Print Sermon

এই ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য হল ধর্ম্মোপদেশের পান্ডুলিপি এবং ধর্ম্মোপদেশের ভিডিওগুলি বিশ্বব্যাপী পালক ও মিশনারিদের বিনামূল্যে সরবরাহ করা, বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বে, যেখানে ধর্ম্মতত্ত্বমূলক সেমিনারী বা বাইবেল স্কুল থাকলেও খুব কম রয়েছে|

এই সমস্ত প্রচারের পান্ডুলিপি এবং ভিডিওগুলি এখন www.sermonsfortheworld.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি মাসে 221টিরও বেশি দেশের প্রায় 1,500,000 কম্প্যুটারে যায়| শত শত লোক ইউটিউবের ভিডিওর মাধ্যমে এগুলি দেখেন, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা ইউটিউব ছেড়ে বেরিয়ে যান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসেন| ইউটিউব আমাদের ওয়েবসাইটে লোক এনে দেয়| প্রচারের এই পান্ডুলিপিগুলি প্রতি মাসে 38টি ভাষায় প্রায় 120,000 কম্প্যুটারে প্রচারিত হয়| প্রচারের পান্ডুলিপিগুলি গ্রন্থসত্ত্ব দ্বারা সংরক্ষিত নয়, কাজেই প্রচারকগণ আমাদের অনুমতি ছাড়াই এইগুলি ব্যবহার করতে পারেন| মুসলিম এবং হিন্দু রাষ্ট্রসমেত, সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচার ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহান কাজে সাহায্য করার জন্য কিভাবে আপনি একটি মাসিক অনুদান প্রদান করতে পারেন তা জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করুন|

যখনই আপনি ডঃ হেইমার্‍সকে লিখবেন সর্বদা তাকে জানাবেন যে আপনি কোন দেশে বাস করেন, অথবা তিনি আপনাকে উত্তর দিতে পারবেন না| ডঃ হেইমার্‌সের ই-মেল ঠিকানা হল rlhymersjr@sbcglobal.net |




আপনার নিজের পরিত্রাণ

YOUR OWN SALVATION
(Bengali)

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জে আর।
by Dr. R. L. Hymers, Jr.

২০১৪ সালের, ৯ই ফেব্রুয়ারী, সকালবেলা সদাপ্রভুর দিনে লস এঞ্জেলসের ব্যাপটিষ্ট ট্যাবারন্যাকলে একটি সংবাদ প্রচারিত হয়েছিল।
A sermon preached at the Baptist Tabernacle of Los Angeles
Lord’s Day Morning, February 9, 2014

“আপনার নিজের পরিত্রাণ” (ফিলিপীয় ২:১২)|


গতরাত্রে শনিবারের সান্ধ্যকালীন প্রার্থনা সভায় আমি ফিলিপীয় ২:১২-১৩ পদের মধ্যে একটি সংবাদ প্রচার করেছিলাম| যেখানে আপনারা প্রায় সকলেই উপস্থিত ছিলেন, আর আপনি যদি সেখানে নাও থাকেন তবুও আপনি এটিকে হস্তলিপির প্রতিলিপিতে www.realconversion.com এই ওয়েবসাইটে গিয়ে পড়তে পারেন| গতরাত্রের সংবাদের মধ্যে সি. এইচ. স্পারজানের একটি সংবাদ থেকে আমি বেশ কিছু বিবৃতির উদ্ধৃতি করেছি| কেবলমাত্র “আপনার নিজের পরিত্রাণ” শব্দটি ছাড়া, তার সংবাদ সেই দু’টি পদের সঙ্গে কোন কিছুই আদান প্রদান করে না| তাই আমি অনুভব করলাম যে আমি এই দু’টি পদ নিয়েই ব্যাখ্যা করি| কিন্তু সেই সংবাদটি লেখার পরেই আমার মন স্পারজানের সেই তিনটি শব্দের দিকে গিয়েছিল – “আপনার নিজের পরিত্রাণ|”

গতরাত্রে যে সংবাদ আমি দিয়েছি তা বেশ কিছু নির্ধারিত রচনা নিয়ে আদান প্রদান করে, কিন্তু এই সংবাদ আদান প্রদান করে কেবলমাত্র একটির সঙ্গে, যার নাম “আপনার নিজের পরিত্রাণ|” আজকের এই সকালে ঈশ্বর পবিত্র আত্মার মাধ্যমে আপনাকে যেন দেখতে সাহায্য করেন “আপনার নিজের পরিত্রাণ”এর গুরুত্ব বিষয়ে| এটা খুবই সহজ এক আলোচ্য বিষয়, কিন্তু এই একটা বিষয়ের গুরুত্ব সবথেকে বেশী গুরুত্বপূর্ণ – সত্যি সত্যিই অন্য সব বিষয়বস্তুর থেকেও এটা বেশী গুরুত্বপূর্ণ! ঈশ্বরের আত্মা আপনাকে সাহায্য করুন যেন আপনার বিষয়ে যে সত্যতা রয়েছে তার সম্মুখীন আপনি হতে পারেন| আপনার নিজের বিষয় ছাড়া অন্য কারো বিষয়ে চিন্তা করবেন না| আমি প্রার্থনা করি যেন আজকের সকালে আপনি “আপনার নিজের পরিত্রাণ” ছাড়া অন্য কিছুই ভাববেন না।

