেত্রে তিনি সম্পূর্ণভাবেই ভুল। প্রভুর ভোজের দুটি আলাদা উপাদান দেখায় যে তিনি ভুল। এগুলো একই বিষয়ের দুটো আলাদা শব্দ নয়! তারা হল দুটো আলাদা বিষয়! আর স্বর্গে আমরা সেই দুটি অংশের গান করব যা দেখায় যে তিনি ভুল,

(১) “তুমি হত হইয়াছিলে,
(২) “আর আপনার রক্তের দ্বারা আমাদের ক্রয় করিয়াছ।”

ঈশ্বরের প্রশংসা হোক! হাল্লেলুইয়া! আমাদের পাপের প্রায়শ্চিত্ত হওয়ার প্রতি ক্রুশেতে মৃত্যুবরণ করার জন্য খ্রীষ্টের প্রশংসা আমাদের করতে হবে! আমাদের আবার তাঁর রক্তের জন্যও প্রশংসা করতে হবে, যিনি আমাদের পাপ থেকে উদ্ধার করেছেন! যীশুর নামের প্রশংসা হোক! ডাঃ ম্যাকগী বলেছেন,

“রক্তের দ্বারা আমাদের উদ্ধার বা ক্রয় করেছেন।” তাই [আমরাও] স্বর্গে তাঁর পতিত রক্তের জন্য গান গাইব। এখানে এই জগতে বহু মন্ডলী বা সম্প্রদায় তাদের গানের বই থেকে তাঁর রক্তের, নির্দেশগুলিকে বার করে নিচ্ছে কিন্তু স্বর্গে সেগুলোকে গানের বইয়েতে পুনরায় সংযোজন করা হবে। আমার মনে হয় সেটাই হয়তো যুক্তি যে ঈশ্বর হয়তো সেই সমস্ত মেষেদের কাউকে অস্বস্তির মধ্যে ফেলে দেবেন তাদের স্বর্গে নিয়ে গিয়ে, কেননা স্বর্গে সেখানে তাদের এই রক্তের বিষয়ে গান গাইতে হবে (McGee, ibid., p. 937; comment on Revelation 5:9-10)|

আর আমিও আপনাকে নজর করতে বলি যে আমাদের মধ্যে যারা সেই বৃহৎ দলে ঐকতানে বদ্ধ হবে, অযুত অযুত ব্যক্তি, যারা খ্রীষ্টের রক্ত দ্বারা ক্রীত বা উদ্ধারলাভ করেছে “তাদের মধ্যে সমুদয় বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, এবং জাতি” সেই গান গাইবে। আমি আনন্দিত কেননা সেটা বলে, “মানব জাতির প্রত্যেক বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, এবং জাতি।” সেটা যদি সেই কথা না বলতো তবে সেখানে স্বর্গে এতো লোক হতো না, কারণ আমেরিকার মন্ডলীর খুব অল্প সংখ্যক আমেরিকান পরিত্রাণ লাভ করেছেন! আমার মনে হয় আমরা আশ্চর্যাণ্বিত হব এই দেখে যে কিছু স্বল্প সংখ্যক আমেরিকান, বিশেষত বিংশতিতম এবং একবিংশতিতম শতাব্দীর, লোকেরা স্বর্গে সেই বৃহৎ দলের ঐকতানে একতা বদ্ধ হয়ে গান গাইবে!

আমেরিকান মন্ডলী বহু প্রকার হুজুগে ও কল্পনাসাধক চিন্তাধারা নিয়ে এগিয়ে এসেছে ঈশ্বরের পরিকল্পনার প্রতি স্থান নেওয়ার জন্য, “তুমি হত হইয়াছ, এবং আপন রক্ত দ্বারা আমাদের ঈশ্বরের নিমিত্ত ক্রয় করিয়াছ।” ক্রুশ এবং ক্রুশের রক্ত ছাড়া কেউই স্বর্গে থাকতে পারবে না!

কেউ হয়তো বলতে পারে, “ডঃ হাইমার্স, আপনি কেন এত বেশী করে খ্রীষ্টের রক্তের বিষয়ে প্রচার করেন?” আমি স্পারজিউনকে তার উত্তর দিতে বলি,