১. প্রথম, এখন আমি চাই যে আপনি চিন্তা করুন “পরিত্রাণ” বিষয়ক শব্দটি নিয়ে |

“পরিত্রাণ” শব্দকে গ্রীক ভাষায় “সতোরিয়া” শব্দ থেকে অনুবাদ করা হয়েছে| এর অর্থ হলো “মুক্তি” এবং “সংরক্ষণ” (জর্জ রিকার বেরী)| এটা অত্যন্তভাবেই আমাদের সকলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ| আমরা সকলেই পাপী| আমাদের এই পাপের স্বভাব আমরা উত্তরাধিকার সূত্রে আমাদের প্রথম ও আদি পিতা মাতার কাছ থেকে পেয়েছি| আর ব্যক্তিগতভাবেও আমরা সকলে পাপ করেছি| একজন চিনা বালক আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিল পাপ করার অর্থটাই বা কি| আমি বলেছিলাম, “এর অর্থ হলো এমন কিছু করা যার বিষয়ে তুমি চাওনা যেন তোমার মা সেটা জানুক|” স্বভাবের দিক দিয়ে আমরা পাপী, আবার ব্যক্তিগতভাবেও আমরা পাপ করেছি|

“পরিত্রাণ” বা উদ্ধার শব্দের অর্থ হলো আমাদের অতীতের যে পাপ তার থেকে উদ্ধার বা পরিত্রাণলাভ| আপনি ঈশ্বরের নিয়মকে ভেঙ্গে ফেলেছেন| আপনি দোষী ও লজ্জা অনুভব করছেন| পরিত্রাণ আপনাকে সেই সব পাপের অপরাধবোধ থেকে উদ্ধার করে| পরিত্রাণের মধ্যে আপনার পাপকে মুছে ফেলা হয়েছে, এর উপরে প্রলেপ দেওয়া হয়েছে, খ্রীষ্টের রক্তের দ্বারা পরিষ্কার করা হয়েছে| আপনি যত পাপ করেছেন তার থেকে আপনি ক্ষমালাভ করেছেন| আপনি যা কিছু দূর্বলতা ঘটিত কাজে লিপ্ত ছিলেন তার থেকে আপনি পরিষ্কৃত বা মুক্ত হয়েছেন| সেই বিরাট ও ভয়ঙ্কর বিচারের হাত থেকে, আপনি ঈশ্বরের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়েছেন|

কিন্তু পরিত্রাণের অর্থ এর থেকেও বেশি কিছু| স্বভাবের দিক দিয়ে আপনি মন্দতাকে ভালোবাসেন| আপনি পাপের দাস ছিলেন| কিন্তু পরিত্রাণ যখন আপনার কাছে উপস্থিত হল তখন আপনি পাপের নিমজ্জিত শক্তি থেকে মুক্তি লাভ করলেন| পরিত্রাণের দ্বিতীয় অর্থ হল আপনি যে মন্দতার দাসত্ব করছিলেন সেখান থেকে মুক্তিলাভ করেছেন| আপনি কি সেইরকম দুর্নীতিমূলক কোন কিছুর হাত থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন যেখানে জগতের মধ্যে লালসাযুক্ত কোন কিছুর মধ্যে লিপ্ত ছিলেন? সেখান থেকেও খ্রীষ্ট আপনাকে স্বাধীন করতে পারেন!

পরিত্রাণের অর্থ আবার ঈশ্বরের অভিশাপ থেকে মুক্তি, আপনার পাপের উপরে তাঁর স্থিরীকৃত ক্রোধ থেকে মুক্তি| পরিত্রাণের অর্থ হল আপনি ঈশ্বরের ক্রোধ থেকে রক্ষালাভ করেছেন| আজকের দিনে বেশির ভাগ লোক অনুভব করতে পারে না যে তাদের পাপের জন্য ঈশ্বর তাদের উপরে ক্রোধিত| কিন্তু সেটা কোন কিছুকেই পরিবর্তন করতে পারে না| আধুনিক সময়ে পরবর্তী কালের চিন্তাধারা বলে, “সেটা আপনার জন্য সত্য হতে পারে, কিন্তু আমার জন্য নয়|” আজকের বহু যুবক ব্যক্তি এইভাবে চিন্তা করে থাকে| কিন্তু আপনি যদি সেইভাবে চিন্তা করেন তবে কেউ একজন আপনাকে বলবেন যে আপনি মূর্খ! “এটা আপনার কাছে সত্য হতে পারে, কিন্তু আমার কাছে সেটা সত্য নয়|” সেটা মূর্খের কথা! কোনটা সত্য সেই বিষয়ে বাইবেল হল এক চূড়ান্ত বিচারক| বাইবেল বলে, “তিনি অধর্ম্মচারীদের উপরে প্রতিদিন ক্রোধকারী ঈশ্বর” (গীতসংহিতা ৭:১১)| সেটাই হল প্রকৃত ঘটনার বিবৃতি| আপনি এটা বিশ্বাস করুন বা না করুন এটাই হচ্ছে সত্য বিষয়| যদি কোন ডাক্তার বলেন, “আপনার মধ্যে ক্যানসার রয়েছে?” তবে আপনার পক্ষে এইকথা বলা কি যুক্তিযুক্ত হবে যে, “এটা আপনার কাছে ঠিক, কিন্তু আমার কাছে সেটা ঠিক বিষয় নয়”? সেখানে এমন লোকও রয়েছেন যারা বাস্তবে এইরকমই করে থাকেন! মনঃচিকিৎসকেরা তাদের বিষয়ে এই কথা বলে যে তারা “অস্বীকারকারী” অবস্থায় রয়েছে| তার অর্থ হল যে যদিও এটা সত্য তবুও তারা সেটা অস্বীকার করে| আপনি যদি মনে করেন যে আপনার পাপের জন্য ঈশ্বর আপনার উপর ক্রোধিত নন, তবে আপনি অস্বীকারকারী অবস্থায় রয়েছেন| আপনি এটা কতটা অস্বীকার করেন তাতে কিছু যায় আসে না, কিন্তু এটাই সত্য, “প্রতিদিনই ঈশ্বর [আপনার প্রতি] ক্রোধিত|” আর সেটাই সত্য আপনি এটা অস্বীকার করুন বা না করুন| আপনি বিশ্বাস করুন বা না করুন সেটাই সত্য|

আমি ভালোভাবে স্মরণ করতে পারি সেই দিনটিকে যেদিন মানুষ প্রথম চাঁদে পা রেখেছিল| আপনি কী জানেন যে সেখানে এমন লোকও ছিল যারা এই ঘটনা বিশ্বাস করে নি? তারা বলেছিল, “চাঁদের চারপাশে যে লোকেরা ঘুরে বেড়াচ্ছে তাদের সেই ছবি স্টুডিওর মধ্যে তোলা হয়েছে| এটা যেন ঠিক চাঁদের মতো দেখতে হয় সেভাবেই তারা এগুলো নির্দ্দিষ্ট করে রেখেছে, কিন্তু এটা নিছকই চলচ্চিত্রের এক কারসাজি|” কিছু সময়ের জন্য আমি সেইভাবে কিছু শুনতে পাইনি, কিন্তু আমি নিশ্চিত বাইরে এখানে এইরকম উন্মাদ লোকও রয়েছে যারা এইভাবে চিন্তা করে| কিন্তু “উন্মাদ” ব্যক্তি কী চিন্তা করে তাতে কিছু যায় আসে না! সেই ব্যক্তি বিশ্বাস করুক বা না করুক মানুষ চাঁদে হাঁটাচলা করেছেন, এটা “তার কাছে” সত্য হোক বা না হোক! আর ঠিক সেইভাবেই এটা হল ঈশ্বরের ক্রোধ, পাপের উপরে ঈশ্বরের ক্রোধানল| আপনি তা বিশ্বাস করুন বা না করুন এটাই বাস্তব বিষয়!

ডাঃ কার্ল মিনিংগারের মতন মনঃচিকিৎসাবিদ এই কথা বলেছেন যে আধুনিক সময়ে বহু মানসিক ও আবেগজনিত সমস্যার আগমন হয় পাপের উপরে উদ্বেগময় চাপের কারনে (Karl Menninger, M.D., Whatever Became of Sin?, Hawthorn Books, 1973)| তারা বলে থাকেন অনেক লোকের মধ্যে সেটাই হল বিষাদের মূল বিষয়| তারা বলে দ্রাবন জাতীয় মদ এবং ড্রাগের অপব্যবহার হল এর এক মূল বিষয়| মানুষের বিবেক তাদের বলে দেয় যে তারা পাপের কারনে দোষী| তাদের মন এটাকে প্রত্যাখ্যান করে ও দমিয়ে রাখে, কিন্তু তাদের বিবেক তাদের সুরায় আসক্তির মধ্যে, ড্রাগের অপব্যবহারের মধ্যে, আর এমনকি আত্মহত্যার দিকেও এগিয়ে নিয়ে যায়| আপনি কী জানেন যে আজকের দিনে আত্মহত্যাটা কিশোর এবং বয়ঃপ্রাপ্ত যুবকদের মৃত্যুর সর্বপ্রথম কারন? সেটাই হল সর্বপ্রথম কারন! সেই একই যুবকেরা বলে, “ইহা হয়তো তোমার কাছে সত্য বিষয়, কিন্তু আমার কাছে সেটা সত্য নয়” – সেই একই যুবক ব্যক্তিরা যেন এক ভয়ঙ্করতার সঙ্গেই আত্মহত্যা করে চলেছে| সেখানে বহু লক্ষাধিক ব্যক্তি রয়েছে যারা সারাটা দিন নিজেদের বহন করে নিয়ে যাওয়ার জন্য সেই রকম মাদকদ্রব্য সেবন করে দিনযাপন করে| কিভাবে জীবিত থাকতে হয় সেই বিষয়ে তারা কিছু জানে না! কিভাবে সুখী হওয়া যায় সেই বিষয়ে তারা কিছুই জানে না! বাইবেল বলে, “বিশ্বাসঘাতকদের পথ অসমান” (হিতোপদেশ ১৩:১৫)| পাপের মধ্যে বসবাস করাটা কষ্টসাধ্য ও কঠিন| বিশ্বাসঘাতক হওয়াটাও খুবই কঠিন!

আমি এক ব্যক্তিকে জানি যে বলেছিল খ্রীষ্টের কোন প্রয়োজন তার নেই| তার প্রয়োজন নেই! তিনি বলেছিলেন যে তিনি একজন উত্তম ব্যক্তি আর তাকে ক্ষমাদানের জন্য খ্রীষ্টের কোন প্রয়োজন নেই| এর কিছু পরেই তিনি গ্লাস ভর্তি বিষ পান করেন| লোকেরা তাকে খুঁজে পাওয়ার আগে ঘন্টাখানেক ধরে তিনি হাঁটুতে ও হাতে ভর দিয়ে হামাগুড়ি দিচ্ছিলেন। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই তিনি মারা গেলেন| আমি কোনভাবে জানতে পেরেছিলাম তিনি যেন জীবিত অবস্থাতেই পাপের দোষারোপে জীবনযাপন করতে করতে ছারখার হয়ে যাচ্ছিলেন, যদিও এই বিষয়টিকে তিনি অস্বীকার করে চলেছিলেন| বাইবেল বলে, “আমার ঈশ্বর কহেন, দুষ্ট লোকেদের, কিছুই শান্তি নাই” (যিশাইয় ৫৭:২১)|