         অন্য কোন একদিনে, আমি শুনেছিলাম, এক পরিচর্যাকারী সম্বন্ধে তারা বলছিলেন, “ওহ! আমরা অন্য একজন পরিচর্যাকারী চাই, আমরা এই ব্যাক্তিকে নিয়ে বিরক্ত বোধ করছি; তিনি সব সময়ে রক্তের বিষয়েই বেশী কথা বলেন।” সেই শেষ মহাদিনে, ঈশ্বর সেই ব্যাক্তির বিষয়ে ক্লান্তি ও বিরক্তি বোধ করবেন যিনি এই কথা বলেছেন। বহুমূল্য রক্তের বিষয়ে ঈশ্বর কোনমতেই ক্লান্ত হন না, না তাঁর লোকেরা যারা জানে যে কোথায় পরিত্রাণ লাভ করা যায়। সেই বিষয়ে তাঁর লোকেরাও ক্লান্ত হবে না, এমন কি স্বর্গেও, তারা কোন মতে উল্লেখ করে না যে [তাঁর রক্ত] এটা অপ্রীতিকর শব্দ। এইভাবে এক সুকুমার ভদ্রলোক বলেন যে “ওহ, আমি এই [রক্ত] শব্দটা পছন্দ করি না|” এর জন্য প্রভুর কোন অসুবিধা নেই, কেননা স্বর্গে তুমি যাবে না। [উদ্বিগ্ন] হবার প্রয়োজন নেই যেখানে তাঁর রক্তের বিষয়ে গান করে সেখানে তুমি যাবে না। কিন্তু, আপনি যদি কোন সময়ে সেখানে যান, তবে সেখানে আপনি সব সময়ে বারংবার এটাই শুনবেন! “তোমার রক্তের দ্বারা ঈশ্বরের প্রতি তুমি আমাদের ক্রয় করিয়াছ।” কিভাবে তারা [গেয়ে] উঠতে পারবে!” “তুমি, তুমি, তুমি তোমার রক্তের দ্বারা ঈশ্বরের জন্য আমাদের ক্রয় করিয়াছ।” কিভাবেই বা তারা “তুমি,” এই সর্বনামের ওপর গুরুত্ব আরোপ করতে পারবে, এবং সম্পূর্নভাবে যীশুর প্রশংসাগুন গাইবে...” তুমি আমাদের সেই রক্তের দ্বারা ঈশ্বরের জন্য ক্রয় করেছো।” উপরে সেখানে তারা যীশুর রক্তের বিষয়ে লজ্জিত নয়! (C. H. Spurgeon, “The Heavenly Singers and their Song,” The Metropolitan Tabernacle Pulpit, Pilgrim Publications, 1975 reprint, volume XXXIX, p. 391)|

আপনি স্বর্গের সেই গায়ক বৃন্দের দলে থাকবেন কি না সেই বিষয়ে আমি আপনাকে জিজ্ঞাসা করতে চাই। আজকের রাত্রে আপনি যদি দুর্ঘটনায় মারা যান তবে স্বর্গে গিয়ে তাদের সঙ্গে সেই গান গাইতে পারবেন? পারবেন কী? আপনি পারবেন? আপনি কী পারবেন? আপনার পাপ যদি পরিষ্কৃত ও দূর করা না হয় তবে আপনি স্বর্গে যেতে পারবেন না। কেবল মাত্র খ্রীষ্টের রক্ত তা করতে পারে! “পরিষ্কারকারী শক্তির জন্য আপনি কী যীশুর কাছে এসেছেন? আপনি কী মেষের রক্ত দ্বারা পরিষ্কৃত হয়েছেন?” আপনি কী হয়েছেন? আপনি কী হয়েছেন? আপনি কী হয়েছেন? আপনার পাপ যদি যীশুর রক্তে ধৌত নয় তবে আপনি স্বর্গের অস্তিত্ব পাবেন না। আজকের রাত্রে আপনি কী যীশুর কাছে আসবেন? এই মুহূর্তে আপনি কি তাঁর রক্তের দ্বারা আপনার পাপ থেকে ধৌত হয়ে পরিষ্কার হতে চান?

আপনি যদি আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চান আপনার পাপের বিষয়ে যীশুর রক্তের দ্বারা ধৌত হওয়ার জন্য, তবে এই মুহূর্তে অডিটোরিয়ামের পিছনে চলে আসুন। আমরা আপনাকে আরো একটি ঘরে নিয়ে যাবো যেখানে আমরা কথা বলবো ও সেই বিষয়ে প্রার্থনা করব। আমেন।

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

প্রচারের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মিঃ আবেল প্রধুম্মে: হিব্রুজ ১২:২২-২৪ |
প্রচারের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মিঃ বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Sweet Beulah Land” (by Squire Parsons, 1948-)/
“The Pearly White City” (by Arthur F. Ingler, 1902).


খসড়া চিত্র

ক্ষণিক মুহূর্তের স্বর্গ দর্শন

লেখকঃ ডঃ আর. এল. হাইমার্স, জুনি.

“আর তাহারা এক নূতন গীত গান করেন, বলেন, তুমি ঐ পুস্তক গ্রহণ করিবার, ও তাহার মুদ্রা খুলিবার যোগ্য: কেননা তুমি হত হইয়াছ, এবং আপনার রক্ত দ্বারা সমুদয় বংশ, ও ভাষা, ও লোকবৃন্দ, ও জাতিকে ঈশ্বরের নিমিত্ত আমাদিগকে ক্রয় করিয়াছ” (প্রকাশিত বাক্য ৫:৯)|

১. প্রথম, আসুন দেখি স্বর্গে কি রয়েছে, হিব্রুজ ১২:২২-২৪; প্রকাশিত বাক্য ৫:১১; গীতসংহিতা ১০৪:২; যোহন ১:১৮; জেরেমিয়া ৩৬:২৩ |

২. দ্বিতীয়, স্বর্গে আমরা যা করবো তার একটা বিষয় আমি আপনাকে দেখাতে চাই, প্রকাশিত বাক্য ৫:৯ |