আপনি হয়তো বলবেন, “সেইরকম কোন কিছুই আমার ক্ষেত্রে ঘটবে না|” কিন্তু সেই বিষয়ে আপনি এতটা নিশ্চিত হবেন না! আমাদের জীবন হল দীর্ঘ, এবং কঠিন, আর এর মধ্যে রয়েছে অনেক রকমের জঘণ্যতম ঘটনা| আপনি কী সেই যুবক অভিনেতা ফিলিপ সিমর হফ্ম্যানের বিষয়ে শুনেছেন? তিনি চলচ্চিত্র জগতের সর্ব্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত হয়ে অস্কার খ্যাতি অর্জন করেছিলেন| যা কিছুর প্রয়োজন তার সবটাই তার কাছে ছিল! কিন্তু বেশ কিছুদিনের মধ্যেই লোকেরা তাকে মৃত অবস্থায় স্নানঘরে খুঁজে পেয়েছিল, তার হাতের মধ্যে একটা ছুঁচ বেঁধানো অবস্থায় ছিল| তার ঘরের মধ্যে শতাধিক হেরোইনের প্যাকেট পাওয়া গিয়েছিল! আমার মনে হয় তিনি নিজের কষ্টানুভূতি ও অবসাদকে আড়াল করার চেষ্টা করছিলেন! কী ভয়্ঙ্করই না এই বিয়োগান্তক অবস্থা!

এটাও আবার ঠিক যে, ভবিষ্যতেও এই পরিত্রাণ, আমাদেরকে ঈশ্বরের বিচারের হাত থেকে মুক্তি প্রদান করবে| বাইবেল বলে সেখানে একটা দিন আসন্নপ্রায়| কোন কোন জায়্গায় একে বলা হচ্ছে “সদাপ্রভুর দিন|” আবার অন্য কোন জায়্গায় বলা হচ্ছে “সেই দিন” অথবা “সেই প্রতিশোধের দিন|” প্রেরিত পৌল সেই দিনকে বলেন “যে দিনে আপনার নিরূপিত ব্যক্তির দ্বারা যীশু ন্যায়ে জগৎ সংসারের বিচার করিবেন” (প্রেরিত ১৭:৩১)| এই দিনের বিষয়ে প্রেরিত পিতর বলেছেন “অধার্মিকদের দন্ড প্রদান করার দিন” (২ পিতর ২:৯)| ১৯৪৯ সালের বিশ্বখ্যাত সুসমাচার প্রচারক বিলি গ্রাহাম তার প্রথম ক্রুশেডে, লস্ এঞ্জেল্সের মধ্যে, ওয়াশিংটন এবং হিল স্ট্রীট থেকে এই উক্তি করেন| আমি সবসময় তার সঙ্গে সহমত প্রকাশ করি না, কিন্তু এই উক্তি প্রকৃতভাবেই সত্য|

ঈশ্বর বলেন, “আমার এক নিরূপিত দিন রয়েছে|” তিনি সমুদয় জগতের প্রতি ঘোষনা করেন…সেই দিনে জগতের সমস্ত অবিশ্বাসী লোকেদের বিচার করা হবে… “খ্রীষ্ট যীশুর সঙ্গে আপনি কী করেছেন তার দ্বারাই আমি একটা নিরূপিত দিন ধার্য করেছি যার মধ্যে আমি জগতের বিচার করতে চলেছি|” আজকের রাত্রে সেটাই হল ঈশ্বরের বাক্য (Billy Graham, Revival in Our Time, Van Kampen Press, 1950, page 159)।

মিঃ গ্রাহাম এই কথা ৬৫ বছর আগে বলেছিলেন| তার অর্থ কী এই যে সেটা আর ঘটবে না? না! এর অর্থ হল যে আমরা সেই বিচারদন্ডের ৬৫ বছরের সন্নিকটবর্তী! সেই দিনে কেবলমাত্র পরিত্রাণই আপনাকে বিচারদন্ডের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে| কেবলমাত্র খ্রীষ্টের মধ্যে সেই পরিত্রাণই আপনাকে ভয়াবহ অগ্নিহ্রদের হাত থেকে বাঁচাতে পারে!

আপনি হয়তো চিন্তা নাও করতে পারেন যে আপনার পরিত্রাণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ – কিন্তু ঈশ্বর সেটা করেন! তিনি আপনার পরিত্রাণকে এতটাই গুরুত্বপূর্ন মনে করেন যে তার জন্য তিনি যীশুকে প্রেরণ করলেন আপনাকে উদ্ধার করার জন্য! যীশু নিজেও মনস্থির করলেন যে আপনার পরিত্রাণ এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যার জন্য তিনি যন্ত্রনাভোগ করলেন এবং ক্রুশে মৃত্যুবরণ করলেন আপনাকে উদ্ধার করার জন্য! বাইবেল বলে, “পাপীদের উদ্ধার করার জন্য খ্রীষ্ট যীশু এই জগতে এলেন” (১ তীমথিয় ১:১৫)| পবিত্র আত্মা মনে করেন যে আপনার পরিত্রাণ এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে এর জন্য তিনি ক্রমাগতভাবে আপনার পক্ষে কাজ করেন| আর এইভাবেই পবিত্র ত্রিত্ববাদ মনে করেন যে আপনার উদ্ধার অভাবনীয়ভাবে এতটাই গুরুত্বপূর্ণ|

আপনার পালক হিসাবে, আমার মনে হয় আপনার পরিত্রাণ এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যার জন্য আমি ক্রমাগতভাবে এই সুসমাচার আপনাদের কাছে প্রচার করি! আমি খুব সহজেই বাইবেলের অন্য বিষয় গুলো আপনাদের কাছে প্রচার করতে পারি| কিন্তু আমি আপনাদের পরিত্রাণের বিষয়ে এতটাই উদ্বেগশীল যে এর জন্য আমি বাধ্য হচ্ছি খ্রীষ্টের মধ্যে আপনার যে পরিত্রাণের প্রয়োজন সেই বিষয়ে প্রচার করতে|

এই মন্ডলীও আপনার পরিত্রাণের বিষয়ে এতটাই উদ্বেগ অনুভব করে যে আমাদের লোকেরা আপনার জন্য প্রার্থনা করেন যেন আপনি সেই ঘন্টার মধ্যেই পরিত্রাণ লাভ করেন| তাদের ব্যক্তিগত প্রার্থনা, এবং তিনটি প্রার্থনা সভার, সবগুলিতেই তারা দীর্ঘ সময় ধরে, এবং প্রবলভাবে প্রার্থনা করেন যেন আপনি উদ্ধারলাভ করেন!

দিয়াবল এবং মন্দআত্মারা মনে করে আপনার পরিত্রাণ এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে তারা ক্রমাগত এমনভাবে কাজ করে চলে যাতে আপনাকে পরিত্রাণ লাভ করা থেকে বিরত রাখা যায়! নরকে হারিয়ে যাওয়া আত্মারাও জানে যে আপনার পরিত্রাণের গুরুত্ব কতোটা! সেই ধনী লোকটি যিনি মারা গিয়ে নরকে গিয়েছিলেন তিনি লাসারকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন যেন তিনি তার পাঁচ ভাইদের কাছে গিয়ে তাদের সতর্ক করে দেন, “পাছে তারাও এখানে এই নরকে এসে যন্ত্রনাভোগ করে” (লূক ১৬:২৮)|

সেই আশীর্বাদকারী ত্রিত্ব ঈশ্বর, এই মন্ডলীর লোকেরা, দিয়াবল এবং তার মন্দআত্মারা, এবং নরকের হারিয়ে যাওয়া আত্মারা, সকলেই জানে যে আপনার পরিত্রাণ কী ভীষনভাবেই না প্রয়োজন! তাই আপনি কী জেগে উঠবেন এবং যীশু খ্রীষ্টের মধ্যে আপনার পরিত্রাণ লাভের মহান প্রয়োজনের বিষয়টির দিকে একটু তাকাবেন!

২. দ্বিতীয়, আমি চাই “আপনার নিজের” পরিত্রাণের বিষয়ে আপনি চিন্তা করেন।

পাঠ্যাংশ “আপনার নিজের পরিত্রাণ” বিষয়ে বলে| এই মূহুর্তে আমি চাই যে আপনি “আপনার নিজের পরিত্রাণ” লাভের বিষয়টি চিন্তা করুন| “আপনার নিজের” বলে যে শব্দ সেটা একটা গ্রীক শব্দের অনুবাদ – “হসন” – অন্য কারো নয়, কিন্তু “আপনার নিজের” পরিত্রাণ! তাহলে এখন চিন্তা করুন যে পরিত্রাণ লাভ করাটা আপনার নিজের কাছে কতোটাই না গুরুত্বপূর্ণ! আর অন্য কিছুই নয় – আজ সকালে - আপনার নিজের পরিত্রাণ সম্বন্ধে ভাবুন! সেই কারারক্ষক বলেছিলেন, “পরিত্রাণ লাভ করার জন্য আমাকে কী করতে হবে?” (প্রেরিত ১৬:৩০)| আর এইভাবেই আপনার চিন্তা করার প্রয়োজন রয়েছে – “পরিত্রাণ লাভ করার জন্য আমাকে নিশ্চিতভাবে কী করতে হবে?”

আপনার জন্য খ্রীষ্টের রক্তের মধ্যে অন্য আর কেউ ধৌত ও পরিষ্কার হতে পারে না| আপনাকে অতি অবশ্যই ধৌত হতে হবে! আপনাকে অতি অবশ্যই অনুতপ্ত হতে হবে! যীশুর উপরে আপনাকে অতি অবশ্যই নির্ভর করতে হবে! আপনি যদি পরিত্রাতার উপরে নির্ভর না করেন, তবে আপনি অনন্তকালের জন্য হারিয়ে যাবেন!

আপনাকে সেই সত্য ঘটনার কথা চিন্তা করতে হবে যে ব্যক্তিগতভাবে আপনাকে অবশ্যই মৃত্যুবরণ করতে হবে| কেউই এইভাবে চিন্তা করতে পারেনা যে আপনার জন্য কোন বন্ধু বা আত্মীয় মৃত্যুবরণ করবে| আমাকে একাই সেই মৃত্যুর দরজা পার হতে হবে| আর সেইভাবেই আপনাকেও তাই করতে হবে! আর আপনি যখন মারা যাবেন তখন হয় আপনি সুখী হবেন বা সান্ত্বনা লাভ করবেন, আর তা না হলে আপনি আতঙ্ক এবং নিদারুন যন্ত্রনা ভোগ করবেন| হয় আপনি “সৌন্দর্য্য বিশিষ্ট রাজাকে দর্শন করবেন” (যিশাইয় ৩৩:১৭); অথবা আপনি “অনন্তকালীন যন্ত্রনার মধ্যে বসবাস করবেন” (যিশাইয় ৩৩:১৪)| প্রকৃত খ্রীষ্টীয়ানদের জন্য সেখানে এক ব্যক্তিগত স্বর্গ রয়েছে| কিন্তু আপনি কেবল তখনি সেখানে যেতে পারেন যদি আপনি নিজে “আপনার নিজের পরিত্রাণ” উপলব্ধি করেন| সেখানে আবার এক ব্যক্তিগত নরকও রয়েছে – আর আপনি যদি কোন সময়েই এই পরিত্রাণকে উপলব্ধি না করে থাকেন তবে আপনি সেই নরকে যাবেন – অন্য কোন ব্যক্তি নয় কিন্তু আপনি| কিভাবে আপনি সেই নরকের আগুনের হাত থেকে বাঁচবেন – যদি আপনি খ্রীষ্ট যীশুর দ্বারা যে পরিত্রাণ আপনার জন্য উৎসর্গ করা হয়েছে তাকে প্রত্যাখান করেন? পুরানো সময়ের এক কোরাস বা ধূয়া এইভাবে বলে, “আমার ভাইয়েরা নয়, আমার বোনেরা নয়, কিন্তু ইহা আমি, হে প্রভু, প্রার্থনার এই ঘটিকায় দাঁড়াইয়া আছি!”

কিছু লোক রয়েছে যারা “অনুগ্রহের যে বিধান” রয়েছে তার মধ্যে নিজেদের লুকিয়ে রাখে| তারা বিশ্বাস করে যে আপনি যদি খ্রীষ্টীয়ান পরিবার থেকে আসছেন তবে নিশ্চিতভাবেই পরিত্রাণ লাভ করবেন| তারা হয়তো তা বিশ্বাস করতে পারে কিন্তু আমি করি না! এটা সত্য যে, কেউ একজন খ্রীষ্টীয়ান পরিবারে জন্মগ্রহণ করলে অনুগ্রহের প্রচুর অর্থ তার মধ্যে থাকে বা রয়েছে| অনেক উপদেশ শোনার সৌভাগ্য তার হয়েছে| বাইবেলও তিনি অনেকবার পড়েছেন| তার জন্য অনেক লোক রয়েছে যারা প্রার্থনায় তাকে স্মরণ করছে, ইত্যাদি| কিন্তু “অনুগ্রহের যে বিধান” তার মধ্যে থাকলে কেউই পরিত্রাণ লাভ করতে পারে না| সেই রকম বিধান বা নিয়্ম খ্রীষ্টীয়ানদের জন্য কাজ করে না| সেটা হল “স্থানান্তরকারী ধর্ম্মতত্বের” এক পরিনাম - যা বলে থাকে মন্ডলী ইস্রায়েলের স্থলাভিষিক্ত হয়েছে| এটা হল এক মন্দতাপূর্ণ শিক্ষা বা মতবাদ যেটা অনেককে ইস্রায়েলের বিরুদ্ধে ফিরতে সাহায্য করেছে এবং তারা হিব্রু জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে গিয়েছে| তথাকথিত হাইডেলবার্গ ক্যাটেকিজ্ম “অনুগ্রহের বিধান বা নিয়ম” সম্বন্ধে এটা বলে থাকে: “…ব্যপ্তিস্মের দ্বারা, সেই বিধান বা নিয়মের চিহ্নের দ্বারা, শিশুদের খ্রীষ্টীয় মন্ডলীতে গ্রহণ করা উচিৎ আর তাদের অবিশ্বাসী শিশুদের থেকে আলাদা করা উচিৎ| পুরানো নিয়মে এটা করা হত ত্বকচ্ছেদের দ্বারা, যেটাকে নূতন নিয়মে ব্যপ্তিস্মের দ্বারা স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে” (Heidelberg Catechism, Question 74)| “স্থলাভিষিক্তকরন” এই বিষয়ে নিশ্চিতভাবেই শাস্ত্রের কোন সমর্থন নেই| আমাদের কোনসময়েই বলা হয়নি যে ব্যপ্তিস্মকে ত্বকচ্ছেদের মাধ্যমে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে| আমাদের কোন সময়ে এমনভাবেও বলা হয়নি যে শিশুদের ব্যপ্তিস্ম দিতে হবে কেননা তারা তথাকথিত “অনুগ্রহের বিধান ও নিয়ম”এর যে চুক্তি তার একটি অঙ্গ| আমি তো দেখতেই পাচ্ছিনা যে কোন একজন ব্যপটিষ্ট এই শিক্ষাকে কেমনভাবে নেবে| ঐতিহাসিকভাবে ব্যপ্তিস্ম সব সময়েই “বিশ্বাসীর ব্যপ্তিস্মের” উপর আধারিত| সেইজন্য, ক্রমান্বয়ে ব্যাপটিষ্ট এমন কোন ব্যক্তিই যুক্তিসঙ্গত কারনে “অনুগ্রহের বিধান বা নিয়মে” বিশ্বাস করতে পারেনা| ব্যপ্তিস্ম নেওয়ার আগে আপনাকে উদ্ধার বা পরিত্রাণ লাভ করতে হবে! প্রেরিত বইয়ে “সমস্ত পরিবারের সঙ্গে ব্যপ্তিস্ম” নেওয়াটা ছিল প্রত্যেক ব্যক্তির এক ভিত্তি যেন পরিবারের সকলেই পরিত্রাণ লাভ করে – যেটা প্রায়ই এক বিরাট উদ্দীপনার সময়ে হয়ে থাকে – যেমনভাবে প্রেরিত বইয়ে হয়েছিল| যাই হোক না কেন, বেশ কিছু মন্দ লোক যাদের আমি জানি তারা খ্রীষ্টীয়ান পরিবার ও বাড়ি থেকেই এসেছে! অপরপক্ষে, আমাদের ডিকনসদের কেউই সেইরকম পরিবার থেকে আসেনি| আমাদের মধ্যে ডঃ চ্যান, ডঃ কাগন, ও আমিও সেইরকম পরিবার থেকে আসিনি| আমরা প্রত্যেকেই যীশুর মধ্যে ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বাসের দ্বারা পরিত্রাণ লাভ করেছি, আর তা “অনুগ্রহের যে বিধান বা নিয়ম” রয়েছে তার দ্বারা নয়|

আপনি নিজেকে যতটা বেশী করে পূর্বনিরূপিত নিয়তির আধারে লুকিয়ে রাখতে পারতেন সেইভাবে আপনি নিজেকে “অনুগ্রহের যে চুক্তি” তার মধ্যে লুকিয়ে রাখতে পারেন না| আপনি এইভাবেও আশা করতে পারেন না যেন আপনার পিতা মাতা, বা ঈশ্বর নিজে, “আপনার নিজের পরিত্রাণ” অন্বেষণ করা থেকে আপনার দায়িত্বকে দূর করে ফেলেন| নিকদিম সত্য সত্যই পুরানো নিয়মের যে বিধান বা চুক্তি তার মধ্যে ছিলেন| কিন্তু যীশু তাকে বলেছিলেন, “তোমাদের নূতন জন্ম হওয়া আবশ্যক” (যোহন ৩:৭)| আমি জানি সেটা “উচ্চমানের” ক্যালভিনিষ্টদের পরিতৃপ্ত করবে না, কিন্তু ঈশ্বরের বাক্যের প্রতি এটা খুবই সত্য, আর তা এমনকী যদি এটা তাদের “স্থানান্তকরন ধর্ম্মতত্বে” উচিৎ বা ন্যায়্সঙ্গত নাও হয় তবু তারা সেটাই করে থাকে| সট্রিওলজি বা (পরিত্রাণতত্ব) বিষয়ের প্রতি আমি সংশোধিত, কিন্তু কেউই আমার কাছে আশা করতে পারেনা যেন তাদের অনুসরন করে স্থানান্তকরন ধর্ম্মতত্বে রূপান্তরিত হই! আমি সেটা কোন সময়েই করব না! এটা যখন ইস্রায়েল বা মন্ডলীর ক্ষেত্রে আসে তখন আমি লজ্জাহীনভাবেই তা “পরিহারকরি।” যিহুদী লোকেদের সঙ্গে ঈশ্বর কেবল জাগতিক চুক্তি স্থাপন করেছেন| কেবলমাত্র খ্রীষ্টে বিশ্বাস করার দ্বারা খ্রীষ্টীয়ানেরা এক “নূতন চুক্তি”র মধ্যে এক বিশেষ সুবিধা অর্জন করেছে!

আপনি যদি এক খ্রীষ্টীয়ান পরিবার থেকে আসছেন, তবে আমি আপনাকে সতর্ক করতে চাই “আপনার নিজের পরিত্রাণের জন্য” খ্রীষ্টের অন্বেষণ করুন| আপনি যদি কোনভাবে যীশুর উপরে নির্ভর করেননি, তবে আপনার ভয় থাকা দরকার কেননা আপনি চিরকালের জন্য আপনার পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবেন! কিন্তু এটাও হতে পারে যে আপনি এক অপরিত্রাণপ্রাপ্ত পরিবার থেকে আসছেন| যদি আপনি তাই আসেন, তবে আমি আপনাকে উদ্বুদ্ধ করতে চাই যেন আপনি তাদের অনুসরন করে অগ্নিময় নরকগামী হবেন না! “আপনার নিজের পরিত্রাণের জন্য” আপনাকে অবশ্যই যীশুতে নির্ভর করতে হবে|

অথবা আপনি হয়তো অন্য লোকেদের কথা চিন্তা করতে করতে এমনি পরীক্ষিত হয়ে পরেন যেখানে আপনি নিজের পরিত্রাণের কথা ভুলে যাবেন| আপনি কী মনে করেন যে, আপনার মন্ডলীর সদস্যদের মধ্যে এমন কাউকে জানেন, যে বা যারা সত্য সত্যই হারিয়ে গিয়েছে? হতে পারে তারা হারিয়েছে – কিন্তু সেটা আপনাকে কেমনভাবে সাহায্য করবে? নিশ্চিতভাবে তাদের কথা ভুলে যান এবং শুধু “আপনার নিজের পরিত্রাণ” বিষয়ে চিন্তা করুন|

আমার কাছে এটা মনে হচ্ছে যেন পৃথিবীর সমস্ত কিছুতে এবং স্বর্গের সমস্ত কিছুতে, আর নরকের সমস্ত কিছুতে, ও ঈশ্বর নিজে, অন্য সমস্ত কিছুর উপরে “আপনার নিজের পরিত্রাণ” অর্জন করার প্রতি আপনাকে আহ্বান জানাচ্ছেন! ওহ, আমার বন্ধু, নিজেকে বিচার করে দেখুন! আপনি কী পরিত্রাণ লাভ করেছেন? যদি তা না হয়, জীবনের সমস্ত কিছুর উপরে খ্রীষ্টের অন্বেষণ করুন! আপনার নিজের আহ্বান ও মনোনয়্নকে নিশ্চিত করুন!

আজকের সকালে এখানে উপস্থিত প্রত্যেকের কাছে আমি বিনতি করছি যে আপনারা সমস্ত অন্তঃকরন দিয়ে খ্রীষ্টের অণ্বেষণ করুন| অবিশ্বাসী হয়ে ঘুমিয়ে থাকা বন্ধ করুন| আপনার নিজের চিন্তা ও ভ্রান্ত আশা থেকে ফিরুন! ক্রুশের উপরে যীশু মৃত্যুবরণ করেছে যেন পাপের মূল্য মিটিয়ে দেন| আপনার মতো পাপীর জন্য তিনি প্রতিকল্পন হিসাবে মৃত্যুবরণ করেছেন! অনুতপ্ত হয়ে যীশুর প্রতি ফিরুন, এবং তিনি আপনাকে পরিত্রাণ করবেন! আর কেবলমাত্র তখনি আপনি নির্ভরতার সঙ্গে গান গাইতে সক্ষম হবেন,

আমি এক বন্ধুকে পেয়েছি যিনি আমার সর্বস্ব,
   তাঁর প্রেম প্রীতি নিয়ত সত্য;
কিভাবে তিনি আমাকে উন্নত করেছেন তা আমি বলতে পছন্দ করি,
   আর তাঁর সেই অনুগ্রহ আপনার জন্য যা করতে পারে|
তাঁর ঐশ্বরীক পরাক্রমে পরিত্রাণের দ্বারা, নূতন মহত্বর জীবনে পরিত্রাণ লাভ করেছি!
   জীবন এখন মধুর আর আমার আনন্দ পূর্ণ
কেননা আমি পরিত্রাণ পেয়েছি, পরিত্রাণ পেয়েছি, পরিত্রাণ পেয়েছি!
      (“Saved, Saved!” by Jack P. Scholfield, 1882-1972).

প্রিয় বন্ধুরা, আপনি যদি আমাদের সঙ্গে “আপনার নিজের পরিত্রাণের” বিষয়ে কথা বলতে চান, তবে অনুগ্রহ করে এখন আপনার আসন ত্যাগ করুন এবং অডিটোরিয়ামের পিছনে যান| মিঃ জন শ্যামুয়েল ক্যাগান আপনাকে অন্য একটি ঘরে পরিচালিত করবেন যেখানে আমরা প্রার্থনা করতে এবং আপনার প্র্শ্নের উত্তর দিতে পারব| আপনি যদি প্রকৃত খ্রীষ্টীয়ান হওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করছেন তবে অনুগ্রহ করে এখন অডিটোরিয়ামের পিছনের দিকে যান| ডঃ চ্যান, অনুগ্রহ করে প্রার্থনা করুন যেন আজকের সকালে যীশুর দ্বারা কোন একজন পাপ থেকে পরিত্রাণ লাভ করেন| আমেন|

(সংবাদের পরিসমাপ্তি)
ডাঃ হাইমার্সের সংবাদ আপনি প্রতি সপ্তাহে ইন্টারনেটের মাধ্যমে
www.realconversion.com এই সাইটে পড়তে পারেন। ক্লিক করুন “সংবাদের হস্তলিপি”

আপনি ডাঃ হাইমার্সকে মেইল পাঠাতে পারেন rlhymersjr@sbcglobal.net - আপনি
তাকে পত্র লিখতে পারেন P.O. Box 15308, Los Angeles, C A 90015.এই ঠিকানায়
। আপনি তাকে টেলিফোন করতে পারেন (818) 352-0452.

এই সুসমাচারের ম্যানুস্ক্রিপ্ট এর ওপর ডাঃ হাইমসের কোন কপিরাইট নেই। আপনারা
ইহা ব্যাবহার করতে পারেন ডাঃ হাইমসের অনুমতি ছাড়াই। অবশ্য, ভিডিও মেসেজ
সবই কপিরাইটের সহিত আছে এবং কেবলমাত্র তার অনুমতি নিয়েই ব্যাবহার করা যাবে।

সংবাদের আগে শাস্ত্রাংশ পাঠ করেছেন মি. আবেল প্রধুম্মে: ফিলিপীয় ২:৯-১৩ |
সংবাদের আগে একক সংগীত পরিবেশন করেছেন মি. বেঞ্জামিন কিনকেড গ্রিফিত:
“Saved, Saved!” (by Jack P. Scholfield, 1882-1972).


খসড়া চিত্র

আপনার নিজের পরিত্রাণ

লেখক : ডঃ আর এল হাইমার্স, জে আর।

“আপনার নিজের পরিত্রাণ” (ফিলিপীয় ২:১২)|

১. প্রথম, এখন আমি চাই যে আপনি চিন্তা করুন “পরিত্রাণ বিষয়ক” শব্দ নিয়ে, গীতসংহিতা ৭:১১; হিতোপদেশ ১৩:১৫; যিশাইয় ৫৭:২১; প্রেরিত ১৭:৩১; ২ পিতর ২:৯; ১ তীমথিয় ১:১৫; লূক ১৬:২৮ |

২. দ্বিতীয়, আমি চাই আপনার “নিজের পরিত্রাণের” বিষয় আপনি চিন্তা করুন, প্রেরিত ১৬:৩০; যিশাইয় ৩৩:১৭, ১৪; যোহন ৩:৭ |